× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিনোদন
The girls gave thumbs up to latent misogynistic monsters Jaya
google_news print-icon

মেয়েরা সুপ্ত নারীবিদ্বেষী দানবদের বুড়ো আঙুল দেখিয়েছে: জয়া

মেয়েরা-সুপ্ত-নারীবিদ্বেষী-দানবদের-বুড়ো-আঙুল-দেখিয়েছে-জয়া
সাফ ফুটবল শিরোপাজয়ী ফুটবলার সানজিদা আক্তার ও কৃষ্ণা রানী সরকারের সঙ্গে জয়ার সেলফি। ছবি: ফেসবুক
জয়া আরও লেখেন, ‘আজ সাফজয়ী নারী ফুটবল দলের এই ঐতিহাসিক জয় যেমন আমাদের গোটা বাংলাদেশকে একত্রিত করেছে। ঠিক তেমনি আমাদের মেয়েরা সুপ্ত নারীবিদ্বেষী দানবদের বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এক আলোকিত নতুন বাংলাদেশ গড়ার যাত্রা শুরু করল।’

সাফ ফুটবল শিরোপা জয়ের পর বাংলাদেশ নারী ফুটবলাররা পুরো দেশের মানুষের অভিনন্দনে ভাসছেন। সাধারণ থেকে তারকা সবাই রাস্তায় নেমে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফুটবলারদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন; এখনও জানাচ্ছেন।

তেমনই একজন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। বৃহস্পতিবার বিজয়ী দলের দুই নারী ফুটবলার সানজিদা আক্তার ও কৃষ্ণা রানী সরকারের সঙ্গে তোলা ছবি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অভিনেত্রী, সঙ্গে দিয়েছেন সামাজিক বার্তা।

অভিনেত্রী মনে করেন, নারী ফুটবল দলের এ জয় নারীবিদ্বেষী দানবদের বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এক আলোকিত নতুন বাংলাদেশ গড়ার যাত্রা শুরু।

জয়া লেখেন, ‘স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের গৌরবোজ্জ্বল অবদান আমাদের মুক্তিযুদ্ধকালীন সংগ্রামে এক জাদুময়ী নিয়ামক শক্তি হিসেবে কাজ করেছে।’

তিনি আরও লেখেন, ‘আজ সাফজয়ী নারী ফুটবল দলের এই ঐতিহাসিক জয় যেমন আমাদের গোটা বাংলাদেশকে একত্রিত করেছে। ঠিক তেমনি আমাদের মেয়েরা সুপ্ত নারীবিদ্বেষী দানবদের বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এক আলোকিত নতুন বাংলাদেশ গড়ার যাত্রা শুরু করল।’

এদিকে জয়া আহসান অভিনীত বিউটি সার্কাস সিনেমাটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে শুক্রবার। দেশের ১৯টি প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শিত হবে এটি।

আরও পড়ুন:
জয়া চরিত্রে জয়া
মালদ্বীপের বিপক্ষে সাবিনাকেই ট্রাম্পকার্ড মানছেন ছোটন
চেতনা, বিপ্লব, অনুপ্রেরণা, স্বপ্নে অমলিন বঙ্গবন্ধু: জয়া
জয়ার সঙ্গে ডিনারে বার্জারের সেরা ২০ ক্যাম্পেইনার
সেন্সর চলচ্চিত্রের গলায় ফাঁসির মতো: জয়া

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
Rumors are spreading about my return to Australia Shabanur

আমার অস্ট্রেলিয়ায় ফেরা নিয়ে মিডিয়া গুজব ছড়াচ্ছে: শাবনূর

আমার অস্ট্রেলিয়ায় ফেরা নিয়ে মিডিয়া গুজব ছড়াচ্ছে: শাবনূর ফেসবুক থেকে নেয়া ছবি
শাবনূর লিখেছেন, এখানে গোপনে দেশ ত্যাগের কী আছে? আমি প্রায় তিন সপ্তাহ পূর্বেই অস্ট্রেলিয়া চলে এসেছি। কিন্তু এতদিন পর মনে হয় করো করো ঘুম ভাঙল! আরও একটি কথা, যে ছবির মহরত হয়েছে সেটার শুটিং সময়মতোই হবে।

অস্ট্রেলিয়ায় তার ফিরে যাওয়া নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন চিত্রনায়িকা শাবনূর। এ জন্য দেশের গণমাধ্যমকে অভিযুক্ত করেছেন তিনি।

কদিন ধরে নানা গণমাধ্যমে তার ফিটনেস নেই বলে তিনি দেশে সিনেমার ঘোষণা দিয়েও কাজ না করে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে গেছেন বলে খবর প্রকাশ হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফেসবুকে এক পোস্টে রোববার বিষয়টি স্পষ্ট করেছেন শাবনূর।

তিনি লিখেছেন, গত ১ মার্চ থেকে আমি লক্ষ্য করছি, আমার অস্ট্রেলিয়া ফিরে আসাকে কেন্দ্র করে মিডিয়াতে বিভ্রান্তিকর খবর, দেখেশুনে মনে হচ্ছে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভুয়া গুজব ছড়ানো হচ্ছে।

শাবনূর লিখেছেন, কিছু ভূঁইফোড় অনলাইন ও সোশ্যাল মিডিয়া বলবার চেষ্টা করছে আমি নাকি সিনেমার ঘোষণা দিয়ে গোপনে দেশ ছেড়েছি, কবে ফিরব সেটা জানেন না কেউ, চিন্তায় পড়েছেন সিনেমাগুলোর পরিচালকরা। তারা রং-ঢং মাখিয়ে আরও কত কিছু রটাচ্ছে! আশ্চর্যের ব্যাপার, এদের দেখাদেখি মূলধারার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াও মনগড়া খবর প্রকাশ করে ভাইরাল হবার প্রতিযোগিতায় যোগ দিয়েছে। আমার সাথে কথা না বলেই যে যার মতো করে মনগড়া সংবাদ পরিবেশন করেই যাচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশের প্রায় সবাই জানেন, আমি এবং আমাদের পরিবারের অন্য সদস্যরা স্থায়ীভাবে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করি। আমার ছেলে এখনে স্কুলে পড়াশোনা করে। কোন দরকার হলে বা লং হলিডেতে দেশে ঘুরতে আসি, আবার যখন প্রয়োজন হয় অস্ট্রেলিয়া ফিরে যাই। তাই আমাকে কি ঢাকঢোল পিটিয়ে বলতে হবে কখন দেশে আসব বা কখন দেশ ছাড়ব?

শাবনূর লিখেছেন, এখানে গোপনে দেশ ত্যাগের কী আছে? আমি প্রায় তিন সপ্তাহ পূর্বেই অস্ট্রেলিয়া চলে এসেছি। কিন্তু এতদিন পর মনে হয় কারো কারো ঘুম ভাঙল! আরও একটি কথা, যে ছবির মহরত হয়েছে সেটার শুটিং সময়মতোই হবে।

তিনি লিখেছেন, আমার অস্ট্রেলিয়া ফিরে আসার কারণ ও সময় নেয়ার বিষয়ে সিনেমার সাথে সংশ্লিষ্টরা অবগত আছেন। আমি সবাইকে বিনীত অনুরোধ করব, আপনারা কোনো গুজবে, বা ভুয়া খবরে বিভ্রান্ত হবেন না। কোনো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলে বা অন্য কোনো সিনেমার আপডেট থাকলে আমিই আপনাদেরকে সময়মত জানাব।

আরও পড়ুন:
কে এই সুরভি
আমার সাবেক স্বামীর মতো মানুষ পাওয়া মুশকিল: শোলাঙ্কি
তাপসীর বিয়ে শিগগিরই

মন্তব্য

বিনোদন
Who is Suravi?

কে এই সুরভি

কে এই সুরভি
সাম্প্রতিককালে হিন্দি ধারাবাহিকজগতের খ্যাতনামী অভিনেত্রীদের তালিকায় প্রথম সারিতে রয়েছেন সুরভি। প্রায় এক দশক ধরে ছোট পর্দার সঙ্গে যুক্ত তিনি।

১৪ বছর সম্পর্কে থাকার পর অবশেষে সাত পাকে বাঁধা পড়ছেন ভারতীয় অভিনেত্রী সুরভি চন্দনা।

২০ বছর বয়সে প্রথম অভিনয় তার, ছোট পর্দার জনপ্রিয় মুখ তিনি। বলিউড অভিনেত্রী বিদ্যা বালনের সঙ্গে অভিনয় করেছেন হিন্দি সিনেমায়।

আনন্দবাজার পত্রিকা বলছে, ১ মার্চ থেকে সেজে উঠেছে রাজস্থানের জয়পুরের চোমু প্যালেস হোটেল। দীর্ঘকালীন প্রেমিক কর্ণ শর্মার সঙ্গে বিয়ে করতে চলেছেন সুরভি। চার দিন ধরে চলছে গায়েহলুদ, মেহন্দি, সঙ্গীত-সহ নানা রকমের আচার-অনুষ্ঠান।

২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সুরভি এবং কর্ণের আংটিবদলের অনুষ্ঠান হয়েছিল গোয়ায়। আত্মীয়স্বজন এবং ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবেরা ছিলেন নিমন্ত্রিতদের তালিকায়। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে দুজনেই নিজেদের সমাজমাধ্যমে তাদের বিয়ের খবর জানান।

সাম্প্রতিককালে হিন্দি ধারাবাহিকজগতের খ্যাতনামী অভিনেত্রীদের তালিকায় প্রথম সারিতে রয়েছেন সুরভি। প্রায় এক দশক ধরে ছোট পর্দার সঙ্গে যুক্ত তিনি।

১৯৮৯ সালের ১১ সেপ্টেম্বর মহারাষ্ট্রের মুম্বাইয়ে জন্ম সুরভির। সেখানেই স্কুল এবং কলেজের পড়াশোনা শেষ করেন তিনি। বাবা-মা এবং বোনের সঙ্গে মুম্বাইয়ে থাকতেন তিনি।

সুরভির বোন তারকাদের ম্যানেজার হিসাবে কাজ করেন। ছোটবেলা থেকেই অভিনয়ের প্রতি আগ্রহ ছিল সুরভির। কলেজে পড়াকালীন সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি।

ক্যারিয়ারের গোড়ায় বিভিন্ন জনপ্রিয় সংস্থার বিজ্ঞাপনে অভিনয় করতে দেখা যায় সুরভিকে। ২০০৯ সালে ‘তারক মেহতা কা উল্টা চশমা’ নামে কৌতুক ঘরানার ধারাবাহিকে ক্যামিয়ো চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। ছোট চরিত্র হলেও সেই প্রথম ছোট পর্দায় আত্মপ্রকাশ করেন সুরভি।

‘তারক মেহতা কা উল্টা চশমা’ ধারাবাহিকে অভিনয়ের পর চার বছর কোথাও দেখা যায়নি সুরভিকে। ২০১৩ সালে সম্প্রচারিত ‘মেরি ভাবি’ ধারাবাহিকের মাধ্যমে আবার অভিনয় শুরু তার। একাধিক হিন্দি ধারাবাহিকে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করেন তিনি।

২০১৪ সালে ‘কবুল হ্যায়’ ধারাবাহিকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পেয়ে কেরিয়ারের প্রথম মাইলফলক গড়ে তোলেন সুরভি। দু’বছর পর ‘ইশকবাজ’ ধারাবাহিকে অভিনয় করে রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন তিনি।

২০১৪ সালে বলি অভিনেত্রী দিয়া মির্জ়ার প্রযোজনায় প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘ববি জাসুস’ ছবিটি। এই ছবিতে মুখ্যচরিত্রে অভিনয় করেন বিদ্যা বালন, আলি ফজল, অর্জন বাজওয়ার মতো বলি তারকারা। ‘ববি জাসুস’ ছবিতে ছোট একটি চরিত্রে অভিনয় করেন সুরভি। তার পর অবশ্য বড় পর্দায় দেখা যায়নি তাকে।

‘ইয়ে রিস্তা কয়া কেহলতা হ্যায়’, ‘কসৌটি জিন্দেগি কে’, ‘ইয়ে হ্যায় মহব্বতে’, ‘সাথ নিভানা সাথিয়া’র মতো জনপ্রিয় হিন্দি ধারাবাহিকে অতিথি শিল্পী হিসাবে অভিনয় করেন সুরভি।

২০২১ সালে ‘বিগ বস’ রিয়্যালিটি শোয়ে অতিথি শিল্পী হিসাবে অংশগ্রহণ করেন সুরভি। নাচের একটি রিয়্যালিটি শোতেও দেখা যায় তাকে। প্রতিযোগী বা বিচারক হিসাবে নয়, অতিথি হিসাবেই সেখানে যান সুরভি।

‘নাগিন ৫’, ‘সঞ্জীবনী’ এবং ‘শেরদিল শেরগিল’-এর মতো হিন্দি ধারাবাহিকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেন সুরভি। একাধিক হিন্দি গানের মিউজ়িক ভিডিয়োয় অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে তাকে।

২০২২ সালে ‘হুনরবাজ: দেশ কি শান’ নামের একটি রিয়্যালিটি শো সম্প্রচারিত হয়। প্রথমে ভারতী সিংহ এই শোয়ের সঞ্চালনার দায়িত্বে থাকলেও পরে সঞ্চালকের দায়িত্ব নেন সুরভি।

অভিনয়জগতে জনপ্রিয় হওয়ার আগে থেকেই কর্ণের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন সুরভি। ২০১০ সাল থেকে সম্পর্কে থাকার পর ২০২৩ সালে আংটিবদল সারেন তারা।

অভিনয়জগতের সঙ্গে যুক্ত নন কর্ণ। পেশায় ব্যবসায়ী তিনি। তবে তার অনুরাগীর সংখ্যাও কিছু কম নয়। ইনস্টাগ্রামে কর্ণের অনুরাগীর সংখ্যা ২৬ হাজারের গণ্ডি পার করে ফেলেছে।

সম্প্রতি ‘রক্ষক চ্যাপ্টার ২’ নামে মিনি সিরিজ়ে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে সুরভিকে। সমাজমাধ্যমে টেলি অভিনেত্রীর অনুরাগী মহল নজরে পড়ার মতো। ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে সুরভির অনুরাগীর সংখ্যা ৫৮ লাখের গণ্ডি পার করে ফেলেছে।

আরও পড়ুন:
আমার সাবেক স্বামীর মতো মানুষ পাওয়া মুশকিল: শোলাঙ্কি
তাপসীর বিয়ে শিগগিরই
‘৩ বছর আগে বন্দি হয়েছিলাম সাধিকার কাছে’, মাহিকে তিরে বিঁধলেন রাকিব

মন্তব্য

বিনোদন
Zayed Khan lost the membership of Film Artists Association

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্যপদ হারালেন জায়েদ খান

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্যপদ হারালেন জায়েদ খান চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। ছবি: সংগৃহীত
চলচ্চিত্র পরিষদ নেতা খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘আজকের বনভোজনের শুরুতে শিল্পী সমিতির দ্বি-সাধারণ সভায় সাধারণ সম্পাদকের প্রতিবেদনের ৯ নম্বর বার্তায় জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিলের ঘোষণা দেয়া হয়েছে।’

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিল করা হয়েছে।

শনিবার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বার্ষিক বনভোজনে দ্বি-সাধারণ সভায় বর্তমান কমিটি এই সিদ্ধান্ত নেয়।

সদস্যপদ বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চলচ্চিত্র পরিষদ নেতা খোরশেদ আলম খসরু। শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচনে প্রধান নির্বচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করবেন তিনি।

খসরু বলেন, ‘আজকের বনভোজনের শুরুতে শিল্পী সমিতির দ্বি-সাধারণ সভায় সাধারণ সম্পাদকের প্রতিবেদনের ৯ নম্বর বার্তায় জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিলের ঘোষণা দেয়া হয়েছে।’

ঘোষণাপত্রে জানানো হয়, কোনো সাংগঠনিক দুর্বলতা না পেয়ে জায়েদ ব্যক্তিগত আক্রোশে ধারাবাহিকভাবে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিসহ সাধারণ সম্পাদকের নামে মিথ্যা, মনগড়া, কুরুচিপূর্ণ কল্পকাহিনী সাংবাদিক সম্মেলন, ইউটিউব, ফেসবুক ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করায় গত বছরের ২ এপ্রিলে সভায় সর্বসম্মতিক্রমে জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিল করা হয়েছে।

কারণ হিসেবে বর্তমানে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তারও একই কথা বলেন।

এদিকে তিনবারের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক হয়েও শনিবারের বনভোজনে দাওয়াত না পাওয়ায় অবাক হওয়ার কথা জানান জায়েদ খান।

তিনি বলেন, ‘আমি তিন তিনবার নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। অথচ শিল্পী সমিতির পিকনিকে আমাকে কোনো কার্ড পাঠানো হয়নি৷ এমনকি কেউ ফোন দিয়েও পিকনিকের বিষয়ে আমাকে বলেননি। বিষয়টিতে সংকীর্ণ মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে বর্তমান কমিটি।’

তিনি আরও বলেন, ‘যদিও এই কমিটি গত দুই বছর ধরে কোনো কাজ করেনি৷ একটা পিকনিক আয়োজন করেছে, সেখানে অন্তত আমাকে কার্ড পাঠাতে পারত; সেটাও করেনি তারা। এটাকে তাদের ব্যর্থতা বলব আমি।’

মন্তব্য

বিনোদন
Hard to find a man like my ex husband Sholanki

আমার সাবেক স্বামীর মতো মানুষ পাওয়া মুশকিল: শোলাঙ্কি

আমার সাবেক স্বামীর মতো মানুষ পাওয়া মুশকিল: শোলাঙ্কি
শোলাঙ্কি বলেন, হ্যাঁ, আমি ডিভোর্সি। এটা আলোচনা করার মতো বিষয় নয়। আমি কোনোদিনই নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কথা বলিনি। প্রেম-বিয়ে সবটাই ব্যক্তিগত রাখতেই ভালোবাসি। এটা নিয়ে অনেক প্রশ্ন, অনেক আলোচনা, তাই স্পষ্ট করে বলতে চাই আমার সাবেক স্বামীর থেকে আমি এখন আইনত আলাদা।

অনেক দিন ধরেই ছিল কানাঘুষা, এবার অবশেষে মুখ খুললেন ভারতীয় বাংলা টেলিভিশন জগতের অন্যতম স্টার শোলাঙ্কি রায়। ভালোবেসে যাকে বিয়ে করেছিলেন, তার সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে গেছে এ অভিনেত্রীর।

এক সাক্ষাৎকারে এই প্রথমবার ডিভোর্স নিয়ে অকপটে জানালেন শোলাঙ্কি। তিনি জানিয়েছেন, ২০২৩ সালেই আইনি উপায়ে বিচ্ছেদ হয়েছে।

শোলাঙ্কি বলেন, ‘হ্য়াঁ, আমি ডিভোর্সি। এটা আলোচনা করার মতো বিষয় নয়। আমি কোনোদিনই নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কথা বলিনি। প্রেম-বিয়ে সবটাই ব্যক্তিগত রাখতেই ভালোবাসি। এটা নিয়ে অনেক প্রশ্ন, অনেক আলোচনা, তাই স্পষ্ট করে বলতে চাই আমার সাবেক স্বামীর থেকে আমি এখন আইনত আলাদা।

‘আর এটা খুব শান্তিপূর্ণ একটা বিচ্ছেদ। এই ঘটনায় আরও একটা মানুষের পরিবার জড়িয়ে, তাই এটা নিয়ে খুব বেশি কথা বলতে চাই না। কারণ আমার পেশার বোঝাটা আমি ওদের ওপর চাপিয়ে দিতে পারি না।’

শোলাঙ্কি বলেন, ‘আমার সাবেক স্বামীর মতো মানুষ পৃথিবীতে খুঁজে পাওয়া মুশকিল। ও একজন অসাধারণ মানুষ। আর এটা আমি বলার জন্য বলছি না। এটা আমি মন থেকে বিশ্বাস করি, মানি।

‘যখন দুটো মানুষ একসঙ্গে থাকবে ভাবে, তারা চায় সেটা সফল হোক। অনেক সময় দুজন মানুষ খুব ভালো হলেও তারা ওই সময় একসঙ্গে থাকার জন্য ঠিক চয়েসটা নয়। সেটাই আমার মনে হয়েছে আমার ক্ষেত্রে হয়েছে। একজন খারাপ মানুষের সঙ্গে না থাকাটা অনেক সহজ। ওই সময় জীবন থেকে চাহিদাগুলো অনেক আলাদা ছিল। ছোট ছিলাম, খুব প্রেমে ছিলাম, মনে হয়েছিল একসঙ্গে থাকতে পারব।’

আমার সাবেক স্বামীর মতো মানুষ পাওয়া মুশকিল: শোলাঙ্কি

‘ইচ্ছেনদী’ দিয়ে ক্যারিয়ার শুরুর পরই দর্শক ভালোবাসায় ভরিয়ে দিয়েছিল তাকে। এরপর ‘প্রথমা কাদম্বিনী’, ‘গাঁটছড়া’-র মতো হিট মেগায় দর্শক দেখেছে শোলাঙ্কিকে। কাজ করেছেন বাংলা ওয়েব সিরিজ, বড় পর্দাতেও।

শোলাঙ্কি নিজের ব্যক্তিগত জীবন আড়ালে রাখতেই পছন্দ করেন। ২০১৮ সালের গোড়ায় স্কুলজীবনের বন্ধু শাক্য বোসকে বিয়ে করেছিলেন অভিনেত্রী। ধুমধাম করে বেঁধেছিলেন গাঁটছড়া।

এরপর বরের হাত ধরে নিউজিল্যান্ড পাড়ি দেন। বছর খানেক পর ফিরে আসেন তিনি, এরপর আস্তে আস্তে কমতে থাকে নিউজিল্যান্ডে যাতায়াত। মাঝে শোনা গিয়েছিল আর একসঙ্গে থাকেন না শোলাঙ্কি-শাক্য। তবে ডিভোর্স নিয়ে এতদিন মুখে কুলুপ এঁটে ছিলেন নায়িকা।

শোলাঙ্কি বলেন, ‘ছোট ছিলাম বলে আবেগের তাড়নায় সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। হয়ত চাইলেই ওখানে (নিউজিল্যান্ড) গিয়ে কাজ হয়ত করতে পারতাম। কিন্তু আমার ল্যান্ডস্কেপটাই পুরো পালটে যাওয়া। এতদিন কাজ ছাড়া, এটা আমার মানসিক স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করেছিল। সেই ধাক্কাটা আমি আজ পর্যন্ত সামলে উঠতে পারিনি।’

গত কয়েক বছর ধরেই অভিনেতা সোহম মজুমদারের সঙ্গে শোলাঙ্কির প্রেমের গুঞ্জন তুঙ্গে। তবে নিজেদের ভালো বন্ধু বলেই দাবি করেন তারা। সূত্র: হিন্দুস্তান হিন্দুস্তান টাইমস

আরও পড়ুন:
তাপসীর বিয়ে শিগগিরই
‘৩ বছর আগে বন্দি হয়েছিলাম সাধিকার কাছে’, মাহিকে তিরে বিঁধলেন রাকিব
অনুপমকে নিয়ে ট্রলে ক্ষেপেছেন শ্রীময়ী

মন্তব্য

বিনোদন
Taapsees marriage is coming soon

তাপসীর বিয়ে শিগগিরই

তাপসীর বিয়ে শিগগিরই
সবকিছু ঠিক থাকলে ‘ডাঙ্কি’ শাহরুখের মান্নু অর্থাৎ তাপসীর মার্চের শেষ দিকে ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার ম্যাথিয়াস বোয়ের সঙ্গেই গাঁটছড়া বাঁধছেন।

রাকুলপ্রীত ও জ্যাকির বিয়ের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের বলিউডে বিয়ের সানাই। আসন্ন মার্চেই বিয়ে করছেন অভিনেত্রী তাপসী পান্নু।

সবকিছু ঠিক থাকলে ‘ডাঙ্কি’ শাহরুখের মান্নু অর্থাৎ তাপসীর মার্চের শেষ দিকে ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার ম্যাথিয়াস বোয়ের সঙ্গেই গাঁটছড়া বাঁধছেন বলে ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রেমের সম্পর্ক তাদের দীর্ঘদিনের। এই জুটির বিয়ে হবে শিখ ও খৃস্টান দুই মতেই। উদয়পুরে হবে এই ‘ফিউশন ওয়েডিং’।

সূত্রের খবর, এটি একটি সম্পূর্ণ পারিবারিক বিয়ে হতে চলেছে। শুধু পরিবারই উপস্থিত থাকবে। আমন্ত্রিতের তালিকায় থাকছেন না বলিউডের প্রথম সারির তারকারা।

জিনিউজ লিখেছে, ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তাপসী ও ম্যাথিয়াসের সম্পর্ক। তারা সম্পর্ক গোপন না রাখলেও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কথা বলতে চান না তাপসী। বরাবরই তিনি তার জীবন ব্যক্তিগত রাখতেই পছন্দ করেন।

বলিউডে স্পষ্টভাষী হিসেবে পরিচিত অভিনেত্রী তাপসী পান্নু। কোনো বিতর্ক হোক বা ব্যক্তিগত প্রশ্ন, যেকোনও বিষয়েই কোনও রাখঢাক নয়, সরাসরি নিজের মন্তব্য জানিয়ে দেন তিনি।

যদিও নায়িকার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে খুব একটা কথা বলতে শোনা যায় না তাকে। কিছুদিন আগেই বিয়ে প্রসঙ্গে তাপসী বলেন, বিয়ে নিয়ে কোনো তাড়াহুড়ো নেই। তবে সন্তান নেয়ার পরিকল্পনা থেকে আগেই বিয়েটা সারতে চান তারা।

সংবাদ প্রতিদিনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাঞ্জাবি পরিবারের মেয়ে তাপসী। আর ম্যাথিয়াস ডেনমার্কের বাসিন্দা। ফলে বিয়েতে পাঞ্জাবি রীতি যেমন মানা হবে, তেমনই থাকবে খ্রিস্টান নিয়মের ছোঁয়া। দুই সংস্কৃতির মেলবন্ধন ঘটবে আয়োজনে। সেই কারণেই এই থিমকে বলা হচ্ছে ‘ফিউশন ওয়েডিং’।

খেলা আর বিনোদুনিয়ার তারকাদের ঘর বাঁধার গল্প এখন আর নতুন কিছু নয়। শর্মিলা ঠাকুর-মনসুর আলি খান পতৌদি, যুবরাজ সিং-হেজেল কিচ, বিরাট কোহলি-আনুশকা শর্মা থেকে জাহির খান-সাগরিকা ঘাটগে- উদাহরণ একাধিক। সেই তালিকাতেই হয়তো এবার যুক্ত হতে চলেছে তাপসী আর ম্যাথিয়াসের নাম।

আরও পড়ুন:
‘৩ বছর আগে বন্দি হয়েছিলাম সাধিকার কাছে’, মাহিকে তিরে বিঁধলেন রাকিব
অনুপমকে নিয়ে ট্রলে ক্ষেপেছেন শ্রীময়ী
এক বছর ধরে প্রেম অনুপম-প্রস্মিতার, পরিচয় বহু দিনের

মন্তব্য

বিনোদন
Rakib shot Mahi near Sadhika who was imprisoned 3 years ago

‘৩ বছর আগে বন্দি হয়েছিলাম সাধিকার কাছে’, মাহিকে তিরে বিঁধলেন রাকিব

‘৩ বছর আগে বন্দি হয়েছিলাম সাধিকার কাছে’, মাহিকে তিরে বিঁধলেন রাকিব ফেসবুক থেকে নেয়া ছবি
রাকিব লিখেছেন, ‘এক জ্বীন সাধিকার কাছে প্রায় তিন বছর পূর্বে বন্দি হয়ে তার মন মর্জি মতন চলতে গিয়ে অধিকাংশ সময় নির্ঘুম সারারাত কাটিয়েছি আর নিজের প্রতি কোনো যত্ন নেয়ার সুযোগ না পাওয়ায় নানা অসুখ বিসুখ শরীরে বাসা বেঁধেছে।’

বিচ্ছেদের অনলে পুড়ছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। স্বামী রাকিব সরকারের সঙ্গে ছাড়াছাড়ির ঘোষণা দিয়ে ক্ষণে ক্ষণে যেন জানান দিচ্ছেন, ‘কেউ নেই, কেহ নেই তার’। এবার এই গল্পের পেছনের নায়ক রাকিব এলেন প্রকাশ্যে, মাহিকে বিঁধলেন তীক্ষ্ণ তিরে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বাংলাদেশ সময় বুধবার ভোরে একটি পোস্ট দিয়ে মাহিকে ইঙ্গিত করে তিনি লিখলেন এই বিচ্ছেদের কারণ। পরোক্ষভাবেই আনলেন বেশ কিছু অভিযোগ।

রাকিব লিখেছেন, ‘এক জ্বীন সাধিকার কাছে প্রায় তিন বছর পূর্বে বন্দি হয়ে তার মন মর্জি মতন চলতে গিয়ে অধিকাংশ সময় নির্ঘুম সারারাত কাটিয়েছি আর নিজের প্রতি কোনো যত্ন নেয়ার সুযোগ না পাওয়ায় নানা অসুখ বিসুখ শরীরে বাসা বেঁধেছে।’

এখন ব্যাংককে চিকিৎসা নিচ্ছেন জানিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘তাই ব্যাংককে চিকিৎসার জন্য অবস্থান করছি। এই তিন বছরে অনেকের মনে কষ্ট দিয়েছি, হয়তো ইচ্ছার বিরুদ্ধে। দয়া করে কেউ আমাকে অভিশাপ দিবেন না। দোয়া চাই…(শক্ত দলিল ছাড়া আমি কথা বলি না)।’

আগের দিনও রাকিব লিখেছিলেন কিছু ইঙ্গিতপূর্ণ কথা। এসব যে মাহিকে নিয়েই লেখা তা স্পষ্ট বোঝা যায় তার কিছু শব্দের ব্যবহারে; যার একটি ‘আস্থ’ মাহিও ব্যবহার করে পোস্ট দেন তার আগের দিন।

ফেসবুকে ঢুঁ মারলেই বোঝা যায়, রাকিব সরকারের সঙ্গে বিচ্ছেদের ঘোষণা দেয়ার পর থেকেই বড় একা হয়ে গেছেন নায়িকা মাহি। কখনও লিখছেন, ‘একা একা লাগে’, কখনও ছবি দিয়ে বোঝাচ্ছেন তিনি ফের সিঙ্গেল হয়ে গেছেন।

কখনও এরই ধারাবাহিকতায় ‘নিঃসঙ্গতা’ জাপ্টে ধরে মাহি লিখছেন, ‘একটা আস্থার জায়গা হলেই চলবে, একটা মানুষের মতো মানুষ হলেই চলবে, একটুখানি যত্ন নিও ছেলে।’

গত ১৬ ফেব্রুয়ারি রাকিব সরকারের সঙ্গে বিয়ে বিচ্ছেদ হচ্ছে বলে ঘোষণা দেন তিনি। একটি ভিডিও বার্তা দিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেন মাহি।

মাহি ভিডিওতে বলেন, ‘এ রকম একটা ভিডিও করতে হবে সেটা ভাবিনি। এ রকম আমাদের নিজেদের জন্য এটা বলাটা উচিত। সবার জানা উচিত। আমি আর রকিব আমরা আসলে খুব আন্ডারস্টান্ডিং থেকে বিয়ের সিদ্ধান্তে এসেছিলম। একটা পর্যায়ে মনে হয়েছে দুজন দুজনের জন্য না।’

তিনি বলেন, ‘একটা ছাদের নিচে দুটি মানুষ কেন ভালো নেই, সেটা তারাই ভালো জানে। এটা বাইরের থেকে বোঝা যাবে না।’

মাহি বলেন, ‘আমরা দুজন মিলেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের মধ্যে কিছু বিষয় নিয়ে সমস্যা রয়েছে। তবে রকিব খুব ভালো মানুষ। তাকে আমি সম্মান করি। অনেক কেয়ারিং সে। খুব দ্রুতই আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে সেপারেশনে যাচ্ছি, সেপারেশনে আছি। সেপারেশন কবে আর কীভাবে হবে সেটিও দুজন মিলেই ঠিক করব।’

২০১৬ সালে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন মাহি। ২০২১ সালের ২২ মে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এরপর ২০২১ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর রাকিবকে বিয়ে করেন মাহি। তাদের একটি ছেলে রয়েছে। গাজীপুরের ব্যবসায়ী রাকিবেরও এটি দ্বিতীয় বিয়ে।

আরও পড়ুন:
অনুপমকে নিয়ে ট্রলে ক্ষেপেছেন শ্রীময়ী
এক বছর ধরে প্রেম অনুপম-প্রস্মিতার, পরিচয় বহু দিনের
বিয়ে করছেন শিল্পী অনুপম রায়
একটু আস্থার জায়গা খুঁজছেন মাহি

মন্তব্য

বিনোদন
Srimayi is angry at the trolls about Anupam

অনুপমকে নিয়ে ট্রলে ক্ষেপেছেন শ্রীময়ী

অনুপমকে নিয়ে ট্রলে ক্ষেপেছেন শ্রীময়ী
শ্রীময়ী বলে, এতদিন কাঞ্চনকে বুম্বাদা, শ্রাবন্তীদির সঙ্গে তুলনা করা হত। এবার শুরু হয়েছে অনুপমদাকে নিয়ে। কিন্তু যারা ট্রোল করছেন তাদের এদের জায়গায় পৌঁছনোর মতো যোগ্যতা নেই।

সম্প্রতি বিয়ে নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন ভারতীয় অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক ও শ্রীময়ী চট্টরাজ। তবে ট্রলকে একেবারেই পাত্তা দেননি এই দম্পতি।

নিজেদের বিয়ে নিয়ে ট্রলের জবাব না দিলেও এবার সঙ্গীতশিল্পী অনুপম রায় ও গায়িকা প্রস্মিতা পালের আসন্ন বিয়ে নিয়ে ট্রলকারীদের ওপর ক্ষেপছেন শ্রীময়ী।

এবিপি আনন্দের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি এ নিয়ে মন্তব্য করেছেন।

শ্রীময়ী বলেন, ‘এতদিন কাঞ্চনকে বুম্বাদা, শ্রাবন্তীদির সঙ্গে তুলনা করা হতো। এবার শুরু হয়েছে অনুপমদাকে নিয়ে। কিন্তু যারা ট্রল করছেন তাদের এদের জায়গায় পৌঁছানোর মতো যোগ্যতা নেই।

‘ওদের যে জনপ্রিয়তা রয়েছে সেটা ওরা নিজেরা অর্জন করেছেন। ওরা কতবার ভালোবাসবেন, কাকে ভালোবাসবেন, কটা বিয়ে করবেন সেটা নিয়ে এত কথা বলার কী আছে?’

শ্রীময়ী বলেন, ‘ওরা তো মাইক নিয়ে প্রচার করেননি, আবার কাউকে বিরক্তও করেননি। মোবাইলের আড়ালে বসে মন্তব্য করাটা আসলে সোজা। নিজেদের সম্পর্ক, পরিবারে এবার মন দিন।’

ট্রলকারীদের একহাত নিয়ে শ্রীময়ী বলেন, ‘আপনাদের এত আফসোস কেন? আপনি পেলেন না বলে কষ্ট হচ্ছে বুঝি?’

আরও পড়ুন:
এক বছর ধরে প্রেম অনুপম-প্রস্মিতার, পরিচয় বহু দিনের
বিয়ে করছেন শিল্পী অনুপম রায়
আবার বিয়ে করছেন আমির খান?

মন্তব্য

p
উপরে