× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিনোদন
First anniversary of Banglayan meeting with Bangla Bishwamoy Slogan
hear-news
player
google_news print-icon

‘বাংলা বিশ্বময়’ স্লোগান নিয়ে ‘বাংলায়ন সভা’র প্রথম বর্ষপূর্তি

বাংলা-বিশ্বময়-স্লোগান-নিয়ে-বাংলায়ন-সভার-প্রথম-বর্ষপূর্তি
‘বাংলায়ন সভা’র প্রথম বর্ষপূর্তি। ছবি: সংগৃহীত
মূল বক্তা আবুল কাসেম ফজলুল হক তার বক্তব্যে বলেন, ‘বাংলা ভাষার উন্নয়ন ও বিশ্বয়নে বাংলা উন্নয়ন বোর্ড প্রতিষ্ঠার জন্য সরকারকে আহ্বান জানাই। বাংলা ভাষাকে কেন্দ্র করে একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, কিন্তু রাষ্ট্র পরিচালনায় এখন অন্যভাষাকে ধার করে চলতে হচ্ছে যা দুঃখজনক।’

‘বাংলায়ন সভা’র প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে রোববার শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আলোচনা সভা। আলোচানার বিষয় ছিল ‘বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের বিশ্বায়নে অন্তরায় এবং উত্তরণের পথ’।

আলোচানয় মূল বক্তা ছিলেন প্রাবন্ধিক ও রাষ্ট্রচিন্তক অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউটের মহাপরিচালক হাকিম আরিফ।

মূল বক্তা আবুল কাসেম ফজলুল হক তার বক্তব্যে বলেন, ‘বাংলা ভাষার উন্নয়ন ও বিশ্বয়নে বাংলা উন্নয়ন বোর্ড প্রতিষ্ঠার জন্য সরকারকে আহ্বান জানাই। বাংলা ভাষাকে কেন্দ্র করে একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, কিন্তু রাষ্ট্র পরিচালনায় এখন অন্যভাষাকে ধার করে চলতে হচ্ছে যা দুঃখজনক।’

ভাষা বিস্তার প্রসঙ্গে লিয়াকত আলী লাকী বলেন, ‘আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ, ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টার, ব্রিটিশ কাউন্সিলের মতো আমাদেরও বাংলা ভাষার বিশ্বয়ানের জন্য প্রতিষ্ঠান প্রয়োজন’।

হাকিম আরিফ বলেন, ‘বাংলা ভাষাকে অর্থনৈতিক ভাষায় রুপান্তর করতে হবে।’

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ‘বাংলায়ন সভা’র মুখপাত্র শামস সাঈদ। সঞ্চালনা করেছেন কবি সৌম্য সালেক ও চামেলী বসু।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে কবিতা পাঠ করেন কবি শান্তা মারিয়া, আদিত্য নজরুল, সাকিরা পারভীন, আশরাফ জুয়েল, সেঁজুতি বড়ুয়া, স্নিগ্ধা বাউল, বিধান সাহা, আজিম হিয়া, মামুন অপু।

‘বাংলায়ন সভা’র প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে প্রকাশিত হয়েছে ‘বাংলায়ন বার্ষিকী’। এখানে সূচিবদ্ধ হয়েছে ভাষা ও সাহিত্য বিষয়ক নানামাত্রিক প্রবন্ধ-নিবন্ধ।

বাংলা ভাষাকেন্দ্রিক প্রবন্ধগুলোয় ভাষার উৎস-ইতিহাস-বিবর্তন, ভাষা-পরিকল্পনা, ভাষার প্রায়োগিক সমস্যা ও উত্তরণের সম্ভাব্য উপায় নির্দেশিত হয়েছে।

ভাষা আন্দোলন এবং একুশের চেতনাকে ধারণ করে শিল্প-সংস্কৃতির এই সংগঠন যাত্রা শুরু করে ২০২১ সালের ৪ সেপ্টেম্বর। সংগঠনটির মুখপাত্র কথাশিল্পী শামস সাইদ, সম্পাদক কবি ফারুক সুমন ও সমন্বয়কের দায়িত্বে রয়েছেন গাজী মুনছুর আজিজ। সংগঠনটি ‘বাংলা বিশ্বময়’ স্লোগান ধারণ করে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের সম্প্রসারণের লক্ষ্যে কাজ করছে।

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
Das Rupe Zakia Bari Mom Profile Photostory

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম। ছবি: প্রোফাইল
মম জানান, এ ছবিগুলোর মাধ্যমে নারী শক্তির বিভিন্ন রূপকেও তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। নারী জীবনের সামাজিক স্তর এবং শ্রেণি জীবনের সংগ্রামটাও যেন ছবিগুলোর মধ্যে পাওয়া যায়, সেই চেষ্টাও ছিল তাদের।

অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম মঙ্গলবার তার ভেরিফায়েড ফেসুবক পেজে ১০টি স্থিরচিত্র পোস্ট করেছেন। ছবিগুলোতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নারীর প্রতিচ্ছবি স্পষ্ট।

ছবির সংখ্যার সঙ্গে নারীর রূপগুলোর একটি যোগসূত্র আছে বলে নিউজবাংলাকে জানালে মম। তিনি বলেন, ‘এ কাজটি এখন করা হলো কারণ, এখন পূজা চলছে। আমরা এ সিজনটা ধরতে চেয়েছি। আমাদের পরিকল্পনায় ছিল, দুর্গার ১০ ভূজকে জীবনের ১০টি প্রতীকী রূপে উপস্থাপন করা।’

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি

মম জানান, এ ছবিগুলোর মাধ্যমে নারী শক্তির বিভিন্ন রূপকেও তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। নারী জীবনের সামাজিক স্তর এবং শ্রেণি জীবনের সংগ্রামটাও যেন ছবিগুলোর মধ্যে পাওয়া যায়, সেই চেষ্টাও ছিল তাদের।

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি

এ প্রোফাইল ফটোস্টোরিটি করেছে প্রোফাইল নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এটি মূলত একটি ট্যালেন্ট এজেন্সি। প্রতিষ্ঠানটি তাদের ক্লাইন্টের পোর্টফোলিও তৈরি করে দেয়, গ্রুমিং করাসহ নানা রকম সেবা দিয়ে থাকে।

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি

মমর সঙ্গে এ কাজটির ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর ইয়াছির আল হক। তিনি নিউজবাংলাকে জানান, প্রোফাইলে মিস্ট্রি ম্যানিয়া পোর্টফলিও ফটোশুটের আয়োজন এটি।

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি

বিষয়টি বুঝিয়ে বলতে গিয়ে ইয়াছির বলেন, ‘এটা মূলত এক্সপ্রেরিমেন্ট পোর্টফলিও। মম আপু তো প্রতিষ্ঠিত অভিনয়শিল্পী, তবুও তাকে বিভিন্ন লুকে উপস্থাপন করা ছিল আমাদের প্রধান কাজ। আর যেহেতু এখন দুর্গাপূজা উদযাপিত হচ্ছে, তাই আমরা দশ ভূজা, নারী বিষয়গুলোর সঙ্গে কিছুটা সংযোগের চেষ্টা করেছি।’

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি

মমর স্টাইলিং করেছেন রুবামা ফাইরুজ আর ছবি তুলেছেন সলোমন ভাস্কর। প্রোফাইল ট্যালেন্ট এজেন্সির প্রথম বিশেষ আয়োজন এই ফটোশুট। এ ধরনের পোর্টফলিওকে প্রোফাইলফোলিও নাম দিয়েছে প্রোফাইল ট্যালেন্ট এজেন্সি।

দশ রূপে জাকিয়া বারী মম: প্রোফাইল ফটোস্টোরি

আরও পড়ুন:
পরিচ্ছন্নতাকর্মীর চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে মম

মন্তব্য

বিনোদন
To me Maa i Durga Bappa on Babas death day

আমার কাছে আমার মা-ই দুর্গা: বাবার প্রয়াণ দিবসে বাপ্পা

আমার কাছে আমার মা-ই দুর্গা: বাবার প্রয়াণ দিবসে বাপ্পা বাবা বারীণ মজুমদারের কোলো ছোট বাপ্পা (বাঁয়ে), মা ইলা মজুমদারের সঙ্গে বড় বয়সে বাপ্পা মজুমদার (ডানে)। ছবি: সংগৃহীত
কথাটি হলো, “বাবা তার শেষ জীবন অব্দি আমাদের জোর গলায় বলে গেছেন, ‘আমি বারীণ মজুমদার ধূলিসাৎ হয়ে যেতাম যদি তোদের মা না থাকতো’....!” 

পণ্ডিত বারীণ মজুমদার, তাকে বলা হয় বাংলাদেশি সংগীতাঙ্গনের সংগীত অধ্যক্ষ। তিনি ছিলেন রাগসংগীত বিশারদ ও উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতশিল্পী। তাকে আখ্যায়িত করা হয় আগ্রা ও রঙ্গিলা ঘরানার যোগ্য উত্তরসাধক হিসেবে।

সংগীতে অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে ১৯৮৩ সালে একুশে পদক এবং ২০০২ সালে মরণোত্তর স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করে। সোমবার এ গুণী সংগীতজ্ঞের ১০১ তম প্রয়াণ দিবস।

এ দিনে বারীণ মজুমদারের ছোট ছেলে বাপ্পা মজুমদার রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার এডিলেডে। সেখানে তিনি ও তার ব্যান্ড দলছুট অবস্থান করছেন কনসার্টের জন্য।

বাবার প্রয়াণ দিবসে সেখানে বসে দিনটিকে স্মরণ করেছেন বাপ্পা এবং নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন কিছু স্মৃতি ও অনুভূতির কথা।

বাবার প্রয়াণ দিবস হলেও বাপ্পা তার লেখায় সন্তান ও সংসারের প্রতি তার মা ইলা মজুমদারের অবদানের কথা উল্লেখ করেছেন এবং জানিয়েছেন তার কাছে তার মা-ই দুর্গা। শারদীয় দুর্গাপূজার চলাকালিন এ সময়ে লেখাটি বিশেষ তাৎপর্য বহন করছে।

স্মৃতিচারণ করে বাপ্পা মজুমদার লিখেছেন, ‘আজ ৩ অক্টোবর ২০২২, অস্ট্রেলিয়ার এডিলেডে বসে লিখছি! নানা কারণেই কেমন যেন বিষন্নতা পেয়ে বসছে! বাবার চলে যাবার সময়গুলো বারবার ভেসে উঠছে চোখের সামনে! কথাগুলো আরও আগেই বলা দরকার ছিল বটে, তবে নানাবিধ দৌড় ঝাঁপে হয়ে ওঠে নি...!

আমার কাছে আমার মা-ই দুর্গা: বাবার প্রয়াণ দিবসে বাপ্পা
বাবা-মা, ভাইদের সঙ্গে ছোট বাপ্পা। ছবি: সংগৃহীত

‘পেশাগতভাবে আমার সংগীত জীবনের বয়স ৩০ বছর! সংগীতকে পেশা হিসেবে নেয়ার সিদ্ধান্ত আমার জন্য যথেষ্ট কঠিন ছিল, তার মূল কারণ বাবা পণ্ডিত বারীণ মজুমদারের সারাজীবনের সংগীত সাধনা তার ত্যাগ, সংগীতকে নিয়ে আকাশসম ভাবনার বিনিময়ে যেই লাঞ্চনা, অপমান, অসন্মান আর পরিশেষে এক অনিশ্চিত জীবন তাকে ঘিরে ধরেছিল তার পুনরাবৃত্তি তিনি তার সন্তানদের জীবনে দেখতে চান নি!’

লেখার এ পর্যায়ে বাপ্পা তার মা ইলা মজুমদারের অবদানের কথা উল্লেখ করে লেখেন, ‘পণ্ডিত বারীণ মজুমদার শুধু বেঁচে গেছিলেন কারণ তার পাশে ইলা মজুমদারের মতো একজন জীবনসংগী ছিলেন। যিনি চরম বিপদসংকুল সময়ে দূর্গতিনাশিনীর মতো পাশে এসে দাঁড়িয়ে ছিলেন!

‘বাবাকে মিউজিক কলেজ থেকে সপরিবারে বের করে দেবার পর পরিবারের জন্য যখন অন্ন যোগাড় বন্ধ হবার পথে, সেই সময়ে আমাদের মা ইলা মজুমদার স্কুলে চাকরি নেন! একা হাতে পুরো সংসার এর হাল ধরেন! তার যৎসামান্য উপার্জনে বাড়িতে চুলো জ্বলে! দুটো খেয়ে আমরা বেঁচে যাই!’

এ বিষয়টি নিয়ে আরও বিস্তর আলোচনা পরে করতে চেয়েছেন বাপ্পা। তিনি তার লেখা শেষ করেছেন বাবা বারীন মজুমদারের একটি কথা দিয়ে। যে কথাটি বারীন মজুমদার তার শেষ জীবন পর্যন্ত বলে গেছেন।

কথাটি হলো, “বাবা তার শেষ জীবন অব্দি আমাদের জোর গলায় বলে গেছেন, ‘আমি বারীণ মজুমদার ধূলিসাৎ হয়ে যেতাম যদি তোদের মা না থাকতো’....!”

‘এখন শারদীয় পূজো....! দেবীর আগমন হয়েছে...! আবার যাবারও সময় হয়ে আসলো.....! কিন্তু আমার কাছে আমার মা-ই হচ্ছেন সেই দুর্গা.....যিনি জীবনের শেষ অব্দি দূর্গতিনাশিনী হয়েই ছিলেন তার স্বামী সন্তান আর সংসার এ....! সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছা।’ এ কথা লিখে শেষ করেন বাপ্পা মজুমদার।

আরও পড়ুন:
দায়বদ্ধতা থেকে কাজটি করছেন বাপ্পা মজুমদার
‘এরই নাম যদি সভ্যতা হয়, নিকুচি করি আমি’
অন্যভাবে বাপ্পা মজুমদার

মন্তব্য

বিনোদন
A day long program on BTV on Prime Ministers birthday

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে বিটিভিতে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে বিটিভিতে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান
জাতীয় জীবনের বহুক্ষেত্রে সাফল্য এসেছে তার সময়ে। প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুষ্ঠানসূচি সেজেছে নতুন সাজে। এদিন বিটিভিতে বেশ কয়েকটি বিশেষ অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হবে।

সংকট, চড়াই-উতরাই পেরিয়ে ৭৫ বছর অতিক্রম করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর ৭৬তম জন্মদিন। তার নেতৃত্বে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, খাদ্যে স্বনির্ভরতা, নারীর ক্ষমতায়ন, কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, গ্রামীণ অবকাঠামো, যোগাযোগ, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ, বাণিজ্য, তথ্যপ্রযুক্তি খাতে উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করেছে বাংলাদেশ।

জাতীয় জীবনের বহুক্ষেত্রে সাফল্য এসেছে তার সময়ে। প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুষ্ঠানসূচি সেজেছে নতুন সাজে। এদিন বিটিভিতে বেশ কয়েকটি বিশেষ অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হবে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এমনটাই জানিয়েছে জাতীয় গণমাধ্যমটির অনুষ্ঠান বিভাগ। বিশেষ অনুষ্ঠান ‘কৃষকের হৃদয়ে শেখ হাসিনা’ প্রচারিত হবে সকাল ১০টা ১০ মিনিটে। বিশেষ অনুষ্ঠান ‘গম্ভীরা’ প্রচারিত হবে দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে। দুপুর ১ টা ৪০ মিনিটে প্রচারিত হবে কবিতা আবৃত্তির অনুষ্ঠান।

চলচ্চিত্র ‘হাসিনা: আ ডটার’স টেল’ প্রচারিত হবে দুপুর ৩টা ৩০ মিনিটে। কবিতা আবৃত্তির বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচারিত হবে বিকাল ৫টা ৪৫ মিনিটে। সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে প্রচারিত হবে আলেখ্যানুষ্ঠান।

রাত সাড়ে ৮টায় প্রচার হবে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বিশেষ তথ্যচিত্র ‘জয়তু মাননীয়’। রাত ৮টা ৪০ মিনিটে থাকছে বিশেষ সংগীতানুষ্ঠান ‘শুভ জন্মদিন দেশরত্ন’। রাত ১০টা ২০ মিনিটে থাকছে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান ‘সাফল্যের সরকার’।

এছাড়াও দিনব্যাপি অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে প্রচারিত হবে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে শুভেচ্ছা কার্ড, গান ও ইনফোগ্রাফিক্স।

মন্তব্য

বিনোদন
Legal notice to actress Saba seeking compensation of Rs

কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে অভিনেত্রী সাবার আইনি নোটিশ

কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে অভিনেত্রী সাবার আইনি নোটিশ অভিনেত্রী সোহানা সাবা। ছবি: সংগৃহীত
নোটিশে ওই কনটেন্ট ব্যবহার বন্ধ এবং দুই কোম্পানির কাছে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

অনুমতি ছাড়া ‘আড্ডা উইথ সোহানা সাবা’ নামের একটি কনটেন্ট ব্যবহার করায় ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রবি অজিয়াটা লিমিটেডসহ দুটি কোম্পানিকে আইনি নোটিশ দিয়েছেন অভিনেত্রী সোহানা সাবা।

নোটিশে ওই কনটেন্ট ব্যবহার বন্ধ এবং দুই কোম্পানির কাছে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

২৫ সেপ্টেম্বর অভিনেত্রী সোহানা সাবার পক্ষে এ নোটিশ দেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মুজিবুল কামাল।

রবি অজিয়াটাসহ তাদের ১২ কর্মকর্তা এবং এম/এস আইনস্টেক স্টুডিও বরাবর এ নোটিশ দেয়া হয়।

পরে এক বার্তায় সোহানা সাবা জানান, চার বছর আগে তারকালয় ‘আড্ডা উইথ সোহানা সাবা’ নামে একটি সেলিব্রিটি টক শোসহ নির্মাণ করেন। যা এম/এস আইনস্টেক স্টুডিস এবং রবি আজিয়াটা লিমিটেডসহ অনেক ডিজিটাল প্লাটফর্মে অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করছে।

সাবা মনে করেন, অনেকেই অর্থিকভাবে লাভবান হয়েছে। কিন্তু এটি তার কপিরাইট করা। এ দুটি কোম্পানি কোনো ধরনের সম্মতি ও লাইসেন্স ছাড়া অনুষ্ঠানগুলো অনলাইন এবং অফলাইন বিভিন্ন চ্যানেলে সম্পচার করেছে যা আইন অনুযায়ী কপিরাইট আইনের লঙ্ঘন।

সাবা বলেন, ‘৪ বছর ধরে ৪২টি পর্ব তৈরি করেছি। এগুলো তারা নিজেদের ইচ্ছা মতো ব্যবহার করে উচ্চ মুনাফা অর্জন করেছে। এটি দেশের আইন অনুযায়ী চুরিরও সামিল। উক্ত কনটেন্টগুলো থেকে আয় করা টাকা তারা আমাকে বুঝিয়ে দেয়নি। এ বিষয়ে অবগত হলে তাদের কাছে যাওয়ার পরও তারা আমার কথা শোনেনি।’

আরও পড়ুন:
সোহানা সাবার ৩ সিনেমা নতুন বছরে
ওয়েব সিরিজে দ্বৈত চরিত্রে সাবা

মন্তব্য

বিনোদন
Jacquelines interim bail

জ্যাকলিনের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন

জ্যাকলিনের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ। ছবি: সংগৃহীত
ইডি গত মাসে জ্যাকলিনের বিরুদ্ধে মামলায় চার্জশিট জমা দিলে অভিনেত্রী অভিযোগ করে বলেন, ইডির তদন্ত পদ্ধতি ভুয়া ও অন্যের মদতপুষ্ট।

অর্থ আত্মসাৎ মামলায় সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে নাম জড়ানোর পর এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) তলব করেছিল বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজকে। সুকেশের সঙ্গে সম্পর্কিত আরও অনেককেই থানায় ডেকেছিল দিল্লির আর্থিক অপরাধ দমন শাখা।

দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে ইডি। এর মধ্যেই ৩৭ বছর বয়সী জ্যাকলিন পেলেন অন্তর্বর্তীকালীন জামিন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ইডি গত মাসে জ্যাকলিনের বিরুদ্ধে মামলায় চার্জশিট জমা দিলে অভিনেত্রী অভিযোগ করে বলেন, ইডির তদন্ত পদ্ধতি ভুয়া ও অন্যের মদতপুষ্ট।

এ অভিযোগ এনে অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আপিল করেছিলেন দিল্লির একটি আদালতে। সেই আপিলের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার জামিন মঞ্জুর হলো তার।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, অস্বীকার করার উপায় নেই যে জ্যাকলিনের ‘স্বপ্নের পুরুষ’ ছিলেন সুকেশ! ২০০ কোটি রুপির অর্থ আত্মসাৎ মামলায় তদন্তে নেমে এমন কথাই জানতে পেরেছে তদন্তকারী। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এও জানিয়েছিল, সুকেশকে বিয়েও করতে চেয়েছিলেন এ নায়িকা। সুকেশের অপরাধের কথা জেনেও তাকে ছেড়ে জাননি জ্যাকলিন।

আরও পড়ুন:
২০০ কোটি রুপি পাচার মামলায় জ্যাকলিনের বিরুদ্ধে চার্জশিট
জ্যাকলিনকে ফের জিজ্ঞাসাবাদ ইডির 
জ্যাকলিনের সঙ্গে বলিউডে অভিষেক হচ্ছে মিশেলের
ব্যক্তিগত মুহূর্তের আরেকটি ছবি ভাইরাল, বিশেষ অনুরোধ জ্যাকলিনের
জ্যাকুলিন-নোরাকে দেয়া সুকেশের উপহার বাজেয়াপ্ত

মন্তব্য

বিনোদন
One night at Prosenjits house

এক রাতে প্রসেনজিতের বাড়িতে

এক রাতে প্রসেনজিতের বাড়িতে অভিনেতা প্রসেনজিতের বাড়িতে দেশের অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীরা। ছবি: সংগৃহীত
প্রসেনজিৎ ও চঞ্চলের একটি ছবি রয়েছে পোস্ট করা অ্যালবামে। ছবিটি দেখে মনে হচ্ছে দুই বাংলার দুই জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী একে অন্যকে ধরে গান গাইছেন এবং তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে করছেন অঙ্গভঙ্গি।

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী প্রসেনজিতের বাড়িতে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন এ দেশের কয়েকজন শিল্পী-কলাকুশলী। সেখানে রাতের খাবারের আমন্ত্রণ ছিল তাদের। আড্ডা-গানে প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে আমন্ত্রণ পর্বটি।

প্রসেনজিতের আমন্ত্রণে গিয়েছিলেন চঞ্চল চৌধুরী ও তার স্ত্রী-সন্তান, নাট্যকার-অভিনেত্রী দম্পতি বৃন্দাবন দাস, সাহনাজ খুশি ও তাদের দুই সন্তান, বিজরী বরকতুল্লাহ ও ইন্তেখাব দিনার দম্পতি এবং নির্মাতা শাওকি।

আমন্ত্রণ পর্বের কিছু ছবি রোববার রাতে ফেসবুকে পোস্ট করেন অভিনেত্রী বিজরী বরকতুল্লাহ। সেসব ছবিতে পাওয়া গেছে প্রসেনজিতের বাড়ির বাইরের ও ভেতরের দৃশ্য।

এক রাতে প্রসেনজিতের বাড়িতে
বাঁ থেকে- বাইরে থেকে প্রসেনজিতের বাড়ি, চঞ্চল চৌধুরীর সঙ্গে গান, বাড়ির ভেতরের কিছু অংশ। বিজরী বরকতুল্লাহর ফেসবুক থেকে

প্রসেনজিৎ ও চঞ্চলের একটি ছবি রয়েছে পোস্ট করা অ্যালবামে। ছবিটি দেখে মনে হচ্ছে দুই বাংলার দুই জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী একে অন্যকে ধরে গান গাইছেন এবং তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে করছেন অঙ্গভঙ্গি।

ছবিটি শেয়ার করে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘সবার সঙ্গে ছবি তোলা শেষে আমাকে বললেন, চল বাবু... মনের মানুষ এ আমরা যেমন করে গানের সঙ্গে নাচতাম, সে রকম একটা ছবি তুলি।’

বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত মনের মানুষ সিনেমাটি ২০১০ সালে মুক্তি পায়। এতে একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন চঞ্চল ও প্রসেনজিৎ।

এক রাতে প্রসেনজিতের বাড়িতে
প্রসেনজিতের বাড়ির দেয়ালে রাখা ক্লাসিক সিনেমার পোস্টার। বিজরী বরকতুল্লাহর ফেসবুক থেকে

ছবির ক্যাপশনে বিজরী লিখেছেন, ‘একজন শিল্পীর বিনয় তাকে মানুষ হিসেবে অনেক উঁচুতে নিয়ে যায়। সেটি প্রমাণ করেছেন কলকাতার প্রথিতযশা জনপ্রিয় অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় (বুম্বাদা)। তার সৌহার্দ্যপূর্ণ ব্যবহার ও বিনয়ে আমরা মুগ্ধ হলাম।

এক রাতে প্রসেনজিতের বাড়িতে
প্রসেনজিতের বাড়ির একটি কক্ষ। ছবি: বিজরী বরকতুল্লাহর ফেসবুক থেকে

‘তিনি রাতের খাবারের আয়োজন করেছিলেন তার বাড়িতে আমাদের জন্য, মানে বাংলাদেশের কিছু শিল্পীর জন্য। চমৎকার সময় আমরা কাটিয়েছি তার বাড়িতে। ভীষণ পরিপাটি এবং শৈল্পিকতার ছোঁয়ায় পরিপূর্ণ এ বাড়িটির রয়েছে ঐতিহাসিক মর্যাদা। দারুণ একটি সময় কাটালাম আমরা।’

লেখার শেষ পর্যায়ে এমন আয়োজনের উদ্যোগ নেয়ার জন্য চঞ্চল চৌধুরীকে ধন্যবাদ দিয়েছেন বিজরী।

এক রাতে প্রসেনজিতের বাড়িতে
খাবার টেবিলে প্রসেনজিতের সঙ্গে দেশের অভিনয়শিল্পী ও কুশলীরা। ছবি: বিজরী বরকতুল্লাহর ফেসবুক থেকে

ভারতীয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম হইচইয়ের ষষ্ঠ সিজনের প্রোজেক্ট ঘোষণার অনুষ্ঠানে অংশ নিতে কলকাতায় অবস্থান করছিলেন দেশের কয়েকজন অভিনয়শিল্পী, নির্মাতা ও কলাকুশলীরা।

আরও পড়ুন:
‘শিখো’তে যুক্ত হলেন চঞ্চল চৌধুরী
এটা স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে: চঞ্চল চৌধুরী
হাওয়ার জন্য বসুন্ধরায় ভিড়, চাপ নেই এসকেএসে
‘চঞ্চল চৌধুরীর ছেলে বলে খুব সহজে অভিনেতা হওয়া যাবে না’
খারাপ ফলে হতাশদের জন্য চঞ্চল আছেন

মন্তব্য

বিনোদন
Wifes smile with Shahrukhs picture

শাহরুখের ছবি নিয়ে স্ত্রীর মস্করা

শাহরুখের ছবি নিয়ে স্ত্রীর মস্করা ইনস্টাতে শেয়ার করা শাহরুখ খানের ছবি (বাঁয়ে) ও গৌরী খান। ছবি: সংগৃহীত
গৌরীর এমন মস্করায় মজা পেয়েছে নেটিজেনরা। অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা শাহরুখের পোস্টের মন্তব্যের ঘরে লিখেছেন, ‘যাদের তাড়াতাড়ি বিয়ে হতে যাচ্ছে তাদের আরও সাবধান হতে হবে।’

খালি গায়ে পেশিবহুল শরীরের ছবি পোস্ট করেছেন শাহরুখ। রোববার সেই ছবি নিয়ে ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। বলিউড বাদশাহ প্রতিনিয়ত আসেন না নেট দুনিয়ায়। কিন্তু যখন আসেন, একদম তোলপাড় করে ফেলেন।

নেটিজেনরা শাহরুখের ছবি শেয়ার করছেন, মন্তব্য করছেন। শাহরুখের স্ত্রী গৌরীও একটু মস্করা করার সুযোগ ছাড়েননি।

শাহরুখ তার সেই ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে লিখেছিলেন, “আমি আমার শার্টকে: ‘তুমি থাকলে কেমন হতো? তুমি এ কথায় উদ্বিগ্ন হতে, এ কথায় কতই না হাসতে তুমি, তুমি থাকলে এমনটাই হতো।’ আমিও পাঠানের জন্য অপেক্ষা করে আছি।”

শাহরুখের এই পোস্টটাই নিজের ইনস্টা স্টোরিতে শেয়ার করছেন গৌরী খান। তাতে লিখলেন, ‘হায় সৃষ্টিকর্তা!!! এই মানুষটা এখন নিজের শার্টের সঙ্গেও কথা বলতে শুরু করেছে।’

গৌরীর এমন মস্করায় মজা পেয়েছে নেটিজেনরা। অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা শাহরুখের পোস্টের মন্তব্যের ঘরে লিখেছেন, ‘যাদের তাড়াতাড়ি বিয়ে হতে যাচ্ছে তাদের আরও সাবধান হতে হবে।’ অক্টোবরে রিচা বিয়ে করছেন অভিনেতা আলি ফজলকে।

শাহরুখের ছবিতে দেখা যাচ্ছে কাউচের ওপরে আধশোয়া তিনি। বড় বড় চুল, খালি গা, তাতে সিক্স প্যাক পরিষ্কার।

এটি মূলত শাহরুখ খানের মুক্তি প্রতীক্ষিত সিনেমা পাঠান এর লুক। ২০২৩ সালের ২৫ জানুয়ারি মুক্তি পাবে সিনেমাটি। সঙ্গে রয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন, জন আব্রাহামসহ অনেকে।

আটলির পরিচালনায় জাওয়ান আসবে জুন মাসে আর তাপসী পান্নুর সঙ্গে রাজকুমার হিরানির ডংকিতে শাহরুখ আসবেন বছরের শেষে। সব মিলিয়ে শাহরুখ ভক্তদের জন্য জমজমাট হতে চলেছে ২০২৩ সালটা।

আরও পড়ুন:
বাতিল হচ্ছে আমির-অক্ষয়ের সিনেমার হাজার শো
‘ভিক্যাট’কে হত্যার হুমকি
বলিউডের ঈদ
২৭ বছর পর এক সিনেমায় বলিউড ‘বাদশাহ-ভাইজান’!
১৮৭১ সালের প্রেক্ষাপটে বাবা-ছেলে রণবীর

মন্তব্য

p
উপরে