× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিনোদন
Saturday afternoons lawyer Bachchu cant say much
hear-news
player
google_news print-icon

শনিবার বিকেল-এর উকিল বাচ্চু অনেক কিছু ‘বলতে পারছেন না’

শনিবার-বিকেল-এর-উকিল-বাচ্চু-অনেক-কিছু-বলতে-পারছেন-না
নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী (বাঁয়ে), শনিবার বিকেল সিনেমা পোস্টার (মাঝে) ও সিনেমার পক্ষের উকিল নাসির উদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
তিন বছর আগে শনিবার বিকেল-এর পক্ষের উকিল হয়ে সিনেমাটি দেখেন মুক্তিযোদ্ধা, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‌শনিবার বিকেল সিনেমাটি তিন বছর ধরে পড়ে রয়েছে আপিল বোর্ডে।

সিনেমাটি কেন ছাড়পত্র পাবে না, তা নিয়ে এখনও কোনো বক্তব্য দেয়নি কেবিনেট সেক্রেটারির নেতৃত্বাধীন চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের আপিল বিভাগ।

আপিল বিভাগে সিনেমাটি আটকে থাকা নিয়ে সম্প্রতি লেখালেখি করছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকীসহ দেশের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই। সোমবার সিনেমাটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার ফেসবুক পেজ থেকেও তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে পোস্ট করা হয়েছে খোলা চিঠি।

যার যার লেখায় সবাই সিনেমাটি কেন আপিল বোর্ডে আটকে আছে, কেন সেন্সর দেয়া হচ্ছে না, কী এমন সমস্যা আছে সিনেমায় তা জানতে চেয়েছেন। জাজ মাল্টিমিডিয়া তাদের ফেসবুকের লিখেছে, ‘আপনি (তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী) দেখলে এই সিনেমাটি অনায়েসে সেন্সর সার্টিফিকেট পেয়ে যাবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। চলচ্চিত্রের এই ক্রান্তি লগ্নে, সুবাতাস বইতে শুরু করেছে। সেই ধারাকে অব্যাহত রাখতে, সিনেমা হলে শনিবার বিকেল সিনেমাটি মুক্তি দেয়া আশু প্রয়োজন। মাননীয় তথ্য মন্ত্রী মহোদয়, শুধু তথ্য মন্ত্রী হিসাবেই নয়, একজন চলচ্চিত্র প্রেমী হিসেবে, বিষয়টি বিশেষ বিবেচনা করার আকুল আবেদন জানাচ্ছি।’

তিন বছর আগে শনিবার বিকেল এর পক্ষের উকিল হয়ে সিনেমাটি দেখেন মুক্তিযোদ্ধা, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু।

তিনি মঙ্গলবার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমি ফারুকীর সিনেমার পক্ষের উকিল হয়ে শনিবার বিকেল দেখি এবং আমি আমার বক্তব্য দেই।’

নাসির উদ্দীন ইউসুফের বক্তব্যকে সেন্সর বোর্ডের আপিল বিভাগ আমলে নিয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার বক্তব্যকে গুরুত্বের সঙ্গে নিলেও আপিল বিভাগ তাদের মতামত বা সিনেমাটি নিয়ে তাদের সিদ্ধান্ত জানাচ্ছে না।’

সিনেমাটিতে কী এমন আছে, কেনই বা সেন্সর বোর্ডের আপিল বিভাগ তাদের সিদ্ধান্ত জানাচ্ছে না বা সিদ্ধান্ত জানাতে দেরি করছে, এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাসির উদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু জানান, এ বিষয়টি তিনি বলতে পারবেন না।

বাংলাদেশ, ভারত ও জার্মানির যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত শনিবার বিকেল। প্রযোজনায় আরও আছে জাজ মাল্টিমিডিয়া ও ছবিয়াল এবং ভারতের শ্যাম সুন্দর দে।

এতে অভিনয় করেছেন অস্কার মনোনীত ওমর সিনেমার অভিনেতা ইয়াদ হুরানি, নুসরাত ইমরোজ তিশা, জাহিদ হাসান, ইরেশ জাকের, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়সহ অনেকে।

জানা যায়, গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে ঘটা ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে সিনেমাটি নির্মাণ করেছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। দেশে সিনেমাটি এখনও প্রদর্শিত না হলেও মিউনিখ, মস্কো, সিডনি, বুসান, প্যারিসের ভেসুল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে শনিবার বিকেল প্রদর্শিত হয়েছে এবং পুরস্কৃতও হয়েছে।

আরও পড়ুন:
‘প্রিয় রাষ্ট্র’র কাছে ফারুকীর প্রশ্ন

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
Sanjay Samaders Kolkata Cinema Maharat held

সঞ্জয় সমাদ্দারের কলকাতার সিনেমার মহরত অনুষ্ঠিত

সঞ্জয় সমাদ্দারের কলকাতার সিনেমার মহরত অনুষ্ঠিত সঞ্জয় সমাদ্দারের কলকাতার সিনেমা মানুষের মহরত অনুষ্ঠিত। ছবি: সংগৃহীত
সিনেমাটির গল্পও সঞ্জয় সমাদ্দারের লেখা। এর আগে তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মানুষ মূলত মানুষেরই গল্প। অন্যভাবে বলা যায় এটা ফেট অ্যান্ড ফাইটের গল্প।’

দুদিন আগেই জানা যায়, কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা জিৎকে নিয়ে সিনেমা পরিচালনা করতে যাচ্ছেন দেশের নামকরা নবীন নির্মাতা সঞ্জয় সমাদ্দার। সিনেমাটির নাম মানুষ

শুক্রবার কলকাতায় অনুষ্ঠিত হল সিনেমাটির মহরত পূজা। বিষয়টি হোয়াটসঅ্যাপে নিউজবাংলাকে নিজেই জানিয়েছেন নির্মাতা।

এ ছাড়া মহরতের বেশ কিছু ছবি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করে জিৎ লেখেন, ‘মানুষ-এর শুভ মহরত।’

মানুষ-এর শুটিং কবে নাগাদ শুরু হবে জানতে চাইলে সঞ্জয় বলেন, ‘চলতি মাসেই শুরু হওয়ার সম্বাবনা রয়েছে।’

সিনেমাটি ঘোষণার সময় নারী প্রধান চরিত্রের নাম না জানালেও এদিন নির্মাতা বলেন, ‘নায়িকা হিসেবে রয়েছেন সুস্মিতা চট্টোপাধ্যায়। আজ মহরতেও তিনি ছিলেন।’

সিনেমাটির গল্পও সঞ্জয় সমাদ্দারের লেখা। তা নিয়ে এর আগে তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মানুষ মূলত মানুষেরই গল্প। অন্যভাবে বলা যায় এটা ফেট অ্যান্ড ফাইটের গল্প।’

সঞ্জয় সমাদ্দারের কলকাতার সিনেমার মহরত অনুষ্ঠিত
সঞ্জয় সমাদ্দারের কলকাতার সিনেমা ‘মানুষ’-এর মহরত পূজা অনুষ্ঠিত। ছবি: সংগৃহীত

এর আগে সঞ্জয় জানান, এটি সম্পূর্ণ কলকাতার প্রোডাকশনের সিনেমা। জিৎ, গোপাল মান্দানি এবং অমিত জুমরানির প্রযোজনায় এটি নির্মিত হবে। তাই বাংলাদেশের কোনো অভিনয়শিল্পীকে এ সিনেমায় দেখা যাবে না।

আরও পড়ুন:
জীৎকে নিয়ে সঞ্জয় সমাদ্দারের সিনেমা ‘মানুষ’

মন্তব্য

বিনোদন
Indian cinema will come if everyone agrees Information Minister

সবার সম্মতি থাকলে ভারতীয় সিনেমা আসবে: তথ্যমন্ত্রী

সবার সম্মতি থাকলে ভারতীয় সিনেমা আসবে: তথ্যমন্ত্রী চট্টগ্রামে সিনেপ্লেক্স উদ্বোধন করেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ। ছবি: নিউজবাংলা
সিনেপ্লেক্সের উদ্বোধনকালে মন্ত্রীর পাশেই ছিলেন অভিনয়শিল্পী দম্পতি রাজ-পরী। তাদের উদ্দেশ করে মন্ত্রী বলেন, ‘এখানে রাজ-পরীকে দেখলাম। ওরা যদি রাজি হয়, ওদের কলিগরা যদি রাজি থাকে, তাহলে ভারতীয় সিনেমা আনতে আমার পক্ষ থেকেও কোনো আপত্তি নেই।’

সিনেমা সংশ্লিষ্ট সবার সম্মতি থাকলে বছরে ১০-১২টা ভারতীয় সিনেমা বাংলাদেশে আসতে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

শুকবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে চট্টগ্রাম শহরের চকবাজার এলাকায় (নবাব সিরাজ উদ্দিন রোড) বালি আর্কেড শপিং কমপ্লেক্সে স্টার সিনেপ্লেক্স উদ্বোধন কালে এ কথা বলেন তিনি।

সিনেপ্লেক্সে ভারতীয় সিনেমা প্রদর্শনের সুযোগ করে দেয়ার জন্য মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

উদ্বোধনকালে মন্ত্রীর পাশেই ছিলেন অভিনয়শিল্পী দম্পতি রাজ-পরী। তাদের উদ্দেশ করে মন্ত্রী বলেন, ‘এখানে রাজ-পরীকে দেখলাম। ওরা যদি রাজি হয়, ওদের কলিগরা যদি রাজি থাকে, তাহলে ভারতীয় সিনেমা আনতে আমার পক্ষ থেকেও কোনো আপত্তি নেই।’

মন্ত্রী জানান, বিনিময়ের মাধ্যমে ভারতীয় সিনেমা বাংলাদেশে আনার সুযোগ রয়েছে। তবে শিল্পী সমিতি, প্রযোজক সমিতি, পরিচালক সমিতি, প্রদর্শক সমিতি যদি আপত্তি না করে, তাহলে সরকারের কোনো আপত্তি থাকবে না।

নিজে ছোটবেলা থেকেই সাংস্কৃতিক কাজে যুক্ত ছিলেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘এখনও সুচিত্রা সেনের সিনেমা দেখলে চোখে পানি চলে আসে।’

বক্তব্যের শেষে তিনি সিনেপ্লেক্সের ১০০টি শাখা চালু করার প্রত্যাশার কথা জানান।

আরও পড়ুন:
সিনেপ্লেক্স উদ্বোধনে চট্টগ্রামে রাজ-পরী

মন্তব্য

বিনোদন
Damal in 25 US cities during Victory Month

বিজয়ের মাসে যুক্তরাষ্ট্রের ২৫ শহরে ‘দামাল’

বিজয়ের মাসে যুক্তরাষ্ট্রের ২৫ শহরে ‘দামাল’ দামাল সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত
বায়োস্কোপ ফিল্মসের সিইও রাজ হামিদ বলেন, ‘গত ১৮ নভেম্বর নিউ ইয়র্কের জ্যামাইকা মাল্টিপ্লেক্সে দামাল সিনেমার প্রিমিয়ার হয়। সেখানে সিনেমাটি দেখে উচ্ছ্বসিত দর্শক। বিজয়ের মাসে এই সিনেমাটি দ্বিতীয় ধাপে মুক্তি দিতে পেরে অন্য রকম ভালো লাগা কাজ করছে। এরই মধ্যে সিনেমা হলগুলোতে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। আশা করছি, এটি যুক্তরাষ্ট্রে আলোড়ন সৃষ্টি করবে।’

বিজয়ের মাসে যুক্তরাষ্ট্রে দ্বিতীয় ধাপে মুক্তি পাচ্ছে বহুল আলোচিত সিনেমা ‌দামাল। ‌স্বাধীন বাংলা ফুটবল টিমকে ঘিরে দামাল সিনেমার গল্প।

ফরিদুর রেজা সাগরের গল্পে সিনেমাটি নির্মাণ করেছেন রায়হান রাফি। সিনেমাটি যুক্তরাষ্ট্রে পরিবেশনার দায়িত্বে রয়েছে বায়োস্কোপ ফিল্মস।

শুক্রবার থেকে টেক্সাস, ফ্লোরিডা, ওহিও, কানেকটিকাট, ক্যালিফোর্নিয়া, মিশিগান, কানসাস, অ্যারিজোনা, নেভাদা, কলোরাডো, ওকলাহোমা, লুজিয়ানা ও ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের ২৫টি শহরে সিনেমাটি মুক্তি দিয়েছেন বলে জানালেন বায়োস্কোপ ফিল্মসের সিইও রাজ হামিদ।

তিনি বলেন, ‘গত ১৮ নভেম্বর নিউ ইয়র্কের জ্যামাইকা মাল্টিপ্লেক্সে দামাল সিনেমার প্রিমিয়ার হয়। সেখানে সিনেমাটি দেখে উচ্ছ্বসিত দর্শক। বিজয়ের মাসে এই সিনেমাটি দ্বিতীয় ধাপে মুক্তি দিতে পেরে অন্য রকম ভালো লাগা কাজ করছে। এরই মধ্যে সিনেমা হলগুলোতে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। আশা করছি এটি যুক্তরাষ্ট্রে আলোড়ন সৃষ্টি করবে।’

আগামী ৯ ডিসেম্বর তৃতীয় ধাপে ভার্জিনিয়া, ম্যারিল্যান্ড, বাল্টিমোর, নিউ জার্সি, লং বিচ, পোর্টল্যান্ড, আটলান্টা, শিকাগো, ইন্ডিয়াপোলিস, বার্মিংহাম, টাম্পাসহ ৩৪টি শহরে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া হবে।

আগামী দুই সপ্তাহে ৫৯টি হলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রবাসী বাঙালি দর্শক সিনেমাটি উপভোগ করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন বায়োস্কোপ ফিল্মসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবনা রশিদ।

গত ২৮ অক্টোবর বাংলাদেশে মুক্তি পায় সিনেমা দামাল। এতে অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ, শরীফুল রাজ ও বিদ্যা সিনহা মিম।

ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত তারকাবহুল এই সিনেমায় আরও অভিনয় করেছেন শাহনাজ সুমি, সুমিত, রাশেদ অপু, ইন্তেখাব দিনারসহ অনেকে।

আরও পড়ুন:
মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা মানুষ দেখছে, ব্যবসা করছে, এটাই পাওয়া: রাফি
প্রথম সপ্তাহে দামালের ব্যবসা ‘মোটামুটি’
দামাল: কোথাও ‘মোটামুটি’ কোথাও ‘হাউস ফুল’
২২ প্রেক্ষাগৃহে ‘দামাল’
‘জিদ আছে তো জিত আছে’

মন্তব্য

বিনোদন
Shahrukh thanks Saudi after shooting Dunky

ডাঙ্কি’র শুটিং শেষে সৌদিকে শাহরুখের ধন্যবাদ

ডাঙ্কি’র শুটিং শেষে সৌদিকে শাহরুখের ধন্যবাদ বলিউড কিং শাহরুখ খান। ছবি: সংগৃহীত
সম্প্রতি সিনেমাটির সৌদি আরবের শিডিউলের শুটিং শেষ করেছেন শাহরুখ। এক ভিডিও বার্তায় এ তথ্য নিজেই জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গে দেশটির আতিথেয়তায় মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন কিং খান।

দীর্ঘ বিরতির পর পর্দায় ফিরতে যাচ্ছেন বলিউড কিং শাহরুখ খান। একসঙ্গে তিনটি সিনেমার কাজ করছেন তিনি। এর মধ্যে অন্যতম খ্যাতিমান নির্মাতা রাজকুমার হিরানির পরিচালিত ডাঙ্কি

সম্প্রতি সিনেমাটির সৌদি আরবের শিডিউলের শুটিং শেষ করেছেন শাহরুখ। বুধবার এক ভিডিও বার্তায় এ তথ্য নিজেই জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গে দেশটির আতিথেয়তায় মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন কিং খান।

ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা সেই ভিডিওতে শাহরুখ বলেন, ‘সৌদিতে ডাঙ্কির শুটিং শিডিউল শেষ করার চেয়ে সন্তোষজনক আর কিছু নেই। সৌদির সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়কে বিশেষভাবে ধন্যবাদ, আমাদেরকে এমন বিশেষ দর্শনীয় স্থান, আশ্চর্যজনক ব্যবস্থা এবং উষ্ণ আতিথেয়তার জন্য। সবাইকে অনেক বড় শুকরান (ধন্যবাদ)।’

সঙ্গে সিনেমাটি পরিচালক রাজকুমার হিরানি ও কাস্টদেরও ধন্যবাদ জানান কিং খান।

View this post on Instagram

A post shared by Shah Rukh Khan (@iamsrk)

অভিবাসন নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ডাঙ্কি। এতে শাহরুখের সঙ্গে রয়েছেন তাপসী পান্নু।

সিনেমাটির প্রযোজক শাহরুখ পত্নী গৌরী খান। এর কাহিনি লিখেছেন অভিজাত জোশী, রাজকুমার হিরানি এবং কণিকা ধিলোন।

ডাঙ্কির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসে চলতি বছর এপ্রিলে, আগামী বছরের ২২ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে এটি।

আরও পড়ুন:
শাহরুখকে মুম্বাই বিমানবন্দরে থামিয়ে তল্লাশি
‘টাইগার থ্রি’তে দেখা দেবেন ‘পাঠান’
শাহরুখের ‘জওয়ান’-এর বিরুদ্ধে গল্প চুরির অভিযোগ
এবারও বুর্জ খলিফায় ভেসে উঠলেন শাহরুখ  
ভালোবাসার সমুদ্রে বেঁচে থাকাটা সুন্দর: শাহরুখ

মন্তব্য

বিনোদন
New Feluda is coming back on screen with new Jatayu Topse

নতুন জটায়ু-তোপসেকে নিয়ে পর্দায় ফিরছেন নতুন ফেলুদা

নতুন জটায়ু-তোপসেকে নিয়ে পর্দায় ফিরছেন নতুন ফেলুদা ফেলুদা চরিত্র ইন্দ্রনীল, পেছনে বসে আছেন জটায়ু ও তোপসে চরিত্রের অভিনেতা। ছবি: ট্রেইলার থেকে নেয়া
সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন সন্দীপ রায়। সিনেমাটির কাস্টিং নিয়ে দর্শকদের মধ্যে ছিল মিশ্র প্রতিক্রিয়া। কারও পছন্দ হলেও চরিত্রাভিনেতাদের পছন্দ হয়নি অনেকেরই।

ছয় বছর পর বড় পর্দায় ফিরছে ফেলুদা। নতুন সিনেমাটির নাম হত্যাপুরী। গত ৩০ নভেম্বর প্রকাশ পেয়েছে সিনেমার ট্রেইলার।

সেখানে পাওয়া গেল নতুন ফেলুদাকে। হত্যাপুরী সিনেমায় ফেলুদা চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত। বাংলা গোয়েন্দাগল্পের আইকনিক এই চরিত্রটিতে এবারই প্রথম অভিনয় করছেন তিনি।

শুধু ফেলুদা নয় পাল্টে গেছে জটায়ু, তোপসেও। জটায়ু চরিত্রে অভিজিত গুহ এবং তোপসে চরিত্রে অভিনয় করেছেন আয়ুষ দাস। একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আছেন পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন সন্দীপ রায়। সিনেমাটির কাস্টিং নিয়ে দর্শকদের মধ্যে ছিল মিশ্র প্রতিক্রিয়া। কারও পছন্দ হলেও চরিত্রাভিনেতাদের পছন্দ হয়নি অনেকেরই।

এ নিয়ে নির্মাতা সন্দীপ রায় ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘এই ফেলুদা অ্যান্ড কোম্পানি আমার তো দারুণ লেগেছে। জমজমাট টিমের জমজমাট ছবি। আশা করি ফেলুদা ভক্তদের ভালো লাগবে। তারা ভালোভাবেই গ্রহণ করবেন এই ছবি। টিজারের ফিডব্যাক তো ভালোই পেয়েছি, এখন দেখা যাক ট্রেইলার দেখে কেমন প্রতিক্রিয়া আসে।’

২৩ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে হত্যাপুরী সিনেমা। পুরীতে হবে এবার রহস্যের সমাধান।

আরও পড়ুন:
চলচ্চিত্রকে সময়োপযোগী করতে ‘ক্রিয়েটিভ সামিট’-এর উদ্যোগ
সিনেমা-সংকটে সাময়িক বন্ধ হচ্ছে ‘মধুমিতা’
দৃশ্য কাটার শর্তে ‘জয়ল্যান্ড’-এর নিষেধাজ্ঞা তুলল পাকিস্তান
রাহেলা-সালেহা চরিত্র যুদ্ধে নারীদের ওপর নৃশংসতার প্রতিফলন
আইএফএফআই’র প্রতিযোগিতায় দেশের একটিসহ তিন সিনেমা

মন্তব্য

বিনোদন
Nisho director Rafi is coming to the big screen

বড় পর্দায় আসছেন নিশো, পরিচালক রাফি

বড় পর্দায় আসছেন নিশো, পরিচালক রাফি অভিনেতা আফরান নিশো (বাঁয়ে) এবং পরিচালক রায়হান রাফি (ডানে)। ছবি: সংগৃহীত
অভিনেতা নিশো আরও বলেন, ‘স্ক্রিপ্ট, গল্প, শুটিং সবকিছু খুব ভালোভাবে হলে একটা ভালো কাজ আমরা দিতে পারবো। আমাদের ডেডিকেশন, মেধা, একাগ্রতা নিয়ে যদি আমরা চেষ্টা করি তাহলে কাজটা বৃথা যাবে না।’

বড় পর্দায় কবে আসবেন নিশো? এ প্রশ্ন গত কয়েক বছরে অসংখ্যবার শুনতে হয়েছে জনপ্রিয় অভিনেতা নিশোর। উত্তরে নিশো সব সময় প্রস্তুতির কথা বলে এসেছেন। এবার সেই প্রস্তুতি নেয়া শেষ হয়েছে, বড় পর্দায় আসতে প্রস্তুত নিশো।

বড় পর্দায় নিশোর অভিষেক হবে পরাণ খ্যাত পরিচালক রায়হান রাফির হাত ধরে। নিশোকে নিয়ে সুড়ঙ্গ নামের সিনেমাটি নির্মাণ করবেন রাফি।

বুধবার রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম চরকি। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় প্রথমবারের মতো ওটিটি প্ল্যাটফর্ম চরকি ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আলফা আই স্টুডিওজ লি: এর যৌথ প্রযোজনায় প্রেক্ষাগৃহে আসতে যাচ্ছে সুড়ঙ্গ সিনেমাটি।

রায়হান রাফি পরিচালিত সিনেমাটিতে নিশোর বিপরীতে থাকছেন অভিনেত্রী তমা মির্জা। সিনেমাটির চিত্রধারণ দ্রুতই শুরু হবে বলে জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। আগামী বছরের কোনো একটা ঈদে সিনেমাটি মুক্তি পাবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিজ্ঞপ্তিতে আফরান নিশো বলেন, ‘আমরা খুব ক্যাজুয়ালি কাজটার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়নি। আমরা বিভিন্ন সেক্টরের কিছু মানুষ এক হয়েছি একটা ভালো কাজ করার জন্য। এর আগেও আমাদের মধ্যে বন্ধুত্ব ছিল, পরিচয় ছিল, কেউ কেউ এক সঙ্গে কাজ করেছি আবার কেউ কোনো কাজ করিনি।

‘বড় পর্দার জন্য আমার প্রথম চুক্তিবদ্ধ হওয়া। আলফা আইয়ের শাকিলের জন্যও এটা প্রথম কোনো বড় পর্দার কাজ। চরকি এর আগেও প্রেক্ষাগৃহে সিনেমা মুক্তি দিয়েছে তবে যৌথভাবে কোনো সিনেমার জন্য এই প্রথম। অঙ্কটা মেলাতে চাই এভাবে- আমি, আলফা আই, চরকি, রাফি, তমা সবাই একত্রিত হয়েছি বিগ স্ক্রিনের জন্য।’

অভিনেতা নিশো আরও বলেন, ‘স্ক্রিপ্ট, গল্প, শুটিং সবকিছু খুব ভালোভাবে হলে একটা ভালো কাজ আমরা দিতে পারবো। আমাদের ডেডিকেশন, মেধা, একাগ্রতা নিয়ে যদি আমরা চেষ্টা করি তাহলে কাজটা বৃথা যাবে না।’

চিত্রনায়িকা তমা মির্জা বলেন, ‘করোনার পরে আবার বড় পর্দার জন্য কাজ করতে যাওয়াটা আনন্দের। সেই সঙ্গে আমার সব থেকে কাছের মানুষ ও বন্ধু রাফির সঙ্গে কাজ করাটাও আমার প্রাপ্তি।

‘আর শুধু তো রাফি, আমি না, নিশো ভাইয়ের মত কো-আর্টিস্ট! এটা চিন্তাই করা যায় না। অনেকের ড্রিম থাকে নিশো ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করার। তো সে জায়গা থেকে নিশো ভাইয়ের সঙ্গে বড় পর্দায় কাজ করার এবং তার ফার্স্ট মুভিতে তার সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করা, আমি মনে করি এটা আমার জন্য অনেক বড় একটা ব্লেসিংস।’

পরিচালক রায়হান রাফি বলেন, ‘সুড়ঙ্গ আমার আরেকটা বড় ও স্বপ্নের কাজ হতে যাচ্ছে। এটার গল্প আমি বেশ আগে ভেবেছিলাম। চরকিকে প্রথম থেকেই আমি বলেছি যে সুড়ঙ্গ বড় পর্দার জন্যই আমি বানাতে চাই। ধীরে ধীরে যুক্ত হলেন শাহরিয়ার শাকিল। নিশো ভাইকে বছর খানেক আগে আমি গল্পটা শুনিয়েছিলাম। উনি শুনে পছন্দ করেন। সেই সঙ্গে যুক্ত হলেন তমা মির্জা। কাজটা নিয়ে এখন আমরা পরিকল্পনা করছি, জলদি শুটিং শুরু হবে।’

আলফা আই স্টুডিওজ লি: এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার শাকিল বলেন, ‘সুড়ঙ্গ আমার জন্য এটা একটা বড় ঘটনা। রায়হান রাফির পরিচালনা, নিশোর প্রথম সিনেমা সেই সঙ্গে তমা মির্জা, দুর্দান্ত একটা প্যাকেজ হবে সিনেমাটি। দর্শকেরও উত্তেজনা তুঙ্গে থাকবে। কারণ অনেকগুলো ব্যাপার একসঙ্গে ঘটতে যাচ্ছে। আমি তো এক্সাইটেড, এর পাশাপাশি রেসপন্সিবিলিটি বেশি মনে হচ্ছে। সব মিলিয়ে সিনেমাটা ঠিকঠাক তৈরি করা এবং দর্শকের কাছে পৌঁছে দেয়া একটা দায়িত্বের জায়গায় চলে গেছে।’

চরকির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা রেদওয়ান রনি বলেন, ‘চরকি বাংলদেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির জন্য একটা বড় উদ্যোগ নিয়েছে। চরকি প্রতিবছর বড় সিনেমা প্রযোজনার সঙ্গে যুক্ত থাকবে। সেই ধারাবাহিকতায় সুড়ঙ্গ এর সঙ্গে চরকির যুক্ত হওয়া।’

মন্তব্য

বিনোদন
Sanjay Samdars film Manoor on Jeet

জীৎকে নিয়ে সঞ্জয় সমাদ্দারের সিনেমা ‘মানুষ’

জীৎকে নিয়ে সঞ্জয় সমাদ্দারের সিনেমা ‘মানুষ’ জীতকে নিয়ে সঞ্জয় সমদ্দরের সিনেমা ‘মানুষ’। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
সঞ্জয় জানান, এটি সম্পূর্ণ কলকাতার প্রোডাকশনের সিনেমা। জীৎ, গোপাল মান্দানি এবং অমিত জুমরানির প্রযোজনায় এটি নির্মিত হবে।

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা জীৎকে নিয়ে সিনেমা পরিচালনা করতে যাচ্ছেন দেশের নামকরা নবীন নির্মাতা সঞ্জয় সমাদ্দার। সিনেমাটির নাম মানুষ। সিনেমাটির গল্পও তার।

বুধবার সন্ধ্যায় নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পরিচালক নিজেই।

সঞ্জয় নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মানুষ মূলত মানুষেরই গল্প। অন্যভাবে বলা যায় এটা ফেট অ্যান্ড ফাইটের গল্প।’

সিনেমায় জীৎ ছাড়াও অভিনয় করবেন জিতু কমল। সিনেমার শুটিং কবে হবে সেটা এখনও চূড়ান্ত না বলে জানান সঞ্জয়। সিনেমায় কোন অভিনেত্রী অভিনয় করবেন তা এখনই জানাতে চাননি তিনি।

সঞ্জয় জানান, এটি সম্পূর্ণ কলকাতার প্রোডাকশনের সিনেমা। জীৎ, গোপাল মান্দানি এবং অমিত জুমরানির প্রযোজনায় এটি নির্মিত হবে। তাই বাংলাদেশের কোনো অভিনয়শিল্পীকে এ সিনেমায় দেখা যাবে না।

বুধবার সন্ধ্যায় জিৎ তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে সিনেমাটির টাইটেল পোস্টার শেয়ার করেছেন। যার ক্যাপশনে লেখা, ‘যখন পশু হয়ে যায়’।

মন্তব্য

p
উপরে