× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট

বিনোদন
The movie will be promoted in the city of Ananta Barsha Kan with Avi Ash
hear-news
player
print-icon

অভি-অ্যাশের সঙ্গে অনন্ত-বর্ষা, কান শহরে হবে সিনেমার প্রচার

অভি-অ্যাশের-সঙ্গে-অনন্ত-বর্ষা-কান-শহরে-হবে-সিনেমার-প্রচার
অভি-অ্যাশের সঙ্গে অনন্ত-বর্ষা (বাঁয়ে), ডানে অনন্ত-বর্ষা। ছবি: সংগৃহীত
১৬ মে অনন্ত তার পেজে একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশের মাধ্যমে জানান, অনন্ত ও বর্ষা কান চলচ্চিত্র উৎসবে যাচ্ছেন এবং সেখানে তারা তাদের দিন- দ্য ডে এবং নেত্রী- দ্য লিডার সিনেমার ট্রেলার দেখাবেন।

বিশ্ব চলচ্চিত্রের মর্যাদাপূর্ণ আসর কান চলচ্চিত্র উৎসবে গিয়েছেন দেশের ‘পাওয়ার কাপল’ খ্যাত অনন্ত জলিল ও বর্ষা দম্পতি। সেখানে গিয়ে তাদের দেখা হয়েছে বলিউডের আরেক ‘পাওয়ার কাপল’ অভিষেক বচ্চন ও ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের সঙ্গে।

বুধবার দুপুরে অনন্ত তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে অভি-অ্যাশের সঙ্গে দুটি ছবি পোস্ট করেছেন। ছবির ক্যাপশনে লেখা, ‘একসঙ্গে ঢালিউড ও বলিউড তারকারা। ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও অভিষেক বচ্চনের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন অনন্ত জলিল ও খাদিজা পারভিন বর্ষা।’

এর আগে একই পেজে আরেকটি ভিডিও প্রকাশ করেন অনন্ত। সেখানে দেখা যায় লাল গাউনে বর্ষা এবং স্যুটেড-বুটেড অনন্ত। তারা হেঁটে যাচ্ছেন কোথাও। তাদের ছবি তুলতে ব্যস্ত আলোকচিত্রীরা।

১৬ মে অনন্ত তার পেজে একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশের মাধ্যমে জানান, অনন্ত ও বর্ষা কান চলচ্চিত্র উৎসবে যাচ্ছেন এবং সেখানে তারা তাদের দিন- দ্য ডে এবং নেত্রী- দ্য লিডার সিনেমার ট্রেলার দেখাবেন। সিনেমা ডিস্ট্রিবিউটরদের সঙ্গে সিনেমাটি নিয়ে কথা বলার চেষ্টাও করবেন তারা। তবে এ সবই হবে কান চলচ্চিত্র উৎসবের আনুষ্ঠানিকতার বাইরে।

যেহেতু কান চলচ্চিত্র উৎসব উপলক্ষে সেখানে সিনেমাসংশ্লিষ্টদের সমাগম হয়, তাই সেখানে উৎসবের মূল আয়োজনের বাইরেও সিনেমা হল ও সিনেমা ব্যবসায়ীদের আনাগোনা থাকে। কারও সঙ্গে আগে থেকে মিটিং সেট করা থাকলে খুব সহজেই সিনেমার ব্যবসাসংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পাওয়া যায়।

উৎসবের বাইরে থিয়েটার ভাড়া পাওয়া যায়। চাইলে সেখানে সিনেমা বা ট্রেলার দেখানোর সুযোগ রয়েছে। এর আগে অনন্ত তার সিনেমা এ প্রক্রিয়াতে প্রদর্শনও করেছেন।

অনন্ত-বর্ষা জুটির দিন- দ্য ডে সিনেমাটি মুক্তি পাবে কোরবানির ঈদে। সে প্রস্তুতিও রাখছেন তারা।

আরও পড়ুন:
বর্ষাকে খুব আদরে রাখার প্রতিশ্রুতি অনন্তর
টেনশনে আছি, মানুষ যেন ট্রল না করে: অনন্ত
অনন্ত-বর্ষার শুটিং স্পটে
দ্বিতীয় ধাপে শুরু ‘নেত্রী: দ্য লিডার’ সিনেমার শুটিং

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
Jazz in a big announcement without fulfilling the previous announcement

আগের ঘোষণা পূর্ণ না করে বড় ঘোষণায় জাজ

আগের ঘোষণা পূর্ণ না করে বড় ঘোষণায় জাজ আগের ঘোষণা পূর্ণ না করে বড় ঘোষণায় জাজ। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
আগের ঘোষণা দেয়া বেশ কিছু কাজের অনেকগুলোই এখনও শুরুই হয়নি। প্রতিষ্ঠান থেকে জানানো হয়েছে, ২০২৩ সালের ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাবে সিনেমাটি। চলতি বছরের ডিসেম্বরে শুরু হবে শুটিং। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় নির্মিত হবে অগ্নি-৩।

বেশ কয়েকটি সিনেমার ঘোষণা দিয়ে রেখেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। সেগুলো শেষ না করেই বড় আয়োজনের সিনেমা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি থেকে মোনা, অনুপাপ, পাপ, বারুদ, খোঁজ, রাস্তা নামের কয়েকটি সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা ও কাজের কথা বললেও তার অধিকাংশই শেষ হয়নি এখনও।

এর মধ্যেই জানা গেছে অগ্নি সিরিজের অগ্নি-৩ সিনেমাটি নির্মাণ করতে চাইছে প্রতিষ্ঠানটি। শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার আব্দুল আজিজ নিউজবাংলাকে জানান, এমআর-নাইন সিনেমাটির কাজ শেষ হয়েছে, এখন তারা অগ্নি ৩ সিনেমাটির কাজ শুরু করতে চায় এবং দেশের বাইরের শিল্পী-কলাকুশলীকে দিয়ে সিনেমাটির করতে চান তারা।

প্রতিষ্ঠান থেকে জানানো হয়েছে, ২০২৩ সালের ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাবে সিনেমাটি। চলতি বছরের ডিসেম্বরে শুরু হবে শুটিং। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় নির্মিত হবে অগ্নি-৩

আব্দুল আজিজের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল আগের ঘোষণা দেয়া বেশ কিছু কাজের অনেকগুলোই এখনও শুরুই হয়নি।

মোনা নামের সিনেমাটির কাজ শেষ হয়েছে; ডাবিং, এডিটিংও শেষ। অনুপাপ সিনেমার কাজ এখনও শুরু হয়নি। পাপ সিনেমাটির শুটিং শুক্রবার শেষ হওয়ার কথা বলে জানান আব্দুল আজিজ।

আজিজ আরও জানান, বারুদ সিনেমাটি শুরু করা যাচ্ছে না, কারণ পরিচালক সৈকত নাসির অন্য সিনেমার কাজে ব্যস্ত। সেগুলো শেষ হলে তিনি বারুদ সিনেমার কাজ ধরবেন। খোঁজ সিনেমাটি সেপ্টেম্বরে শুরু হওয়ার কথা। এটি পরিচালনা করবেন সিদ্দিক আহমেদ।

আর রাস্তা সিনেমার কাজও এখনও শুরু হয়নি, আরও কিছু কাজ বাকি আছে; বিষয়টি পরিচালক রায়হান রাফি ভালো জানেন বলে জানান আজিজ।

এই কাজগুলোর একটিও এখনও দেখল না আলোর মুখ, তবু কেন বড় আয়োজনের সিনেমার ঘোষণা দিল জাজ- জানতে চাইলে আজিজ বলেন, ‘এগুলো সবই পরিকল্পনার অংশ। সব ঠিক করা আছে, সময়মতো সব হয়ে যাবে। তা ছাড়া কাজ তো করে যেতে হবে। বড় কাজে বড় পরিকল্পনা করতে হয়, অনেক দিন ধরে পরিকল্পনা করতে হয়।’

আগে ঘোষণা দেয়া সিনেমাগুলোর কোনটি কবে মুক্তি পেতে পারে তারও কোনো সময় নির্ধারণ করতে পারেনি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি।

আরও পড়ুন:
টিজারে এলো ফ্রান্সে ঘটা মুক্তিযুদ্ধকেন্দ্রিক সত্য ঘটনা
সৌদিতে সিনেমা বানানোর খরচের অর্ধেক দেবে সরকার
এখনও বাস চালান ‘কেজিএফ’ খ্যাত যশের বাবা
সেলিম-চঞ্চল নাম শুনেই বিক্রি হয়ে গেছি: সিয়াম
বিনিয়োগকারীরা কেন মাল্টিপ্লেক্সে ঝুঁকছেন

মন্তব্য

বিনোদন
The release of the thrilling trailer of One Villain Returns

‘এক ভিলেন রিটার্নস’-এর রোমাঞ্চকর ট্রেইলার প্রকাশ

‘এক ভিলেন রিটার্নস’-এর রোমাঞ্চকর ট্রেইলার প্রকাশ এক ভিলেন রিটার্নস-এর পোস্টারে জন-দিশা ও অর্জুন-তারা সুতারিয়া। ছবি: সংগৃহীত
এক ভিলেন রিটার্নস নিয়ে পরিচালক মোহিত সুরি বলেছিলেন, ‘এক ভিলেন ছিল আমার প্যাশন প্রজেক্ট এবং ভালোবাসার শ্রম। এক ভিলেনের জন্য আমি এখনও যে ধরনের ভালোবাসা পাই তা আমাকে অভিভূত করে। আমি নিশ্চিত এক ভিলেন রিটার্নস-এর সঙ্গে প্রেম আরও বাড়তে চলেছে।’

দীর্ঘ ৮ বছর পর আসতে যাচ্ছে বলিউডের তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া সিনেমা এক ভিলেন-এর সিক্যুয়াল এক ভিলেন রিটার্নস

জন আব্রাহাম, অর্জুন কাপুর, দিশা পাটানি ও তারা সুতারিয়া অভিনীত এই সিনেমাটির ট্রেইলার প্রকাশ পেল বৃহস্পতিবার।

ট্রেইলারটি একধরনের রহস্য উদ্রেক করে, যেখানে দর্শকদের অন্ধকারে রাখা হয়েছে যে আসল ভিলেন কে।

এক ভিলেন-এ ঘটে যাওয়া খলনায়কের একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ শুরু হয়েছে এক ভিলেন রিটার্নস-এর ট্রেইলার।

কাহিনি শেষ নয়, ৮ সাল পরে আবার ফিরে এসেছে আরেক ভিলেন। খুন করা যে ভিলেনের রোগ। যিনি শুধু ওইসব নারীকে টার্গেট করেন, যাদের এক তরফা প্রেম কাহিনি। আর হৃদয় ভাঙা প্রেমিকদের হাতিয়ার হতে চান তিনি।

কিছু একটা কানেকশন রয়েছে এইসব এক তরফা প্রেমকাহিনি ও তার প্রেমকাহিনির মধ্যে। এমন কাহিনিতে বলা মুশকিল কে হিরো কে ভিলেন।

ট্রেইলারে জন ও অর্জুনের মধ্যে লড়াই করতে দেখা গেছে। দিশা ও তারা সুতারিয়াকেও একধরনের খল চরিত্রে দেখা গেছে।

ট্রেইলারে ‘গালিয়ান’ গানের একটি রিপ্রাইজড সংস্করণও রয়েছে। এক ভিলেনের এই গানটি সে সময় বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল।

আগামী ২৯ জুলাই মুক্তি পেতে যাচ্ছে এক ভিলেন রিটার্নস

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর আগে এক ভিলেন রিটার্নস নিয়ে পরিচালক মোহিত সুরি বলেছিলেন, ‘এক ভিলেন ছিল আমার প্যাশন প্রজেক্ট এবং ভালোবাসার শ্রম। এক ভিলেনের জন্য আমি এখনও যে ধরনের ভালোবাসা পাই তা আমাকে অভিভূত করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি নিশ্চিত এক ভিলেন রিটার্নস-এর সঙ্গে প্রেম আরও বাড়তে চলেছে। যদিও আমি সিনেমাটি নিয়ে এখনই অনেক কিছু প্রকাশ করতে পারছি না, তবে আমি নিশ্চিত করতে পারি যে এটি একটি রোমাঞ্চকর রোলারকোস্টার রাইড হতে চলেছে।’

২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া এক ভিলেনে ছিলেন সিদ্ধার্থ মালহোত্রা, শ্রদ্ধা কাপুর এবং রিতেশ দেশমুখ।

মন্তব্য

বিনোদন
Where is the difference? Which is what the director of Heechee Bangladesh said

ভিন্নতা কই? যা বললেন হইচই বাংলাদেশের পরিচালক

ভিন্নতা কই? যা বললেন হইচই বাংলাদেশের পরিচালক হইচইতে মুক্তি পাওয়া কনটেন্টের পোস্টারের কোলাজ (বাঁয়ে), ডানে হইচই বাংলাদেশের পরিচালক সাকিব আর খান। ছবি: সংগৃহীত
গল্পকে গুরুত্ব দিয়ে সাকিব বলেন, ‘আমি তো কাজ করব গল্প আমাকে দেয়া হলে। গল্পের একটা বিশাল গ্যাপ আমাদের এখানে আছে। আমার কাছে তো প্রোপোজাল আসতে হবে। আমাদের প্রোডিউসারের অভাব রয়েছে। আপনি দেখেন, ঘুরেফিরে ওই আশফাক নিপুন, সাওকিদের দিয়ে কাজ করাতে হচ্ছে।’

ভারতীয় ওভার দ্য টপ (ওটিটি) প্ল্যাটফর্ম হইচই বাংলাদেশে কাজ শুরু করার পর বেশ কিছু কনটেন্ট পেয়েছে দর্শকপ্রিয়তা। এর মধ্যে তাকদীর, মহানগর। দুটি ওয়েব সিরিজের গল্পই রহস্য ও থ্রিলার ঘরানার। এগুলো প্রকাশের পর থেকে হইচইতে বাংলাদেশ থেকে শুধু যেন থ্রিলার গল্পই বেশি প্রাধান্য পাচ্ছে বলে মনে করছেন এ দেশের ওটিটি দর্শকরা।

তাদের মতে, এখানে নেই রুদ্রবীণার অভিশাপ-এর মতো কোনো মিউজিক্যাল কনটেন্ট, নেই একেন বাবুর মতো মজার গোয়েন্দা, নেই মুখ্যমন্ত্রীর মতো কোনো তথ্যচিত্র, সেই অর্থে নেই কোনো রোমান্টিক বা সামাজিক গল্পের কনটেন্ট। অর্থাৎ বিভিন্ন ঘরানার গল্প খুঁজে পাচ্ছেন না দর্শকরা।

দর্শকদের এমন অভিযোগ পুরোপুরি মানতে নারাজ হইচই বাংলাদেশের পরিচালক সাকিব আর খান। তিনি নিউজবাংলাকে জানান, কনটেন্টের ভিন্নতা নেই বিষয়টা ঠিক নয়।

তিনি বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় এই ধারণা ঠিক না। বলি টোটালি ডিফরেন্ট ওয়েস্টার্ন কনটেন্ট ছিল। আমরা চেষ্টা করছি। আমরা সাবরিনা করেছি সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে। নারীদের কিছু সমস্যা নিয়ে কাজটি হয়েছে। আমরা দৌড় করেছি আরেকটা ভিন্ন প্রেক্ষাপট থেকে। একটা মানুষের একাধিক চেহারা। সে বাসায় এক রকম- স্ত্রী, বাচ্চাকে সে অনেক ভালোবাসে কিন্তু কর্মক্ষেত্রে আরেক রকম। সেখানে তার ভাষা ও চেহারা অন্যরকম। রিফিউজি টোটালি ভিন্ন একটি জনরা থেকে করা হয়েছে। একসময় আমরা কষ্টনীড় করেছি। যারা আমাদের পরিচিত কিন্তু অজানা জীবনধারা। সো আমি বলব আমরা নানা রকম কাজ করার চেষ্টা করছি।’

সাকিব যে কনটেন্টগুলোর কথা বলেছেন, সেগুলোর মধ্যে ওয়েব সিরিজ বলি বাদে সবগুলোতে ইনভেস্টিগেশন ব্যাপারটি ছিল গুরুত্বের সঙ্গে। অধিকাংশ কনটেন্টেই তদন্ত, পুলিশ ইনভেস্টিগেশন বিষয়টি কেন এসেছে জানতে চাইলে সাকিব জানান, এটা করতে হয় ব্যবসার জন্য।

তিনি বলেন, ‘দিন শেষে ওইটা আমাকে বিজনেস দেয়। বিজনেস ইমপরটেন্ট। একটা বড় বিনিয়োগ আছে এখানে। কনটেন্টের নাম বলছি না, কিন্তু যখনই এগুলোর বাইরে কোনো কাজ করেছি তখন দর্শকরা আর সেটা নেয়নি।’

সাকিব জানান, এ দেশের দর্শকরা এখনও স্টার কাস্ট চান। স্টার কাস্ট না হলে দর্শকরা কনটেন্ট দেখতে চান না।

সাকিব বলেন, ‘মোশাররফ করিম বা চঞ্চল চৌধুরীর মতো কাস্ট যখন থাকে, তখন কনটেন্টের ভ্যালু এমনিতেই বেড়ে যায়। কাইজার কনটেন্টে আফরান নিশো আছেন। এই কনটেন্ট নিয়ে দর্শকের যে রেসপন্স, সেটাও তো আমাদের গুরুত্ব দিতে হবে।’

কিন্তু এখানেও আছে সমস্যা, সব কনটেন্ট তো আর মোশাররফ করিম বা চঞ্চল চৌধুরী বা নিশোকে নিয়ে করা সম্ভব না। আবার চাইলেও অনেক কিছু করা যায় না বলেও জানান সাকিব আর খান।

গল্পকে গুরুত্ব দিয়ে সাকিব বলেন, ‘আমি তো কাজ করব গল্প আমাকে দেয়া হলে। গল্পের একটা বিশাল গ্যাপ আমাদের এখানে আছে। আমার কাছে তো প্রোপোজাল আসতে হবে। আমাদের প্রোডিউসারের অভাব রয়েছে। আপনি দেখেন, ঘুরেফিরে ওই আশফাক নিপুন, সাওকিদের দিয়ে কাজ করাতে হচ্ছে।’

দর্শকদের ফ্রি কনটেন্ট দেখার অভ্যাসটাও রয়ে গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের দর্শকদের ফ্রি কনটেন্ট দেখে দেখে যে অভ্যাস হয়েছে, সেই অভ্যাসটা সহজে বদলাবে না। আমার তো সাবস্ক্রিপশন মডেল। টাকা দিয়ে কনটেন্ট দেখব, এই চিন্তাটা, ভাবনাটা আসছে না। ভারতে আছে ২০ লাখ সাবস্ক্রাইবার, ওখানে যেটাই দেন, একরকম দর্শক পাওয়া যায়। আমি তো সে পর্যায়ে এখনও যাই নাই।’

হইচই বাংলাদেশের সাবস্ক্রিপশন প্যাকেজ নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করেছেন সাকিব আর খান।

তিনি বলেন, ‘৫০০ টাকায় এক বছরের কমিটমেন্টে যাওয়া, এটা আমাদের প্রতিদিনের যুদ্ধ। ধরেন, একজন হইচই সাবস্ক্রাইবার একটি কনটেন্ট দেখছেন, তার সঙ্গে তার আরও দুই-তিনজন বন্ধুও দেখছেন। তাহলে কী হলো, কনটেন্ট দেখলেন চারজন, কিন্তু আমি টাকা পেলাম একজন সাবস্ক্রাইবারের। আমাদের একটি প্রজেক্ট ৮০-৯০ লাখ টাকা, তাহলে হিসাব করে দেখেন কত সাবস্ক্রাইবার লাগবে এই টাকা তুলে আনতে। আরেকটা বিষয়, যিনি আজকে সাবস্ক্রাইব করছেন তার জন্য কিন্তু আগামী ১১ মাসের কনটেন্ট একেবারে ফ্রি। আমি কিন্তু প্রতি কনটেন্টের জন্য টাকা নিচ্ছি না, আমি এক বছরের সাবস্ক্রিপশন ফি নিচ্ছি। এই পেইনগুলো নিয়ে লেখালেখি হয় না।’

সীমাবদ্ধতার কথা উল্লেখ করে সাকিব বলেন, ‘আমার পপুলার জনরাতে হিট করতে হয় বারবার। থ্রিলার করা হচ্ছে কারণ ওইটা মানুষ দেখে, ব্যবসার জায়গাটাও দেখতে হবে আমাকে। তা না হলে কতদিন শুধু শুধু কাজ করা যাবে। একসময় দেখা যাবে আগ্রহ হারিয়ে গেছে, বাংলাদেশে বিজনেস বন্ধ।’

ওটিটি নীতিমালাও একটা সমস্যা করতে পারে বলে ধারণা এ পরিচালকের। সাকিব আর খান আশাবাদ ব্যক্ত করে জানান, কনটেন্টের ভিন্নতা নিয়ে দর্শকদের যে অভিযোগ বা কথা, সেটা চলতি বছরে আর থাকবে না। একটু অপেক্ষা করতে হবে সে জন্য।

বেশ ভেবে কাজ করতে হয় উল্লেখ করে সাকিব আর খান বলেন, ‘ভারতে টানা ৫টা কনটেন্ট ফ্লপ করলে অসুবিধা নেই, ৬ নম্বরে টাকা তুলে ফেলতে পারে। কিন্তু আমার পরপর দুটি কনটেন্ট ফ্লপ করলে অসুবিধা আছে।’

আরও পড়ুন:
হইচইয়ের পঞ্চম বছরে দেশের ৫ অরিজিনাল

মন্তব্য

বিনোদন
In the Black War the national crisis will come on a larger scale

‘ব্ল্যাক ওয়ার’-এ ন্যাশনাল ক্রাইসিস আসবে আরও বড় আকারে

‘ব্ল্যাক ওয়ার’-এ ন্যাশনাল ক্রাইসিস আসবে আরও বড় আকারে ‘ব্ল্যাক ওয়ার’ সিনেমার পোস্টার। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
পোস্টারে থাকা সিনেমার চরিত্রগুলোর হাতে দেখা যাচ্ছে মারোণাস্ত্র। এবার সিনেমায় যুদ্ধের ডামাডোল থাকবে কি না জানতে চাইলে ফয়সাল বলেন, ‘এবারের পর্বে থাকবে টানটান উত্তেজনা আর অ্যাকশন।’

মিশন এক্সট্রিম সিনেমার দ্বিতীয় কিস্তির নাম হবে মিশন এক্সট্রিম ২, এমনটাই ধারণা ছিল সবার। কিন্তু না, সিনেমাটির নাম দেয়া হয়েছে ব্ল্যাক ওয়ার: মিশন এক্সট্রিম ২

এর কারণ জানিয়ে সিনেমার অন্যতম পরিচালক ফয়সাল আহমেদ নিউজবাংলাকে জানান, মিশন এক্সট্রিম যেখানে শেষ হয়েছে ব্ল্যাক ওয়ার: মিশন এক্সট্রিম ২ সেটারই কনটিনিউয়েশন।

তিনি বলেন, ‘ন্যাশনাল ক্রাইসিসটাই আরও বড় করে ধরা দেবে এ সিনেমায়। সিনেমার গল্পের যে ঢং, সেটার সঙ্গে ব্ল্যাক ওয়ার শব্দটাই ভালো যায়। এর বেশি এখন বলতে পারছি না।’

পোস্টারে থাকা সিনেমার চরিত্রগুলোর হাতে দেখা যাচ্ছে মারোণাস্ত্র। এবার সিনেমায় যুদ্ধের ডামাডোল থাকবে কি না জানতে চাইলে ফয়সাল বলেন, ‘এবারের পর্বে থাকবে টানটান উত্তেজনা আর অ্যাকশন।’

বুধবার সন্ধ্যায় প্রকাশ পেয়েছে ব্ল্যাক ওয়ার: মিশন এক্সট্রিম ২ সিনেমার পোস্টার। সিনেমার প্রচার শুরু হলেও মুক্তির তারিখ এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

ফয়সাল জানান, এ বছরেই সিনেমা মুক্তি পাবে, তবে চূড়ান্ত করে কোনো কিছু বলা যাচ্ছে না।

কুল নিবেদিত, মাইম মাল্টিমিডিয়া সহপ্রযোজিত এবং ঢাকা ডিটেকটিভ ক্লাবের সহযোগিতায় নির্মিত ব্ল্যাক ওয়ার-এ অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ, তাসকিন রহমান, জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী, সাদিয়া নাবিলা, সুমিত সেনগুপ্ত, রাইসুল ইসলাম আসাদ, ফজলুর রহমান বাবু, মিশা সওদাগর, শতাব্দী ওয়াদুদ, মনোজ প্রামাণিক, ইরেশ যাকের, মাজনুন মিজান, সুদীপ বিশ্বাস, সৈয়দ আরেফ, রাশেদ খান অপু, দীপু ইমাম, এহসানুর রহমান, ইমরান শওদাগর।

এর আগে ২০২১ সালের ৩ ডিসেম্বর মুক্তি পায় মিশন এক্সট্রিম-এর প্রথম পর্ব। বাংলাদেশ ছাড়াও বিশ্বের বহু দেশে একযোগে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া হয়।

আরও পড়ুন:
সেন্সর ছাড়পত্র পেল ‘মিশন এক্সট্রিম’
‘মিশন এক্সট্রিম’-এর শ্বাসরুদ্ধকর ট্রেলারে কোড ও টাকার রহস্য
তিন মহাদেশে একসঙ্গে মুক্তি পাবে ‘মিশন এক্সট্রিম’
এক্সট্রিম মিশনে যুদ্ধংদেহি আরিফিন শুভ
এলো মিশন এক্সট্রিমের দ্বিতীয় পোস্টার, সঙ্গে মুক্তির ঘোষণা

মন্তব্য

বিনোদন
Sai Pallabi Runner movie about Naxal movement is coming to OTT

নকশাল আন্দোলন নিয়ে সাই পল্লবী-রানার সিনেমা আসছে ওটিটিতে

নকশাল আন্দোলন নিয়ে সাই পল্লবী-রানার সিনেমা আসছে ওটিটিতে বিরাতা পারভম সিনেমার দৃশ্যে সাই পল্লবী ও রানা দাগুবাতি। ছবি: সংগৃহীত
সিনেমাটি ওটিটিতে মুক্তি পাওয়ার খবরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছে সাই পল্লবী ও রানা দাগুবাতির ভক্তরা। তবে কেউ কেউ সিনেমাটির হিন্দি ডাব স্ট্রিম করার জন্য অনুরোধ করেছেন।

১৯৯০-এর দশকে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে নকশাল আন্দোলনের পটভূমিতে তৈরি একটি প্রেমের গল্পের সিনেমা বিরাতা পারভম

তেলেগু এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় দুই দক্ষিণী তারকা সাই পল্লবী ও রানা দাগুবাতি।

গত ১৭ জুন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর বেশ সাড়া ফেলে সিনেমাটি। এবার সেই সিনেমাটি আসছে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে।

১ জুলাই থেকে তেলেগু, মালয়ালাম এবং তামিল ভাষায় বিরাতা পারভম স্ট্রিমিং হবে বলে জানানো হয়েছে নেটফ্লিক্সের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে।

নকশাল আন্দোলন নিয়ে সাই পল্লবী-রানার সিনেমা আসছে ওটিটিতে
বিরাতা পারভম সিনেমার পোস্টারে সাই পল্লবী ও রানা দাগুবাতি। ছবি: সংগৃহীত

সিনেমাটি ওটিটিতে মুক্তি প্রকাশ পাওয়ার খবরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছে সাই পল্লবী ও রানা দাগুবাতির ভক্তরা। তবে কেউ কেউ সিনেমাটির হিন্দি ডাব স্ট্রিম করার জন্য অনুরোধ করেছেন।

একজন লিখেছেন, ‘কেন হিন্দিতে নয়?’ আরেকজন লিখেছেন, ‘দয়া করে হিন্দিতে মুক্তি দিন।’

নকশাল আন্দোলন নিয়ে সাই পল্লবী-রানার সিনেমা আসছে ওটিটিতে
বিরাতা পারভম সিনেমার পোস্টারে সাই পল্লবী ও রানা দাগুবাতি। ছবি: সংগৃহীত

তেলেঙ্গানার সত্য ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে সিনেমাটির গল্প লিখেছেন ও পরিচালনা করেছেন ভেনু উদুগুলা।

এদিকে রানা দাগুবাতি সম্প্রতি নেটফ্লিক্স ক্রাইম ড্রামা সিরিজ রানা নাইডুর শুটিং শেষ করেছেন।

অন্যদিকে আগামীতে গার্গী নামের এক সিনেমায় দেখা যাবে সাই পল্লবীকে। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। গত ৯ মে নিজের জন্মদিনে অভিনেত্রী তার আসন্ন এই সিনেমার টিজার প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুন:
সাই পল্লবীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

মন্তব্য

বিনোদন
In Kohinoor Mom highlights the challenges of women cleaners

পরিচ্ছন্নতাকর্মীর চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে মম

পরিচ্ছন্নতাকর্মীর চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে মম কোহিনূরের দৃশ্যে অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম। ছবি: সংগৃহীত
চলচ্চিত্রের নাম-ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মম; যেখানে তাকে সিঙ্গেল মাদার হিসেবে দেখা যায়। নিজের কন্যাসন্তানের উন্নত ভবিষ্যৎ তৈরির জন্য তাকে যেসব বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছে, এই চলচ্চিত্রে তিনি সে বিষয়গুলোকে সুনিপুণভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।

একজন নারী পরিচ্ছন্নতাকর্মীর জীবনের গল্প নিয়ে নির্মাণ হয়েছে চলচ্চিত্র কোহিনূর। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম। অস্ট্রেলিয়ার স্বনামধন্য টয়লেট পেপার ব্র্যান্ড হু গিভস আ ক্র্যাপ-এর সহযোগিতায় চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেছে ওয়াটারএইড।

প্রতিষ্ঠানটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের দৈনন্দিন স্বাস্থ্যঝুঁকি এবং সংগ্রামকে তুলে ধরার লক্ষ্যে নির্মাণ করা হয়েছে কোহিনূর। একই সঙ্গে বর্জ্য ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের পেশা নিয়ে সামাজিক সচেতনতা ও সম্মান বৃদ্ধি করাও এর লক্ষ্য।

রাজধানীর মাতুয়াইলের ময়লার ভাগাড়ে কোহিনূর-এর শুটিং করা হয়েছে। বর্জ্য ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের মতো পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর সুযোগ-সুবিধার অভাবের বিষয়টিকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে চলচ্চিত্রটিতে।

চলচ্চিত্রটিতে কঠিন বাধা অতিক্রম করে প্রচণ্ড ইচ্ছাশক্তির মাধ্যমে একজন পরিচ্ছন্নতাকর্মীর স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে যাওয়ার বিষয়টি ফুটিয়ে তুলেছেন মম।

চলচ্চিত্রের নাম-ভূমিকা কোহিনূর চরিত্রে অভিনয় করেছেন মম; যেখানে তাকে সিঙ্গেল মাদার হিসেবে দেখা যায়। নিজের কন্যাসন্তানের উন্নত ভবিষ্যৎ তৈরির জন্য তাকে যেসব বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছে, এই চলচ্চিত্রে তিনি সে বিষয়গুলোকে সুনিপুণভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।

ওয়াটারএইড টিমের পরিকল্পনায় সিনেমাটি পরিচালনা করেন কামরুল হাসান। ৪০ মিনিটের এই ফিচার ফিল্মে মমর অভিনয় ও সিনেমার মূল বার্তা ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইতিবাচক সাড়া ফেলেছে।

ওয়াটারএইড বাংলাদেশ-এর ইউটিউব চ্যানেলে আগ্রহীরা চলচ্চিত্রটি দেখতে পারবেন।

মন্তব্য

বিনোদন
RRR was nominated for Best Film by the Hollywood Critics Association

হলিউড ক্রিটিক্স অ্যাসোসিয়েশনে সেরা সিনেমার মনোনয়ন পেল ‘আরআরআর’

হলিউড ক্রিটিক্স অ্যাসোসিয়েশনে সেরা সিনেমার মনোনয়ন পেল ‘আরআরআর’ আরআরআর সিনেমার দৃশ্যে রাম চরণ ও জুনিয়র এনটিআর। ছবি: সংগৃহীত
এবার নতুন একটি রেকর্ড গড়ল নির্মাতা এসএস রাজামৌলির এ সিনেমাটি। ‘হলিউড ক্রিটিক্স অ্যাসোসিয়েশন’-এর ‘মিড সিজন অ্যাওয়ার্ড’-এ সেরা সিনেমার ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেল আরআরআর।

চলতি বছর মার্চে মুক্তি পায় ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে মুক্তির প্রথম দিনের আয়ের দিক থেকে সর্বকালের রেকর্ড গড়া সিনেমা আরআরআর। দর্শক ও সমালোচকদের দ্বারা ব্যাপক প্রশংসিত এই সিনেমাটি প্রায় ১২০০ কোটি রুপির ব্যবসা করেছে।

তবে এবার নতুন একটি রেকর্ড গড়ল নির্মাতা এসএস রাজামৌলির এ সিনেমাটি। ‘হলিউড ক্রিটিক্স অ্যাসোসিয়েশন’-এর ‘মিড সিজন অ্যাওয়ার্ড’-এ সেরা সিনেমার ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেল আরআরআর

আর এর মধ্য দিয়ে এই প্রথম কোনো ভারতীয় সিনেমা সেখানে মনোনয়ন পেল।

রাম চরণ ও জুনিয়র এনটিআর অভিনীত আরআরআর সিনেমাটি পুরস্কারের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে- টপ গান: ম্যাভেরিক, দ্য ব্যাটম্যান, এলভিস, দ্য আনবেয়ারেবল ওয়েট অফ ম্যাসিভ ট্যালেন্টসহ বেশ কয়েকটি সিনেমার সঙ্গে।

হলিউড ক্রিটিকস অ্যাসোসিয়েশন বছরে দুবার পুরষ্কার দেয়, একবার ফেব্রুয়ারিতে এবং পরে জুলাই মাসে। যাকে মিডসিজন অ্যাওয়ার্ড বলা হয়। এই পুরস্কার ঘোষণা করা হবে ১ জুলাই।

বুধবার হলিউড ক্রিটিক্স অ্যাসোসিয়েশনের টুইটারে মনোনয়নের তালিকা প্রকাশের পর উচ্ছ্বসিত ভারতীয় সিনেমাপ্রেমীদের কমেন্টে ভরে ওঠে সেই পোস্ট।

একজন লিখেছেন, ‘সেরার শিরোপা না জিতলেও এই মনোনয়নই ভারতীয় সিনেমার জয়।’ আবার কেউ লিখেছেন, বিশুদ্ধ সংস্কৃতি এবং ভারতীয় সিনেমার গর্ব।’ এমন নানা মন্তব্য উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন ভারতীয় সিনেমাপ্রেমীরা।

আরও পড়ুন:
পার্টিতে খালি পায়ে রামচরণ
‘আরআরআর’-এর ৩৫ কলাকুশলীকে সোনার কয়েন দিলেন রামচরণ
বাহুবলীর রেকর্ড ভাঙল আরআরআর
‘আরআরআর’-এর মুক্তির দিন চূড়ান্ত 
মুক্তির নতুন তারিখ জানাল ‘আরআরআর’

মন্তব্য

p
উপরে