প্রথমবার অস্কারের সাধারণ শাখায় দেশের ‘দ্য গ্রেভ’

প্রথমবার অস্কারের সাধারণ শাখায় দেশের ‘দ্য গ্রেভ’

দ্য গ্রেভ সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

গাজী রাকায়েত বলেন, ‘এখন যেটা হবে সেটা হলো শর্টলিস্ট। শর্টলিস্টের পর হবে ভোটিং। এরপর সিনেমাটি যদি কোয়ালিফাই করে, তাহলে দ্য গ্রেভ  সেরা সিনেমাসহ অস্কারের বাকি শাখাতেও মনোনয়ন পেতে পারে।’

অস্কারের সাধারণ শাখায় প্রতিযোগিতা করতে উত্তীর্ণ হয়েছে গাজী রাকায়েত পরিচালিত সিনেমা দ্য গ্রেভ। অর্থাৎ সিনেমাটি অস্কারের সাধারণ শাখায় জমা দিতে যে ধরনের যোগ্যতা প্রয়োজন হয় তা পূরণ করেছে এবং ৯৪তম অস্কারের সাধারণ শাখায় জমা পড়েছে।

এমন ঘটনা দেশের ইতিহাসে প্রথম। বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন গাজী রাকায়েত। তিনি বলেন, ‘অস্কারের সাধারণ শাখায় সিনেমা জমা দিতে গেলে আমেরিকায় সিনেমাটি বাণিজ্যিকভাবে এক সপ্তাহ প্রদর্শিত হওয়া এবং কিছু টেকনিক্যাল কোয়ালিটি লাগে। আমার সিনেমাটি সেগুলো পূরণ করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখন যেটা হবে সেটা হলো শর্টলিস্ট। শর্টলিস্টের পর হবে ভোটিং। এরপর সিনেমাটি যদি কোয়ালিফাই করে, তাহলে দ্য গ্রেভ সেরা সিনেমাসহ অস্কারের বাকি শাখাতেও মনোনয়ন পেতে পারে।’

রাকায়েত জানান, শর্টলিস্টের খবর ফেব্রুয়ারির আগে জানা যাবে না।

দ্য গ্রেভ সিনেমার বাংলা নাম গোর। ইংরেজি ভাষায় নির্মিত দেশের প্রথম সিনেমা এটি। গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর সিনেমাটি মুক্তি পায় চট্টগ্রামে। চলতি বছরের ১ জানুয়ারি সিনেমাটি প্রদর্শিত হয় রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্স ও ব্লকবাস্টার সিনেমাসে।

সরকারি অনুদান পাওয়া সিনেমাটি দেশের প্রথম বাইল্যাঙ্গুয়াল সিনেমা। পরিচালনা ছাড়াও সিনেমার চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন গাজী রাকায়েত। এতে অভিনয়ও করেছেন তিনি।

৯৪তম অস্কারের আন্তর্জাতিক ফিচার ফিল্ম বিভাগে প্রতিযোগিতার জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে রেহানা মরিয়ম নূর। এ সিনেমাটিকেও অপেক্ষা করতে হবে শর্টলিস্টের জন্য। একাধিকবার শর্টলিস্ট হওয়ার পরও যদি সিনেমাটি উত্তীর্ণ হয়, তবেই রেহানা মরিয়ম নূর আন্তর্জাতিক ফিচার ফিল্ম বিভাগে পাবে মনোনয়ন।

অস্কারে দেশের দুটি সিনেমা একসঙ্গে যাওয়ার ঘটনাও এবারই প্রথম।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

প্রযোজক রাজকে জামিন দেয়নি হাইকোর্ট

প্রযোজক রাজকে জামিন দেয়নি হাইকোর্ট

চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের সঙ্গে পরীমনি। ফাইল ছবি

আইনজীবী মানিক জানান, নজরুল ইসলাম রাজের জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছে আদালত। গত ৪ আগস্ট বিকেলে পরীমনির বাসায় অভিযান চালায় র‍্যাব। এরপর রাতে তার সহযোগী রাজের বনানীর বাসায়ও অভিযান চালানো হয়। অভিযানে রাজের দুই সহযোগীসহ তিনজনকে আটক করা হয়।

চিত্রনায়িকা পরীমনির বাসায় অভিযানের দিন মাদকদ্রব্যসহ গ্রেপ্তার প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজকে অর্থ পাচার মামলায় জামিন দেয়নি হাইকোর্ট।

সোমবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ তার জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দেয়।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ কে রাশেদুল হক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

পরে আইনজীবী মানিক জানান, নজরুল ইসলাম রাজের জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছে আদালত।

গত ৪ আগস্ট বিকেলে পরীমনির বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এরপর রাতে তার সহযোগী রাজের বনানীর বাসায়ও অভিযান চালানো হয়। অভিযানে রাজের দুই সহযোগীসহ তিনজনকে আটক করা হয়।

এ সময় তার বাসা থেকে সাতটি গ্ল্যানলিভেট, দুটি গ্ল্যানফিডিচ, চারটি ফক্স গ্রোভ, একটি প্লাটিনাম লেভেল, এক প্যাকেট সিসায় ব্যবহৃত চারকোল, দুই সেট সিসার সরঞ্জাম, দুই ধরনের সিসা তামাক ফ্লেভারযুক্ত, এক রোল সিসা সেবনের জন্য ব্যবহৃত অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল, ৯৭০ পিস ইয়াবা, বিকৃত যৌনাচারের জন্য ব্যবহৃত ১৪টি বিভিন্ন সামগ্রী, একটি সাউন্ড বক্স, দুটি মোবাইল ফোন ও একটি মেমোরি কার্ড উদ্ধার করা হয়।

পরে সিআইডি ২৯ সেপ্টেম্বর বনানী থানায় তার বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলা করে।

একটি ব্যাংকের বনানী শাখায় নজরুল ইসলাম রাজের হিসাবে ১৮ কোটি ৭ লাখ ২১ হাজর ৩৫০ টাকা জমা হয়। এর মধ্যে ৬টি জমা চেকের মাধ্যমে করা হলেও অবশিষ্ট টাকা নগদ জমা করা হয়। তার নামে বিভিন্ন ব্যাংকে একাধিক হিসাবের তথ্য পাওয়া যায়। এসব হিসাব পর্যালোচনায় দেখা যায, হিসাবে ব্যাপক লেনদেন হয়েছে, যা মাদক ব্যবসা থেকে আয় বলে প্রতীয়মান হয়। ব্যবসার নাম দিয়ে ২০১২ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ৪ আগস্ট পর্যন্ত আড়াই কোটি টাকা মূল্যমানের স্থাবর অস্থাবর সম্পদে রূপান্তর করেন। এসব অভিযোগ এনে সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক ২৯ সেপ্টেম্বর বনানী থানায় এ মামলা করেন।

এ মামলায় গত ১৬ নভেম্বর ঢাকার মহানগর বিশেষ জজ আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করেন। এরপর তিনি জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন তিনি।

শেয়ার করুন

‘লটারি’ টাকা ছাড়াই দেখা যাবে চরকিতে

‘লটারি’ টাকা ছাড়াই দেখা যাবে চরকিতে

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র লটারির শুটিংয়ের দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

এরই মধ্যে লটারি ৪৪তম কলকাতা আন্তর্জাতিক কাল্ট চলচ্চিত্র উৎসবে ‘আউটস্ট্যান্ডিং অ্যাচিভমেন্ট’ অ্যাওয়ার্ড জিতে নিয়েছে সিনেমাটি। ১৪তম আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উৎসবের ‘ইয়াং ট্যালেন্ট’ বিভাগে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করে এটি।

দুই বন্ধু মিলে লটারির একটি টিকিট কেনে। সেই টিকিট তাদের দুইজনের বন্ধুত্ব ও জীবনে নিয়ে আসে নতুন মোড়। গল্পের সেই সব বাঁক নিয়েই নির্মিত হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র লটারি।

সোমবার রাত ৮টা থেকে দেখা যাবে চরকিতে। সিনেমাটি দেখতে কোনো টাকা খরচ করতে হবে না বলে জানানো হয়েছে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

আল-আমিন হাসান নির্ঝরের গল্প ও চিত্রনাট্যে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেছেন কেএম কনক। এটি তার প্রথম নির্মিত চলচ্চিত্র। চরকিতে এর ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হওয়ার পর বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে দেখা যাবে এটি।

এরই মধ্যে লটারি ৪৪তম কলকাতা আন্তর্জাতিক কাল্ট চলচ্চিত্র উৎসবে ‘আউটস্ট্যান্ডিং অ্যাচিভমেন্ট’ অ্যাওয়ার্ড জিতে নিয়েছে সিনেমাটি। ১৪তম আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উৎসবের ‘ইয়াং ট্যালেন্ট’ বিভাগে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করে এটি। এছাড়া ২০২০ সালে তারেক মাসুদ চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার-আপ হয় লটারি

পরিচালক কেএম কনক বলেন, ‘প্রথম শর্ট-ফিল্ম হিসেবে এই কাজটা করতে গিয়ে দারুণ অভিজ্ঞতা হয়েছে। প্রথম নির্মাণেই এ রকম সাড়া পাবো আশা করিনি। আগামী দিনগুলোতে চলচ্চিত্রের সঙ্গেই থাকতে চাই।’

লটারিতে দেখা যাবে ইকবাল হোসাইন, রেদওয়ান চৌধুরী শান্ত, এনায়েত হোসাইন সামির, সামিয়া আক্তার বৃষ্টি, রায়হান ইশতিয়াক সনেট, পাবেল গোমেজ, সৌভিক, মিরাজ বুলেটসহ আরও অনেকে।

সিনেমাটোগ্রাফিতে ছিলেন আব্দুল্লাহ আল ফাহিম, প্রোডাকশন ডিজাইনার ছিলেন মুহাম্মাদ তাসনীমুল হাসান। লটারির মিউজিক করেছেন ইমন চৌধুরী, সাউন্ড ডিজাইনার ছিলেন রাজেশ সাহা ও কালার করেছেন মাহবুব টিপু।

শেয়ার করুন

মৌনী রায়ের বিয়ে জানুয়ারিতে

মৌনী রায়ের বিয়ে জানুয়ারিতে

অভিনেত্রী মৌনী রায়। ছবি: সংগৃহীত

বর হলেন সুরুজ নাম্বিয়ার। সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ব্যবসা করেন তিনি। গত লকডাউনের সময় দুবাইয়ে মৌনীর দীর্ঘ অবস্থানের সময় সম্পর্কে জড়ান দুজনে।

২০০৪ সালে রান সিনেমা দিয়ে অভিষেক, এরপর গোল্ড, রোমিয়ো আকবর ওয়াল্টার, মেড ইন চায়না, লন্ডন কনফিডেনশিয়াল সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। সম্প্রতি ‘দিল গালতি কার বেয়ঠা হ্যায়’ শিরোনামের মিউজিক ভিডিওতে তাকে দেখা গেছে গায়ক জুবিন নাটিয়ালের সঙ্গে৷

তিন বাঙালি মেয়ে মৌনী রায়। বলিউডে এখন বেশ পরিচিত তিনি।

মৌনী রায়ের বিয়ে জানুয়ারিতে
অভিনেত্রী মৌনী রয়। ছবি: সংগৃহীত

এ অভিনেত্রিও বসতে যাচ্ছেন বিয়ের পিঁড়িতে। এ খবর অবশ্য পুরনো। নতুন খবর হলো বিয়ের তারিখ জানিয়েছেন এ অভিনেত্রী।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ২৭ জানুয়ারি হতে চলেছে বিয়ের আয়োজন। বিয়ের স্পটও ঠিক ছিল আগে থেকে। মৌনী বিয়ে করবেন দুবাই বা ইটালিতে। তবে বৌভাতের অনুষ্ঠান হবে কোচবিহারে। কারণ সেখানেই থাকেন অভিনেত্রী ও তার পরিবার।

মৌনী রায়ের বিয়ে জানুয়ারিতে
অভিনেত্রী মৌনী রয়। ছবি: সংগৃহীত

আর বর হলেন সুরুজ নাম্বিয়ার। সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ব্যবসা করেন তিনি। গত লকডাউনের সময় দুবাইয়ে মৌনীর দীর্ঘ অবস্থানের সময় সম্পর্কে জড়ান দুজনে।

আগামীতে মৌনীকে দেখা যাবে ব্রহ্মাস্ত্র সিনেমায়। এতে অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চন, রণবীর কাপুর, আলিয়া ভাট ও দক্ষিণী তারকা নাগার্জুন৷

শেয়ার করুন

ফ্ল্যাটের জন্য ক্যাট-ভিকির খরচ কত

ফ্ল্যাটের জন্য ক্যাট-ভিকির খরচ কত

ক্যাটরিনা কাইফ ও ভিকি কুশল। ছবি: সংগৃহীত

বিয়ের আয়োজন তো চলছেই, শুরু হয়ে গেছে হবু দম্পতির সংসার সাজানোর কাজ। মুম্বাইয়ের জুহুতে পাঁচ বছরের জন্য একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছেন ভিকি। এর খরচ শুনলে চোখ বড় হয়ে যেতে পারে তাদের ভক্তদের।

বাংলা গানে আছে, বসন্ত বাতাসে ভেসে আসে বন্ধুর বাড়ির ফুলের গন্ধ। কিন্তু এখন তো এখন বসন্ত কাল নয়। প্রকৃতিতে শীতের আমেজ। তবুও বিয়ের ফুলের গন্ধ মুম্বাই থেকে পৌঁছে গেছে রাজস্থানে।

সেখানে চলছে ক্যাটরিনা কাইফ এবং ভিকি কুশলের বিয়ের আয়োজন। সূত্র জানিয়েছে এমনকী ভারতের বিনোদন বিষয়ক ম্যাগাজিন ফিল্মফেয়ার নিশ্চিত করেছে যে, ৯ ডিসেম্বর রাজস্থানের এক বিলাসবহুল প্রাসাদে বিয়ে করবেন ক্যাট-ভিকি।

বিয়ের আয়োজন তো চলছেই, শুরু হয়ে গেছে হবু দম্পতির সংসার সাজানোর কাজ। মুম্বাইয়ের জুহুতে পাঁচ বছরের জন্য একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছেন ভিকি। এর খরচ শুনলে চোখ বড় হয়ে যেতে পারে তাদের ভক্তদের।

ভারতীয় সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, ভিকি সেই ফ্ল্যাটটি ভাড়া নিতে জমা রেখেছেন ১ কোটি ৭৫ লাখ রুপি। প্রথম ৩৬ মাস ক্যাট ও ভিকিকে ভাড়া দিতে হবে ৮ লাখ করে। তার পরের ১২ মাস ৮ দশমিক ৪০ লাখ, ৮ দশমিক ৮ লাখ করে ভাড়া দেবেন তার পরের এক বছর।

এমন খবর জেনে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিকির হাতে আগামী বছর পর্যন্ত চারটি সিনেমা রয়েছে, একই সংখ্যক সিনেমার চুক্তি আছে ক্যাটরিনারও। যদ্রি তাদের পারিশ্রমিকের বিষয়ে স্পষ্ট কোনো তথ্য দিতে পারেনি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম।

অন্যদিকে ভিকি-ক্যাটের বিয়েতে সমস্যা হতে পারে করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট ওমিক্রন। শোনা যাচ্ছে, এ আতঙ্কে অতিথি তালিকা থেকে কিছু নাম ছাঁটাই করতে হয়েছে তাদের।

তারকা-জুটির ঘনিষ্ঠ সূত্র ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, ‘ওরা কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছে না। অতিথি তালিকায় ভিকি-ক্যাটরিনা ওদের সহ-অভিনেতা, পরিচালক, প্রযোজক-সকলকেই আমন্ত্রণ জানাবেন বলে ঠিক করেছিলেন। কিন্তু এখন নতুন করে ভাবা হচ্ছে।’

শোনা যাচ্ছে, আয়োজনে উপস্থিত থাকবেন বরুণ ধাওয়ান, কবীর খান, সিদ্ধার্থ মলহোত্র, কিয়ারা আদভাণীরা। আর তাদের থাকার জন্য রানথামবোর এলাকার ৪৫টিরও বেশি হোটেল ভাড়া করা হয়েছে। হোটেলগুলো বড় না হওয়ায় অনেকগুলো ভাড়া করতে হয়েছে বলে জানিয়েঠে ফিল্মফেয়ার।

দুই তারকার সংগীতানুষ্ঠানে নাচ শেখানোর দায়িত্ব পড়েছে কারান জোহর ও ফারাহ খানের ওপর। তবে প্রথমে আইনি বিয়ে সারবেন ভিকি-ক্যাটরিনা।

শেয়ার করুন

নাটকটির জন্য তিন দিন পুরো ট্রেন ভাড়া করা হয়েছিল

নাটকটির জন্য তিন দিন পুরো ট্রেন ভাড়া করা হয়েছিল

‘শ্বাপদ’ নাটকের দৃশ্যে তারিক আনাম খান ও শতাব্দী ওয়াদুদ। ছবি: সংগৃহীত

নাটকটির জন্য শিল্পী-কলাকুশলীরা যে পরিশ্রম করেছেন, সে কথা উল্লেখ করতে গিয়ে পিকলু চৌধুরী বলেন, ‘একদিন এমন হয়েছে, বিকেল ৪টা থেকে পরের দিন দুপুর ১২টা পর্যন্ত একটানা শুটিং করেছেন তারিক আনাম খান ও শতাব্দী ওয়াদুদ।’

আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে লুকিয়ে আছে অসংখ্য ছোট ছোট ঘটনা। পাকবাহিনীর অত্যাচারের কোনো কোনো ঘটনা এতটাই নৃশংস ছিল যে, সেসব গল্প শুনলে বুক কেঁপে ওঠে।

এমনই এক সত্য ঘটনার অনুপ্রেরণার নির্মিত হয়েছে নাটক ‘শ্বাপদ’। এর দৃশ্য ধারণ করতে তিন দিনের জন্য ভাড়া করা হয়েছিল পুরো একটা ট্রেন।

এমনটাই জানালেন নাটকটির প্রযোজক পিকলু চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘আমাদের পুরো নাটকটি চিত্রায়িত হয়েছে সৈয়দপুর ও পার্বতীপুরে। দৃশ্য ধারণের সুবিধার্থে তিন দিনের জন্য একটি ট্রেন ভাড়া করেছিলাম আমরা। ৬-৭টা মালবাহী বগিযুক্ত এই ট্রেন ভাড়া মেটাতেই ব্যয় হয়েছে ২ লাখ ৬৪ হাজার টাকা।’

মাসুম শাহরীয়ারের চিত্রনাট্যে নাটকটি পরিচালনা করেছেন গোলাম মুক্তাদির।

এতে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, শম্পা রেজা, শতাব্দী ওয়াদুদ, এফ এস নাঈম, শবনম ফারিয়া, আবুল কালাম আজাদ সেতু ও রউনক রিপনসহ অনেকে।

নাটকটির জন্য তিন দিন পুরো ট্রেন ভাড়া করা হয়েছিল
‘শ্বাপদ’ নাটকের দৃশ্যে শবনম ফারিয়া, এফ এস নাঈম ও তারিক আনাম খান। ছবি: সংগৃহীত

নাটকটির জন্য শিল্পী-কলাকুশলীরা যে পরিশ্রম করেছেন, সে কথা উল্লেখ করতে গিয়ে পিকলু চৌধুরী বলেন, ‘একদিন এমন হয়েছে, বিকেল ৪টা থেকে পরের দিন দুপুর ১২টা পর্যন্ত একটানা শুটিং করেছেন তারিক আনাম খান ও শতাব্দী ওয়াদুদ।’

তিনি জানান, ইতোমধ্যেই নাটকটির দৃশ্যধারণ শেষ হয়েছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বর নাটকটি প্রচার হবে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে।

পিকলু জানান, নাটকের এই গল্প তারা শুনেছেন ঘটনার সাক্ষী ওয়াজিউল্লাহর মেয়ে লুৎফুন্নেসা এবং নাতি রাশেদুল আউয়ালের কাছে।

ওয়াজিউল্লাহ চৌধুরী ১৯৭১ সালে পাকিস্তান রেলওয়েতে বিটি গার্ড হিসেবে কর্মরত ছিলেন। স্ত্রী, দুই ছেলে, মেয়ে এবং মাকে নিয়ে ছিল তার পরিবার।

শেয়ার করুন

দুই দিনে ১০ কোটি রুপি ব্যবসা করল সালমানের ‘অন্তিম’

দুই দিনে ১০ কোটি রুপি ব্যবসা করল সালমানের ‘অন্তিম’

‘অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ’ সিনেমার পোস্টারে সালমান খান। ছবি: সংগৃহীত

শুক্রবারের চেয়ে শনিবার সামান্য পরিমাণ আয় বেড়েছে সিনেমাটির। আর রোববারও যদি সিনেমাটি একইরকম আয় করতে পারে তাহলে ব্যবসার দিক দিয়ে দাঁড়িয়ে যাবে 'অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ’।

চলচ্চিত্র সমালোচক থেকে দর্শক, সবার মন জয় করে নিয়েছে সালমান খান ও তার ভগ্নিপতি আয়ুশ শর্মার নতুন সিনেমা অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ। দুই দিনেই সিনেমাটি প্রায় ১০ কোটি রুপির ব্যবসা করেছে।

মুক্তির দিন শুক্রবার থেকে শনিবার ছুটির দিন সামান্য বেশি দর্শক সমাগম হয়েছিল প্রেক্ষাগৃহে।

মনে করা হচ্ছে, রোববার এই আয়ের পরিমাণ আরও বাড়বে। মুক্তির দিনে ৪ দশমিক ২৫ থেকে ৪ দশমিক ৫ কোটি রুপির ব্যবসা করে সিনেমাটি।

আর শনিবার তা বেড়ে দাঁড়ায় ৫ দশমিক ২৫ কোটি থেকে ৫ দশমিক ৫ কোটি রুপি। অর্থাৎ দুই দিনে প্রায় ১০ কোটি রুপি আয় করেছে সিনেমাটি। মনে করা হচ্ছে, রোববার ৬ কোটির কাছাকাছি আয় করবে অন্তিম

বক্সঅফিসইন্ডিয়া ডটকমের রিপোর্ট অনুযায়ী, ‘শুক্রবারের চেয়ে শনিবার ব্যবসার পরিমাণ সামান্য বেড়েছে। যা থেকে বোঝা যায়, শুধু স্টার ভ্যালু নয়, গল্পের জন্যও দর্শক প্রেক্ষাগৃহে আসছেন। আর রোববারও যদি সিনেমাটি একইরকম আয় করতে পারে তাহলে ব্যবসার দিক দিয়ে দাঁড়িয়ে যাবে অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ।’

দীর্ঘদিন পর সালমানের সিনেমা মুক্তি পাওয়াতে উৎসবে মেতেছেন তার ভক্তরা। শনিবার এক প্রেক্ষাগৃহে সিনেমা চলাকালীন আতশবাজি ফাটান অভিনেতার ভক্তরা। যা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন সালমান। হাত জোড় করে সাবধান হতে বলেন ভক্ত ও হল মালিকদের।

শেয়ার করুন

র-এর এজেন্ট হচ্ছেন মিম

র-এর এজেন্ট হচ্ছেন মিম

চিত্রনায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম। ছবি: সংগৃহীত

মিম বলেন, ‘আমি খুব এক্সাইটেড। কারণ সিনেমাটি নিয়ে সবার মতো আমারও উত্তেজনা আছে। চরিত্রটিও অনেক চ্যালেঞ্জিং। দেশের বাইরে অধিকাংশ শুটিং হবে। আর এটা একটা আন্তর্জাতিক প্রজেক্ট। সব মিলিয়ে ভালোলাগাটা বেশি।’

দেশের তুমুল জনপ্রিয় গোয়েন্দা চরিত্র মাসুদ রানা। উপন্যাসে মাসুদ রানার প্রমিকা সোহানার উল্লেখ নেই। তবে যে নারীর প্রতি মাসুদ রানা দুর্বল হয়ে পড়েন, তার নাম সুলতা এবং তিনি র-এর এজেন্ট।

এ চরিত্রটির জন্য শোনা গেছে বলিউডের শ্রদ্ধা কাপুর ও ইসাবেলা কাইফের নাম। শেষমেশ সবাইকে উড়িয়ে দিয়ে চরিত্রটি নিয়ে নিলেন দেশের অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম। এম আর নাইন সিনেমায় সুলতা চরিত্রে দেখা যাবে তাকে।

১৩ নভেম্বরের দিকে সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন বলে নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন মিম।

মিম বলেন, ‘আমি খুব এক্সাইটেড। কারণ সিনেমাটি নিয়ে সবার মতো আমারও উত্তেজনা আছে। চরিত্রটিও অনেক চ্যালেঞ্জিং। দেশের বাইরে অধিকাংশ শুটিং হবে। আর এটা একটা আন্তর্জাতিক প্রজেক্ট। সব মিলিয়ে ভালোলাগাটা বেশি।’

মিম জানান, ফেব্রুয়ারি থেকে সিনেমার শুটিং শুরু হওয়ার কথা। সেই সময় নাকি তার আরেক সিনেমা পথে হলো দেখার শুটিং থাকবে। তাই শুটিং শিডিউল মিলিয়ে নিতে হবে তার।

মিম আরও বলেন, ‘আমাকে কিছু ফাইট শিখতে বলা হয়েছে, সেগুলো শুরু করে দেব শিগগিরই।’

মাসুদ রানা উপন্যাস সিরিজের ‘ধ্বংস পাহাড়’ অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে এম আর নাইন। এটি পরিচালনা করবেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হলিউডের পরিচালক আসিফ ইকবাল।

সিনেমাটির সঙ্গে যুক্ত আছেন বিদেশের অনেক নামকরা কলাকুশলী। সিনেমাটি বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় নির্মিত হবে। মাসুদ রানা চরিত্রে অভিনয় করবেন এবিএম সুমন।

মাসুদ রানা উপন্যাস সিরিজের ‘ধ্বংস পাহাড়’ অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে আরও একটি সিনেমা। যেটাকে বলা হচ্ছে বাংলাদেশি সংস্করণ। অন্য শিল্পীদের নিয়ে সেটি পরিচালনা করছেন সৈকত নাসির।

শেয়ার করুন