‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’

‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’

অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা

‘অভিনয়টা আমার আত্মার খোরক হয়ে গেছে। সোল ফুড যে বিষয়টি, সেটা সংগ্রহ করতে আমার কাজটি করে যেতেই হবে। একটা নির্দিষ্ট সময়ের পর আমি ডাক্তারি শুরু করব। এখন আমি অভিনয়টাই নিয়মিত করতে চাইছি।’

তার নামের সঙ্গেই চমক শব্দটি জুড়ে আছে। যে কাজগুলো করছেন, সে কাজেও চমক দিচ্ছেন তিনি। তার অভিনয়ে চমকে যাচ্ছেন অনেকে। বিশেষ করে মহানগর ওয়েব সিরিজে অল্প সময়েই পর্দায় উপস্থিতিতেই দাপটের সঙ্গে মনোযোগ কেড়েছেন এই অভিনেত্রী।

তিনি রুকাইয়া জাহান চমক। টিভি নাটক, ওয়েব কনটেন্টে তুমুল ব্যস্ত এই অভিনেত্রী। এক বছরও হয়নি অভিনয় শুরু করেছেন। এরই মধ্যে নামকরা অনেক পরিচালকের সঙ্গেই কাজ করা হয়ে গেছে তার। সম্প্রতি অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিমের বিপরীতে।

চিকিৎসাবিজ্ঞানের এই শিক্ষার্থী আপাতত অভিনয়টাই চালিয়ে যেতে চান। কারণ এটি তার আত্মার খোরাক হয়ে উঠেছে। অন্যদিকে পরিবার চায় চিকিৎসক হিসেবে নিয়মিত হোন চমক।

এমন সব বিষয় নিয়ে নিউজবাংলা কথা বলেছে রুকাইয়া জাহান চমকের সঙ্গে।

  • চমক, আপনার পরিবার ও বেড়ে ওঠা নিয়ে একটু জানতে চাই।

আমি সে রকম একটি পরিবার থেকে এসেছি, যেখানে লেখাপড়াকে খুব গুরুত্ব দেয়া হয়। ক্লাসে প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় হতে হবে এমন ফ্যামিলি আমার। তো সেভাবেই বেড়ে ওঠা।

ক্লাসে আমি প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয়র মধ্যেই থাকতাম সব সময়। এরপর সরকারি মেডিক্যালে ভর্তি হওয়া (কর্নেল মালেক মেডিক্যাল কলেজ, মানিকগঞ্জ)।

আমার বাবা ছিলেন বন বিভাগের সরকারি কর্মকর্তা। লেখাপড়ার বিষয়টাই আমার ফ্যামিলিতে বেশি ছিল। তারপরও কিছু এক্সট্রা কারিকুলাম তো ছিলই। আমি নৃত্য শিখেছি বুলবুল ললিতকলা একাডেমি (বাফা) থেকে। মেডিক্যালে আমি নৃত্যের জন্য অনেক পুরস্কার পেয়েছি। আবৃত্তি শিখেছিলাম। গানও করতাম টুকটাক। স্কুল-কলেজের কালচারাল অনুষ্ঠানগুলোতে আমি সব সময় চার-পাঁচটা করে পুরস্কার পেতাম।

অভিনয়ে একটা ঝোঁক ছিলই। নায়িকা হব- এমন ভাবতাম। এখন একটু চেঞ্জ হয়েছে ভাবনাটা। এখন কোনো কাজ দেখলে মনে হয় কীভাবে নিজেকে অভিনেত্রী হিসেবে গড়ে তোলা যায়। এটাই এখন আমার মেইন কনসার্ন।

  • মেডিক্যালে পড়ার ইচ্ছাটা কার? আপনার না পরিবারের?

পরিবারের একটা চাওয়া ছিল। লেখাপড়া ভালো করতে হবে, ও রকম একটা প্রেশার ছিল ফ্যামিলি থেকে। প্রেশার না থাকলে হয়তো আমি ফিল্ম মেকিং বা সিনেমাটোগ্রাফি বা লিটারেচার নিয়ে লেখাপড়া করতাম।

  • আপনি কী এটি বলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন যে, আপনি লেখাপড়ার কোন স্টেজে আছেন?

আমার ইন্টার্নশিপ বাকি এখনও। কী বলা যায়, আমি শেষ পর্যায়ে আছি এখন।

  • লেখাপড়া শেষ করেছেন বলেই কি এখন অভিনয়টা করতে পারছেন? আপনার শুরুটা জানতে চাই?

অবশ্যই লেখাপড়াটা শেষ করেছি। এখন নিচের যেটা ইচ্ছা সেটা করছি। আর আমার শুরুটা লেখালেখির মাধ্যমে। নাম বলব না, আমি একজনকে স্ক্রিপ্ট দিতে গিয়েছিলাম। যাকে স্ক্রিপ্টটা দিতে গিয়েছিলাম তিনি বললেন, কেন তুমি এটাতে অভিনয় করছ না?

আমি বলেছিলাম যে, না আমি আমার স্ক্রিপ্টে কাজ করব না। অন্য কারো ভালো গল্পে যদি আমাকে কাস্ট করা হয়, তাহলে আমি হয়তো কাজ করতে পারি এবং পরে আমি অভিনয় শুরু করি।

ইন্ডাস্ট্রিতে আমার বয়স আট থেকে নয় মাস। খুবই অল্প সময় হলো কাজ শুরু করেছি। খুবই ভালো লাগছে আমার। এরই মধ্যে আমি ৫০+ নাটকে অভিনয় করেছি কেন্দ্রীয় চরিত্রের অভিনেত্রী হিসেবে। ২০টার বেশি টিভি কমার্শিয়াল (টিভিসি) করে ফেলেছি। ওয়েব সিরিজ করা হয়ে গেছে, হাউস নম্বর ৯৬ নামের সিরিয়াল করা হয়েছে।

শিগগিরই মিজানুর রহমান আরিয়ানের পরিচালনায় একটি সিরিয়াল শুরু করতে যাচ্ছি। যার নাম শুভ রাত্রি। সেখানে নাম-ভূমিকায় কাজ করছি আমি।

‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’
অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। ছবি: সংগৃহীত

  • মহানগর ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন। দারুণভাবে সবার নজর কেড়েছেন আপনি।

আমি খুবই লাকি যে আমার অভিনীত প্রথম ওয়েব সিরিজটি এত জনপ্রিয় হয়েছে। পর্দায় আমার উপস্থিতি কম ছিল, তবু সবাই আমাকে নোটিশ করেছেন এবং সবাই আমাকে অনেক অনেক শুভকামনা জানিয়েছেন, ভালো বলেছেন।

অন্য যারা অভিনয়শিল্পী ছিলেন, তারা প্রত্যেকেই অনেক গুণী। তার মধ্যে আমাকেও খেয়াল করেছেন দর্শকরা। আমার কাছে এটা একটা অ্যাচিভমেন্ট।

  • বাংলাদেশের কনটেন্ট অনেকেই দেখেন না বলে শোনা যায়। এখানে কী ধরনের কাজ হয় তাও অনেকে জানেন না। আপনার চারপাশের মানুষজন কি এই প্রকৃতির?

আমি নিজেও কিন্তু আগে বাংলা কনটেন্ট তেমন দেখতাম না। নেটফ্লিক্সের এই যুগে বাংলা অ্যাপগুলো কতটুকু জনপ্রিয় হতে পারবে তা নিয়ে একটা প্রশ্ন ছিল।

এখন আমার মনে হয়, আমরা অনেক ভালো কনটেন্ট উপহার দিতে পারছি। যেমন, হইচই একটা বিদেশি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম। সেখানে অন্যতম সফল প্রজেক্ট হলো মহানগর। আমার মনে হয় এটা গর্বের বিষয়। এখন বাংলা কনটেন্ট দেখছে সবাই।

আমার মনে হয় এখন আমাদের স্বর্ণযুগ এসেছে। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আসার পর বাংলা কনটেন্টের স্বর্ণযুগ এখন। দর্শকদের উচিত এই কনটেন্টগুলো দেশে শিল্পী-নির্মাতাদের উৎসাহ দেয়া।

  • আপনার পরিবার ও বন্ধুরা কি আপনার মতোই মনে করছেন?

না না, আমার পরিবার এখনও মনে করছেন ‘তুমি ডাক্তারি করো’। তাদের মাইন্ডসেট হচ্ছে যে, ভালো করে লেখাপড়া করে সুন্দর কিছু করা।

মানুষের হয়তো এমন মনে হতে পারে যে বাংলাদেশের মিডিয়াতে কেমন কাজ হয়, কী হয়। সে ক্ষেত্রে আমি বলব যে, মিডিয়াতে এখন অনেক ভালো কাজ হচ্ছে, কোয়ালিটি ওয়ার্ক হচ্ছে এবং আমরা তো সুন্দর-সুস্থভাবে কাজ করে যাচ্ছি। আমার তো কোনো সমস্যা ফেস করতে হচ্ছে না।

  • মেডিক্যালের লেখাপড়াও অনেক কষ্টের শুনেছি, সেটি শেষ করে অভিনয় করছেন, সেটিও অনেক কষ্টের। মেনে নিচ্ছেন কীভাবে?

ঠিক বলেছেন। তবে কাজ শেষে আমার ফেসবুক পেজে ঢুকে যখন দেখি যে পোস্ট করা ছবির নিচে সবাই এত এত ভালোবাসা জানিয়েছে, ভালো লাগার কথা লিখেছে, তখন কষ্ট অনেকটা কমে যায়। কোথাও গেলে যখন মানুষ বলে যে আপনার অভিনয় ভালো লাগে, তখন মনে হয় পরিশ্রমটা ঠিকমতো করছি। কষ্টটা তখন জাস্টিফাই হয়ে যায়।

  • আপনি কখনও চিকিৎসা পেশায় যাবেন কি না?

অবশ্যই করব, কিন্তু এখন অভিনয়টা আমার আত্মার খোরক হয়ে গেছে। সোল ফুড যে বিষয়টি, সেটা সংগ্রহ করতে আমার কাজটি করে যেতেই হবে। একটা নির্দিষ্ট সময়ের পর আমি ডাক্তারি শুরু করব। এখন আমি অভিনয়টাই নিয়মিত করতে চাইছি।

‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’
অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। ছবি: সংগৃহীত

  • বিজ্ঞাপন, নাটক, ওটিটিতে কাজ করলেন। এখন কোন ধরনের কাজ আপনাকে বেশি টানছে।

যদি নির্মাতারা আমাকে নিয়ে সেভাবে ভাবেন, তাহলে অবশ্যই আমি কাজ করব। এমন চরিত্র যা আমি কখনও চিন্তাই করতে পারিনি, সেই চরিত্র চ্যালেঞ্জ নিয়ে করার চেষ্টা আমার থাকবে। নিজেকে ভেঙে যে কাজগুলো করতে হবে, সেগুলো করতে চাই। অফট্র্যাক কাজ করতে আমি বেশি পছন্দ করব।

  • বলছিলেন খুব অল্প সময় ধরে কাজ করছেন আপনি। এই সময়ের মধ্যে যতটুকু দেখলেন, তাতে মিডিয়ার পরিবেশ কেমন লাগছে আপনার?

এটা এখন আমার আরেকটা পরিবার হয়ে গেছে। আমি আমার বাবা-মায়ের সঙ্গে যতটা না সময় কাটাই, এখানকার মানুষদের সঙ্গে তার চেয়ে বেশি সময় কাটাতে হয়।

  • কাজ করতে করতে কখনও মনে হয়, কোনো একটা বিষয় যেটা পরিবর্তন হলে ভালো হতো।

হ্যাঁ, কিছু সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো উচিত। আমার মনে হয় শিল্পীদের কাজের সময়টা কমানো দরকার। আমরা কাজ করি অনেক বেশি সময়। সকাল থেকে অনেক রাত পর্যন্ত। এত বেশি সময় যে ইফিসিয়েন্ট ওয়ার্ক তখন দেয়া যায় না আসলে। এটা মাথায় রেখে কাজ করলে মনে হয় আরও ভালো কাজ করা সম্ভব।

আর ভালো কাজ করার জন্য প্রতিদিন শেখার চেষ্টা করছি। আমি শিখতে পছন্দ করি। আমি সিনেমাটোগ্রাফি নিয়ে বই পড়ার চেষ্টা করি। ফিল্ম মেকিং নিয়ে আমার আগ্রহ আছে। ইউটিউবে অ্যাক্টিং স্কুলের ভিডিও পাওয়া যায়। সেগুলো দেখে নিজেকে একটু একটু করে গ্রুম করার চেষ্টা করছি।

একজন অভিনয়শিল্পী জীবন থেকে বেশি শেখে। অভিনয়ের কোনো ব্যাকরণ নেই। অভিনয় হতে হবে স্বতঃস্ফূর্ত, অভিনয় মানেই প্রতিক্রিয়া এবং অভিনয় না করাটাই অভিনয়। আমি শিখছি এবং মজা করে শিখছি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

এলোমেলো ববিকে ঘিরে রহস্যের ঘনঘটা

এলোমেলো ববিকে ঘিরে রহস্যের ঘনঘটা

ময়ূরাক্ষী সিনেমার পোস্টার। ছবি: সংগৃহীত

সন্ধ্যায় রাজধানীর পাঁচ তারকা হোটেলে অনুষ্ঠিত হয় সিনেমাটির মহরত অনুষ্ঠান। সিনেমার পরিচালক রাশিদ পলাশ জানান, জানুয়ারিতে শুরু হবে সিনেমার শুটিং।

মেঝেতে পুড়ছে খবরের কাগজ। পুড়তে থাকা সেই খবরের কাগজে দেখা যাচ্ছে ববিরই ছবি। সহজেই বোঝা যাচ্ছে সংবাদের শিরোনামে তিনি।

ববি যেখানে বসে আছেন, তার পাশেই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অন্যান্য পুরস্কার পড়ে আছে এলোমেলোভাবে।

জানালার বাইরে সাংবাদিক। যেন সবাই খুঁজছেন ববিকে। আর ববি পরিপাটি হয়ে বসে আছেন, হাতে সিগারেট।

এভাবে ডিজাইন করা হয়েছে ববি অভিনীত নতুন সিনেমা ময়ূরাক্ষী-এর পোস্টার। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পোস্টারটি প্রকাশ করেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান।

সন্ধ্যায় রাজধানীর পাঁচ তারকা হোটেলে অনুষ্ঠিত হয় সিনেমাটির মহরত অনুষ্ঠান। সিনেমার পরিচালক রাশিদ পলাশ জানান, জানুয়ারিতে শুরু হবে সিনেমার শুটিং।

শোনা গিয়েছিল, সিনেমার গল্প গড়ে উঠেছে ২০১৯ সালে চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে।

তবে মহরত অনুষ্ঠানে পরিচালক বলেন, ‘সিনেমায় একটি বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনা আছে, কিন্তু এটি সেই ঘটনা নিয়ে নির্মিত কোনো সিনেমা নয়। এটি পুরোপুরি একটি প্রেমের গল্প।’

সিনেমার নামও পরিবর্তন হয়েছে। আগে সিনেমার নাম ময়ূরপঙ্খী থাকলেও এখন সিনেমার নাম রাখা হয়েছে ময়ূরাক্ষী। সিনেমার রহস্যময়তা বোঝাতেই এ নাম রাখা হয়েছে বলে জানান পরিচালক।

সিনেমার মূল অভিনেত্রী ববি উপস্থিত ছিলেন না আনুষ্ঠানে। কারণ জানতে চাইলে পলাশ জানান, ববি দেশের বাইরে রয়েছেন, তাই অনুষ্ঠানে আসতে পারেননি।

সিনেমায় আরও অভিনয় করছেন অভিনেত্রী শিরিন শিলা। তিনি চরিত্র নিয়ে তেমন কিছু না জানালেও বলেন, ‘চরিত্রটি পেয়ে আমি খুব খুশি। এমন সুন্দর গল্পে অভিনয় করতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবতী মনে করছি।’

সিনেমাটি প্রযোজন করছে আজ ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড। এর চিত্রনাট্য করেছেন গোলাম রাব্বানী।

শেয়ার করুন

লাল-সবুজের মহোৎসব করবে এফবিসিসিআই

লাল-সবুজের মহোৎসব করবে এফবিসিসিআই

উৎসবের অপেক্ষায় হাতিরঝিলের এম্পিথিয়েটার। ফাইল ছবি

বিজয় এসেছে যাদের আত্মত্যাগে, যে মহান নেতার নেতৃত্বে বাঙালির মানচিত্র, যার সুদক্ষ শাসনে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে- তাদের সবার প্রতি বিনম্র কৃতজ্ঞতা প্রকাশ এবং বাংলাদেশের ৫০ বছরের সফলতা আর অর্জন উদযাপনে ১৬ দিনব্যাপী এই আয়োজন।

অর্থনৈতিক অগ্রগতি কিংবা সামাজিক সূচকের শক্তিশালী অবস্থান, দুর্বল এক শিশুরাষ্ট্র থেকে বিশ্বের অন্যতম প্রতিশ্রুতিশীল অর্থনৈতিক শক্তিতে উন্নয়ন, পরর্নিভরতা থেকে বেরিয়ে এসে আত্মনির্ভরতায় বলীয়ান হয়ে ওঠা- বাংলাদেশের ৫০ বছরের গল্পটা সফলতার, অর্জনের।

বিজয় এসেছে যাদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে, যে মহান নেতার নেতৃত্বে মিলেছে বাঙালির নিজস্ব মানচিত্র, যার সুদক্ষ শাসনে দেশ উঠে এসেছে উন্নয়নের মহাসড়কে, তাদের সবার প্রতি বিনম্র কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে বিজয়ের মাসে ১৬ দিনব্যাপী লাল-সবুজের মহোৎসবের আয়োজন করেছে বাংলাদেশের শীর্ষ বাণিজ্যিক সংগঠন এফবিসিসিআই ।

এই মহোৎসব শুরু হচ্ছে ১ ডিসেম্বর, বুধবার।

রাজধানীর হাতিরঝিলের অ্যাম্ফিথিয়েটারে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ভার্চুয়ালি এই আয়োজন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অন্যান্য দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে সশরীরে উপস্থিত থাকবেন জাতীয় সংসদের স্পিকারসহ সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী।

এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানসহ প্রতিদিনের আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসেবে সশরীরে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। এতে সভাপতিত্ব করবেন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

এফবিসিসিআই’র এই বিজয় উৎসবে সার্বিক সহযোগিতা করছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। প্রতিদিনের অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেবেন ডিএনসিসির মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

মহোৎসবের কর্মসূচি

ডিসেম্বর-০১: স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আতশবাজি; ডিসেম্বর-০২: শিশু-কিশোর ও বিশেষ শিশুদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান; ডিসেম্বর-০৩: নারীদের অংশগ্রহণে বিশেষ অনুষ্ঠান; ডিসেম্বর-০৪: নজরুল উৎসব; ডিসেম্বর-০৫: রবীন্দ্র উৎসব; ডিসেম্বর-০৬: নৃত্য উৎসব; ডিসেম্বর-০৭: অঞ্চলভিত্তিক অনুষ্ঠান-ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগ; ডিসেম্বর-০৮: অঞ্চলভিত্তিক অনুষ্ঠান-চট্টগ্রাম ও রংপুর বিভাগ; ডিসেম্বর ০৯: অঞ্চলভিত্তিক অনুষ্ঠান-রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগ; ডিসেম্বর ১০: অঞ্চলভিত্তিক অনুষ্ঠান-খুলনা ও সিলেট বিভাগ; ডিসেম্বর ১১: সশস্ত্র ও পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠান; ডিসেম্বর ১২: লোকসংগীত; ডিসেম্বর ১৩: চলচ্চিত্র তারকাদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠান; ডিসেম্বর ১৪, ২০২১: মঞ্চনাটক; ডিসেম্বর ১৫, ২০২১: কনসার্ট; ডিসেম্বর ১৬: রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আতশবাজি।

শেয়ার করুন

আমিশা প্যাটেলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

আমিশা প্যাটেলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

বলিউড অভিনেত্রী আমিশা প্যাটেল। ছবি: সংগৃহীত

আমিশা প্যাটেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি, ইউটিএফ টেলিফিল্মস প্রাইভেট লিমিটেড নামক একটি সংস্থার কাছ থেকে ৩২ দশমিক ২৫ লাখ টাকা ধার করেন সিনেমা নির্মাণের জন্য। এই সমঝোতায় অভিনেত্রী অভিযোগকারী সংস্থাকে দুটি চেক দেন, কিন্তু ব্যাংক থেকে থেকে জানানো হয়েছে যে, দুটি চেকই বাউন্স করেছে অর্থাৎ অচল।

চেক বাউন্সের মামলায় বলিউড অভিনেত্রী আমিশা প্যাটেলের বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে।

ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভোপাল জেলা ও দায়রা আদালত সোমবার অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে ৩২ দশমিক ২৫ লাখ রুপির চেক বাউন্সের মামলায় এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, ইউটিএফ টেলিফিল্মস প্রাইভেট লিমিটেড নামক একটি সংস্থার অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এ মামলা করেছিল।

সংস্থাটির পক্ষ থেকে আইনজীবী জানান, তাদের অভিযোগ আমিশা প্যাটেল ও তার সংস্থা ৩২ দশমিক ২৫ লাখ টাকা ধার করেন সিনেমা নির্মাণের জন্য। এই সমঝোতায় অভিনেত্রী অভিযোগকারী সংস্থাকে দুটি চেক দেন, কিন্তু ব্যাংক থেকে থেকে জানানো হয়েছে যে, দুটি চেকই বাউন্স করেছে অর্থাৎ অচল।

আগামী ৪ ডিসেম্বরে এই মামলার শুনানিতে আদালতে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে অভিনেত্রীকে।

আমিশা প্যাটেলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা
বলিউড অভিনেত্রী আমিশা প্যাটেল। ছবি: সংগৃহীত

এর আগেও চেক বাউন্সের মামলায় পড়েছেন অভিনেত্রী। ২০১৯ সালে ভারতের ঝাড়খন্ডের রাঁচির এক আদালত আমিশার বিরুদ্ধে চেক বাউন্স এবং প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছিল।

আগামীতে আমিশাকে দেখা যাবে এরপর থ্রিলার ঘরানার সিনেমা মিস্ট্রি অফ ট্যাটুতে। এতে আরও রয়েছেন, অর্জুন রামপাল ও ডেইজি শাহ।

শেয়ার করুন

ক্যাটরিনার যে স্বভাব পছন্দ নয় আলিয়ার

ক্যাটরিনার যে স্বভাব পছন্দ নয় আলিয়ার

বলিউড অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফ ও আলিয়া ভাট। ছবি: সংগৃহীত

তবে আলিয়ার অভ্যাস নিয়েও বলতে ছাড়েননি ক্যাটরিনা। তিনি বলেন, ‘আমি দেখতে পাই আলিয়া অনলাইন থাকে। আমার পাঠানো মেসেজ পড়ে, কিন্তু উত্তর দেয় না। ওর এই অভ্যাসও আমার ভাল লাগে না।’

ক্যাটরিনা কাইফ ও আলিয়া ভাট দুজনেই বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী। প্রথমজন বলিউড অভিনেতা রণবীর কাপুরের প্রাক্তন প্রেমিকা আর দ্বিতীয়জন বর্তমান।

তবে সেসব বিতর্ক ছাপিয়ে এই দুজনের মধ্যে বেশ বন্ধুত্ব, কিন্তু ক্যাটরিনার একটি স্বভাব একেবারেই পছন্দ নয় আলিয়ার।

এক সাক্ষাৎকারে নিজেই সে কথা জানিয়েছিলেন আলিয়া। ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেই সাক্ষাৎকারে উপস্থিত ছিলেন ক্যাটরিনাও।

আলিয়া বলেছিলেন, ‘ক্যাটরিনার একটি স্বভাব আমার একদম ভাল লাগে না। সে খুব দেরি করে মেসেজের উত্তর দেয়।’

একই সঙ্গে আলিয়ার অনুযোগ, ক্যাটরিনা নিজের অনুভূতি নিয়ে কথা বলেন না। চুপ করে থাকেন।

তবে আলিয়ার অভ্যাস নিয়েও বলতে ছাড়েননি ক্যাটরিনা।

তিনি বলেন, ‘আমি দেখতে পাই আলিয়া অনলাইন থাকে। আমার পাঠানো মেসেজ পড়ে, কিন্তু উত্তর দেয় না। ওর এই অভ্যাসও আমার ভাল লাগে না।’

আগামীতে জি লে জারা নামের একটি সিনেমায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন ক্যাটরিনা ও আলিয়া। এতে তাদের সঙ্গে রয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও। রোড ট্রিপ আমেজের সিনেমাটি জি নির্মাণ করবেন ফারহান আখতার।

শেয়ার করুন

শ্রাবন্তী এবার তৃণমূলে

শ্রাবন্তী এবার তৃণমূলে

টালিউড অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত

সেই সভামঞ্চে শ্রাবন্তী বলেন, ‘আমি বাংলার জন্য কাজ করতে চাই। বাংলারই মেয়ে আমি। মমতাদিকে অনেক ধন্যবাদ। আপনাদের কাছে অনুরোধ, আমায় আপন করে নিন। আমি আপনাদের জন্যই কাজ করতে চাই।’

চলতি বছর ১ মার্চ ভারতের কেন্দ্রীয় ক্ষমতাসীন দল বিজেপিতে যোগ দিয়েছিছেন টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়।

এরপর দলটির হয়ে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন অভিনেত্রী। তার পর থেকেই বিজেপির সঙ্গে তার দূরত্ব বাড়তে থাকে। অবশেষে গত ১১ নভেম্বর দল ছেড়ে দেন শ্রাবন্তী।

সে সময় শ্রাবন্তী টুইটে লেখেন, ‘বাংলার উন্নয়নের জন্য বিজেপি আন্তরিক নয়। বাংলার জন্য কাজ করার মনোভাবের অভাব রয়েছে তাদের।’

তখনই রাজনৈতিক দলের একাংশ মনে করেছিলেন, তৃণমূলের দিকে ঝুঁকছেন শ্রাবন্তী। সেই জল্পনায় অবশেষে ইতি টানলেন।

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, সোমবার তৃণমূলের এক কর্মিসভায় দলটির পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন অভিনেত্রী।

সেই সভামঞ্চে শ্রাবন্তী বলেন, ‘আমি বাংলার জন্য কাজ করতে চাই। বাংলারই মেয়ে আমি। মমতাদিকে অনেক ধন্যবাদ। আপনাদের কাছে অনুরোধ, আমায় আপন করে নিন। আমি আপনাদের জন্যই কাজ করতে চাই।’

চলতি বছরের মাঝামাঝিতে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের আগে বেশ কয়েকজন টালিউড তারকা যোগ দিয়েছিলেন কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দল বিজেপিতে।

এর মধ্যে রয়েছেন রুদ্রনীল ঘোষ, যশ দাশগুপ্ত, তনুশ্রী চট্টোপাধ্যায়, পার্নো মিত্র, পায়েল সরকার, শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, লকেট চট্টোপাধ্যায়, বনি সেনগুপ্ত।

দলটির হয়ে নির্বাচনে অংশও নেন প্রায় সবাই। অংশগ্রহণকারী তারকাদের বেশির ভাগই পরাজিত হন।

নির্বাচনের মাস দুয়েক পরই দল ছেড়েছিলেন অভিনেত্রী তনুশ্রী চট্টোপাধ্যায়। এরপর শ্রাবন্তী।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত শ্রাবন্তী। বিজেপিতে যোগ দেয়ার আগে তৃণমূল ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচিতেও দেখা গেছে এ অভিনেত্রীকে।

শেয়ার করুন

ঢাকাই খাবারে মুগ্ধ প্রদীপ রাওয়াত

ঢাকাই খাবারে মুগ্ধ প্রদীপ রাওয়াত

গজনি সিনেমার ভিলেন চরিত্রে অভিনয় করা প্রদীপ রাওয়াত অভিনয় করছেন দেশের নেত্রী-দ্য লিডার সিনেমায়। ছবি: নিউজবাংলা

বাংলাদেশে শুটিং করতে এসে কোন জিনিসটি সবচেয়ে ভালো লাগছে, জানতে চাইলে প্রদীপ বলেন, ‘একটা জিনিস আমার খুব ভালো লাগছে, সেটা হলো খাবার; মিষ্টি দই, গুলাপ জামুন, রসমালাই, মাছ, বারবি চিকেন এবং সবার অনেক ভালোবাসা।’

বলিউডের মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খানের ভক্ত পৃথিবীজুড়েই। বাংলাদেশেও আমিরভক্তের সংখ্যা কম না। তার অভিনীত সিনেমা আসার কথা শুনলে ভারতের দর্শকদের পাশাপাশি নড়েচড়ে বসেন এ দেশের দর্শকরাও।

আমির খান অভিনীত সিনেমা গজনি-এর কথা মনে থাকার কথা অনেকের। সিনেমাটিতে আমির খানের দেহসৌষ্ঠব অবাক করেছিল দর্শকদের।

গজনি সিনেমার আরেকটি বিষয় বেশ বিস্ময়কর, সেটি হলো সিনেমার নামকরণ করা হয়েছে ভিলেনের নামে। আমির খানের সিনেমা হলেও সিনেমার নামের গুরুত্ব দেয়া হয়েছে ভিলেন নাম। আর সেই ভিলেনের চরিত্রে অর্থাৎ নাম-ভূমিকায় অভিনয় করেছেন প্রদীপ রাওয়াত।

ঢাকাই খাবারে মুগ্ধ প্রদীপ রাওয়াত
গজনি সিনেমায় প্রদীপ রাওয়াত। ছবি: সংগৃহীত

হিন্দি ভাষার অনেক পরিচিত ও ব্যবসাসফল সিনেমায় অভিনয় করেছেন প্রদীপ। অভিনয় করেছেন ভারতের বিভিন্ন ভাষার চলচ্চিত্রেও।

সেই গজনির প্রদীপ রাওয়াত অভিনয় করছেন বাংলাদেশ-তুরস্কের যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নেত্রী- দ্য লিডার-এ।

শুটিং করার ফাঁকে ২৪ নভেম্বর তিনি কথা বলেন সাংবাদিকদের সঙ্গে। অনুভূতি জানিয়ে প্রদীপ বলেন, ‘আমি প্রথমবারের মতো ঢাকায় এলাম। বাংলাদেশের সিনেমাতে এই প্রথম কাজ করছি। আমি খুব সৌভাগ্যবান যে প্রথম সিনেমাতেই এমন প্রযোজকের সঙ্গে কাজ করতে পারছি।’

বর্ষাকে দেখিয়ে প্রদীপ বলেন, ‘আসলে প্রযোজক উনি, উনিই নেত্রী, উনিই বস। আমাদের পুরো ইউনিটের সব উনিই। সৃষ্টিকর্তা ভালো একটি সুযোগ দিয়েছেন। ওনাদের (অনন্ত-বর্ষা) প্রোডাকশন কোম্পানি মুনসুন ফিল্মস দেশের সিনেমা প্রযোজনায় অনেক বড় একটি প্রতিষ্ঠান হতে যাচ্ছে।’

ঢাকাই খাবারে মুগ্ধ প্রদীপ রাওয়াত
নেত্রী-দ্য লিডার সিনেমার দৃশ্যে প্রদীপ রাওয়াত ও সহশিল্পীরা। ছবি: নিউজবাংলা

অনন্ত জলিল এবং সিনেমার প্রতি তার ভালোবাসার কথা জানাতে গিয়ে প্রদীপ বলেন, ‘আমাদের দেশে মানে ভারতে যেমন আছে ইয়াশ রাজ ফিল্মস, আপনারা জানেন হয়তো। বাংলাদেশের সিনেমা নির্মাণে তিনি রাজা হতে যাচ্ছেন। এর কারণ হলো, ওনার (অনন্ত জলিল) সিনেমা নির্মাণে অনেক শখ। আপনারা আমার যে পোশাক দেখছেন, নেত্রীর যে পোশাক দেখছেন বা অন্য সবার পোশাক তিনিই ঠিক করেছেন। এগুলোর রং কেমন হবে, তাও তিনি ঠিক করেছেন। কার চরিত্র কেমন, সে অনুযায়ী তিনি সব সেট করেছেন। সিনেমার চিত্রনাট্যও তার। মূলত তিনিই সবকিছু। আমরা শুধু আসছি, দাঁড়াচ্ছি আর অভিনয় করছি।

‘তিনি খুব কমান্ডিং, এনার্জেটিক এবং একই সঙ্গে আমরা সবাই জানি যে তিনি বাংলাদেশের একজন বড় ব্যবসায়ী। অনেক কিছুর মধ্যেও যে তিনি সিনেমাকে ভালোবাসেন, সিনেমা নিয়ে ভাবেন, আমাদের সঙ্গে সিনেমা নিয়ে কথা বলেন। ভালো কাজ করতে চান এবং আমার আশা, তিনি ভালো সিনেমা নির্মাণ করবেন।’

নেত্রী- দ্য লিডার সিনেমা নিয়ে প্রদীপের ভাষ্য, ‘এটি (নেত্রী- দ্য লিডার) একটি রাজনৈতিক সিনেমা এবং বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের সঙ্গে এর মিল থাকতে পারে। ওই সময়ে কী হয়েছিল এবং সেটি আজকের সময়ে কেমন, তেমন কিছু দেখানোর চেষ্টা আছে এখানে।’

ঢাকাই খাবারে মুগ্ধ প্রদীপ রাওয়াত
নেত্রী-দ্য লিডার সিনেমার শিল্পী, কলাকুশলীদের সঙ্গে প্রদীপ রাওয়াত। ছবি: নিউজবাংলা

বাংলাদেশে শুটিং করতে এসে কোন জিনিসটি সবচেয়ে ভালো লাগছে, জানতে চাইলে প্রদীপ বলেন, ‘একটা জিনিস আমার খুব ভালো লাগছে, সেটা হলো খাবার; মিষ্টি দই, গুলাপ জামুন, রসমালাই, মাছ, বারবি চিকেন এবং সবার অনেক ভালোবাসা।’

বাংলাদেশে তাকে অনেক মানুষ চেনে, তাকে ভালোবাসেন। এ জন্য তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। বলেন, ‘বাংলাদেশে আসার আগে আমি জানতামই না যে এখানকার মানুষ আমাকে চেনে, আমাকে এত ভালোবাসে। এটা আমার জন্য বড় সারপ্রাইজ। আমি এখানকার মানুষের কাছে খুবই কৃতজ্ঞ।’

সিনেমায় অন্য সিনেমার মতো মন্দ চরিত্রে অভিনয় করছেন প্রদীপ রাওয়াত। তবে বাস্তব জীবনে তিনি বিশ্বাস করেন বাবা-মায়ের প্রতি ভালোবাসা রাখতে হবে সবার ওপরে। জীবনে ভালো কিছু করার চেষ্টা করতে হবে।

শেয়ার করুন

নায়ক শাকিব খানের ব্যাংক হিসাব তলব

নায়ক শাকিব খানের ব্যাংক হিসাব তলব

নায়ক শাকিব খান। ফাইল ছবি

চিঠিতে বলা হয়, শাকিব খান রানার নামে বা তার ওপর নির্ভরশীল পরিবারের অন্য সদস্যদের একক বা যৌথ নামে ব্যাংক হিসাব বা তাদের মালিকানাধীন কোনো প্রতিষ্ঠানের নামে ব্যাংক হিসাব থাকলে তার তথ্য জমা দিতে হবে।

চিত্রনায়ক শাকিব খানের ব্যাংক হিসাব তলব করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

সম্প্রতি ব্যাংকগুলোতে পাঠানো এনবিআরের এক চিঠি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চিঠিতে ২০১৩ সালের ১ জুলাই থেকে ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত লেনদেনের বিবরণী এনবিআরে পাঠাতে বলা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, শাকিব খান রানার নামে বা তার ওপর নির্ভরশীল পরিবারের অন্য সদস্যদের একক বা যৌথ নামে ব্যাংক হিসাব বা তাদের মালিকানাধীন কোনো প্রতিষ্ঠানের নামে ব্যাংক হিসাব থাকলে তার তথ্য জমা দিতে হবে।

ব্যাংক হিসাবের পাশাপাশি তাদের নামে যেকোনো সঞ্চয়ী হিসাব, চলতি হিসাব, ঋণ হিসাব, বৈদেশিক মুদ্রা হিসাব, ক্রেডিট কার্ড, লকার বা ভল্ট, সঞ্চয়পত্র, শেয়ার হিসাব থাকলে তার বিবরণীও জমা দিতে হবে।

এমনকি বন্ধ হয়ে গেছে এমন হিসাব থাকলেও তা জমা দিতে হবে।

চিঠিতে শাকিব খান রানার পরিচয় দেয়া হয়েছে অভিনেতা হিসেবে। পিতার নাম আবদুর রব, মাতা রোজিয়া বেগম, স্থায়ী ঠিকানা গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর। বর্তমান ঠিকানা গুলশান-২।

আয়কর অধ্যাদেশের ১৯৮৪-এর ১১৩ (এফ) ধারার ক্ষমতাবলে এই হিসাব তলব করেছে এনবিআর।

বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান দেশের পাশাপাশি ভারতীয় ছবিতেও অভিনয় করছেন। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি প্রেম-বিয়েসহ নানা ঘটনায় আলোচিত।

ব্যাংক হিসাব তলবের বিষয় নিয়ে দেশের বাইরে অবস্থান করা শাকিব খানের প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

শেয়ার করুন