ভিকি বানাবেন ৯ জনের আত্মহত্যার সত্য ঘটনা

ভিকি বানাবেন ৯ জনের আত্মহত্যার সত্য ঘটনা

নির্মাতা ভিকি জাহেদ (বাঁয়ে), আদম বাড়ির ফলকে লেখা বার্তা (উপরে) এবং বাড়ির হোল্ডিং প্লেট (নিচে)। ছবি: সংগৃহীত

এই ঘটনাটা ২০০৭-এর হলেও নির্মাতা ভিকি জাহেদ ঘটনাটি জানতে পারেন ২০১৮ সালে। তার কাছে আত্মহত্যা করা ৯ জনের মানসিক অবস্থার গবেষণাপত্র আসে। সেটি পড়ার পর ভিকির ঘটনাটি নিয়ে আগ্রহ বাড়ে এবং শুরু হয় নির্মাণের পরিকল্পনা।

ঘটনাটি সত্য। ২০০৭ সালে ময়মনসিংহ এলাকায় ঘটেছিল ঘটনাটি। ৯ জন মানুষ ট্রেনে কাটা পড়েছিলেন। পরে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত এবং বর্ণনায় জানা গেছে এটি ছিল আত্মহত্যা এবং সেই ৯ জনই ছিলেন এক পরিবারের সদস্য।

এ ঘটনা ঘটার পর বেশ কিছু রহস্যজনক তথ্য সবার সামনে আসে। আত্মহত্যা করা ৯ জন কাশর এলাকার মরহুম আদম ফকিরের পরিবারের সদস্য এবং তারা সবাই আদম ধর্ম পালন করতেন বলে জানা যায়।

আত্মহত্যার পর আদম ধর্মের অনুসারী সেই ৯ জনের বাড়িতে তল্লাশি চালায় স্থানীয় পুলিশ। সেই সময় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা যায়, পুলিশ ঘরের ভেতর থেকে চারটি ডায়েরি পেয়েছিল, যেগুলো ইংরেজি আর বাংলায় লেখা।

একটি ডায়েরিতে লেখা ছিল, ‘আমরা হলাম পৃথিবীতে একমাত্র স্বাধীন ও আত্মনির্ভরশীল পরিবার। আমরা মোহাম্মদসহ সকল ধর্মের আইনের বাহিরে। আমাদের পিতা আদম প্রতি রাতেই আমাদের সঙ্গে দেখা করতে আসেন।’

প্রতিবেশী এবং আত্মীয়দের সঙ্গে তাদের কোনো যোগাযোগ ছিল না বলেও জানিয়েছিলেন এলাকাবাসী।

কেন এমন হয়েছিল? কী কারণে তারা সবাই আত্মহত্যা করলেন? এসব নানা প্রশ্ন রেখেই তাদের জীবনের অবসান ঘটে।

এই ঘটনাটা ২০০৭-এর হলেও নির্মাতা ভিকি জাহেদ ঘটনাটি জানতে পারেন ২০১৮ সালে। ভিকির বড় বোন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক; তার কাছে আত্মহত্যা করা ৯ জনের মানসিক অবস্থার গবেষণাপত্র আসে। সেটি পড়ার পর ভিকির ঘটনাটি নিয়ে আগ্রহ বাড়ে এবং শুরু হয় নির্মাণের পরিকল্পনা।

নিউজবাংলাকে ভিকি বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে নির্মাণের একটি বড় গবেষণা হলো সেই গবেষণাপত্রটি। এ ছাড়া পরিবারের যে ডায়েরি পাওয়া গেছে, সেটিও আমাদের কাজে অনেক সাহায্য করেছে।’

ভিকি আরও বলেন, ‘এখানে ধর্মের একটি বিষয় আছে। আমি সচেতনভাবে চেষ্টা করব এমনভাবে চিত্রনাট্য ও সংলাপ রাখার, যেন কারও ধর্ম অনুভূতিতে আঘাত না লাগে।’

ভিকি যে কাজটি করছেন, তা জানিয়ে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসও দিয়েছেন তিনি। ভিকি লিখেছেন, ‘স্ক্রিপ্টের কাজ ইতিমধ্যে শেষ। আমরা অল্প কিছুদিনের মধ্যে শুটিংয়ে যাব। বাকি ডিটেইলস সময় হলে জানিয়ে দেয়া হবে।’

নিউজবাংলাকে ভিকি জানান, অনেক দিন আগেই কাজটি করতে চেয়েছিলেন ভিকি কিন্তু যাদের কাছে পিচ করেছিলেন তারা প্রযোজনা করতে চাননি।

এখন সুযোগ পেয়েছেন কাজটি করার কিন্তু এ নিয়ে বিস্তারিত কিছু বলা মানা আছে তার। তাই এটি কী ধরনের কনটেন্ট হবে, কারা অভিনয় করবেন তার কিছুই জানানটি ভিকি জাহেদ।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

ছেলের সঙ্গে দেখা করতে জেলে শাহরুখ

ছেলের সঙ্গে দেখা করতে জেলে শাহরুখ

ছেলের সঙ্গে দেখা করতে জেলে শাহরুখ খান। ছবি: সংগৃহী

জেলের মূল গেটে থামে শাহরুখের গাড়ি। গাড়ির পেছনের সিট থেকে নামেন শাহরুখ। একটি গোল গলা টি-শার্ট আর জিনসের ট্রাউজার পরে ছিলেন। মুখ ঢাকা ছিল কালো মাস্কে। চোখে কালো রোদচশমা। মাথার লম্বা চুল পনিটেলে বাঁধা। দেহরক্ষীর বেস্টনির সাহায্য নিয়ে দ্রুত জেলের ভিতরে চলে যান।

মাদক মামলায় কারাগারে শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খান। বুধবার জামিন মেলেনি। তাই ছেলের সঙ্গে দেখা করতে জেলেই হাজির হলেন বলিউড বাদশাহ।

মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো আরিয়ানকে গ্রেপ্তার হবার পর এই প্রথম ছেলের সঙ্গে জেলে গিয়ে দেখা করলেন শাহরুখ। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে মুম্বাইয়ের আর্থার রোড জেলে পৌঁছান শাহরুখ।

শাহরুখের সঙ্গে ছিলেন আইনজীবীদের একটি দল। জেলের ভেতর প্রায় ১৫ মিনিট ছিলেন কিং খান। দ্রুত কথা বলে বের হয়ে আসেন তিনি। তার সঙ্গেই ফেরত যায় আইনজীবীদের দলটিও।

ছেলের সঙ্গে চুপিসারেই দেখা করতে চেয়েছিলেন শাহরুখ। সে কারণে বড় কনভয় বা বড় গাড়ি নিয়ে যাননি তিনি। কালো কাচে ঘেরা একটি ছোট গাড়িতে জেলে যান তিনি।

তবে শাহরুখের আসার খবর আগে থেকেই পেয়ে গিয়েছিলেন অনেকে। ফলে আর্থার রোড জেলের মূল ফটকের বাইরে ভিড় জমে যায়।

জেলের মূল গেটে থামে শাহরুখের গাড়ি। গাড়ির পেছনের সিট থেকে নামেন শাহরুখ। একটি গোল গলা টি-শার্ট আর জিনসের ট্রাউজার পরে ছিলেন। মুখ ঢাকা ছিল কালো মাস্কে। চোখে কালো রোদচশমা। মাথার লম্বা চুল পনিটেলে বাঁধা। দেহরক্ষীর বেস্টনির সাহায্য নিয়ে দ্রুত জেলের ভিতরে চলে যান।

প্রশাসনের অনুমতি পেলে সাধারণত এই ধরনের সাক্ষাৎ হয় ৫ থেকে ১০ মিনিটের। শাহরুখ জেলের ভিতরে ছিলেন প্রায় ১৫ মিনিট। তবে ওই সময়ের পুরোটাই তিনি আরিয়ানের সঙ্গে ছিলেন কি না তা নিশ্চিত না।

আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করতে জেলে ঢোকা ও বের হওয়ার সময় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেননি তিনি।

আর্থার রোড জেলটি মুম্বাই শহরের ভেতরেই। এ জেলেই বিশেষ টাডা আদালতে বিচার হয়েছিল বলিউডের নায়ক সঞ্জয় দত্তের। সেখানে বেশ কিছুদিন বন্দিও ছিলেন তিনি।

গত ২ অক্টোবর একটি প্রমোদতরী থেকে আরিয়ানসহ আটজনকে মাদক মামলায় আটক করা হয়।

শেয়ার করুন

রাফির ‘রাস্তা’য় সিয়াম, পারিশ্রমিক ১ হাজার ১ টাকা

রাফির ‘রাস্তা’য় সিয়াম, পারিশ্রমিক ১ হাজার ১ টাকা

সিয়াম আহমেদ ও রায়হান রাফি। ছবি: সংগৃহীত

ঘোষণায় আরও বলা হয়, সিয়াম প্রতি সিনেমায় সম্মানী নেন ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা। কিন্তু জাজের ছেলে সিয়াম ‘রাস্তা’ সিনেমা বাবদ নিয়েছেন ১ হাজার ১ টাকা।

আবারও নতুন সিনেমার ঘোষণা দিল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। সিনেমার নাম রাস্তা। এটি পরিচালনা করবেন পোড়ামন-২দহন-খ্যাত পরিচালক রায়হান রাফি।

সিনেমার প্রধান পুরুষ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন সিয়াম আহমেদ। বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন সিয়াম নিজেই।

তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি রাস্তা সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছি এবং জানুয়ারি থেকে সিনেমাটির দৃশ্যধারণের কাজ শুরু হওয়ার কথা আছে।’

এ ব্যাপারে জাজ মাল্টিমিডিয়ার ফেসবুক পেজ থেকেও একটি ঘোষণা দেয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, সিনেমায় রাফির বিপরীতে অভিনয় করবেন নতুন কোনো অভিনেত্রী।

ঘোষণায় আরও বলা হয়, সিয়াম প্রতি সিনেমায় সম্মানী নেন ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা। কিন্তু জাজের ছেলে সিয়াম রাস্তা সিনেমা বাবদ নিয়েছেন ১ হাজার ১ টাকা।

এ ব্যাপারে সিয়াম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘পারিশ্রমিক অন্য রকম একটি বিষয়। জাজ মাল্টিমিডিয়া বা রাফির কাজ মানে আমার কাছে অন্য কিছু। আমি পারিশ্রমিক নিতেও চাইনি কিন্তু চুক্তিপত্রে অর্থের পরিমাণ কিছু একটা লিখতে হয়, সে জন্য অর্থের পরিমাণটি উল্লেখ করা।’

জাজ মাল্টিমিডিয়া সম্প্রতি বেশ কিছু ওয়েব কনটেন্টের ঘোষণা দিয়েছে। জাজের প্রযোজনায় রায়হার রাফির পরিচালানয় আরও একটি নতুন ওয়েব সিরিজ নির্মাণের ঘোষণা আছে। ওয়েব সিরিজটির নাম চক্র

সেটি নিয়ে এখনও বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

শেয়ার করুন

এবারও জামিন হলো না শাহরুখপুত্রের

এবারও জামিন হলো না শাহরুখপুত্রের

জামিন হলো না শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানের। ছবি: সংগৃহীত

কারাগারেই থাকতে হচ্ছে আরিয়ানকে। তার সঙ্গে আরও দুই অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুনের জামিন আবেদনও খারিজ হয়েছে।

দফায় দফায় আবেদন করেও জামিন পাচ্ছেন না শাহরুখপুত্র আরিয়ান খান। শেষ বুধবারও শাহরুখপুত্রের জামিনের আবেদন মঞ্জুর করল না মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত।

ফলে কারাগারেই থাকতে হচ্ছে আরিয়ানকে। তার সঙ্গে আরও দুই অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুনের জামিন আবেদনও খারিজ হয়েছে।

বুধবার আরিয়ানের জামিন শুনানির আগে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) কর্মকর্তারা আদালতের হাতে নতুন তথ্য তুলে দিয়েছেন। যেখানে জানা গেছে, প্রমোদতরির ওই পার্টিতে যোগ দেয়ার আগে উঠতি এক বলিউড অভিনেত্রীর সঙ্গে শাহরুখ খানের ছেলে মাদক বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন।

গত সপ্তাহে অর্থাৎ ১৪ অক্টোবরেও আরিয়ানের জামিন আবেদন খারিজ হয়। আদালত ঘোষণা করেছিল, মামলার পরবর্তী শুনানি হবে বুধবার, ২০ অক্টোবর। সেই মতোই শুনানি হয় কিন্তু কারাগার থেকে বের হতে পারলেন না আরিয়ান।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, আরিয়ানের জন্য করা মানত এখনও ভাঙতে পারলেন না শাহরুখপত্নী গৌরী। অর্থাৎ তাদের বাড়ি ‘মান্নাত’-এর চুলায় এবারও মিষ্টি রান্না করার সুযোগ পেলেন না গৌরী খান।

শেয়ার করুন

আসছে ব্যান্ড অ্যাডভার্ব এর নতুন গান

আসছে ব্যান্ড অ্যাডভার্ব এর নতুন গান

অ্যাডভার্ব ব্যান্ড। ছবি: সংগৃহীত

ব্যান্ডের ভোকাল প্রান্ত জানান, অ্যাডভার্ব শ্রোতাদের ভালোবাসায় সিক্ত। তাই ভালো করার দায়িত্বটাও অনেক বেশি। করোনা ও নানা ঝামেলার কারণে চতুর্থ গান রিলিজের সময় পরিবর্তন হচ্ছিল। আরও কিছু এক্টিভিটিস আসবে গানটি প্রকাশের আগে।

২০১৪ সাল। প্রান্ত, সোহাগ, তুহিন মিলে গড়ে তোলেন ব্যান্ড অ্যাডভার্ব। ৬ বছর পর তারা প্রকাশ করে তাদের প্রথম গান ‘কতদূর’। ব্যান্ডটির আরও কিছু গান ‘অবসাদ’ ও ‘কে তোমাকে বাসবে ভালো’ শুনেছেন শ্রোতারা।

ব্যান্ডটি তাদের ‘পূর্বাপর’ অ্যালবামের চতুর্থ গান প্রকাশ করতে যাচ্ছে। গানের শিরোনাম ‘যেখানেই যাচ্ছি থেমে’। গানটির দৈর্ঘ্য ৮ মিনিট। এরই মধ্যে গানটির প্রচারণার শুরু হয়েছে।

ব্যান্ডের গিটারিস্ট রেক্স বলেন, ‘আমরা আমাদের নতুন গানের রের্কডিং শেষ করেছি। হয়ে গেছে মিউজিক ভিডিওর দৃশ্যধারণ। ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন ডিজিটাল প্লাটফর্মে গানটির মিউজিক ভিডিও প্রকাশিত হতে যাচ্ছে ২৯ অক্টোবর।’

ব্যান্ডের ভোকাল প্রান্ত জানান, অ্যাডভার্ব শ্রোতাদের ভালোবাসায় সিক্ত। তাই ভালো করার দায়িত্বটাও অনেক বেশি। করোনা ও নানা ঝামেলার কারণে চতুর্থ গান রিলিজের সময় পরিবর্তন হচ্ছিল। আরও কিছু এক্টিভিটিস আসবে গানটি প্রকাশের আগে।

ব্যান্ডের অন্যান্য সদস্যরা হলেন, তুহিন পন্ডিত (বেজিস্ট), সোহাগ (ড্রামার), আব্বাসী লিংকন (গিটারিস্ট)।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা জানায়, বাংলাদেশি রক মিউজিক পশ্চিম বাংলায় বেশ জনপ্রিয়। ওপার বাংলায় জেমস, মাইলস, এলআরবি, হালের ওয়ারফেজ ও অন্যান্য ব্যান্ডের মতো অ্যাডভার্বও ছড়িয়ে পড়েছে তাদের গানে নিয়ে। আরও ভালো ভালো গান উপহার দেয়াই ব্যান্ড অ্যাডভার্বের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা।

শেয়ার করুন

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন

ঢাকাড্রিম সিনেমার পোস্টার। ছবি: সংগৃহীত

পরিচালকের ভাষ্যে ঢাকাড্রিম সিনেমা হলো, ‘আমরা সবাই ঢাকায় আসতে চাই এবং তাদের অনেকে আসি জীবীকার প্রয়োজনে, উচ্চ শিক্ষার জন্য, উন্নত জীবনের আশায়। এ শহরে আসার কারণ অসংখ্য। সেই কারণ ও সংকট খোঁজার চেষ্টা করেছি আমরা।’

সিনেমার নাম ঢাকাড্রিম। নামের সঙ্গে যেমন স্বপ্ন ব্যাপারটি জড়িয়ে আছে, তেমনি সিনেমাতেও স্বপ্নের কথা বলা হয়েছে। তবে এই স্বপ্ন হাতে তুলে দেয়া স্বপ্ন নয়, এই স্বপ্ন পরিশ্রমের মাধ্যমে ছিনিয়ে নেয়ার।

সিনেমাটি দেশে মুক্তি পাচ্ছে ২২ অক্টোবর। সিনেমার পরিচালক সুতপার ঠিকানা খ্যাত প্রসূন রহমান।

তার ভাষ্যে ঢাকাড্রিম সিনেমা হলো, ‘আমরা সবাই ঢাকায় আসতে চাই এবং তাদের অনেকে আসি জীবিকার প্রয়োজনে, উচ্চ শিক্ষার জন্য, উন্নত জীবনের আশায়। এ শহরে আসার কারণ অসংখ্য। সেই কারণ ও সংকট খোঁজার চেষ্টা করেছি আমরা।’

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন
ঢাকাড্রিম সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

পরিচালক আরও বলেন, ‘আমরা তো ঢাকায় আসি দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। তাদের একেক জনের একক রকম কারণ। আমরা সিনেমাটি করার আগে শতাধিক মানুষের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলাম। সেখানে জানতে চেয়েছিলাম তাদের ঢাকায় আসার কারণ এবং আমরা অদ্ভুত সব কারণ পেয়েছি।

‘সেখান থেকে উল্লেখযোগ্য দশটি কারণ, তাদের সংকট-সংগ্রাম নিয়ে এ সিনেমাটি করা। আগামীকাল যিনি ঢাকায় আসবেন তার আজকের দিনটি কেমন, কেন, কোন আশায়, কোন প্রেক্ষাপটে তিনি ঢাকায় আসছেন, সেটি আমরা ক্যামেরায় তুলে আনার চেষ্টা করেছি।’

সিনেমায় অভিনয় করেছেন প্রয়াত এস এম মহসীন, ফজলুর রহমান বাবু, মুনিরা মিঠু, শাহাদাৎ হোসেন, শাহরীয়ার ফেরদৌস সজীব, পূর্ণিমা বৃষ্টিসহ অনেকে।

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন
ঢাকাড্রিম সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

অভিনেত্রী মুনিরা মিঠু শুটিংয়ের সময়ের কিছু স্মৃতিচারণা করে বলেন, ‘ঢাকাড্রিম সিনেমায় যে ধরনের চরিত্রে অভিনয় করেছি, তার আগে কখনও করা হয়নি। সিনেমাটি মুক্তি পাচ্ছে আমি খুবই খুশি।’

সিনেমাটির জন্য অনেক কষ্ট করতে হয়েছে উল্লেখ করে মুনিরা মিঠু বলেন, ‘মনে আছে, প্রচণ্ড কনকনে হাওয়ায় মানিকগঞ্জের একটি লোকেশনে সারা রাত আমরা গানের একটি দৃশ্যায়ন করেছিলাম। সেটি যখন শেষ হয়, তখন ভোর ৬টা। যখন গাড়িতে উঠলাম, তিন-চারটা কম্বল দিয়ে আমাকে জড়িয়ে ফেলা হলো।’

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন
ঢাকাড্রিম সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকাড্রিম সিনেমা স্বপ্নের কথা বলবে, সে স্বপ্ন পর্দায় দেখানো হলেও তা দেখতে বাস্তবের চেয়েও কঠিন, তেমনটাই জানিয়েছেন সিনেমার অন্য অভিনয়শিল্পীরা।

শেয়ার করুন

জন্মদিনে বিপদের সাথিদেরই ডাকবেন পরী

জন্মদিনে বিপদের সাথিদেরই ডাকবেন পরী

বিগত জন্মদিনে ময়ূর থিমে পরীমনির সাজপোশাক। ছবি: সংগৃহীত

ফেসবুকে একটি গল্প দিয়ে পরীমনি লিখেছেন, ‘যারা বিপদের সময় তোমার পাশে থাকেনি, তারা তোমার আনন্দের অংশীদার হওয়ার যোগ্যতাও রাখে না।’

আর কয়েক দিন পরই ঢাকাই সিনেমার আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনির জন্মদিন। জন্মদিন বেশ জমকালো করে উদযাপন করেন এ নায়িকা। একবার তো ময়ূরবেশেই এসেছিলেন তিনি।

জমকালো সে আয়োজনে যারা আমন্ত্রণ পান তাদের অনেকেই জানিয়েছেন, পরীমনির জন্মদিনের আয়োজনে অতিথিদের জন্যও থাকত ড্রেস কোড।

মূলত পরীমনি যে থিমে তার আয়োজন সাজান, সেই রঙের সঙ্গে মিল রেখে অতিথিদের সাজপোশাক পরতে বলেন।

সম্প্রতি মাদক মামলায় কারাগারে ছিলেন পরীমনি। এখন আছেন জামিনে এবং শুটিং করছেন গুনিন সিনেমার।

কারামুক্ত হওয়ার পর জন্মদিন নিয়ে পরীমনি গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, এবার আর নিজের খরচে জন্মদিনের জমকালো আয়োজন করবেন না তিনি। কোনো প্রতিষ্ঠান বা হোটেল-রেস্টুরেন্ট যদি পৃষ্ঠপোষকতা করে তবেই হবে জমকালো আয়োজন।

সিদ্ধান্ত এমনটাই থাকতে পারে, আবার পরিবর্তনও হতে পারে। এমনও হতে পারে যে পরীমনি শুটিংয়ের জন্য জমকালো আয়োজন করতেই পারলেন না। আবার পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েও যেতে পারেন। এ ব্যাপারে জানা যাবে শিগগিরই।

জন্মদিন নিয়ে আগাম বার্তা দিয়েছেন পরীমনি। কারামুক্ত হয়ে পরী মেহেদিরাঙা হাতে দুইবার বার্তা দিয়েছেন। এবারের বার্তাটা অনেকটা তেমনি।

এবার পরীমনি সেই ইঙ্গিত দিয়েছেন একটি গল্প বলে। পরী তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে গল্পটিতে লিখেছেন- ‘এক লোক একটা আস্ত বড় গরু গ্রিল করে তার মেয়েকে বললেন, আমার শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভোজের জন্য ডাকো।

‘মেয়েটি রাস্তায় গিয়ে চিৎকার করতে থাকল, আমাদের বাসায় আগুন লেগেছে কে কোথায় আছো আমাদের সাহায্য করো।

‘অল্প কিছুসংখ্যক মানুষ সাহায্যের জন্য এগিয়ে এলেন। বাকিরা এমন ভাব করলেন, যেন তারা কিছু শুনতেই পাননি! যারা সাহায্যের জন্য এলেন, তারা পেটপুরে মজাদার সেই খাবার খেলেন।’

পরী গল্পে আরও লেখেন, ‘বাবা আশ্চর্য হয়ে মেয়েকে জিজ্ঞেস করলেন- মা, যারা এসেছেন তাদের কাউকেই আমি চিনি না! আমাদের শুভাকাঙ্ক্ষীরা সব কোথায়?

‘মেয়েটি উত্তরে বলল- যারা এসেছেন তারাই আমাদের শুভাকাঙ্ক্ষী! তারা কিন্তু খাবার খেতে আসেননি। তারা এসেছেন আমাদের বাড়ির আগুন নেভাতে। এরাই আমাদের আপনজন।’

গল্প শেষে পরীমনি লেখেন, ‘যারা বিপদের সময় তোমার পাশে থাকেনি, তারা তোমার আনন্দের অংশীদার হওয়ার যোগ্যতাও রাখে না।’

কথাগুলো লেখার কারণ স্পষ্ট হয় একদম শেষের হ্যাশট্যাগের লেখা থেকে। পরী হ্যাশট্যাগ দিয়ে লিখেছেন ’২৪ অক্টোবর ফ্যাক্ট’। ২৪ অক্টোবর পরীমনির জন্মদিন।

শেয়ার করুন

প্রতি মাসে শ্রাবন্তী চান ৭ লাখ

প্রতি মাসে শ্রাবন্তী চান ৭ লাখ

কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। ছবি: সংগৃহীত

রোশনের সঙ্গে সংসার করতে চান না, সে কথা আগেই জানিয়েছিলেন শ্রাবন্তী। কাগজে-কলমেও তা প্রতিষ্ঠিত করতে আলিপুর আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করেন অভিনেত্রী।

কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী শুধু ডিভোর্স নয়, গত মাসে স্বামী রোশনের বিরুদ্ধে করেছেন খোরপোশের মামলাও। এ খবর এখন সবারই জানা। এবার জানা গেল রোশনের কাছ থেকে শ্রাবন্তী প্রতি মাসে কত টাকা খোরপোশ হিসেবে দাবি করেছেন।

পরিমাণটা সত্যি চমকে দেয়ার মতো! সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, শ্রাবন্তী প্রতি মাসে ৭ লাখ রুপি দাবি করেছেন রোশনের কাছ থেকে।

এক বছর হলো আলাদা শ্রাবন্তী-রোশন। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দুজনের দাম্পত্য কলহের কথা প্রকাশ্যে আসা শুরু করে।

রোশনের সঙ্গে সংসার করতে চান না, সে কথা আগেই জানিয়েছিলেন শ্রাবন্তী। কাগজে-কলমেও তা প্রতিষ্ঠিত করতে আলিপুর আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করেন অভিনেত্রী। তবে শুধু বিচ্ছেদই না, ক্রিমিনাল প্রসিডিওর কোডের ১২৫ ধারা অনুযায়ী, রোশনের কাছ থেকে প্রতি মাসে ভরণপোষণের জন্য টাকাও দাবি করেছেন শ্রাবন্তী।

প্রতি মাসে শ্রাবন্তী চান ৭ লাখ
কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। ছবি: সংগৃহীত

এ বিষয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে রোশনের আইনজীবী শ্যামল মণ্ডল জানিয়েছেন, এই খবর সত্য। রোশনের কাছ থেকে খোরপোশ বাবদ প্রতি মাসে ৭ লাখ রুপি দাবি করেছেন শ্রাবন্তী, আগামী ১৫ ডিসেম্বর এই মামলার শুনানির দিন ধার্য হয়েছে।

এ নিয়ে শ্রাবন্তী কোনো মন্তব্য করেননি। তিনি দিব্বি ঘুরে বেড়াচ্ছেন কখনও পাহাড়ে, কখনও আবার সমুদ্রে। বিয়ে ও মামলা প্রসঙ্গে রোশন আগেই জানিয়েছেন, এ বিষয়ে যা বলার তার আইনজীবী বলবেন।

শেয়ার করুন