কৌশানী ঢাকা আসছেন শনিবার

কৌশানী ঢাকা আসছেন শনিবার

অভিনেত্রী কৌশানী মুখার্জি। ছবি: সংগৃহীত

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ২৬ সেপ্টেম্বর কলকাতা থেকে ঢাকায় আসছেন জনপ্রিয় এ নায়িকা। ‘পিয়া রে’ নামের দেশের একটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন কৌশানী। এটি প্রযোজনা করছে শাপলা মিডিয়া।

কলকাতার সিনেমার হালের নামকরা অভিনেত্রী কৌশানী মুখার্জি। সিনেমা ছাড়াও লাভ লাইফ নিয়ে আলোচনায় আসেন প্রায়ই। কৌশানীর প্রেমিক বনি সেনগুপ্ত। তিনিও কলকাতার নবীন অভিনেতাদের একজন।

এবার সেই বনিকে ছেড়ে কৌশানী ঢাকায় আসছেন শান্ত খানের সঙ্গে প্রেম করতে!

না, ভুল পড়ছেন না। কৌশানী ঢাকায় আসছেন এবং শান্ত খানের সঙ্গে প্রেমও করবেন, তবে পর্দায়। হ্যাঁ, সিনেমায় অভিনয়ের জন্যই তার ঢাকায় আসা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ২৬ সেপ্টেম্বর কলকাতা থেকে ঢাকায় আসছেন জনপ্রিয় এ নায়িকা।

‘পিয়া রে’ নামের দেশের একটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন কৌশানী। এটি প্রযোজনা করছে শাপলা মিডিয়া।

কৌশানী ঢাকা আসছেন শনিবার
কৌশানী ও শান্ত খান। ছবি: সংগৃহীত

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার সেলিম খান জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক বলেই কাজটি শুরু করছেন। বিদেশি শিল্পী নিয়ে সিনেমায় কাজের জন্য প্রয়োজনীয় সরকারি অনুমতিও নাকি নিয়ে রেখেছেন তিনি। ঢাকা, পুবাইল ও চাঁদপুরে হবে সিনেমার শুটিং।

সেপ্টেম্বরের শেষ পর্যন্ত থাকার প্রস্তুতি নিয়ে কৌশানী ঢাকায় আসছেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আরও জানিয়েছে, পূজন মজুমদারের পরিচালনায় এ সিনেমায় অভিনয় করবেন দুই বাংলার শিল্পীরা। কলকাতা থেকে কৌশানী ছাড়া থাকছেন রজতাভ দত্ত ও খরাজ মুখার্জি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

অভিনেতা কায়েস চৌধুরী আর নেই

অভিনেতা কায়েস চৌধুরী আর নেই

অভিনেতা কায়েস চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

তার মরদেহ রাতে শমরিতা হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে। শুক্রবার জুমার নামাজের পর ধানমন্ডির ১২/এ-তে তাকওয়া মসজিদে তার জানাজা হবে বলে জানান নাসিম।

অভিনেতা কায়েস চৌধুরী মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ধানমন্ডির ইবনে সিনা হাসপাতালে শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম।

তিনি বলেন, কায়েস চৌধুরী দীর্ঘদিন ধরে কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন। ডায়ালাইসিস করতে গিয়ে তিনি মারা যান।

তার মরদেহ রাতে শমরিতা হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে। শুক্রবার জুমার নামাজের পর ধানমন্ডির ১২/এ-তে তাকওয়া মসজিদে তার জানাজা হবে বলে জানান নাসিম।

নাসিম বলেন, তার দাফন হবে বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে।

অসংখ্য টিভি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। নাটক পরিচালনাও করেছেন। কৃষ্ণপক্ষ, পদ্মাপুরাণসহ বেশ কিছু সিনেমাতেও দেখা গেছে তাকে।

শেয়ার করুন

মানহানির মামলা করলেন সামান্থা

মানহানির মামলা করলেন সামান্থা

দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু। ছবি: সংগৃহীত

এ নিয়ে সামান্থার সহকারী জানান, ইউটিউব চ্যানেলগুলো অভিনেত্রীর নামে ভুয়া খবর ছড়াচ্ছিল। জনপ্রিয়তা পাওয়ার লোভে ভুল তথ্য দিয়ে ভিডিও তৈরি করা হয়েছিল। সেসব কন্টেটে বলা হয়েছে, সামান্থার বিয়ে বহির্ভূত সম্পর্ক ও গর্ভপাত করার সিদ্ধান্তই তার এবং নাগা চৈতন্যের বিচ্ছেদের কারণ।

চলতি মাসে দক্ষিণী সিনেমার তারকা নাগা চৈতন্যের সঙ্গে বিয়ে বিচ্ছেদ ঘোষণা করেছেন দ্য ফ্যামিলি ম্যান-টু খ্যাত অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু। এর পর থেকেই তাকে ঘিরে নানা গুজব শুরু হয়।

আঙুল ওঠে সামান্থার চরিত্রের ওপর। গুজব রটে, সামান্থা নাকি অন্য কারও সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন। অভিনেত্রী গর্ভপাত করিয়েছেন বলেও গুজব রটে।

এসব নিয়েই সম্প্রতি নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি বার্তাও পোস্ট করেন সামান্থা। এর পরেও বন্ধ হয়নি সেসব গুজব। তাই আইনি পথেই হাঁটতে বাধ্য হয়েছেন অভিনেত্রী।

একাধিক ইউটিউব চ্যানেল বিরুদ্ধে ও একজন আইনজীবীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন সামান্থা।

মানহানির মামলা করলেন সামান্থা
দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু। ছবি: সংগৃহীত

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, এ নিয়ে সামান্থার সহকারী জানান, ইউটিউব চ্যানেলগুলো অভিনেত্রীর নামে ভুয়া খবর ছড়াচ্ছিল। জনপ্রিয়তা পাওয়ার লোভে ভুল তথ্য দিয়ে ভিডিও তৈরি করা হয়েছিল। সেসব কন্টেটে বলা হয়েছে, সামান্থার বিয়ে বহির্ভূত সম্পর্ক ও গর্ভপাত করার সিদ্ধান্তই তার এবং নাগা চৈতন্যের বিচ্ছেদের কারণ।

এর আগে এ ধরনের মিথ্যা গুজবের বিরুদ্ধে টুইট করেছিলেন অভিনেত্রী কিন্তু তার পরেও তাকে নিয়ে থামেনি মিথ্যা চর্চা।

মানহানির মামলা করলেন সামান্থা
দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু। ছবি: সংগৃহীত

সেই টুইট বার্তায় সামান্থা লিখেছিলেন, ‘আমার ব্যক্তিগত কঠিন এ সময়ে আপনাদের সাপোর্ট আমাকে অভিভূত করেছে। গভীর সহানুভূতি, উদ্বেগ দেখানোর জন্য এবং মিথ্যা গুজব ও প্রচারিত গল্প থেকে আমাকে রক্ষা করায় সবাইকে ধন্যবাদ। তারা বলে যে, আমার সম্পর্ক ছিল, আমি কখনোই সন্তান চাই না; আমি একজন স্বার্থপর, আমি গর্ভপাত করিয়েছি।

‘যেকোনো বিচ্ছেদ প্রক্রিয়াই ভীষণ কষ্টদায়ক। এই কঠিন ক্ষত সারাতে আমাকে নিজের মতো থাকতে দিন। ব্যক্তিগতভাবে আমার ওপর এ আক্রমণ হয়েছে, কিন্তু আমি আপনাদের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যে, এই ধরনের মিথ্যা গুজব কিংবা রটনা আমাকে কোনো দিন ভাঙতে পারবে না।’

শেয়ার করুন

‘টুঙ্গিপাড়ার দুঃসাহসী খোকা’য় চুক্তিবদ্ধ নিরব

‘টুঙ্গিপাড়ার দুঃসাহসী খোকা’য় চুক্তিবদ্ধ নিরব

চিত্রনায়ক নিরবের সঙ্গে পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার। ছবি: সংগৃহীত

মাসুম রেজার চিত্রনাট্যে ২০১৯-২০ সালে সরকারি অনুদান পাওয়া এ সিনেমাটি নির্মাণ করবেন খ্যাতিমান পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার। বৃহস্পতিবার এফডিসিতে এ সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হন নিরব।

টুঙ্গিপাড়ার দুঃসাহসী খোকা নামের নতুন এক চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন চিত্রনায়ক নিরব।

মাসুম রেজার চিত্রনাট্যে ২০১৯-২০ সালে সরকারি অনুদান পাওয়া এ সিনেমাটি নির্মাণ করবেন খ্যাতিমান পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার। বৃহস্পতিবার এফডিসিতে এ সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হন নিরব।

সিনেমায় চুক্তির হওয়ার বিষয়টি নিজেই নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন নিরব।

এতে জাতির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবরের বোনের জামাতা সৈয়দ নূরুল হকের চরিত্রে অভিনয় করবেন নিরব।

বঙ্গবন্ধুর কিশোরবেলার গল্প নিয়ে নির্মিত হচ্ছে টুঙ্গিপাড়ার দুঃসাহসী খোকা

ইতোমধ্যেই সিনেমাটির প্রথম লটের শুটিং শেষ হয়েছে। ২৬ অক্টোবর থেকে শুরু হবে সিনেমাটির দ্বিতীয় লটের শুটিং। এর আগেই চুক্তিবদ্ধ হলেন নিরব।

সিনেমা ও নিজের চরিত্র নিয়ে নিরব বলেন, ‘সিনেমাটি যেমন ঐতিহাসিক ও তেমনই এতে আমার চরিত্রটিও ভীষণ তাৎপর্যপূর্ণ। এমন একটি ঐতিহাসিক সিনেমার অংশ হতে পেরে আমি ভীষণ খুশি এবং সেই সঙ্গে পরিচালক গুলজার ভাইয়ের কাছে কৃতজ্ঞ।’

শেয়ার করুন

৯৪তম অস্কারে যাচ্ছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’

৯৪তম অস্কারে যাচ্ছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’

৯৪তম অস্কারে যাচ্ছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’। ছবি: সংগৃহীত

নভেম্বরে দেশের সিনেমা হলে মুক্তি দেয়ার শর্তে অস্কারের বিদেশি ভাষার প্রতিযোগিতা বিভাগে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমাটিকে মনোনীত করে বাংলাদেশ অস্কার কমিটি।

অস্কারের ৯৪তম আসরে বেস্ট ইন্টারন্যাশনাল ফিচার ফিল্ম (বিদেশি ভাষার প্রতিযোগিতা) বিভাগে বাংলাদেশের সিনেমা হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করবে আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ পরিচালিত রেহানা মরিয়ম নূর

বাংলাদেশ ফেডারেশন অফ ফিল্ম সোসাইটিজের উদ্যোগে গঠিত চলচ্চিত্র বাছাই কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয় গত ১৯ অক্টোবর। ওই সভায় সিনেমাটিকে মনোনীত করে কমিটি।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানান ৯৪তম অস্কার বাংলাদেশ কমিটির সমন্বয়ক আব্দুল্লাহ আল মারুফ।

নভেম্বরে দেশের সিনেমা হলে মুক্তি দেয়ার শর্তে অস্কারের বিদেশি ভাষার প্রতিযোগিতা বিভাগে রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমাটিকে মনোনীত করে বাংলাদেশ অস্কার কমিটি।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রতিবছর আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে থাকে অস্কার বাংলাদেশ কমিটি, করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এ বছর সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ ঘোষণা দেয়া হলো।

অস্কারের ইন্টারন্যাশনাল ফিচার ফিল্ম প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের লক্ষ্যে সিনেমা বাছাইয়ের জন্য ৮ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ৪ অক্টোবর বাছাই প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের জন্য সিনেমা আহ্বান করা হয়। প্রতিযোগিতায় চলচ্চিত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ছিল গত ১৪ অক্টোবর বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমার কাহিনি আবর্তিত হয়েছে বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষক রেহানা মরিয়ম নূরকে কেন্দ্র করে। সেখানে রেহানা একজন মা, মেয়ে, বোন ও শিক্ষক। এক সন্ধ্যায় কলেজ থেকে বের হয়ে তিনি এমন এক ঘটনা প্রত্যক্ষ করেন, যা তাকে প্রতিবাদী করে তোলে। এক ছাত্রীর পক্ষ হয়ে সহকর্মী এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে বাধ্য হন রেহানা। একই সময়ে তার ৬ বছরের মেয়ের বিরুদ্ধে স্কুল থেকে রূঢ় আচরণের অভিযোগ করা হয়। এমন অবস্থায় রেহানা তথাকথিত নিয়মের বাইরে থেকে সেই ছাত্রী ও তার সন্তানের জন্য ন্যায়বিচার খুঁজতে থাকেন।

এর চিত্রনাট্য লিখেছেন সাদ নিজেই। রেহানা মরিয়ম নূর চরিত্রে অভিনয় করেছেন আজমেরী হক বাঁধন। ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন আফিয়া জাহিন জাইমা, কাজী সামি হাসান, আফিয়া তাবাসসুম বর্ণ, ইয়াছির আল হক, সাবেরী আলম।

পোটোকল ও মেট্রো ভিডিওর ব্যানারে সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন সিঙ্গাপুরের জেরেমি চুয়া। নির্বাহী প্রযোজক এহসানুল হক। সিনেমাটোগ্রাফি করেছেন তুহিন তুমিজুল। সহপ্রযোজনা করেছে সেন্সমেকারস প্রোডাকশন।

শেয়ার করুন

অস্কার দৌড়ে বিদ্যার ‘শেরনি’, ভিকির ‘সর্দার উধাম’

অস্কার দৌড়ে বিদ্যার ‘শেরনি’, ভিকির ‘সর্দার উধাম’

বলিউড তারকা বিদ্যা বালান ও ভিকি কৌশল। ছবি: সংগৃহীত

৯৪তম অস্কারে যাওয়ার দৌড়ে রয়েছে বলিউডের দুই সিনেমা। এর মধ্যে রয়েছে বিদ্যা বালান অভিনীত ‘শেরনি’ ও ভিকি কৌশল অভিনীত ‘সর্দার উধাম’।

৯৪তম অস্কারের বেস্ট ইন্টারন্যাশনাল ফিচার ফিল্মের দৌড়ে রয়েছে দুই হিন্দি সিনেমা। সেগুলো হলো বিদ্যা বালান অভিনীত শেরনি ও ভিকি কৌশল অভিনীত সর্দার উধাম

কলকাতার বিজলী সিনেমা হলে সোমবার থেকে শুরু হয়েছে অস্কারে পাঠানোর জন্য ভারতীয় সিনেমার বাছাই।

১৫ বিচারক ১৪টি সিনেমা থেকে সেরাটি বেছে নেবেন। সেই চূড়ান্ত বাছাই তালিকায় রয়েছে শেরনিসর্দার উধাম। দুটি সিনেমাই অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওতে মুক্তি পেয়েছে।

শেরনি সিনেমায় বিদ্যা বালান বন কর্মকর্তার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। তিনি মানুষকে সচেতন করে বন্যপ্রাণী বাঁচানোর কাজ করেন। এটি পরিচালনা করেছেন অমিত মাসুরকর।

বিপ্লবী সর্দার উধাম সিংয়ের জীবন সংগ্রামের ওপর নির্মিত সিনেমা সর্দার উধাম। ১৯১৯ সালে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের প্রতিশোধ নিতে তিনি স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন।

এতে উধাম সিংয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ভিকি কৌশল। এটি পরিচালনা করেছেন সুজিত সরকার।

অস্কার দৌড়ে বিদ্যার ‘শেরনি’, ভিকির ‘সর্দার উধাম’

বিদ্যা বালান অভিনীত ‘শেরনি’ ও ভিকি কৌশল অভিনীত ‘সর্দার উধাম’ সিনেমার পোস্টার। ছবি: সংগৃহীত

অস্কারের মঞ্চে বেস্ট ইন্টারন্যাশনাল ফিচার ফিল্ম ক্যাটাগরিতে ভারতীয় একটি সিনেমা নির্বাচন করে পাঠানো হবে। সে প্রক্রিয়া গত সোমবার থেকে শুরু হয়েছে কলকাতায়।

শেরনি এবং সর্দার উধাম ছাড়াও তালিকায় রয়েছে তামিল ম্যান্ডেলা, গুজরাটি চেলো শো ও নয়াট্টুসহ বেশ কিছু সিনেমা।

শেয়ার করুন

অনন্যা পান্ডের বাড়িতেও এনসিবির অভিযান

অনন্যা পান্ডের বাড়িতেও এনসিবির অভিযান

অনন্যা পান্ডের বাড়িতে অভিযান চালাচ্ছে এনসিবি। ছবি: সংগৃহীত

বলিউড অভিনেত্রী অনন্যা পান্ডে বাড়িতেও অভিযান চালাচ্ছে মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)। ইতোমধ্যে অভিনেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

মাদককাণ্ডে আরও এক বলিউড অভিনেত্রী অনন্যা পান্ডের বাড়িতে অভিযান চালাচ্ছে মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)।

শাহরুখ খানের বাড়িতে এনসিবির তল্লাশির খবরের পরপরই জানা যায়, বলিউড অভিনেতা চাঙ্কি পান্ডের বাড়িতে অর্থাৎ তার মেয়ে অনন্যা পান্ডের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে সংস্থাটি।

বেশ কিছুক্ষণ তার বাড়িতে তল্লাশি চালায় এনসিবি। সেখান থেকে অনন্যার মোবাইল, ল্যাপটপসহ একাধিক ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী উদ্ধার করা হয়।

ইতিমধ্যে অভিনেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হচ্ছে, অনন্যার সঙ্গে আরিয়ান মাদক নিয়ে হোয়াটসআপে চ্যাট করেছিলেন। যে চ্যাট হাতে এসেছে এনসিবি কর্তাদের।

এনসিবি সূত্রের বরাত দিয়ে বলা হচ্ছে, অনন্যার সঙ্গে অনেকবার মাদক নিয়ে কথা হয়েছে আরিয়ানের। চ্যাটে তাকে অ্যানি বলে সম্বোধন করেছেন আরিয়ান।

বরাবরই চাঙ্কি পান্ডে ও শাহরুখ খানের সম্পর্ক বেশ ভালো। ছোট থেকেই একে অপরের বন্ধু অনন্যা ও আরিয়ান। এক অভিনেতার সঙ্গে আরিয়ানের মাদক নিয়ে কথাবার্তার তথ্য গতকালই এনসিবির পক্ষ থেকে পেশ করা হয়েছিল আদালতে। তবে কে সেই অভিনেতা সে ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।

বৃহস্পতিবার অনন্যা পান্ডের বাড়িতে তল্লাশির পরই অনুমান করা যায় যে, আরিয়ানের সঙ্গে অনন্যার চ্যাটের কথাই হয়তো উল্লেখ করা হয় আদালতে।

শেয়ার করুন

শাহরুখের বাড়িতে এনসিবির তল্লাশি

শাহরুখের বাড়িতে এনসিবির তল্লাশি

শাহরুখ খানের বাড়িতে তল্লাশি শুরু করেছে এনসিবি। ছবি: সংগৃহীত

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে শাহরুখের বাড়িতে অভিযান চালাচ্ছে এনসিবি। এর আগে সকাল ৯টায় জেলে গিয়ে ছেলে আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করেন শাহরুখ।

মাদক মামলায় বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান গ্রেপ্তারের পর এবার নায়কের বাড়িতে তল্লাশি শেষ করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)।

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে শাহরুখের বাড়িতে অভিযান শুরু করে সংস্থাটি।

এর আগে সকাল ৯টায় জেলে গিয়ে ছেলে আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করে আসেন শাহরুখ। আরিয়ানের সঙ্গে ১৫ মিনিটের জন্য সাক্ষাতের সময় পেয়েছিলেন তিনি।

মুম্বাই হাইকোর্ট থেকে আরিয়ানের জামিনের শুনানির দিন ধার্য হয়েছে আগামী মঙ্গলবার।

আরিয়ান গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকেই অনেকে ধারণা করছিলেন যে, তল্লাশি হতে পারে শাহরুখের বাসা মান্নাতে। তবে, সে বিষয়ে এতদিন মুখ খোলেনি এনসিবি। বৃহস্পতিবার দুপুরে হঠাৎই শুরু হয় অভিযান।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে ভারতীয় সময় ১২টা ৫০ মিনিটে এনসিবি কর্মকর্তারা শাহরুখ খানের বাসায় তল্লাশির জন্য আসে।

চল্লিশ মিনিটের তল্লাশি শেষে এনসিবি কর্মকর্তারা মান্নাত থেকে বের হয়ে যান। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায় ভারতীয় সময় ১টা ২৯ মিনিটে তারা চলে যান।

তল্লাশিতে আসা এনসিবির এক কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে জানান, তদন্ত চলছে। এনসিবি কাউকে ডাকলে, কারও সঙ্গে কথা বলতে গেলে এটা মনে করা ঠিক না যে সেই ব্যক্তি দোষী। তদন্তের জন্য অনেক প্রক্রিয়ায় আগাতে হয়।

শেয়ার করুন