আমার অনুপ্রেরণা সালমান শাহ: শাকিব

আমার অনুপ্রেরণা সালমান শাহ: শাকিব

সালমান শাহর কাজ অনুপ্রাণিত করে শাকিব খানকে। ছবি: সংগৃহীত

শাকিবের কাছে সালমান শাহ ভাটির আগে উজানের ঢেউ। বলেন, ‘৯০ এর দশকে চলচ্চিত্রে সালমান শাহর আবির্ভাব তারুণ্যের উচ্ছ্বাস তৈরি করেছিল। ভক্তদের পাশাপাশি চলচ্চিত্রের মানুষরাও তার স্মৃতিগুলো এখনও লালন করেন। তাই আমার কাছে সালমান শাহ হলেন ভাটির আগে উজানের ঢেউ।’

চিত্রনায়ক সালমান শাহ আজও স্বপ্নের নায়ক। সোমবার তার ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। তবুও তাকে নিয়ে যেন আলোচনার শেষ নেই।

সাধারণ দর্শক তো বটেই দেশীয় সিনেমার তারাকা অভিনয়শিল্পীরাও সালমান শাহকে ভাবেন তাদের অনুপ্রেরণা।

ঢাকাই সিনেমার শীর্ষ নায়ক শাকিব খানও তার অনুপ্রেরণা মনে করেন সালমান শাহকে।

সালমান শাহর মৃত্যুবার্ষিকীতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ কথা জানান শাকিব খান।

কারও মৃত্যু হলে ধীরে ধীরে সবাই ভুলতে থাকে, কিন্তু সালমান শাহর বেলায় তা উল্টো হয়েছে জানিয়ে শাকিব বলেন, ‘কোনও শিল্পীর মৃত্যুর পর ধীরে ধীরে তার অনুসারীরা ভুলতে শুরু করেন। তবে ক্ষণজন্মা নায়ক সালমান শাহর ক্ষেত্রে সেটা একেবারে বিপরীত! অকালে চলে যাওয়ার ২৫ বছর পরেও তার জনপ্রিয়তা আজও আকাশচুম্বী।’

শাকিবের কাছে সালমান শাহ ভাটির আগে উজানের ঢেউ। বলেন, ‘৯০ এর দশকে চলচ্চিত্রে সালমান শাহর আবির্ভাব তারুণ্যের উচ্ছ্বাস তৈরি করেছিল। ভক্তদের পাশাপাশি চলচ্চিত্রের মানুষরাও তার স্মৃতিগুলো এখনও লালন করেন। তাই আমার কাছে সালমান শাহ হলেন ভাটির আগে উজানের ঢেউ। তিনি বেঁচে থাকলে হয়তো চলচ্চিত্র মাধ্যমটি আরও বর্ণিল করতে পারতেন।’

‘শিল্পীর ভালো কাজের জন্য অনুপ্রেরণার প্রয়োজন হয়। অনুপ্রেরণা থেকে শিল্পীরা নিজেদের সমৃদ্ধ করার চেষ্টা করেন। সালমান শাহর অভিনয় দেখে, তার সিনেমা দেখে আমারও সেই অনুপ্রেরণা হতো! একটা প্রজন্মের কাছে আইডলে পরিণত হয়েছিলেন সালমান শাহ নামের সেই পরশ পাথর, যার ছোঁয়ায় বাংলা চলচ্চিত্রে বিপ্লব ঘটেছিল।’ বলেন শাকিব খান।

প্রয়াণ দিবসে প্রিয় নায়ককে স্মরণ ও শ্রদ্ধা জানিয়ে শাকিব বলেন, ‘তিনি আমাদের চলচ্চিত্রের এমন ধ্রুবতারা যিনি দূর আকাশে অবস্থান করেও আলোকিত করেন মানুষের হৃদয়। তার মৃত্যুদিন এলে তাই স্বভাবতই আমাদের মন খারাপ হয়ে যায়। আবার কিছুদিন পরেই আসে তার জন্মদিন; তখন আবার এই ভেবে ভালো লাগে যে সালমান শাহ স্বল্পায়ু হলেও অন্তত বাংলাদেশে জন্মেছিলেন সেটাই আমাদের সৌভাগ্য। ২৫ তম প্রয়াণ দিবসে প্রিয় নায়ক সালমান শাহকে স্মরণ করছি বিনম্র শ্রদ্ধায়। যেখানেই থাকুন ভালো থাকুন আমাদের সালমান শাহ …’

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন

মন্তব্য

সালমানের সিনেমার গানেই তাকে স্মরণ করলেন পরীমনি

সালমানের সিনেমার গানেই তাকে স্মরণ করলেন পরীমনি

জন্মদিনে সালমান শাহকে স্মরণ পরীমনির। ছবি: সংগৃহীত

জন্মদিনে সালমান শাহকে স্মরণ করে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি গানের ইউটিউব লিংক পোস্ট করেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনি। ‘পৃথিবীতে সুখ বলে’ শিরোনামের সেই গানটি পোস্ট করে তিনি লেখেন, ‘শুভ জন্মদিন সালমান শাহ’।  

বেঁচে থাকলে আজ ৫০ বছরে পা রাখতেন বাংলা চলচ্চিত্রের ‘স্বপ্নের নায়ক’ সালমান শাহ। ১৯৭১ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর নানার বাড়ি সিলেট নগরের দাঁড়িয়াপাড়ায় তার জন্ম।

রোববার তার জন্মদিন। এ দিনে তাকে স্মরণ করে সামজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা রকম পোস্ট দিচ্ছেন তার ভক্ত-অনুরাগীরা। তেমনই এ তালিকা থেকে বাদ নেই তারকারাও।

সালমান শাহকে স্মরণ করে রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি গানের ইউটিউব লিংক পোস্ট করেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনি।

‘পৃথিবীতে সুখ বলে’ শিরোনামের এই গানটি ১৯৯৬ সালে মুক্তি পাওয়া সালমান শাহর সিনেমা জীবন সংসার-এর। এতে সালমানের সঙ্গে অভিনয় করেছিলেন শাবনূর।

তবে সেই গানটি নতুন করে ব্যবহার করা হয় ২০১৯ সালে মুক্তি পাওয়া পরীমনি অভিনীত আমার প্রেম আমার প্রিয়া সিনেমায়। এতে পরীমনির সঙ্গে অভিনয় করেন চিত্রনায়ক আরজু।

নিজের অভিনীত সিনেমার সেই গানটি পোস্ট করে পরীমনি লেখেন, ‘শুভ জন্মদিন সালমান শাহ।’

১৯৯৩ সালে ধুমকেতুর মতো বাংলা চলচ্চিত্রে আবির্ভাব সালমানের। প্রথম সিনেমা ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ দিয়ে জয় করে নেন দর্শকদের মন। এরপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি তাকে। মাত্র ৪ বছরের ক্যারিয়ারে ২৭টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। তার প্রায় সব চলচ্চিত্রই সুপারহিট।

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর মারা যান সালমান শাহ। ২৫ বছর হলো নেই বাংলা চলচ্চিত্রের ক্ষণজন্মা এ তারকা। তবে আজও ভক্তদের মধ্যে বেঁচে আছেন ‘স্বপ্নের নায়ক’ হয়েই।

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন

আজও তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের নন্দিত মুখ

আজও তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের নন্দিত মুখ

বেঁচে থাকলে আজ ৫০ পূর্ণ হতো সালমানের। একান্নতে পা দিতেন। কিন্তু ভক্তদের হৃদয়ের যে সালমান, তার তো মৃত্যু নেই। তিনি চিরসবুজ। অমর।

সিলেট নগরের দাঁড়িয়াপাড়া এলাকার একটি বাসার সামনে উঁকিঝুঁকি মারছেন এক তরুণ। বাসার মূল ফটক বন্ধ। ফটকের পাশেই দেয়ালে টানানো লেমিনেটিং করা কাগজে লেখা রয়েছে- ‘করোনার কারণে দর্শনার্থী প্রবেশ নিষেধ’।

এমন লেখা দেখেও তরুণটি দাঁড়িয়ে আছেন ফটকের সামনে। ফটকে শব্দ করে বাসার ভেতরের লোকদের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছেন।

বাসাটির নাম- ‘সালমান শাহ ভবন’। যে তরুণ দাঁড়িয়ে আছেন ফটকের সামনে তার নাম আবিদুর রহমান। বাড়ি সিলেটের কানাইঘাটে। একটা কাজে সিলেট শহরে এসেছিলেন। কাজ শেষ করে প্রিয় নায়কের স্মৃতি লেগে থাকা এই বাড়িটি একবার দেখতে এসেছেন। প্রবেশ নিষিদ্ধ জেনেও ভেতরে ঢোকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

সালমান শাহ ভবনের সামনে গিয়ে রোববার দুপুরে দেখা মেলে আবিদুর রহমানের। এই দিনটি সালমান শাহর জন্মদিন।

১৯৭১ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর এই বাড়িতেই জন্ম নিয়েছিলেন বাংলা চলচ্চিত্রের চিরসবুজ নায়ক সামলান শাহ।

আবিদুর বলেন, ‘সালমান শাহ আমার প্রিয় নায়ক। তার সব ছবি আমি দেখছি। এখন পর্যন্ত তার মতো কুনু নায়ক বাংলাদেশো আইছে না। পরে যারা আইছইন সবে খালি সালমানরে নকল খরছইন। কিন্তু তার মতো অইতো পারছইন না। সালমান মারা যাওয়ার কারেণই আইজ বাংলাদেশোর সিনেমার অতো বাজে অবস্থা।’

কমর উদ্দিন চৌধুরী ও নীলা চৌধুরীর বড় ছেলের নাম ছিল শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন। চলচ্চিত্রে আসার পর তার নাম হয় সালমান শাহ।

১৯৯৩ সালে ধুমকেতুর মতো বাংলা চলচ্চিত্রে আবির্ভাব সালমানের। প্রথম ছবি সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। প্রথম ছবিই সুপার হিট। এরপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি তাকে। এগিয়ে চলেছেন দুর্দান্ত প্রতাপে। উপহার দিয়েছেন একের পর এক দর্শকনন্দিত ছবি। মৌসুমী ও শাবনূরের সঙ্গে জুটি গড়ে হয়েছেন বাংলার রোমান্টিক নায়ক।

তার আবির্ভাব যেমন ছিল আচমকা ও সবকিছুকে কাঁপিয়ে দিয়ে, তার প্রস্থানও তেমনই। অকস্মাৎ, অবিশ্বাস্য, সবকিছু তছনছ করে দিয়ে।

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে বিটিভির সংবাদের কল্যাণে দেশবাসী জানতে পারে, নিজের শোবার ঘর থেকেই উদ্ধার করা হয়েছে হার্টথ্রব এই নায়কের মরদেহ। মুহূর্তেই থমকে যায় চলচ্চিত্র প্রিয় সব মানুষ। থমকে দাঁড়ায় বাংলা চলচ্চিত্র।

কিন্তু যে নায়ক চিরকালের, যে নায়ক চিরযৌবন আর অনন্ত প্রেমের প্রতীক, তাকে কি মৃত্যু কেড়ে নিতে পারে? মৃত্যু তো তাকে বরং অমরত্ব এনে দিয়েছে। এমন আকস্মিক আর রহস্যময় মৃত্যুও বোধহয় তার অমরত্বকে পাকাপোক্ত করেছে। ফলে শারীরিক অনুপস্থিতি সত্ত্বেও তিনি ভক্তদের হৃদয়ে গভীরভাবে বেঁচে আছেন।

মৃত্যুর ২৫ বছর পেরিয়ে গেছে, অথচ এখনও সালমান শাহ এক ক্রেজের নাম। এখনও তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের পোস্টার বয়। আর ফ্যাশন আইকন।

এখনও অনেক তরুণ, যাদের জন্ম সালমান শাহের মৃত্যুর পর তারাও এই নায়কের মতো করে মাথায় কাপড় বাঁধেন, উল্টো করে ক্যাপ পরেন, চুলে ঝুঁটি বাঁধেন আর সালমানের অনুকরণ করে কথা বলেন। সালমানের মৃত্যুরহস্য উদঘাটনের দাবিতে আজও রাস্তায় নামে অসংখ্য মানুষ।

আজও তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের নন্দিত মুখ


মাত্র তিন বছরের চলচ্চিত্র জীবন। অভিনয় করেছেন ২৭টি ছবিতে। কিন্তু এই স্বল্প সময়েই অভিনয় দক্ষতা দিয়ে নিজেকে চিরকালের করে নিয়েছেন সালমান। জীবদ্দশায় পেয়েছেন উত্তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়তা। হয়ে উঠেছেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ট্রেডমার্ক।

যেমনটি বলছিলেন শাকিল আহমদ সোহাগ। রোববার দুপুরে সালমান শাহ ভবনের সামনে গিয়ে কথা হয় সোহাগের সঙ্গেও।

তিনি বলেন, ‘সালমান শাহর সময়ে কলকাতার সিনেমা থেকে বাংলাদেশের সিনেমা অনেক এগিয়ে ছিল। সেখানকার শিল্পীরা আমাদের এখানে অভিনয় করতে আসতেন। এখন তারা এগিয়ে গেছে। আমরা পিছিয়ে গেছি। কারণ সালমানের মৃত্যুর পর এমন কোনো নায়ক বাংলা চলচ্চিত্রে আসেননি যার নামে দর্শকরা সিনেমা হলে ছুটে যাবেন। যিনি হয়ে উঠবেন অসংখ্য তরুণ-তরুণীর স্বপ্নের নায়ক। সালমানের পর এ রকম কোনো স্বপ্নপুরুষ পায়নি বাংলা চলচ্চিত্র। পরবর্তী সময়ে অনেকে সালমানকে অনুকরণ করতে চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তার মতো হতে পারেননি।’

যে বাড়িতে সালমান শাহ জন্মেছিলেন, জন্মদিনে নগরের দাঁড়িয়াপাড়া এলাকার এই বাড়িটিতে গিয়ে কথা হয় সালমানের মামা আলমগীর কুমকুমের সঙ্গে।

তিনি বলেন, ‘জন্মদিন মৃত্যুদিন ছাড়া অন্য দিনগুলোতেও এই বাড়িতে সালমানের ভক্তরা ভিড় করেন। বাড়িতে সালমানের বিভিন্ন সময়ের ছবি, তার স্মৃতিচিহ্ন, তার ব্যবহৃত জিনিসপত্র, সম্মাননা স্মারক সাজিয়ে রাখা হয়েছে। এগুলো দেখতে দূর-দূরান্ত থেকেও অনেক ভক্ত আসেন। মানুষজনের ভিড় লেগে থাকায় করোনা সংক্রমণের কারণে এখন দর্শনার্থী প্রবেশ বন্ধ রেখেছি আমরা।’

সালমানের জন্মস্থান নিয়ে অনেকে ভুল তথ্য প্রচার করছেন জানিয়ে তিনি বলেন, অনেকে প্রচার করেন সালমানের জন্ম সিলেটের জকিগঞ্জে। আসলে তা সত্য নয়। জকিগঞ্জে তাদের মূল বাড়ি। তবে সে জন্মেছে এখানে, দাঁড়িয়াপাড়ায়। মামার বাড়িতে।

চলচ্চিত্র পরিচালক আলমগীর কুমকুম বলেন, মৃত্যুর ২৫ বছর পরও যেভাবে মানুষ সালমান শাহকে ভালোবাসছে, তাকে বাঁচিয়ে রেখেছে, তাতে বোঝা যায় সালমান ছিলেন তার সময় থেকে এগিয়ে থাকা একজন মানুষ। তার অভিনয়, তার স্টাইল এখনও কেউ ছাড়িয়ে যেতে পারেনি। ফলে সালমানকে আজও সমসাময়িক মনে করেন ভক্তরা। এসবই একজন নায়ককে মহানায়ক করে তোলে। সালমান ছিলেন সত্যিকারের মহানায়ক।

বেঁচে থাকলে আজ ৫০ পূর্ণ হতো সালমানের। একান্নতে পা দিতেন। কিন্তু ভক্তদের হৃদয়ের যে সালমান, তার তো মৃত্যু নেই। তিনি চিরসবুজ। অমর।

জন্মের পঞ্চাশ আর মৃত্যুর ২৫ পেরিয়েও ভক্তদের হৃদয়ে সালমানের ২৫ বছর বয়সী ছবিই ফ্রিজশট হয়ে আছে। পঁচিশের পর আর বয়স বাড়ছে না তার।

তার নায়িকাদের বয়স বাড়ছে। তার সেই সময়ের তরুণ ভক্তরা যৌবন পেরোচ্ছে। তরুণী প্রেমিকারা মধ্যবয়সে এসে হয়তো সংসারের হিসাব মেলাতে ব্যস্ত। অথচ সালমান শাহ আটকে আছেন ২৫ বছরে। অক্ষয় যৌবন আর রোমান্টিক ইমেজ নিয়ে আজও তিনি আছেন অসংখ্য তরুণীর হৃদয়ের পুরুষ হয়ে।

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন

ভালো থেকো সালমান: শাবনূর

ভালো থেকো সালমান: শাবনূর

৯০ দশকে ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় জুটি সালমান-শাবনূর। ছবি: সংগৃহীত

শাবনূর বলেন, ‘প্রতিবছর এই দিন কোটি ভক্তের হৃদয় আলোড়িত করে সালমান শাহ ফিরে আসেন ক্ষণিকের জন্য। অকাতর ভালোবাসার অঞ্জলি নিয়ে ফিরে যান অযুত নক্ষত্রের ভিড়ে। ভালো থেকো প্রতিদিন, সালমান শাহ, যেখানেই আছ।’

বেঁচে থাকলে আজ ৫০ বছরে পা রাখতেন বাংলা চলচ্চিত্রের ‘স্বপ্নের নায়ক’ সালমান শাহ। ১৯৭১ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর নানার বাড়ি সিলেট নগরের দাঁড়িয়া পাড়ায় তার জন্ম।

২৫ বছর হলো নেই বাংলা চলচ্চিত্রের ক্ষণজন্মা এ তারকা। তবে আজও ভক্তদের মধ্যে বেঁচে আছেন ‘স্বপ্নের নায়ক’ হয়েই।

মাত্র ৪ বছরের ক্যারিয়ারে ২৭টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন সালমান। তার মধ্যে ১৪টিতে তার নায়িকা ছিলেন শাবনূর। সেই চলচ্চিত্রের সবই সুপারহিট।

প্রিয় নায়কের জন্মবার্ষিকীতে তাকে স্মরণ করে রোববার নিজের ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিওবার্তা প্রকাশ করেন শাবনূর।

সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একে একে ভেসে উঠছে সালমান আর শাবনূরের কিছু স্থিরচিত্র।

ভিডিওর ভয়েসওভারে শাবনূরকে বলতে শোনা যায়, ‘সালমান শাহ এমন একটি নাম, যার সাথে জড়িয়ে আছে একটি সোনালি সময়। অতি অল্প সময়ে নিজেকে বিলিয়ে দিয়ে, সে সময়টুকুকে অগণিত ভক্তের মাঝে বিলিয়ে দিয়ে গেছেন।

‘প্রতিবছর এই দিন কোটি ভক্তের হৃদয় আলোড়িত করে সালমান শাহ ফিরে আসেন ক্ষণিকের জন্য। অকাতর ভালোবাসার অঞ্জলি নিয়ে ফিরে যান অযুত নক্ষত্রের ভিড়ে। ভালো থেকো প্রতিদিন, সালমান শাহ, যেখানেই আছ। শাবনূর।’

ভালো থেকো সালমান: শাবনূর
১৪টি চলচ্চিত্রে জুটি ছিলেন সালমান-শাবনূর। ছবি: সংগৃহীত

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর মারা যান সালমান শাহ। ৯০ দশকে ঢাকাই চলচ্চিত্রে তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল সালমান-শাবনূর জুটি।

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন

‘কী দারুণ কণ্ঠ’

‘কী দারুণ কণ্ঠ’

দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। ছবি: সংগৃহীত

একজন মন্তব্যকারী লিখেছেন, ‘কী দারুণ কণ্ঠ।’ সেই সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন ভালোবাসার ইমো। আরেকজন লিখেছেন, ‘অভিনয়ে যেমন দক্ষ, গানেও করলেন মুগ্ধ।’

দুই বাংলার তুমুল জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। তার অভিনয়ে মুগ্ধ লাখো ভক্ত-অনুরাগী। তবে শুধু অভিনয় নয়, এবার সেই মুগ্ধতার রেশ ছড়ালেন গান গেয়ে।

সম্প্রতি কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে অতনু ঘোষ পরিচালিত সিনেমা বিনিসুতোয়। এতে শুধু অভিনয় নয়, একটি গানও গেয়েছেন জয়া। তাও আবার রবীন্দ্রসংগীত। সিনেমায় নিজের গাওয়া গানের সঙ্গে ঠোঁটও মিলিয়েছেন জয়া।

‘সুখের মাঝে তোমায় দেখেছি’ শিরোনামের এ গানটির এক ইউটিউব লিংক নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করেছেন জয়া। সেই সঙ্গে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘নিজের মতো করে চেষ্টা করেছি গাইবার। আশা করছি, আপনাদের ভালো লাগবে।’

আসলেই গানটি কেমন লাগল শ্রোতাদের? তা বোঝা গেল গানটির ইউটিউব লিংকে মুগ্ধতা প্রকাশ করে নেটিজেনদের মন্তব্যে।

একজন মন্তব্যকারী লিখেছেন, ‘কী দারুণ কণ্ঠ।’ সেই সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন ভালোবাসার ইমো। আরেকজন লিখেছেন, ‘অভিনয়ে যেমন দক্ষ, গানেও করলেন মুগ্ধ।’

অন্য একজন লিখেছেন, ‘কী সুন্দর মোহের আবেশ তৈরি করল জয়ার কণ্ঠে রবীন্দ্রসংগীতটি। মোহাচ্ছন্ন হয়ে শুনলাম গানটি। আহা! কী কণ্ঠস্বর।’

জয়ার কণ্ঠে আরও গান শোনার আবদার জানিয়ে একজন লিখেছেন, ‘জয়া দিদি এত ভালো গান করেন তা জানতামই না এই গান না শুনলে। দিদি তোমার কাছ থেকে আরও গান শুনতে চাই।’

‘কী দারুণ কণ্ঠ’
অভিনেত্রী জয়া আহসানের গাওয়া ‘সুখের মাঝে তোমায় দেখেছি’ শিরোনামের রবীন্দ্রসংগীতে নেটিজেনদের মন্তব্য। ছবি: সংগৃহীত

জয়ার কণ্ঠে মুগ্ধতা প্রকাশ করে এ রকম অনেক মন্তব্য করেছেন নেটিজেনরা।

২০ আগস্ট কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে বিনিসুতোয় । এই সিনেমায় সংগীত পরিচালনা করেছেন সুরকার দেবজ্যোতি। তিনি এর আগে জয়ার গাওয়া এই গানটি প্রসঙ্গে মন্তব্য করেছিলেন, এই সিনেমায় জয়া ছাড়া অন্য কণ্ঠে গানটি মানাত না।

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন

এবার বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করলেন শ্রাবন্তী

এবার বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করলেন শ্রাবন্তী

বিয়ে বিচ্ছেদ চেয়ে মামলা আদালতের দারস্থ হয়েছেন টালিউড অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত

শ্রাবন্তীর লিখিত সেই জবাবে জানানো হয়েছে যে, কলকাতার আলিপুর আদালতে তিনি বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করেছেন। রোশানের সঙ্গে সংসার করা তার পক্ষে একেবারেই সম্ভব নয়। সেই সঙ্গে রোশানের বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগও করেছেন তিনি। আগামী ১০ ডিসেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

গত বছরের নভেম্বরে স্বামী রোশান সিংয়ের সঙ্গে তৃতীয় সংসারের ইতি টেনেছেন টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। তবে পুরোনো সব তিক্ততা ভুলে নতুন করে শ্রাবন্তীর সঙ্গে সংসার টিকিয়ে রাখতে আদালতের দারস্থ হন রোশান।

বিচ্ছেদের দীর্ঘদিন পর চলতি বছরের জুন মাসে ‘রেস্টিটিউশন অব কনজুগাল রাইটস’ ধারায় আদালতে মামলা করেন রোশান।

ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমে বলা হচ্ছে, বেশ কয়েকবার শুনানি হয়েছে এ মামলার। শুনানিতে নিজে না এলেও আইনজীবীর মাধ্যমে হাজিরা দেন অভিনেত্রী। গত ১৬ সেপ্টেম্বর রোশানের আইনজীবীর কাছে শ্রাবন্তীর জবাব পৌঁছায়।

শ্রাবন্তীর লিখিত সেই জবাবে জানানো হয়েছে যে, কলকাতার আলিপুর আদালতে তিনি বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করেছেন। রোশানের সঙ্গে সংসার করা তার পক্ষে একেবারেই সম্ভব নয়। সেই সঙ্গে রোশানের বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগও করেছেন তিনি। আগামী ১০ ডিসেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

এবার বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করলেন শ্রাবন্তী
টালিউড অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত

এদিকে চলতি বছরের মাঝামাঝিতেই শোনা যায় শ্রাবন্তীর নতুন প্রেমের গুঞ্জন। অভিরূপ নাগ চৌধুরী নামের এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন তিনি।

গত জুনে প্রকাশ্যে এসেছিল শ্রাবন্তীর বাড়িতে অভিরূপের জন্মদিন উদযাপনের ছবিও। নিজের পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে অভিরূপের জন্মদিনে কেক কেটেছিলেন শ্রাবন্তী।

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন

জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান হলেন গায়ক শাফিন

জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান হলেন গায়ক শাফিন

জনপ্রিয় গায়ক শাফিন আহমেদ। ছবি: সংগৃহীত

জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদের নবম জাতীয় সম্মেলনের প্রদত্ত ক্ষমতা ও গঠনতন্ত্রের ধারা ১২ এর ৩ উপধারা অনুযায়ী শাফিনকে দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান নিয়োগ দিয়েছেন।

জনপ্রিয় ব্যান্ড মাইলসের লিড ভোকালিস্ট শাফিন আহমেদ জাতীয় পার্টির (জাপা) ভাইস চেয়ারম্যান নিযুক্ত হয়েছেন।

দলটির যুগ্ম দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।

মাহমুদ জানান, জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদের নবম জাতীয় সম্মেলনের প্রদত্ত ক্ষমতা ও গঠনতন্ত্রের ধারা ১২ এর ৩ উপধারা অনুযায়ী শাফিনকে দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান নিয়োগ দিয়েছেন।

এর বাইরে বোরহান উদ্দিন আহমেদ মিঠুকে দলের কেন্দ্রীয় সদস্যপদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

শাফিন মাইলসের তুমুল জনপ্রিয় শিল্পী। তার মা ফিরোজা বেগম ছিলেন বিখ্যাত নজরুলসংগীত শিল্পী। বাবা কমল দাশগুপ্ত ছিলেন বিখ্যাত শিল্পী, সুরকার ও সংগীত পরিচালক।

২০১৮ সালে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন শাফিন। ২০১৯ সালে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হয়েছিলেন তিনি। সে সময় তার মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়।

এর আগে শাফিন ববি হাজ্জাজের দল এনডিএমের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন

সেন্সর পেল সিনেমা ‘সাহস’

সেন্সর পেল সিনেমা ‘সাহস’

সাহস সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

বেশ চড়াই উৎরাই পেরিয়ে সেন্সর পেল সাহস সিনেমাটি। পরিচালক জানান, নভেম্বরে সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা তাদের।

নবীন নির্মাতা সাজ্জাদ খান পরিচালিত প্রথম সিনেমা সাহস পেরিয়েছে সেন্সর গণ্ডি।

সাজ্জাদ শনিবার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সেন্সর আগেই হয়ে গেছে, আজ সার্টিফিকেট হাতে পেয়েছি।’

পরিচালক আরও জানান, নভেম্বরে সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা তাদের।

বেশ চড়াই উৎরাই পেরিয়ে সেন্সর পেল সাহস সিনেমাটি। গত জুন মাসে সেন্সর বোর্ডে জমা দিলে সিনেমাটি প্রদর্শনযোগ্য নয় বলে বিবেচিত হয়। এরপর আগস্ট মাসে সাহস সিনেমার সংশ্লিষ্টরা আপিল করেন। আপিলও নাকচ হয়।

সিনেমাটির সংশ্লিষ্টদের সুযোগ ছিল সেন্সর বোর্ডের দেয়া পর্যবেক্ষণগুলো সংশোধন করে সিনেমাটি আবার সেন্সর বোর্ডে জমা দেয়ার। সেই সুযোগটি নেন সাহসের প্রযোজক।

পর্যবেক্ষণগুলো সংশোধন করে আবারও সিনেমাটি জমা দেয়া হয় সেন্সর। এবার আর আটকায়নি, পাওয়া গেছে ছাড়পত্র।

সংশোধনের কারণে দর্শকরা সিনেমাটি পরিপূর্ণভাবে উপভোগ করা থেকে বঞ্চিত হবেন কি না জনতে চাইলে সাজ্জাদ বলেন, ‘না, এতে করে কোনো সমস্যা হবে না।

সেন্সর পেল সিনেমা ‘সাহস’
সাহস সিনেমার পরিচালক সাজ্জাদ খান

‘সংশোধনের কারণে গল্প কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। দর্শকরা পরিপূর্ণভাবে সিনেমাটি উপভোগ করতে পারবেন। গল্পে আমি যেটা বলতে চেয়েছি সেটা ঠিকভাবেই থাকবে।’

গত বছরের নভেম্বরে বাগেরহাটে হয় সাহস সিনেমার শুটিং। সিনেমায় প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার অর্ষা। তার সঙ্গে আছেন মোস্তাফিজুর নূর ইমরান।

এতে অভিনয় করেন বাগেরহাটের স্থানীয় থিয়েটারের তরুণ শিল্পীরাও।

আরও পড়ুন:
অনুদানের সিনেমায় শাকিব পারিশ্রমিক কমাবেন?
জাতির পিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ শাকিবের
পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা: শাকিব
তারেককে শ্রদ্ধাভরে শাকিবের স্মরণ

শেয়ার করুন