স্টার্কের গতিতে বিধ্বস্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ

স্টার্কের গতিতে বিধ্বস্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ

সতীর্থদের সঙ্গে উইকেট উদযাপন করছেন মিচেল স্টার্ক। ছবি: এএফপি

তিন ওয়ানডের প্রথমটিতে স্বাগতিক দলকে ১৩৩ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। অস্ট্রেলিয়ার করা ৯ উইকেটে ২৫২ রানের জবাবে ১২৩ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মিচেল স্টার্ক ৪৮ রানে ৫ উইকেট নেন।

পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৪-১ ব্যবধানে নাস্তানাবুদ হওয়ার পর ওয়ানডে সিরিজে দারুণভাবে কামব্যাক করেছে অস্ট্রেলিয়া। তিন ওয়ানডের প্রথমটিতে স্বাগতিক দলকে ১৩৩ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

অস্ট্রেলিয়ার করা ৯ উইকেটে ২৫২ রানের জবাবে ১২৩ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মিচেল স্টার্ক ৪৮ রানে ৫ উইকেট নেন।

বার্বেডোসে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন অস্ট্রেলিয়ার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক অ্যালেক্স ক্যারি। দুই অভিষিক্ত ওপেনার বেন ম্যাকডারমট ও জশ ফিলিপের ব্যাটে শুরুটা ভালো করে সফরকারী দল।

১১ ওভারে ৫১ রান যোগ করার পর বিচ্ছিন্ন হয় উদ্বোধনী জুটি। ফিলিপে ৩৯ রান করে আকিল হোসেনের বলে বোল্ড হন। এরপর ছোটখাটো ধস নামে অজিদের ব্যাটিং লাইনআপে।

মিচেল মার্শ, ময়েসেস এনরিকেস ও বেন ম্যাকডারমট বিদায় নেন এরপরের ১৪ ওভারে। অস্ট্রেলিয়ার স্কোর দাঁড়ায় চার উইকেটে ১১৪।

পঞ্চম উইকেটে ১০৪ রানের জুটি গড়ে অস্ট্রেলিয়াকে ফাইটিং স্কোর এনে দেন অ্যাশটন টার্নার ও ক্যারি। ৬৭ রান করা ক্যারি ৪৫তম ওভারের প্রথম বলে আউট হলে ভাঙে জুটি। টার্নারের ব্যাট থেকে আসে ৪৯।

টেইলএন্ডারদের ছোট ছোট ইনিংসে সংগ্রহ আড়াই শ ছাড়ায় অস্ট্রেলিয়ার। উইন্ডিজের পক্ষে ৩৯ রানে ৫ উইকেট নেন হেইডেন ওয়ালশ।

জবাবে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে উইন্ডিজ। প্রথম বলেই স্টার্কের বলে শূন্য রানে কট অ্যান্ড বোল্ড হন এভন লুইস।

নিজের পরের ওভারের প্রথম বলেও উইকেট নেন স্টার্ক। জেসন মোহাম্মেদকে ২ রানে বোল্ড করেন এই বাঁহাতি ফাস্ট বোলার। স্টার্ক নিকোলাস পুরানকে আউট করে উইন্ডিজের লাইনআপ তছনছ করে দেন।

অন্য প্রান্তে তার নতুন বলের পার্টনার জশ হেইজলউডও আঘাত হানেন পাওয়ার প্লের মধ্যেই। শিমরন হেটমায়ার, জেসন হোল্ডার ও ড্যারেন ব্রাভোকে দ্রুত ফেরান হেইজলউড।

৮ ওভার শেষ হওয়ার আগেই উইন্ডিজ হারায় ৬ উইকেট। তাদের বোর্ডে রান ছিল মাত্র ২৭।

সেখান থেকে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি স্বাগতিক দল। অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের হাফ সেঞ্চুরিতে ব্যবধানই কমে শুধু।

৫৭ বলে ৫৬ রান করেন পোলার্ড। ওয়ালশ করেন ২০, আলজারি জোসেফের ব্যাট থেকে আসে ১৭। উইন্ডিজ মাত্র ২৬.২ ওভারে গুটিয়ে যায় ১২৩ রানে।

স্টার্ক ৪৮ রানে ৫টি আর হেইজলউড ১১ রানে ৩টি উইকেট নেন। ক্যারিয়ারে নবমবারের মতো ৫ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন স্টার্ক।

শুক্রবার একই ভেন্যুতে হবে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ।

আরও পড়ুন:
অস্ট্রেলিয়ার নতুন অধিনায়ক ক্যারি
অ্যাশেজের জন্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ছাড়তে রাজি স্মিথ
বাংলাদেশ ও উইন্ডিজ সিরিজ দলে জায়গা পাওয়ার পরীক্ষা: ফিঞ্চ

শেয়ার করুন

মন্তব্য