‘খর্বশক্তির’ জিম্বাবুয়ের সামনে ‘আত্মবিশ্বাসী’ বাংলাদেশ

‘খর্বশক্তির’ জিম্বাবুয়ের সামনে ‘আত্মবিশ্বাসী’ বাংলাদেশ

সিরিজের ট্রফি হাতে বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল হক ও জিম্বাবুয় অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেইলর। ছবি: টুইটার

টেস্টে অভিজ্ঞ দুই ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না জিম্বাবুয়ে। করোনাভাইরাস আক্রান্ত পরিবারের সদস্যের সংস্পর্শে আসায় ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছেন শন উইলিয়ামস ও ক্রেইগ আরভাইন। আর হাঁটুর চোট থেকে সেরা না ওঠায় অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবালকেও পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল।

রাত পোহালেই হারারেতে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের চ্যালেঞ্জে নামবে বাংলাদেশ। আট বছর ধরে সে দেশের মাটিতে জয়ের আক্ষেপ মেটাতে অধীর আগ্রহে আছে ‍মুমিনুল হকের বাহিনী। হারারেতে বুধবার বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টায় শুরু হবে একমাত্র টেস্ট।

এই টেস্টে অভিজ্ঞ দুই ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না জিম্বাবুয়ে। করোনাভাইরাস আক্রান্ত পরিবারের সদস্যের সংস্পর্শে আসায় ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছেন শন উইলিয়ামস ও ক্রেইগ আরভাইন।

আর হাঁটুর চোট থেকে সেরা না ওঠায় অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবালকেও পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল।

তবে, পুনর্বাসনের মধ্য দিয়ে মুশফিকুর রহিমের চোট কাটিয়ে ফেরা ও সাকিব আল হাসানের উপস্থিতি আত্মবিশ্বাস বাড়াচ্ছে টাইগারদের।

প্রস্তুতি ম্যাচে বোলিং-ব্যাটিং দুই জায়গাতেই ছন্দে ফিরতে দেখা গেছে বাংলাদেশ দলকে। প্রস্তুতি ম্যাচের আত্মবিশ্বাসকে অস্ত্র হিসেবে কাজে লাগাতে চান বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল হক।

ম্যাচের আগে অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘প্রস্তুতি খুব ভাল হয়েছে। দুদিনের প্রস্তুতিতে ব্যাটসম্যান-বোলাররা সবাই ভাল করেছে। তাই আমরা টেস্ট ম্যাচেও ভাল কিছু আশা করছি। আর শুধু জিম্বাবুয়েতে না, যে কোন দেশেই অ্যাওয়ে ম্যাচ চ্যালেঞ্জিং হয়। তবে প্রস্তুতির দিক থেকে আমি আশাবাদী যে ৫ দিন ভাল ক্রিকেট খেললে অবশ্যই ফল আমাদের দিকে আসবে।’

২০১৪ সাল থেকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ছয়টি টেস্ট খেলেছে টাইগাররা। হেরেছে মাত্র একটিতে। কিন্তু শেষ ছয়টি ম্যাচ নিজেদের কন্ডিশনে খেলেছে বাংলাদেশ। বিদেশের কন্ডিশন মানিয়ে ফল নিজেদের পক্ষে আনার ব্যাপারে আশ্বাস মুমিনুলের।

জেতার ব্যাপার আত্মবিশ্বাসী অধিনায়ক বলেন, ‘শুধু জিম্বাবুয়ে না যে কোন দলের সঙ্গেই যখন অ্যাওয়েতে খেলব তখন ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন দিকটাই ভালো করতে হয়, ফোকাস রাখতে হয়। সেই সাথে টিম ওয়ার্কটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ দিকটায় ভালো করলে আশা করি টেস্ট ম্যাচটা জিততে পারব।’

জিম্বাবুয়ের মাটিতে ৭ ম্যাচ খেলে মাত্র একটি করে জয় ও ড্রয়ের স্বাদ নিয়েছে বাংলাদেশ। ৫টি ম্যাচ হেরেছে তারা। ২০১৩ সালে একমাত্র জয়ের স্বাদ পায় টাইগাররা। এবার আট বছর পর সেই আক্ষেপ মেটাতে নিজেদের পরিকল্পনা সাজিয়েছে রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা। একাদশক মোটামুটি সাজানোই আছে টাইগারদের

মুমিনুলের কথায়, ‘মুশফিক ভাই অবশ্যই খেলবে। আর সাকিব ভাই ফেরাতে দলের কম্বিনেশনটা খুব সহজ হয়। তখন একজন বোলার কম নিয়ে বেশি ব্যাটসম্যান খেলানোর সুবিধা থাকে।’

ম্যাচকে সামনে রেখে এখনও পিচ দেখার সুযোগ হয়নি বাংলাদেশ। ধারণা থেকে পিচ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ। মুমিনুল বলেন, ‘কন্ডিশন আমাদের কাছে একই মনে হচ্ছে। প্রস্তুতি ম্যাচে যেমন কন্ডিশন ছিল মূল ম্যাচেও তেমন থাকবে আশাকরি। তেমনটা না হলেও অবাক হব না।’

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: শাদমান ইসলাম, সাইফ হাসান, নাজমুল ইসলাম, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, লিটন দাস, মেহেদী মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েদ, শরিফুল ইসলাম।

আরও পড়ুন:
খেলতে উদগ্রীব সাকিব, প্রথম টেস্টে নেই তামিম
জিম্বাবুয়েতে সিরিজ জিততে মুখিয়ে আছে দল, বললেন রুবেল
পজিটিভ ক্রিকেট ফল বয়ে আনবে বিশ্বাস মিরাজের
ব্যাটিংয়ের পর বোলিংয়েও দাপট সাকিব-মিরাজদের
সাকিব ঝড়ে প্রস্তুতি ম্যাচে বড় সংগ্রহ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মন্তব্য