ভারতকে গুঁড়িয়ে নিউজিল্যান্ডের ইতিহাস

ভারতকে গুঁড়িয়ে নিউজিল্যান্ডের ইতিহাস

ফাইনাল জেতার পর টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রফি হাতে নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন। ছবি: আইসিসি

ফাইনালে ভারতকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারায় ব্ল্যাক ক্যাপস। জয়ের জন্য ১৩৯ রানে লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসনের হাফ সেঞ্চুরিতে আট উইকেট অক্ষত রেখে সহজেই ম্যাচ জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড।

আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। ফাইনালে ভারতকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারায় ব্ল্যাক ক্যাপস। এবারই প্রথম ফাইনাল ম্যাচের মাধ্যমে শিরোপা নির্ধারণ হলো টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের।

পুরো দুই দিন ভেসে গেলেও ফল এসেছে ম্যাচে। ফাইনালের জন্য রাখা রিজার্ভ ডে যোগ হলে ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া গেছে।

জয়ের জন্য ১৩৯ রানে লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসনের হাফ সেঞ্চুরিতে আট উইকেট অক্ষত রেখে সহজেই ম্যাচ জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড।

দ্বিতীয় ইনিংসে শুরুটা মন্দ হয়নি নিউজিল্যান্ডের। ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৩৩ রানের ওপেনিং জুটি পায় তারা।

টম লেইথামকে নয় রানে আউট করে জুটি ভাঙ্গেন রভিচন্দ্রন আশউইন। আরেক ওপেনার ডেভন কনওয়েকেও ফেরান এই ভারতীয় স্পিনার।

৪৪ রানে দুই উইকেট হারানোর পর ম্যাচ জিততে আর কোনো সমস্যা হয়নি নিউজিল্যান্ডের। উইলিয়ামসন ও অভিজ্ঞ রস টেইলরের জুটি অনায়াস জয় পাইয়ে দেয় তাদের।

পঞ্চম দিনে দুই উইকেটে ৬৪ রান নিয়ে খেলা শুরু করে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ভারত। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৭০ রানে জুটিয়ে যায় ভিরাট কোহলির দল।

ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন রিশাভ পান্ট। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩০ রান আসে রোহিত শর্মার ব্যাট থেকে। ব্ল্যাকক্যাপদের নিয়ন্ত্রিত সিম বোলিংয়ের সামনে মুখ থুবড়ে পড়ে ভারতের বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইন আপ।

নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ৪৮ রানে চার উইকেট নেন টিম সাউদি আর ৩৯ রানে তিন উইকেট নেন ট্রেন্ট বোল্ট।

নয়টি দলকে নিয়ে ২০১৯ সালের আগস্টে শুরু হয় প্রথম বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার পাঁচ টেস্টের অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে পথচলা শুরু টুর্নামেন্টের।

এরপর বিভিন্ন দল নিজেদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে। প্রতি দল ছয়টি করে সিরিজ খেলেয়ার কথা ছিল। সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট পাওয়া সেরা দুই দলের খেলার কথা ছিল ফাইনাল।

কিন্ত ২০২০ সালের মার্চ থেকে বিশ্বব্যাপি করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় অন্যান্য খেলার মত থমকে যায় ক্রিকেটও।

তাই করোনার কারনে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরের বেশ কয়েকটি ম্যাচ ও সিরিজ স্থগিত হয়ে যায়। ফলে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনে আইসিসি। পয়েন্টের হিসেব বাদ দিয়ে শতকরা হিসেবে পয়েন্ট টেবিলের নিয়ম চালু করে ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা।

শতকরা হিসেবে সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট ছিলো ভারত ও নিউজিল্যান্ডের। ভারত ছিলো সবার উপরে। ৬ সিরিজে ভারতের শতকরাতে পয়েন্ট ৭২ দশমিক ২। আর পাঁচ সিরিজে নিউজিল্যান্ডের শতকরাতে পয়েন্ট ৭০।

তাই পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুই দল হয়ে প্রথম বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলে ভারত ও নিউজিল্যান্ড।

ফাইনালের শিরোপা জয়ী নিউজিল্যান্ড প্রাইজমানি হিসেবে পাচ্ছে ১৬ লাখ ডলার। আর রানার্সআপ ভারত পাচ্ছে ৮ লাখ ডলার।

আরও পড়ুন:
ভারতকে গুঁড়িয়ে নিউজিল্যান্ডের ইতিহাস
বৃষ্টি বিঘ্নিত দিনে ভারতকে সামলালেন কোহলি-রাহানে
বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের প্রথম দিন

শেয়ার করুন

মন্তব্য