পুলিশের শুভেচ্ছাদূত শোয়েব আখতার

পুলিশের শুভেচ্ছাদূত শোয়েব আখতার

পাকিস্তান মোটরওয়ে পুলিশের ক্রেস্ট গ্রহণ করছেন শোয়েব আখতার। ছবি: টুইটার

৪৫ বছর বয়সী এই সাবেক ফাস্ট বোলার নিজের টুইটার ও ইন্সটাগ্র্যাম অ্যাকাউন্ট থেকে পাকিস্তান মোটরওয়ে পুলিশের সঙ্গে নিজের একটি ছবি পোস্ট করেন ও তাদের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ শুরু করার ঘোষণা দেন।

পাকিস্তান মোটরওয়ে পুলিশের শুভেচ্ছাদূত নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার। শোয়েব নিজেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই খবরটি নিশ্চিত করেন।

সোমবার রাতে ৪৫ বছর বয়সী এই সাবেক ফাস্ট বোলার নিজের টুইটার ও ইন্সটাগ্র্যাম অ্যাকাউন্ট থেকে পাকিস্তান মোটরওয়ে পুলিশের সঙ্গে নিজের একটি ছবি পোস্ট করেন ও তাদের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ শুরু করার ঘোষণা দেন।

মোটরওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে শোয়েবকে একটি ক্রেস্ট উপহার দেওয়া হয়। ছবির সঙ্গে পোস্টে শোয়েব লেখেন, ‘মোটরওয়ে পুলিশের সঙ্গে শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ করতে পেরে গর্বিত। আশা করি সড়ক দূর্ঘটনা কমাতে মানুষের সচেতনতা বাড়াতে কাজ করতে পারব ও সবাইকে ট্রাফিক আইন নিয়ে জানাতে পারব। আমাদের সবারই সুনাগরিক হিসেবে আইন মেনে চলা উচিত।’

পাকিস্তানের হয়ে ১৯৯৭ সালে ক্যারিয়ার শুরুর পর ৪৬টি টেস্ট ও ১৬৩টি ওয়ানডে খেলেন শোয়েব আখতার। ১৪ বছরের ক্যারিয়ারে ১৭৮টি টেস্ট ও ২৪৭ ওয়ানডে উইকেট শিকার করেন এই ফাস্ট বোলার।

গতির জন্য খ্যাত এই বোলার ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে একটি ডেলিভারি ঘণ্টায় ১৬১.৩ কিমি (১০০.০২ মাইল) গতিতে করেন। যেটি এখন পর্যন্ত ক্রিকেটে রেকর্ড করা সবচেয়ে দ্রুতগতির ডেলিভারি।

ফাস্ট বোলারদের মধ্যে শোয়েব আখতারই প্রথম ১০০ মাইলের চেয়ে জোরে বল করেন।

ক্যারিয়ার জুড়ে ডোপ, শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য একাধিক বার নিষেধাজ্ঞায় পড়া শোয়েবের বর্ণিল ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষ হয় ২০১১ বিশ্বকাপের পর।

শেয়ার করুন

মন্তব্য