মাহমুদুল্লাহদের হারিয়ে সহজ জয় দোলেশ্বরের

উদযাপনে প্রাইম দোলেশ্বর খেলোয়াড়রা। ছবি: ডিপিএল

মাহমুদুল্লাহদের হারিয়ে সহজ জয় দোলেশ্বরের

প্রথমে ব্যাট করে প্রাইম দোলেশ্বরের করা ১৪৪ রানের জবাবে মাত্র ১০৮ রানেই গুটিয়ে যায় গাজী গ্রুপ। দুই উইকেট ও ২৫ রানের ইনিংসের জন্য ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন শামীম।

মিরপুরে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) ম্যাচে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে ৩৬ রানে হারিয়েছে প্রাইম দোলেশ্বর।

প্রথমে ব্যাট করে প্রাইম দোলেশ্বরের করা ১৪৪ রানের জবাবে মাত্র ১০৮ রানেই গুটিয়ে যায় গাজী গ্রুপ।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে পাওয়ার প্লের মধ্যেই দুই ওপেনার তৌফিক খান ও ইমরানুজ্জামানকে হারায় প্রাইম দোলেশ্বর।

কিন্তু সাইফ হাসান ও ফজলে মাহমুদের ৬৫ রানের জুটিতে ইনিংসে গতি ফিরে পায় তাদের। সঙ্গে শেষ দিকে শামীম পাটোয়ারির ১৮ বলে ২৫ রানের ইনিংসে বোর্ডের ১৪৪ রান তুলতে সক্ষম হয় দোলেশ্বর।

গাজী গ্রুপের হয়ে দুটি করে উইকেট শিকার করেন নাসুম আহমেদ, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ ও মাহমুদুল্লাহ।

১৪৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে বিপর্যয়ে পড়ে গাজী ক্রিকেটার্স। মাত্র ৩৯ রানে তারা হারায় সৌম্য সরকার, শাহাদাত হোসেন দীপু, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মুমিনুল হককে।

আরিফুল হক তার ৩৭ রানের ইনিংসে চেষ্টা করলেও তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি কেউ। তাতে ৭ বল বাকি থাকতেই ১০৮ রানে গুটিয়ে যায় গাজী গ্রুপ। ৩৬ রানের বড় জয় পায় প্রাইম দোলেশ্বর।

প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে দুটি করে উইকেট শিকার করেন শরিফুল্লাহ, শামীম ও এনামুল হক জুনিয়র। একটি করে উইকেট পান রেজাউর রহমান রাজা ও ফরহাদ রেজা।

দুই উইকেট ও ২৫ রানের ইনিংসের জন্য ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন শামীম।

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন

মন্তব্য

এক ঘণ্টার মধ্যেই সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

এক ঘণ্টার মধ্যেই সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয় উদযাপন করছেন টম লেইথাম ও রস টেইলর। ছবি: আইসিসি

স্বাগতিক দলের দেওয়া ৩৮ রানের টার্গেটে পৌঁছাতে ৬৫ বল খরচ করতে হয় নিউজিল্যান্ডকে। ১০.৫ ওভারে তাদের স্কোর ছিল ৪১/২।

বার্মিংহামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট আট উইকেটে জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। স্বাগতিক দলের দেওয়া ৩৮ রানের টার্গেটে পৌঁছাতে ৬৫ বল খরচ করতে হয় নিউজিল্যান্ডকে। ১০.৫ ওভারে তাদের স্কোর ছিল ৪১/২।

সকালের প্রথম বলে ওলি স্টোনকে ফিরিয়ে ইংল্যান্ডকে গুটিয়ে দেন ট্রেন্ট বোল্ট। স্টোন ১৫ রানে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হলে ১২২ রানে অলআউট হয় ইংল্যান্ড। তাদের লিড দাঁড়ায় ৩৭ রানের।

জয়ের ছোট লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় সফরকারী দল। দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে তিন রানে আউট হন ডেভন কনওয়ে। স্টুয়ার্ট ব্রডের বলে কট বাহাইন্ড হন তিনি।

ম্যাচ শেষ হওয়ার আগে আরেকটি সাফল্য পায় ইংল্যান্ড। দশম ওভারে উইল ইয়াংকে ফেরান ওলি স্টোন। আট রান করে ওভারের শেষ বলে বোল্ড হন তিনি।

এরপর আর কোনো উইকেট হারায়নি ব্ল্যাকক্যাপরা। অধিনায়ক টম লেইথাম ২৩ রানে অপরাজিত থেকে দলের জয় নিশ্চিত করেন।

এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩০৩ রানে অলআউট হয় ইংল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের দুই ইনিংসে সংগ্রহ ছিল ৩৮৮।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে দুই ইনিংসে ছয় উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন পেইসার ম্যাট হেনরি। চোটের কারণে ম্যাচে খেলেননি নিউজিল্যান্ডের নিয়মিত অধিনায়ক ও সেরা ব্যাটসম্যান কেইন উইলিয়ামসন।

উইলিয়ামসনের জায়গায় সফরকারিদের নেতৃত্বে ছিলেন লেইথাম।

এই জয়ে দুই ম্যাচ সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। লর্ডসে দুই দলের প্রথম ম্যাচ ড্র হয়। এতে করে ২০১৪ সালের পর প্রথম নিজ মাটিতে টেস্ট সিরিজ হারল ইংল্যান্ড।

১৮ জুন শুরু হচ্ছে ভারতের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল।

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন

সাকিবকে ছাড়া প্রথম ম্যাচ জিতল মোহামেডান

সাকিবকে ছাড়া প্রথম ম্যাচ জিতল মোহামেডান

৬৪ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা হন ইরফান শুক্কুর। ফাইল ছবি

সাভারে বিকেএসপির চার নম্বর মাঠের ম্যাচে সকালে ওল্ডডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবকে বৃষ্টি আইনে পাঁচ রানে হারায় মোহামেডান। এই জয়ে সুপার লিগে খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখল পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। সাকিবের অনুপস্থিতিতে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন শুভাগত হোম।

অশোভন আচরণের জন্য তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞায় আছেন সাকিব আল হাসান। নিয়মিত অধিনায়ককে ছাড়াই ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) অষ্টম ম্যাচ খেলতে নামে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে ছাড়াই তারা জিতেছে ম্যাচ।

সাভারে বিকেএসপির চার নম্বর মাঠের ম্যাচে সকালে ওল্ডডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবকে বৃষ্টি আইনে পাঁচ রানে হারায় মোহামেডান। এই জয়ে সুপার লিগে খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখল পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। সাকিবের অনুপস্থিতিতে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন শুভাগত হোম।

সকালে আম্পায়ারদের গাড়িতে ভাঙচুরের ঘটনায় আধঘণ্টা দেরিতে টস হয় ম্যাচে। টস জিতে মোহামেডানকে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান ডিওএইচএসের অধিনায়ক মোহাইমিনুল হক। ব্যাট করতে নেমে পারভেজ ইমন ও আব্দুল মজিদ দেখেশুনে শুরু করেন মোহামেডানের হয়ে।

পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে ভাঙ্গে ওপেনিং জুটি। ইমনকে ১৪ রানে ফেরান রাকিবুল হাসান।

২৯ রান করা মজিদ আউট হন আসাদুজ্জামান পায়েলের বলে বোল্ড হয়ে। এরপরই দলের হাল ধরেন ইরফান শুক্কুর। ঝড়ো ইনিংস খেলে মোহামেডানকে এনে দেন লড়াই করার পুঁজি।

এবারের ডিপিএলে নিজের দ্বিতীয় ফিফটি তুলে নেন তিনি। ৪২ বলে খেলেন ৬৮ রানের অপরাজিত ইনিংস। পাঁচ ছক্কা ও তিনটি চারের মার ছিল তার ইনিংসে।

শুক্কুরের ঝড়ো ব্যাটিংয়েই দেড় শ ছাড়ায় মোহামেডানের ইনিংস। নির্ধারিত ওভারে পাঁচ উইকেটে ১৫৪ রান করে তারা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে, আনিসুল ইসলাম ও রাকিন আহমেদের ব্যাটে দারুণ শুরু করে ওল্ড ডিওএইচএস। সাত ওভারে ৪৫ রান তুলে ফেলেন তারা। অষ্টম ওভারের তৃতীয় বলে ইমন ২৩ রানে রানআউট হলে ভাঙ্গে উদ্বোধনী জুটি।

পরের ওভারে বিদায় নেন ১৭ রান করা রাকিন। তাকে ফেরান অধিনায়ক শুভাগত। মোহামেডান অধিনায়ক রায়ান আহমেদকেও আউট করেন ১২ রানে।

মাহমুদুল হাসান জয় ক্রিজে আসার পর থেকে আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করলে কিছুটা চিন্তায় পড়ে মোহামেডান।

২৬ রানে তাকে লেগবিফোরের ফাঁদে ফেলে দলকে স্বস্তি দেন তাসকিন আহমেদ। ১৮ বলে ২৬ রান করেন মাহমুদুল।

অধিনায়ক মোহাইমিনুল খান ও উইকেটকিপার প্রিতম কুমারের জুটির সময় বৃষ্টির ব্যাঘাতে বন্ধ হয় খেলা।

১৬ ওভার শেষে আর খেলা শুরু করা সম্ভব হয়নি। ওই সময় ডিওএইচএসের সংগ্রহ ছিল তখন চার উইকেটে ১১৫। যা কিনা ডার্কওয়ার্থ-লুইস মেথডে পাওয়া লক্ষ্যের চেয়ে পাঁচ রান কম।

ফলে পাঁচ রানের জয় পায় মোহামেডান। এই জয়ে আট ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চারে উঠে আসল মোহামেডান। ১১ রাউন্ড পর নির্ধারিত হবে সুপার লিগের সেরা ছয় দল।

মোহামেডান যদি সাকিবকে ছাড়াই বাকি দুই ম্যাচ জিতে সুপার লিগে কোয়ালিফাই করে সেক্ষেত্রে সাকিবের সুপার লিগে খেলাও হবে।

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন

সাকিবের শাস্তি কমানোর আবেদন মোহামেডানের

সাকিবের শাস্তি কমানোর আবেদন মোহামেডানের

ডিপিএলের ম্যাচে আম্পায়ারের সঙ্গে সাকিব আল হাসানের তর্ক। ছবি: সিসিডিএম

মোহামেডানের পক্ষ থেকে সাকিবের ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা কমিয়ে শুধুমাত্র আর্থিক জরিমানা বহাল রাখার আবেদন করা হয়। শনিবার রাতেই তারা চিঠি দিয়েছে বলে নিশ্চিত করে ক্লাবটি।

আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) ম্যাচে মেজাজ হারিয়ে স্টাম্প ভাঙ্গায় তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা ও ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সাকিব আল হাসানকে।

ফলে মোহামেডানের অধিনায়ক ক্লাবের হয়ে পরের তিন ম্যাচ খেলতে পারবেন না। তবে মোহামেডান ক্লাবের পক্ষ থেকে সংবাদ মাধ্যমকে জানানো হয়েছে, সাকিবের শাস্তি কমানোর জন্য ক্রিকেট কমিটি অফ ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডএম) কাছে আবেদন করেছে তারা।

মোহামেডানের পক্ষ থেকে সাকিবের ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা কমিয়ে শুধুমাত্র আর্থিক জরিমানা বহাল রাখার আবেদন করা হয়। শনিবার রাতেই তারা চিঠি দিয়েছে বলে নিশ্চিত করে ক্লাবটি।

সাকিবের অনুপস্থিতিতে মোহামেডানের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পেয়েছেন শুভাগত হোম।

ডিপিএলের বাই লজের লেভেল থ্রিয়ের দুটি ধারা ভঙ্গের জন্য তিন ম্যাচ খেলতে পারছেন না দেশসেরা ক্রিকেটার সাকিব।

লিগের হাই ভোল্টেজ আবাহনী লিমিটেড বনাম মোহামেডানের ম্যাচে ঘটে এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।

মোহামেডানের বেঁধে দেয়া ১৪৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা আবাহনী ইনিংসের পঞ্চম ওভারে প্রথমবার মেজাজ হারান সাকিব। সাকিবের করা ওভারের শেষ বলে মুশফিকের বিপক্ষে করা লেগ বিফোরের জন্য সাকিবের জোরালো আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। আর তাতেই সাকিব লাথি মেরে ভেঙে ফেলেন বোলিং প্রান্তের স্টাম্প।

ষষ্ঠ ওভারের পঞ্চম বলের পর বৃষ্টি নামলে আম্পায়াররা সিদ্ধান্ত নেন খেলা বন্ধ করার। কিন্তু তা মানতে চাননি সাকিব। আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক করতে করতে ক্ষোভ দেখিয়ে বোলিং প্রান্তের তিনটি স্টাম্প তুলে মাটিতে ছুড়ে মারেন তিনি।

এরপর সাকিব বিবাদে জড়ান আবাহনী কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের সঙ্গেও। ম্যাচ শেষে আবাহনীর ড্রেসিংরুমে যেয়ে সুজনসহ সবার কাছেই দুঃখপ্রকাশ করেন তিনি। সুজনও মিমাংসা করে ফেলেন ঘটনাটি।

ম্যাচ শেষে নিজের ফেসবুকে অ্যাকাউন্টে বিষয়টির জন্য ক্ষমা চান সাকিব। ম্যাচের মধ্যে মেজাজ হারানোর জন্য ক্ষমা চান তিনি। তাতে কাজ হয়নি। লেভেল থ্রি পর্যায়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গের শাস্তি পেয়েছেন সাকিব।

লিগে সাত ম্যাচে চার জয়ে নিয়ে টেবিলের চারে আছে সাকিবের মোহামেডান। সাকিব তিন ম্যাচে নিষেধাজ্ঞা পাওয়ায় রাউন্ড রবিনের শেষ ম্যাচে খেলতে পারছেন তিনি।

তবে মোহামেডান যদি তাকে ছাড়াই তিন ম্যাচ জিতে সুপার লিগে কোয়ালিফাই করে সেক্ষেত্রে সাকিবের সুপার লিগে খেলাও হবে। ১১ রাউন্ড পর নির্ধারিত হবে সুপার লিগের সেরা ছয় দল।

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন

রাবাডার গতির কাছে ইনিংসে হার উইন্ডিজের

রাবাডার গতির কাছে ইনিংসে হার উইন্ডিজের

ওয়েস্ট ইন্ডিজের জশুয়া সিলভাকে আউট করার পর উচ্ছ্বসিত সাউথ আফ্রিকান ফাস্ট বোলার কাগিসো রাবাডা। ছবি: এএফপি

১৬২ রানে গুটিয়ে যেয়ে সাউথ আফ্রিকাকে উপহার দিয়েছে ইনিংস ও ৬৩ রানের জয়। রাবাডা ৩৪ রানে পাঁচটি ও নরকিয়া ৪৬ রানে তিন উইকেট নেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হার একরকম নিশ্চিতই ছিল। চার উইকেটে ৮২ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করা স্বাগতিক দল কাগিসো রাবাডার গতির সামনে দাঁড়াতেই পারেনি। ১৬২ রানে গুটিয়ে যেয়ে সাউথ আফ্রিকাকে উপহার দিয়েছে ইনিংস ও ৬৩ রানের জয়।

সেইন্ট লুসিয়ায় প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যাট হাতে চরমভাবে ব্যর্থ হন উইন্ডিজ ব্যাটাররা। তৃতীয় দিন মাত্র ৩৪ ওভার টেকে স্বাগতিক দলের ইনিংস।

সকালে জারমেইন ব্ল্যাকউডকে ফিরিয়ে ধসের শুরু করেন রাবাডা। ১৩ রানে আউট হন ব্ল্যাকউড।

এরপর ফেরেন সাবেক অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। চার রানে কেশভ মহারাজের বলে বোল্ড হন অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডার।

একপ্রান্ত আগলে রাখা রস্টন চেসকেও ফেরান মহারাজ। হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করার পর মহারাজের বলে বোল্ড হন তিনিও। ৬২ রান করে উইন্ডিজের পক্ষে ম্যাচে সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেন চেস।

রাখিম কর্নওয়ালকে শূন্য রানে সাজঘরে ফেরত পাঠান রাবাডা। নয় রানে বোল্ড করেন জশুয়া সিলভাকে। সিলভাকে শিকার করে ক্যারিয়ারে দশম বারের মতো টেস্ট ফাইভ-ফর পান এই ফাস্ট বোলার।

জেইডন সিলসকে তিন রানে ফিরিয়ে উইন্ডিজকে গুটিয়ে দেন আনরিখ নরটিয়া।

রাবাডা ৩৪ রানে পাঁচটি ও নরটিয়া ৪৬ রানে তিন উইকেট নেন।

এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৯৭ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আর সাউথ আফ্রিকার প্রথম ইনিংসে সংগ্রহ ছিল ৩২২।

সাউথ আফ্রিকার পক্ষে ১৪১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছেন কুইন্টিন ডি কক।

এটি ছিল ২০১৭ সালের প্রথম দেশের বাইরে প্রোটিয়াদের টেস্ট জয়। আর উইন্ডিজের ২০০তম টেস্ট হার।

১৮ জুন থেকে একই ভেন্যুতে শুরু হবে দুই দলের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন

সাভারে আম্পায়ারের গাড়ি ভাঙচুর, ম্যাচ শুরুতে দেরি

সাভারে আম্পায়ারের গাড়ি ভাঙচুর, ম্যাচ শুরুতে দেরি

নতুন ইপিজেড এলাকায় রোববার সকাল পৌনে ৭টার দিকে লেনি ফ্যাশন নামের একটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বকেয়া বেতন-ভাতার দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করেন। ওই বিক্ষোভে শিল্প পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও জলকামান ব্যবহার করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে। বিক্ষোভের সময় আম্পায়ারদের গাড়িটি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কে সাভারের নতুন ইপিজেড এলাকায় বিসিবির আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারির গাড়ির কাচ ভাঙচুর করা হয়েছে। এ কারণে দেরিতে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) মাঠে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) ম্যাচ।

মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও ওল্ড ডিওএইচএস ক্রিকেট দলের মধ্যে সকাল ৯টায় ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা ছিল। ম্যাচটি শুরু হয় সাড়ে ৯টায়।

নতুন ইপিজেড এলাকায় রোববার সকাল পৌনে ৭টার দিকে লেনি ফ্যাশন নামের একটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বকেয়া বেতন-ভাতার দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করেন। ওই বিক্ষোভে শিল্প পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও জলকামান ব্যবহার করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে।

বিক্ষোভের সময় আম্পায়ারদের গাড়িটি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। তবে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তা জানতে পারেনি পুলিশ।

শিল্প পুলিশ-১-এর পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আসাদুজ্জামান জানান, রোববার সকালে লেনি ফ্যাশনের কয়েক শ শ্রমিক বকেয়া বেতন-ভাতার দাবিতে নতুন ইপিজেডের সামনের সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। এ সময় ব্যস্ততম এই সড়কটিতে যানচলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ শ্রমিকদের সড়ক ছেড়ে দেয়ার জন্য বোঝালেও তারা বিক্ষোভ করতে থাকেন। পরে জলকামান নিক্ষেপ করে তাদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

তিনি বলেন, শ্রমিকদের বিক্ষোভের সময় ছোড়া ইটের আঘাতে বিসিবির আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারিদের বহনকারী গাড়ির গ্লাস ভেঙেছে। তবে কেউ আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

এসপি বলেন, গাড়ি ভাঙচুরের বিষয়টি বিচ্ছিন্ন ঘটনা।

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন

ম্যাচ পাতানো, বাজে আম্পায়ারিং নিয়মিত ঘটনা: সাবের

ম্যাচ পাতানো, বাজে আম্পায়ারিং নিয়মিত ঘটনা: সাবের

বাংলাদেশ দলের অনুশীলনে সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি

নিউজবাংলাকে এই ক্রিকেট সংগঠক বলেন, ‘পাতানো খেলার বিষয়টি নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। খেলায় বাজে আম্পায়ারিং নিয়মিত হয়। এটা আমাদের ক্রিকেটের জন্য বড় ক্ষতি। যারা খেলা পরিচালনা করেন তাদের আরও দায়িত্ব নিতে হবে।’ সাকিবের আচরণকে অবশ্য সমর্থন জানাননি সাবের।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) ম্যাচে আবাহনীর বিপক্ষে মেজাজ হারিয়ে তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন সাকিব আল হাসান। আউটের আবেদনে সাড়া না দেয়াতেই মূলত মেজাজ হারিয়ে স্টাম্পে লাথি মারেন তিনি। শুক্রবারের এই ঘটনার পর তর্ক-বিতর্কের ঝড় চলছে ক্রীড়াঙ্গন ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে।

প্রসঙ্গক্রমে আসছে ম্যাচ পাতানো ও বাজে আম্পারিংয়ের ধারাবাহিকতার কথাও। ঘরোয়া ক্রিকেটে বাজে আম্পারিংয়ের নজির কম নয়। পাতানো খেলার অভিযোগও এসেছে বেশ কয়েকবার।

এবারের ডিপিএলের সাত ম্যাচে আবাহনীর বিপক্ষে একটিও এলবিডাব্লিউর আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়াররা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের বারবার অনুরোধের পরও ঘরোয়া ক্রিকেটে ডিআরএস প্রযুক্তি ব্যবহার করছে না আয়োজক ক্রিকেট কমিটি অফ ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম) ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে বিসিবির সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী জানালেন, ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাচ পাতানো নতুন কোনো বিষয় নয়।

নিউজবাংলাকে এই ক্রিকেট সংগঠক বলেন, ‘পাতানো খেলার বিষয়টি নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। খেলায় বাজে আম্পায়ারিং নিয়মিত হয়। এটা আমাদের ক্রিকেটের জন্য বড় ক্ষতি। যারা খেলা পরিচালনা করেন তাদের আরও দায়িত্ব নিতে হবে। আম্পায়ারকে অবশ্যই নিরপেক্ষ থাকতে হবে। আমরা আইসিসির অন্যতম সদস্য। ক্রিকেট বাঁচিয়ে রাখতে হলে এই গণ্ডি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।’

সাকিবের আচরণকে অবশ্য সমর্থন জানাননি সাবের।

সাকিবের আচরণ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘সাকিব মাঠে যা করেছে সেটা শোভন নয়। এটা খেলার নিয়মের পরিপন্থি। আমি এর প্রতিবাদ জানাই। ঘরোয়া ক্রিকেটের মান ধরে রাখতে না পারলে আইসিসিতে সম্মান থাকবে না।’

তার কথার প্রতিফলন পাওয়া গেল জাতীয় দলের সাবেক তারকা পেইসার হাসিবুল হোসেন শান্তর কথাতেও।

বর্তমানে বিসিবির কোচিংয়ে দায়িত্বে থাকা শান্ত নিউজবাংলাকে বলেন, ‘চারদিনের নিষেধাজ্ঞা ঠিকই আছে। আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারিরা আইন অনুযায়ী দিয়েছেন। খেলার স্বার্থে শাস্তিটা দরকার ছিল।

‘ইচ্ছা করে তো আর কেউ এমনটা করবে না। খেলার মধ্যে হয়ে যায়। আগের ম্যাচে মোহামেডান হারায় তারা ব্যকফুটে ছিল। তারপর ওর বলে আউট না দেয়ায় হয়তো নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। সাকিব এমনিতেই আমার মনে হয়, একটু বদমেজাজী। কিন্তু বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় হয়ে আসলে এমনটা করা ঠিক হয়নি।’

ম্যাচ পাতানো, বাজে আম্পায়ারিং নিয়মিত ঘটনা: সাবের


নিজের ক্যারিয়ারে মোহামেডানের অন্যতম সেরা তারকা ছিলেন শান্ত। খেলেছেন বহু হাই-ভোল্টেজ আবাহনী-মোহামেডান ডার্বি ম্যাচ। তার দৃষ্টিতেও সাকিব শুক্রবার যা করেছেন তা কিছুটা বাড়াবাড়ি।

শান্ত বলেন, ‘আমাদের সময়ে এতটা ওপেন হতো না। গ্যালারিতে দর্শকদের মারামারি হতো। অফশিয়ালদের মধ্যেও রেষারেষি চলত। কিন্তু মাঠে এতোটা উন্মুক্তভাবে কখনও হয়নি। আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত পছন্দ না হলে হয়তো মাঠের এক সাইডে এসে নিজেদের মধ্যে অসন্তোষ প্রকাশ করতাম। কিন্তু আম্পায়ারকে সরাসরি চার্জ করার ঘটনা এতটা ঘটত না।’

সাকিব তিন ম্যাচে নিষেধাজ্ঞা পাওয়ায় রাউন্ড রবিনের শেষ ম্যাচে খেলতে পারছেন তিনি। মোহামেডান যদি তাকে ছাড়াই তিন ম্যাচ জিতে সুপার লিগে কোয়ালিফাই করে সেক্ষেত্রে সাকিবের সুপার লিগে খেলাও হবে। ১১ রাউন্ড পর নির্ধারিত হবে সুপার লিগের সেরা ছয় দল।

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন

লিগের অনিয়ম নিয়ে ক্লাবগুলোর সঙ্গে বসবে বিসিবি

লিগের অনিয়ম নিয়ে ক্লাবগুলোর সঙ্গে বসবে বিসিবি

ঢাকা ডার্বিতে সাকিব কাণ্ড। ছবি: সংগৃহীত

সিসিডিএমের চেয়ারম্যান কাজী এনাম আহমেদ বলেন, ‘বোর্ড সভাপতি আম্পায়ারিং নিয়ে অনেক গুরুত্বের সাথে নিচ্ছেন। তিনি পরিপূর্ণ রিপোর্ট চান, তদন্ত চান। তার কথা হল কেন এমন হচ্ছে যেখানে আমরা এত খেয়াল করে লিগটা চালাচ্ছি। আমরা সব ক্লাবের সাথে বসব এবং কথা বলব।’

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে স্টাম্পে সাকিব আল হাসানের লাথি মারার ঘটনায় বলা যায় নড়ে-চড়ে বসেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সাকিবের ঘটনায় লিগের অনিয়ম নিয়ে আবারও কথা উঠছে। এ বিষয়ে ক্লাব ও অধিনায়কদের সঙ্গে বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা।

বিষয়টি শনিবার সন্ধ্যায় নিশ্চিত করেছেন ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ।

সিসিডিএমের কাছে সাকিব কাণ্ডের মূল কারণ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানতে চেয়েছেন উল্লেখ করে ইনাম সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ‘বোর্ড সভাপতি আমাদের ডেকেছিলেন। আমি এবং জালাল ইউনুস ভাই কথা বলেছি। উনি এটা নিয়ে ভাবছেন এবং পুরো বিষয় জানতে চেয়েছেন। উনি এই ঘটনার মূল কারণ জানতে চান।’

আগামী ১৫ জুন বিসিবির কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকের আগেই সভাপতি এই বিষয়ে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান সিসিডিএম চেয়ারম্যান।

ইনাম বলেন, ‘তিন দিন পর আমাদের বোর্ড মিটিং আছে। তার আগেই উনি (বিসিবি সভাপতি) তদন্ত করতে বলেছেন। একটা কমিটি করে দিয়েছেন, সেই কমিটিতে আছি। জালাল ভাই আছেন। দুর্জয় আছেন। শেখ সোহেল আছেন এবং প্রধান ম্যাচ রেফারি রকিবুল হাসান আছেন।’

আগামী দুই দিনের মধ্যে লিগের অনিয়ম ও বিতর্ক নিয়ে ক্লাব ও অধিনায়কদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চায় বিসিবি।

ইনামের কথায়, ‘আমরা সব ক্লাবের ম্যানেজার এবং অধিনায়কদের নিয়ে বসব আগামী দুই দিনের মধ্যে। যদি ডিপিএলের খেলার কোনো ইস্যু, পরিস্থিতি, সিদ্ধান্ত নিয়ে অসন্তোষ থাকে আমরা সেটা শুনব।’

এবারের ডিপিএলের সাত ম্যাচে আবাহনীর বিপক্ষে একটিও এলবিডাব্লিউর আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়াররা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের বারবার অনুরোধের পরও ঘরোয়া ক্রিকেটে ডিআরএস প্রযুক্তি ব্যবহার করছে না আয়োজক ক্রিকেট কমিটি অফ ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম) ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে লিগে অনিয়ম নিয়ে তদন্তের তাগিদ দেখছেন বিসিবি সভাপতি।

সিসিডিএমের এই চেয়ারম্যান বলেন, ‘বোর্ড সভাপতি আম্পায়ারিং নিয়ে অনেক গুরুত্বের সাথে নিচ্ছেন। তিনি পরিপূর্ণ রিপোর্ট চান, তদন্ত চান। তার কথা হল কেন এমন হচ্ছে যেখানে আমরা এত খেয়াল করে লিগটা চালাচ্ছি। আমরা সব ক্লাবের সাথে বসব এবং কথা বলব।’

আরও পড়ুন:
তানভিরের ঘূর্ণিতে জিতল শাইনপুকুর
ইরফান ঝড়ে মোহামেডানের জয়
সাইফউদ্দিন জেতালেন আবাহনীকে
সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল তামিমরা

শেয়ার করুন