আনুষ্ঠানিক অনুরোধ করেনি ভারত: ইসিবি

ভারতের টেস্ট অধিনায়ক ভিরাট কোহলি ও ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট। ফাইল ছবি

আনুষ্ঠানিক অনুরোধ করেনি ভারত: ইসিবি

সাউদ্যাম্পটনে ১৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। সেখানে লড়বে ভারত ও নিউজিল্যান্ড। এরপর ৪ আগস্ট থেকে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ শুরু করবে ভারত। যা শেষ হবে ১০ সেপ্টেম্বর। সেটি এক সপ্তাহ এগিয়ে সিরিজ শেষ করা হলে আইপিএল আয়োজনের সুযোগ পাবে বিসিসিআই।

নিজ দেশে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় মাঝপথেই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চতুর্দশ আসর স্থগিত করতে বাধ্য হয় ভারত। আইপিএলের বাকি অংশ শেষ করতে মুখিয়ে আছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। কিন্তু শেষ করার জন্য উপযুক্ত সময় পাচ্ছে না তারা।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের সূচি এগিয়ে আনলে আইপিএলের বাকি অংশ শেষ করার সুযোগ আছে বিসিসিআইয়ের সামনে। টেস্ট সিরিজের সূচি এগিয়ে আনতে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডকে (ইসিবি) অনুরোধ করে বিসিসিআই। বিসিসিআইয়ের অনুরোধ রাখেনি ইসিবি।

এ নিয়ে ইসিবির এক মুখপাত্র বলেন, ‘বিসিসিআইয়ের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে আমাদের কথা হয়েছে। আইপিএল নিয়েও আলোচনা হয়েছে। তবে নির্ধারিত সময়েই পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে শুরু হবে এবং শেষও হবে। সূচিতে পরিবর্তনের কোনো সুযোগ নেই। করোনার কারণে পরিবর্তন হলে জৈব-সুরক্ষাবলয় নিয়ে অনেক দিক দিয়ে সমস্যায় পড়তে হবে।’

সাউদ্যাম্পটনে ১৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। সেখানে লড়বে ভারত ও নিউজিল্যান্ড। এরপর ৪ আগস্ট থেকে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ শুরু করবে ভারত। যা শেষ হবে ১০ সেপ্টেম্বর। সেটি এক সপ্তাহ এগিয়ে সিরিজ শেষ করা হলে আইপিএল আয়োজনের সুযোগ পাবে বিসিসিআই।

আইপিএলের বাকি ৩১ ম্যাচের জন্য তিন সপ্তাহ সময় পাবে বিসিসিআই। কিন্তু বিসিসিআইর অনুরোধকে ‘না’ করে দিয়েছে ইসিবি।

ইসিবি আরেক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান, ভারতের কাছ থেকে সিরিজের সূচি পরিবর্তনের কোনো অনুরোধ পাননি তারা।

‘করোনাভাইরাস মোকাবিলার নানা বিষয় নিয়ে আমরা বিসিসিআইয়ের সঙ্গে নিয়মিত কথা বলছি। কিন্তু ম্যাচের তারিখ পরিবর্তন নিয়ে তাদের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের সঙ্গে কেউ যোগাযোগ করেনি। আগের সূচিতেই অনুষ্ঠিত হবে টেস্ট সিরিজ,’ বলেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ইসিবি কর্তা।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় গত ৪ মে স্থগিত হয় আইপিএলের চতুর্দশ আসর।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটাচ্ছেন সাকিব

পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটাচ্ছেন সাকিব

স্ত্রী শিশিরের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে সাকিব আল হাসান। ছবি: ফেসবুক

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার নিজের পরিবারের সঙ্গে কিছু সময় কাটানোর জন্যেই মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের কাছ থেকে ছুটি নেন। সাকিবের সঙ্গে নিজের একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন তার স্ত্রী উম্মে শিশির।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) সুপার লিগ না খেলেই যুক্তরাষ্ট্রে যান সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার নিজের পরিবারের সঙ্গে কিছু সময় কাটানোর জন্যেই মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের কাছ থেকে ছুটি নেন।

সাকিবের সঙ্গে নিজের একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন তার স্ত্রী উম্মে শিশির। সোমবার পোস্ট করা ছবির ক্যাপশনে লেখেন, ‘প্রকৃতির মাঝে কিছুটা সময় কাটাচ্ছি।’

সাকিবের স্ত্রী শিশির জন্মসূত্রে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। এবং দেশটির উইসকনসিন অঙ্গরাজ্যে থাকেন। সাকিবও আছেন সেখানেই।

ডিপিএলে আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে ম্যাচে অশোভন আচরণের জন্য তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পান সাকিব। নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে রাউন্ড রবিন লিগের শেষ ম্যাচ খেলেন সাকিব।

অধিনায়ককে ছাড়া সুপার লিগের প্রথম ম্যাচে আবাহনীর কাছে ৬০ রানে হেরেছে মোহামেডান।

যুক্তরাষ্ট্রে ছুটি কাটিয়ে জাতীয় দলের সঙ্গে সরাসরি জিম্বাবুয়ে সফরে যোগ দেবেন দেশসেরা এই ক্রিকেটার। বাংলাদেশ দল ডিপিএল শেষে ২৯ বা ৩০ জুন জিম্বাবুয়ে সফরে যাচ্ছে। ৭ জুলাই থেকে শুরু হবে তিন ওয়ানডে, তিন টি-টোয়েন্টি ও এক টেস্টের সিরিজ।

তবে গত ১৪ জুন করোনাভাইরাস মহামারির পরিস্থিতি খারাপ হওয়াতে জিম্বাবুয়েতে নতুন করে লকডাউন দেয় দেশটির সরকার। ফলে স্থগিত করা হয়েছে যেকোনো ধরনের আউটডোর ইভেন্ট। যার মধ্যে রয়েছে ক্রীড়া ইভেন্টও।

লকডাউনের কারণে শঙ্কায় পড়েছে আসন্ন জিম্বাবুয়ে-বাংলাদেশ সিরিজও। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড আনুষ্ঠানিকভাবে সিরিজ বাতিল বা স্থগিত নিয়ে কিছু বলেনি।

শেয়ার করুন

বোলারদের পর নিউজিল্যান্ডের ব্যাটারদের সাফল্য

বোলারদের পর নিউজিল্যান্ডের ব্যাটারদের সাফল্য

ছবি: টুইটার

অপরাজিত ১২ রানে আছে অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন ও রানের খাতা না খুলে ক্রিজে টিকে রয়েছেন রস টেইলর।

প্রথম দিন বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ার পর এখন তৃতীয় দিন শেষে আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ড্রাইভিং সিটে নিউজিল্যান্ড। দুর্দান্ত বোলিংয়ে ভারতকে অল্পরানেই গুটিয়ে ফেলে এখন ব্যাটিংয়েও বেশ সাবলীল ব্ল্যাক ক্যাপরা।

ভারতকে ২১৭ রানে অলআউট করে ব্যাটিংয়ে নেমেছে নিউজিল্যান্ড। তৃতীয় দিন শেষে দুই উইকেট হারিয়ে দলীয়ভাবে ১০১ রানে তুলেছে দলটি।

সাউদাম্পটনে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় উইলিয়ামসনরা।

ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা কিছুটা ভালো হলেও সময় গড়ানোর পাশাপাশি ধারাবাহিকভাবে উইকেট খুয়েছে ভিরাট কোহলির ভারত।

পুরো ইনিংসে কারও ব্যাট থেকে ফিফটির কোনো ইনিংস আসেনি। সর্বোচ্চ চল্লিশের ঘরে রান করেছেন কোহলি আর রাহানে। অধিনায়ক ৪৪ রানে ফিরে গেলে ৪৯ রানে সাজঘরে ফেরেন রাহানেও। এরপরে আর থামানো সম্ভব হয়নি নিউজিল্যান্ডকে। ভারত গুটিয়ে যায় মাত্র ২১৭ রানে।

একই পাঁচ উইকেট নিয়ে ভারতকে ধসিয়ে দেন ফাস্ট বোলার কাইল জেমিসন। ট্রেন্ট বোল্ট আর নেইল ওয়াগনার নেন দুটি করে উইকেট। একটি উইকেট নেন টিম সাউদি।

ব্যাটিংয়ে নেমে ভারতের বোলারদের রুখে দিতে সমর্থ হয়েছে নিউজিল্যান্ড। ৪৯ ওভার শেষে দুই উইকেট হারিয়ে ১০১ রান তুলেছে নিউজিল্যান্ড। দুই ওপেনার ভিত্তি গড়ে ফিরে যান সাজঘরে। ফিফটি তুলে নেন ডেভন কনওয়ে (৫৪ রান)। আর টম লেইথাম আউট হন ৩০ রান করে।

অপরাজিত ১২ রানে আছেন অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন ও রানের খাতা না খুলে ক্রিজে টিকে রয়েছেন রস টেইলর।

শেয়ার করুন

সাকিবকে ছাড়া মুশফিকের আবাহনীর কাছে উড়ে গেল মোহামেডান

সাকিবকে ছাড়া মুশফিকের আবাহনীর কাছে উড়ে গেল মোহামেডান

মোহামেডানের উইকেট নেয়ার পর আবাহনীর উদযাপন। ছবি: সংগৃহীত

সাকিবহীন মোহামেডানকে পেয়ে এবার যেন হেসেখেলেই হারিয়ে দিয়ে মধুর প্রতিশোধ তুলে নেয় মুশফিকের আবাহনী।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) প্রথম দেখায় ঢাকা ডার্বি জিতেছিল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। সেই ম্যাচে সাকিব আল হাসান ছিলেন মাঠে।

রাউন্ড রবিনের শেষ ম্যাচ খেলে মোহামেডান অধিনায়ক যুক্তরাষ্ট্রে চলে যাওয়ায় সুপার লিগ তাকে ছাড়াই খেলতে হচ্ছে দলকে।

সাকিবহীন মোহামেডানকে পেয়ে এবার একরকম হেসেখেলে হারিয়ে দিয়ে মধুর প্রতিশোধ তুলে নেয় মুশফিকুর রহিমের আবাহনী।

মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টস জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মোহামেডান।

ব্যাটিংয়ে নেমে তান্ডব শুরু করে মুশফিকরা। মাত্র ২৭ বলে ৪৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে বিদায় নেন মুনিম শাহরিয়ার। চার রানে সাজঘরে ফেরেন লিটন দাস।

পরে শান্ত আর মুশকিফ এসে দলকে বড় পুজি গড়ার ক্ষেত্রে সহায়তা করেন। ১৭ বলে শান্তর ২৭ আর ৩২ বলে মুশফিকের ৫৭ রানের ইনিংসে বড় স্কোর গড়ে আবাহনী।

শান্তর বিদায়ের পর নাইম, আফিফ ও মোসাদ্দেকের ক্যামিওতে আবাহনী স্কোরবোর্ডে জমা করে ১৯৩ রান। মুশফিকের অপরাজিত ফিফটির দিনে আবাহনী হারায় সাত উইকেট। তিনটি করে উইকেট নেন রুইয়েল মিয়া ও আসিফ হাসান। একটি নেন আবু জায়েদ।

বিশাল টার্গেট তাড়া করতে নেমে মাত্র ৪২ রানেই ছয় উইকেট হারিয়ে ফেলে মোহামেডান। মাহমুদুল হাসান আর ইরফান শুক্কুর কিছুটা ধরে রাখার চেষ্টা করলেও কাজ হয়নি। ৩৭ রানে মাহমুদুল আর ২৭ রানে বিদায় নেন ইরফান।

ম্যাচে ফেরার আশা সেখানেই শেষ হয়ে যায় মোহামেডানের।

আট নম্বরে নেমে অতিমানবীয় ইনিংস খেলেন আবু হায়দার রনি। ৪২ বলে ৫৩ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন এই বাঁ-হাতি পেইসার।

কিন্তু পাহাড়সম টার্গেটের সামনে এই ইনিংস কোনো কাজেই লাগেনি। ৬০ রানের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়ে আকাশি-নীলরা। ম্যাচসেরা হন মুশফিকুর রহিম।

শেয়ার করুন

স্বেচ্ছাসেবক লীগে ক্রিকেটার সৈয়দ রাসেল

স্বেচ্ছাসেবক লীগে ক্রিকেটার সৈয়দ রাসেল

নিউজবাংলাকে সৈয়দ রাসেল বলেন, ‘কমিটিতে আমাকে যারা যোগ্য মনে করে রেখেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক কমিটিতে জায়গা পেয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক তারকা ক্রিকেটার সৈয়দ রাসেল। তিনি কমিটিতে যুগ্ম আহ্বায়কের পদ পেয়েছেন।

নবগঠিত কমিটিতে আহ্বায়ক হয়েছেন আবুল কালাম আজাদ।

নিউজবাংলাকে সৈয়দ রাসেল বলেন, ‘কমিটিতে আমাকে যারা যোগ্য মনে করে রেখেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

তবে রাজনীতিতে কী লক্ষ্য সেটা এখনও ঠিক করেননি বলে জানিয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক এই তারকা ক্রিকেটার। যদিও স্থগিত হওয়া ঝিকরগাছা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন পেতে তিনি চেষ্টা করেছিলেন।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ ঘোষিত ২১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটিতে যুগ্ম আহ্বায়ক পদে আরও আছেন আজহারুল ইসলাম লাবু, কামরুজ্জামান কামাল, শামসুজ্জামান লোটাস, শেখ ইমরান।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন হোসেন মোহাম্মদ ওমর শরীফ সাকী, জাহিদুল ইসলাম, মাহমুদ মুকুল, ফারুক হোসেন, এনামুল হক মনি, রফিকুল ইসলাম, শাহাদত হোসেন, সেলিম হোসেন, প্রিন্স আহম্মেদ, সাজ্জাদুল জামান রনি, আল-আমিন, শাহ জামাল শিশির, মন্টু মিয়া, মিজানুর রহমান ও ইবাদ আলী।

নিউজবাংলাকে রোববার বিকেলে এসব তথ্য জানান কমিটির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ নূরে আলম সিদ্দিকী মিলন ২১ সদস্যের উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন।
প্রায় এক যুগ পর ঝিকরগাছা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি দেয়া হলো। আগামী ৯০ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

২০০৫ সালে জাতীয় দলে অভিষেক হয় সৈয়দ রাসেলের। দেশের হয়ে ওয়ানডেতে ৫২ ম্যাচে ৬১ উইকেট শিকার করেছেন। আর ছয় টেস্টে নিয়েছেন ১২ উইকেট।

শেয়ার করুন

সেইন্ট লুসিয়া টেস্টের নিয়ন্ত্রণে সাউথ আফ্রিকা

সেইন্ট লুসিয়া টেস্টের নিয়ন্ত্রণে সাউথ আফ্রিকা

ছবি: এএফপি

প্রোটিয়াদের করা ২৯৮ রানের জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১৪৯ রানে অলআউট হয়েছে উইন্ডিজ। সফরকারী দলের লিড দাঁড়িয়েছে ১৪৯ রানের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে সাউথ আফ্রিকা। প্রোটিয়াদের করা ২৯৮ রানের জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১৪৯ রানে অলআউট হয়েছে উইন্ডিজ। সফরকারী দলের লিড দাঁড়িয়েছে ১৪৯ রানের।

২১৮ রানে পাঁচ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করে সাউথ আফ্রিকা। ৫৯ রানে থাকা কুইন্টন ডি ককই লড়াই করেন দলের হয়ে। এক প্রান্ত আগলে রেখে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন ডি কক।

সেঞ্চুরি থেকে মাত্র চার রান দূরে থেকে আউট হন এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। ৯৬ রানে আউট হন ডি কক।

তার আউটের পর বেশীক্ষণ টেকেনি প্রোটিয়া ইনিংস। ২৯৮ রানে প্রথম ইনিংসে তাদের গুটিয়ে দেয় উইন্ডিজ।

স্বাগতিক দলের পক্ষে জেসন হোল্ডার চারটি, জেইডন সিলস তিনটি ও কিমার রোচ দুটি উইকেট নেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে, বিপর্যয়ে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম বলেই কাগিসো রাবাডার ডেলিভারিতে ফিরে যান অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েইট।

এরপর থেকেই শুরু হয় ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিল। শেই হোপ ও কাইল মায়ার্স ছাড়া কেউই বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। মায়ার্স ইনিংস সর্বোচ্চ ৪৯ রান করেন। আর হোপের ব্যাট থেকে আসে ৪৩।

শেষ চার উইকেট মাত্র ছয় রানে হারায় উইন্ডিজ। ৫৪ ওভার টেকে তাদের পুরো ইনিংস।

১৪৯ রানে অলআউট হলে সাউথ আফ্রিকা সমান রানের লিড পায়। সফরকারী দলের পক্ষে উইয়ান মাল্ডার এক রানে তিন উইকেট নিয়ে ক্যারিবিয়ানদের টেইল-এন্ড ধসিয়ে দেন।

রাবাডা, আনরিখ নরটিয়া ও কেশভ মহারাজ দুটি করে উইকেট নেন।

প্রথম টেস্ট ইনিংস ও ৬৩ রানে জিতে দুই ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে সাউথ আফ্রিকা।

শেয়ার করুন

বৃষ্টি বিঘ্নিত দিনে ভারতকে সামলালেন কোহলি-রাহানে

বৃষ্টি বিঘ্নিত দিনে ভারতকে সামলালেন কোহলি-রাহানে

ভারতের হয়ে ৫৮ রানের জুটি গড়েন রাহানে ও কোহলি। ছবি: আইসিসি

দিনের খেলা শেষে ভারতের সংগ্রহ ছিল তিন উইকেটে ১৪৬। দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান ভিরাট কোহলি ও আজিঙ্কা রাহানে। ভারতের অধিনায়ক অপরাজিত ৪৪ রানে আর সহ-অধিনায়ক খেলছেন ২৯ রান নিয়ে।

আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের দ্বিতীয় দিনেও ছিল বৃষ্টির বাধা। বৃষ্টি ও আলো স্বল্পতায় পুরো দিনে খেলা হয়েছে মাত্র ৬৮ ওভার।

দিনের খেলা শেষে ভারতের সংগ্রহ ছিল তিন উইকেটে ১৪৬।

দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান ভিরাট কোহলি ও আজিঙ্কা রাহানে। ভারতের অধিনায়ক অপরাজিত ৪৪ রানে আর সহ-অধিনায়ক খেলছেন ২৯ রান নিয়ে।

বৃষ্টিতে প্রথম দিন ধুয়ে যাওয়াতে দ্বিতীয় দিনই কার্যত হয়ে পড়ে ফাইনালের প্রথম দিন। আর ম্যাচ রেফারি রিজার্ড ডে যোগ করাতে পাঁচদিনই খেলা হবে।

সাউদ্যাম্পটনে বৃষ্টির কারণে ঘণ্টাখানেক দেরিতে টস করতে নামেন দুই অধিনায়ক। টস জিতে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠান কেইন উইলিয়ামসন।

সিমিং কন্ডিশনে দুই ভারতীয় ওপেনার দেখেশুনে শুরু করেন। উইকেটে ২০ ওভার টিকে থেকে সংগ্রহ করেন ৬২ রান। ২১তম ওভারের প্রথম বলে ভাঙ্গে জুটি।

কাইল জেমিসনের বলে টিম সাউদির হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন রোহিত শর্মা। তার ব্যাট থেকে আসে ৩৪ রান।

চার ওভার পরই আউট হন গিল। নেইল ওয়াগনারের বলে কট বাহাইন্ড হন তিনি। গিল করেন ২৮।

চেতেশ্বর পুজারা ওয়ান ডাউনে নেমে স্বভাবজাত ধীরগতিতে ব্যাট করা শুরু করেন। তবে দলের কাজে আসেনি তার ইনিংস। ৫৪ বলে আট রান করে ট্রেন্ট বোল্টের বলে এলবিডব্লিউ হন তিনি।

৮৮ রানে তিন উইকেট হারিয়ে কিছুটা বিপদে পড়ে ভারত। সেখান থেকে দলকে উদ্ধার করেন কোহলি ও রাহানে। ৫৮ রানের জুটি গড়ে অপরাজিত থাকেন দুই জন।

নিউজিল্যান্ডের পক্ষে বোল্ট, জেমিসন ও ওয়াগনার নেন একটি করে উইকেট।

রোববারও বৃষ্টির পূর্বাভাস আছে সাউদ্যাম্পটনে। শনিবারের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ম্যাচের দ্বিতীয় দিন ৯৮ ওভার খেলা হবার কথা।

শেয়ার করুন

বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের প্রথম দিন

বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের প্রথম দিন

সাউদ্যাম্পটনের ভেজা মাঠ পর্যবেক্ষণ করছেন নিউজিল্যান্ডের পেইসার ট্রেন্ট বোল্ট। ছবি: এএফপি

ইংল্যান্ড সময় বেলা ৩টায় (বাংলাদেশ সময় রাত আটটা) পিচ পরিদর্শন করেন আম্পায়ার।মাঠ ভেজা থাকায় ও তখনও বৃষ্টি পুরোপুরি না থামায় প্রথম দিনের খেলা পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন আম্পায়ার। তবে ফাইনালের জন্য নির্ধারিত রাখা রিজার্ভ ডে যোগ হচ্ছে টেস্টের সঙ্গে।

সাউদ্যাম্পটনে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম দিন বৃষ্টির বাধায় পড়েছে। বৃষ্টির কারণে খেলা মাঠে গড়াতে পারেনি। প্রথম দিন টসও করেননি দুই অধিনায়ক ভিরাট কোহলি ও কেইন উইলিয়ামসন।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি একেবারেই না থামলে আম্পায়ার লাঞ্চ সেশন ঘোষণা করেন। বৃষ্টিতে ধুয়ে যায় দ্বিতীয় সেশনও। ইংল্যান্ড সময় বেলা ৩টায় (বাংলাদেশ সময় রাত আটটা) পিচ পরিদর্শন করেন আম্পায়ার।

মাঠ ভেজা থাকায় ও তখনও বৃষ্টি পুরোপুরি না থামায় প্রথম দিনের খেলা পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন আম্পায়ার। তবে ফাইনালের জন্য নির্ধারিত রাখা রিজার্ভ ডে যোগ হচ্ছে টেস্টের সঙ্গে।

অর্থাৎ প্রথম দিন ধুয়ে গেলেও, বৃষ্টি আবার ব্যাঘাত না হলে পুরো পাঁচদিনই খেলা হতে পারে সাউদ্যাম্পটনে।

প্রথম টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মুকুট মাথায় নিতে জয় ছাড়া কিছুই ভাবছে না দুই দল। এক ম্যাচের ফাইনালের টেস্টটি ড্র বা টাই হয়, তবে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হবে ভারত ও নিউজিল্যান্ড।

নয়টি দলকে নিয়ে ২০১৯ সালের আগস্টে শুরু হয় প্রথম বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার পাঁচ টেস্টের অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে পথচলা শুরু টুর্নামেন্টের।

এরপর বিভিন্ন দল নিজেদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে। প্রতি দল ছয়টি করে সিরিজ খেলেয়ার কথা ছিল। সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট পাওয়া সেরা দুই দলের খেলার কথা ছিল ফাইনাল।

কিন্ত ২০২০ সালের মার্চ থেকে বিশ্বব্যাপি করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় অন্যান্য খেলার মত থমকে যায় ক্রিকেটও।

তাই করোনার কারনে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরের বেশ কয়েকটি ম্যাচ ও সিরিজ স্থগিত হয়ে যায়। ফলে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনে আইসিসি। পয়েন্টের হিসেব বাদ দিয়ে শতকরা হিসেবে পয়েন্ট টেবিলের নিয়ম চালু করে ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা।

শতকরা হিসেবে সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট ছিলো ভারত ও নিউজিল্যান্ডের। ভারত ছিলো সবার উপরে। ৬ সিরিজে ভারতের শতকরাতে পয়েন্ট ৭২ দশমিক ২। আর পাঁচ সিরিজে নিউজিল্যান্ডের শতকরাতে পয়েন্ট ৭০।

তাই পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুই দল হয়ে প্রথম বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত ও নিউজিল্যান্ড।

ছয় সিরিজে ১৭ ম্যাচে ভারতের জয় ১২টিতে, হার ৪টিতে ও ড্র ১টিতে। পাঁচ সিরিজে ১১ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের জয় ৭টিতে। হার ৪টিতে, কোন ড্র নেই।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট টেবিলে তিন নম্বরে থাকা দলের জন্য প্রাইজমানি সাড়ে ৪ লাখ ডলার। চার নম্বরে থাকা দল পাবে সাড়ে ৩ লাখ ও ৫ নম্বরে থাকা দলের থাকছে ২ লাখ ডলার প্রাইজমানি। এছাড়া ষষ্ঠ থেকে নবম দল পাবে ১ লাখ ডলার করে।

ফাইনালের মঞ্চে নামার আগে টেস্ট ফরম্যাটে ৫৯বার মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও নিউজিল্যান্ড। এরমধ্যে নিউজিল্যান্ডের জয় ১২ ম্যাচে। ভারতের ২১টিতে জয়। বাকী ২৬ টেস্ট ড্র হয়।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সর্বশেষ টেস্টে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত ও নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ২-০ ব্যবধানে হেরেছিলো ভারত। সিরিজটি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ ছিল।

ফাইনালের আগের রাতে বৃহস্পতিবার নিজেদের একাদশ ঘোষনা করেছে ভারত। দলে জায়গা পেয়েছেন স্পিন বোলিং অলরাউন্ডার রভিন্দ্র জাদেজা।

ভারত একাদশ:
রোহিত শর্মা, শুভমান গিল, চেতেশ্বর পুজারা, ভিরাট কোহলি, আজিঙ্কা রাহানে, রিশাভ পান্ট, রভিন্দ্র জাদেজা, রভিচন্দ্রন আশউইন, মোহাম্মদ শামি ও ইশান্ত শর্মা।

শেয়ার করুন