20201002104319.jpg
ম্যাক্সওয়েল-ক্যারির সেঞ্চুরিতে সিরিজ অস্ট্রেলিয়ার

ষষ্ঠ উইকেটে ২১২ রানের জুটি গড়েন ম্যাক্সওয়েল ও ক্যারি। ছবি:আইসিসি

ম্যাক্সওয়েল-ক্যারির সেঞ্চুরিতে সিরিজ অস্ট্রেলিয়ার

তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডকে তিন উইকেটে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। স্কোর: ৩০২/৭ (বেয়ারস্টো ১১২, বিলিংস ৫৭), অস্ট্রেলিয়া ৩০৫/৭ (ম্যাক্সওয়েল ১০৮, ক্যারি ১০৬)

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং অ্যালেক্স ক্যারির জুটিতে শেষ ওয়ানডে জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ডের দেওয়া ৩০৩ রানের টার্গেটে দুই বল আগে পৌছায় অজিরা। এই জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজ ২-১ এ জিতে নিয়েছে সফরকারী দল।

ম্যানচেস্টারে ৩০৩ রানের বড় টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ব্যাকফুটে চলে যায় অস্ট্রেলিয়া। পাওয়ার প্লেতে অ্যারন ফিঞ্চ এবং মার্নাস ল্যাবুশেনকে হারায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এরপর ডেভিড ওয়ার্নার, মিচেল মার্শ এবং মার্কাস স্টয়নিসও ফিরে যান বড় ইনিংস না খেলেই। ৭৩ রানে পাঁচ উইকেটে তুলে নিয়ে ম্যাচে প্রাধান্য বিস্তার করে ইংল্যান্ড। 

সেখান থেকে অস্ট্রেলিয়াকে জয়ের পথে ফেরান ম্যাক্সওয়েল ও ক্যারি। ষষ্ঠ উইকেটে ২১২ রান যোগ করেন এই দুই ব্যাটসম্যান। ৪৮ তম ওভারের তৃতীয় বলে ভাঙে জুটি। ১০৮ রানে আদিল রাশিদের বলে আউট হন ম্যাক্সওয়েল। তবে, ততক্ষণে বোর্ডে ২৮৫ রান সংগ্রহ করে ফেলেছে অস্ট্রেলিয়া।

পরের ওভারের শেষ বলে ১০৮ রানে আউট হন ক্যারি। জোফ্রা আর্চার ফেরান এই উইকেট কিপার ব্যাটসম্যানকে। শেষ ওভারে জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন ছিল ১০ রানের। মিচেল স্টার্কের এক চার এবং ছয়ে জয় নিশ্চিত হয় অস্ট্রেলিয়ার। ম্যাচ ও সিরিজ সেরা হয়েছেন ম্যাক্সওয়েল।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ড। ইনিংসের প্রথম দুই বলে জেসন রয় ও জো রুটকে ফেরান মিচেল স্টার্ক। ওইন মর্গ্যান এবং জশ বাটলারকে ফেরান অ্যাডাম জ্যাম্পা।

সেখান থেকে ইংল্যান্ডকে বড় স্কোরের দিকে নিয়ে যান জনি বেয়ারস্টো। ক্যারিয়ারের দশম ওডিআই সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে আউট হন ১১২ রানে। শেষ দিকে স্যাম বিলিংস ও ক্রিস ওকসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৩০০ ছাড়ায় ইংল্যান্ডের স্কোর। বিলিংসের ব্যাট থেকে আসে ৫৭। আর ওকস অপরাজিত থাকেন ৫৩ রানে। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে জ্যাম্পা ও স্টার্ক তিনটি করে উইকেট নেন।

শেয়ার করুন