হাটহাজারীতে নাশকতা: হেফাজতের আরেক নেতা গ্রেপ্তার

হাটহাজারীতে নাশকতা: হেফাজতের আরেক নেতা গ্রেপ্তার

বুধবার সকাল ১০টা দিকে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানার ফটিকা এলাকা থেকে হেফাজত নেতা আসাদুল্লাহকে গ্রেপ্তার করে।

নাশকতার মামলায় হাটহাজারী পৌরসভা হেফাজতের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আসাদুল্লাহ আসাদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বুধবার রাত ৯টার দিকে তাকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানায় র‌্যাব।

র‌্যাব-৭-এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) নুরুল আবছার বলেন, গত ২৬ ও ২৭ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উদযাপনের সময় একটি মহল দেশের বিভিন্ন স্থানে বিশেষ করে হাটহাজারী এলাকায় যে অরাজকতা, সহিংসতা ও নাশকতা করেছে তাতে জড়িতদের আটকের জন্য র‌্যাব নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছে।

এরই অংশ হিসেবে বুধবার সকাল ১০টা দিকে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল হাটহাজারীর ফটিকা এলাকা থেকে আসাদুল্লাহকে গ্রেপ্তার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে আসাদুল্লাহ স্বীকার করেছেন, তিনি আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মৃত্যুর পর সংঘটিত সহিংসতা ও নাশকতা সৃষ্টির পৃষ্ঠপোষক।

নুরুল আবছার আরও বলেন, আসামির বিরুদ্ধে হাটহাজারী থানায় একটি বিশেষ ক্ষমতা আইনের এবং দুইটি অন্য ধারায় মামলা চলমান রয়েছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আসামিকে রাত ৮টার দিকে হাটহাজারী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

গত ২৬ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা তাণ্ডব চালান। ওই সময় পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত হয়।

হেফাজতের নেতাকর্মীরা থানা ভবন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস এবং ডাকবাংলোয় ভাঙচুর ও আগুন দেয়। তিন দিন ধরে হাটহাজারী-খাগড়াছড়ি সড়ক অবরোধও করে রাখে তারা।

এ ঘটনায় হাটহাজারী থানায় ৪ হাজার ৫০০ জনকে আসামি করে ১০টি মামলা করে পুলিশ। এতে জুনায়েদ বাবুনগরীসহ ১৪৮ জনের নাম রয়েছে।

আরও পড়ুন:
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক জাতীয় স্বার্থে: বাবুনগরী 
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে মুখে কুলুপ বাবুনগরীরও
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসায় বাবুনগরী
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করতে ঢাকায় বাবুনগরী
হেফাজত নেতা আজহারুল ফের রিমান্ডে

শেয়ার করুন

মন্তব্য