প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতায় তার নামে কোরবানি

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতায় তার নামে কোরবানি

মোজাম্মেল হক আকন্দ।

‘তিস্তায় সব কিছু হারিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলাম। নিরূপায় হয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে সাহায্যর আবেদন করি। স্থানীয় সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেনের সহযোগিতায় ২০ হাজার টাকা সাহায্য পাই। সেই টাকা দিয়ে ছাগল কিনে লালন পালন করতে থাকি এবং বিপদের সময় সাহায্য পেয়ে উপকৃত হওয়ার কারণে নিয়ত করি, প্রতি বছর ঈদুল আজহায় বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর নামে একটি ছাগল কোরবানি দেব।’

এবারও ঈদুল আজহায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে পশু কোরবানি দেবেন লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী ইউনিয়নের মোজাম্মেল হক আকন্দ।

এই মানুষটি তিস্তার ভাঙনে জমি হারিয়ে ৬ সদস্যের পরিবারের ভরণপোষণ নিয়ে যখন দুশ্চিন্তায়, সে সময় ২০১৬ সালে প্রধানমন্ত্রী’র ত্রাণ তহবিল থেকে সাহায্য পান। সেই টাকা দিয়ে ছাগল কিনে লালন পালন করতে থাকেন আকন্দ। আর এতে তার দিন ঘুরে যায়।

বিপদের সহায়তা পাওয়ায় এরপর থেকে প্রতি বছর প্রধানমন্ত্রীর নামে একটি করে পশু কোরবানি দিয়ে আসছেন।

নিউজবাংলাকে আকন্দ বলেন, ‘তিস্তায় সব কিছু হারিয়ে দুচিন্তায় ছিলাম। নিরূপায় হয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে সাহায্যর আবেদন করি। স্থানীয় সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেনের সহযোগিতায় ২০ হাজার টাকা সাহায্য পাই।

‘সেই টাকা দিয়ে ছাগল কিনে লালন পালন করতে থাকি এবং বিপদের সময় সাহায্য পেয়ে উপকৃত হওয়ার কারণে নিয়ত করি, প্রতি বছর ঈদুল আজহায় বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর নামে গৃহপালিত একটি ছাগল কোরবানি দেব।’

যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন প্রধানমন্ত্রীর নামে পশু কোরবানি দেবেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি ছাত্র জীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আর্দশের রাজনীতি করি। আমার এক চোখ নষ্ট। অন্য চোখ দিয়ে একবার প্রধানমন্ত্রীকে দেখতে চাই। তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চাই।’

আরও পড়ুন:
সেই সৈকতের কল্যাণে ঈদ এলো পথশিশুদের মধ্যে
পশু জবাইয়ের স্থান ঢাকা উত্তরে আছে, দক্ষিণে নেই
দিনে ১০ টাকা জমিয়ে কোরবানি
বিক্রি বেড়েছে খাটিয়ার
‘এমপি হেলাল সাহেব গরু দিছে, ঈদের দিনোত গোশত দিয়া ভাত খামু’

শেয়ার করুন

মন্তব্য