অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার সাবেক যুবদল নেতা

অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার সাবেক যুবদল নেতা

ডবলমুরিং থানার ওসি বলেন, ‘গত ১১ জুলাই নগরীর দাইয়াপাড়ায় রাশেদ নামে একজনকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন গোলজার। এ ঘটনার এক সপ্তাহ আগে আরও একজনকে একই কায়দায় পিটিয়ে আহত করেন তিনি। এ ছাড়া তার তিন সদস্যের এক মাদক বিক্রেতা দল আছে। তাদের মাধ্যমে কমিশন ভিত্তিতে টেকনাফ থেকে নিয়ে আসা ইয়াবা বিক্রি করেন তিনি।’

চট্টগ্রাম নগরী থেকে অস্ত্রসহ ১৫টি মামলার আসামি ও এক সাবেক যুবদল নেতা গোলজার আলমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

নগরীর ডবলমুরিং থানার দাইয়াপাড়া থেকে সোমবার মধ্যরাতে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তার গোলজার আলমের বাড়ি ডবলমুরিং থানার দাইয়াপাড়া এলাকাতেই। তিনি ডবলমুরিং থানা যুবদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে দাইয়াপাড়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি পাইপগান, একটি গুলি ও ১০৫টি ইয়াবা জব্দ করা হয়।

‘গোলজার ডবলমুরিং থানার তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ও আসামি। চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, মাদকসহ ১৫টি মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সব সময়ই পকেটে পিস্তল রাখেন তিনি। ২০১৮ সালে ডিশ-লাইন ব্যবসাকে কেন্দ্র করে টিপু ও সগীর নামে দুজনকে গুলি করেন গোলজার। ২০১৩ সালে পুলিশকে লক্ষ্য করেও গুলি করেন তিনি।’

ওসি আরও বলেন, ‘গত ১১ জুলাই নগরীর দাইয়াপাড়ায় রাশেদ নামে একজনকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন গোলজার। এ ঘটনার এক সপ্তাহ আগে আরও একজনকে একই কায়দায় পিটিয়ে আহত করেন তিনি। এ ছাড়া তার তিন সদস্যের এক মাদক বিক্রেতা দল আছে। তাদের মাধ্যমে কমিশন ভিত্তিতে টেকনাফ থেকে নিয়ে আসা ইয়াবা বিক্রি করেন তিনি।’

মঙ্গলবার বিকেলে তাকে আদালতে পাঠানো হবে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:
‘বন্ধু’ খুনের আসামি গ্রেপ্তার
ফেসবুকে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে গ্রেপ্তার সাংবাদিক
পাহাড় কাটার সময় গ্রেপ্তার ৪
শ্বশুর ‘অপমান’ করায় শ্যালককে হত্যা, ভগ্নিজামাই গ্রেপ্তার
শৌচাগারে অর্ধগলিত মরদেহ: গ্রেপ্তার ১

শেয়ার করুন

মন্তব্য