মেয়াদোত্তীর্ণ টিউবে করোনার নমুনা সংগ্রহ

মেয়াদোত্তীর্ণ টিউবে করোনার নমুনা সংগ্রহ

যে লিকুইড টিউবে করোনার নমুনা নেয়া হয় তার মেয়াদ ছিল জুন ২০২১ পর্যন্ত। বিষয়টি দেখতে পেয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ টিউবে নমুনা নেয়ার কারণ জানতে চাওয়া হলে দায়িত্বরতরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অভিযোগ দিতে বলেন।

করোনাভাইরাসের নমুনা নিতে মেয়াদোত্তীর্ণ লিকুইড টিউব ব্যবহার করেছে পাবনা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। বৃহস্পতিবার সকালে নমুনা নিতে এ টিউব ব্যবহার করা হয়।

এ বিষয়ে অভিযোগকারী জানান, যে লিকুইড টিউবে তার করোনার নমুনা নেয়া হয় সেটির মেয়াদ ছিল জুন ২০২১ পর্যন্ত। বিষয়টি দেখতে পেয়ে তিনি মেয়াদোত্তীর্ণ টিউবে নমুনা নেয়ার কারণ জানতে চান।

ওই সময় দায়িত্বরতরা এসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অভিযোগ দিতে বলেন। পরে তিনি বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান।

পাবনার সিভিল সার্জন ডা. মনিসর চৌধুরীও বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

তিনি জানান, সদর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের দায়িত্বরত কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় অন্য আরেকজনকে দিয়ে নমুনা সংগ্রহের কাজ করানো হচ্ছে। নমুনা নেয়ার সময় তিনি মেয়াদোত্তীর্ণ ১৯টি টিউব ব্যবহার করেন। তবে পরে মেয়াদ থাকা টিউব দিয়ে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

মেয়াদোত্তীর্ণ টিউবে নেয়া নমুনায় সঠিক ফল না আসার সম্ভাবনা জানিয়ে এ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেন, ‘তাদের কাছ থেকে পুনরায় নমুনা নিতে হবে।’

জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেন বলেন, ‘খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। মেয়াদ থাকা লিকুইড টিউব দিয়েই বর্তমানে নমুনা সংগ্রহের কাজ চলছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য