কৃষক ও গৃহবধূকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ

কৃষক ও গৃহবধূকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ

দুই গ্রামবাসীর মুক্তির দাবিতে স্থানীয়দের মানববন্ধন। ছবি: নিউজবাংলা

শুক্রবার গণ্ডাপুর গ্রামের বাসিন্দা কৃষক শাহজাহান ও গৃহবধূ খালেদা বেগমকে ধরে নিয়ে আসে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সংস্থাটির অভিযোগ, তাদের কাছে ইয়াবা ট্যাবলেট ও জাল টাকা পাওয়া গেছে। শনিবার তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার বক্সগঞ্জ ইউনিয়নের গণ্ডারপুর গ্রামে এক কৃষক ও গৃহবধূকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তাদের মুক্তি চেয়ে শনিবার মানববন্ধন করেছেন স্থানীয়রা।

শুক্রবার গণ্ডাপুর গ্রামের বাসিন্দা কৃষক শাহজাহান ও গৃহবধূ খালেদা বেগমকে ধরে নিয়ে আসে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সংস্থাটির অভিযোগ, তাদের কাছে ইয়াবা ট্যাবলেট ও জাল টাকা পাওয়া গেছে। শনিবার তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

শাহজাহান ও খালেদার মুক্তির দাবিতে শনিবার উপজেলার শুভপুর-কোকালী সড়কের গণ্ডাপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়দের দাবি, গন্ডাপুর গ্রামের শাহজাহান একজন দরিদ্র কৃষক। কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন তিনি। মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধেও সোচ্চার ছিলেন শাহজাহান।

অন্যদিকে খালেদা একজন হতদরিদ্র ও স্বামী পরিত্যক্তা নারী। মানুষের সাহায্য সহযোগিতায় তিন সন্তান নিয়ে জীবনযাপন করেন। তারা কখনো মাদক বা কোনো ধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিল না।

তারা দাবি করেন, এলাকার চিহ্নিত মাদক কারবারিরা ষড়যন্ত্র করে তাদের ফাঁসিয়ে দিয়েছেন।

র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন বলেন, ‘ধৃত মমতাজ মিয়াকে একশ পিস ইয়াবা এবং একহাজার টাকার ছয়টি জাল নোট এবং ১৫০ পিস ইয়াবাসহ খালেদা আক্তারকে গ্রেপ্তার করা হয়।’

আরও পড়ুন:
রিকশাচালক হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন-বিক্ষোভ
আমের দাম পেতে সড়কে বাগানিরা
মনপুরায় জাতীয় গ্রিডের বিদ্যুতের দাবি
প্ল্যাকার্ড হাতে বাবা হত্যার বিচার চাইল সন্তানেরা
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন

শেয়ার করুন

মন্তব্য