বেতন-বোনাস নিয়ে শঙ্কায় রংপুরের দেড় হাজার শিক্ষক

বেতন-বোনাস নিয়ে শঙ্কায় রংপুরের দেড় হাজার শিক্ষক

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শাহজাহান সিদ্দিক বলেন, ‘এটি উপজেলা শিক্ষা অফিসারের অদক্ষতার কারণে হয়েছে। তিনি বিষয়টি জেলা অফিসে এমনকি আমাকেও জানাননি। তিনি এ বিষয়ে অসহযোগিতা করছেন। তবুও বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। রোববার বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হবে।’

রংপুর সদর উপজেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দেড় হাজার শিক্ষক এবার ঈদের আগে বেতন-বোনাস পাচ্ছেন না। এতে ফিকে হতে বসেছে তাদের উৎসব-আনন্দ।

রংপুর সদর উপজেলা ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে ৭ জুলাই একটি চিঠি দিয়ে বিষয়টি জানিয়েছেন জেলা নিরীক্ষা ও হিসাবরক্ষক কর্মকর্তা মফিদুল ইসলাম।

নিউজবাংলাকে বৃহস্পতিবার রাতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর জেলা শিক্ষা অফিসার এ এম শাহজাহান সিদ্দিক।

জেলা হিসাব রক্ষক কর্মকর্তার ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের জুন মাসের বাজেটে ঘাটতি থাকায় শিক্ষকদের বেতন-ভাতা ও উৎসব বোনাস পরিশোধ করা যাচ্ছে না।

এক মাসের বেতন ও ঈদে উৎসব বোনাস না পাবার খবরে ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা। তারা বিষয়টি দ্রুত সমাধানের অনুরোধ জানিয়েছেন।

একাধিক শিক্ষক নাম প্রকাশ না করে জানান, অধিকাংশ শিক্ষকই বেতনের উপর নির্ভরশীল। তারা যদি ঠিকমত বেতন না পান তাহলে এই লকডাউনে সংসার চালাতে পারবেন না। তাছাড়া কদিন পরেই ঈদ, সেই বোনাসও যদি বন্ধ থাকে তাহলে চলবে কী করে?

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, ১ জুলাই তারা শিক্ষকদের বেতন ও বোনাসের জন্য বিল সাবমিট করেছিলেন। কিন্তু সেই ফাইল ফেরত পাঠানো হয়েছে।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শাহজাহান সিদ্দিক নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমি এখনও আনুষ্ঠানিক চিঠি পাইনি। তবে, বিভিন্ন শিক্ষক আমাকে চিঠিটি দিয়েছেন সেখান থেকে জেনেছি।’

তিনি বলেন, ‘এটি উপজেলা শিক্ষা অফিসারের অদক্ষতার কারণে হয়েছে। তিনি বিষয়টি জেলা অফিসে এমনকি আমাকেও জানাননি। তিনি এ বিষয়ে অসহযোগিতা করছেন। তবুও বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। রোববার বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হবে।’

এ নিয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আখতারুজ্জামানকে ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি।

জেলা নিরীক্ষা ও হিসাবরক্ষক কর্মকর্তা মফিদুল ইসলাম জানান, ‘বরাদ্দ না থাকায় আমরা বেতন-বোনাস দিতে পারছি না। শিক্ষা বিভাগ যদি বাজেট আনতে পারেন তাহলে বেতন-বোনাস দেয়া হবে।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য