পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণা, আটক যুবক

পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণা, আটক যুবক

প্রতারক যুবকের নাম মনসুর আলী। তিনি সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর এলাকার বাসিন্দা। ছবি: নিউজবাংলা

পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ বলেন, প্রতারক যুবক মনসুর আলী দীর্ঘদিন নিজেকে বিভিন্ন বাহিনীর কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছেন। বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হবে।

পুলিশ পরিচয়ে দোকান থেকে মালামাল কিনে টাকা পরিশোধ না করেই চলে যান এক যুবক। অবশেষে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁদপুর শহরে।
বুধবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) টান্টু সাহা।
প্রতারক যুবকের নাম মনসুর আলী। তিনি সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর এলাকার বাসিন্দা।

ওসি টান্টু সাহা জানান, গত ২৫ জুন রাতে ডানো কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর মো. মনিরুল ইসলামের কাছে আসামি মুনসুর আলী নিজেকে পিবিআই রেশন স্টোরের ইনচার্জ মেহেদী হাসান পরিচয় দিয়ে ডানো পুষ্টি ৫০০ গ্রামের ২৭০ প্যাকেট ও ডানো ফুলক্রিম ২ দশমিক ৫ কেজির ১ পিস দুধের প্যাকেট নেন। যার বিল আসে ৬৩ হাজার ৯৭০ টাকা।

এ সময় তিনি ২৮ হাজার টাকা পরিশোধ করে বাকি ৩৫ হাজার ৯৭০ টাকা পরের দিন সকালে দিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। পরের দিন দোকানি ওই ব্যক্তির দেয়া নম্বরে ফোন করলে অন্য এক ব্যক্তি ফোন রিসিভ করেন। বিষয়টি তিনি পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদকে জানালে তিনি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দেন।

৬ জুলাই পুরান বাজার বাতাসাপট্টি এলাকায় ওই ব্যক্তির অবস্থানের সংবাদ পেয়ে অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় পুলিশের অবস্থান টের পেয়ে তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ও মোবাইল সেট ফেলে পালিয়ে যান ওই যুবক।
বুধবার সকালে সড়ক ও জনপদ অফিসের পেছনে তার ভাড়া বাসাতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। এই ঘটনায় প্রতারক মনসুরের বিরুদ্ধে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ বলেন, ‘এই যুবক দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে বিভিন্ন বাহিনীর কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছেন। বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হবে।’

আরও পড়ুন:
প্রতারণার মামলায় কারাগারে
ডাক্তার পরিচয়ে গাড়ি ভাড়ার নামে প্রতারণা
১৫ হাজারে লাখ টাকার আইফোন কিনতে গিয়ে ‘আক্কেলসেলামি’

শেয়ার করুন

মন্তব্য