নারীকে ‘ধর্ষণ’, তিন মাসের শিশুকে হত্যা

শিশু হত্যা

ময়নাতদন্ত শেষে দাফন করা হয়েছে তিন মাস বয়সী শিশুটিকে। ছবি: নিউজবাংলা

ওই নারীর বরাত দিয়ে ওসি বলেন, মঙ্গলবার মধ্যরাতে দরজা কেটে চারজন ঘরে ঢুকে ওই নারীকে হাত-পা, মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে। এ সময় তার সন্তান কেঁদে উঠলে শিশুটির মুখ চেপে বাড়ির পাশের ডোবায় ফেলা হয়। তবে ঘটনার সময় ওই নারীর স্বামী ওই ঘরেই ঘুমাচ্ছিলেন।

ভোলায় এক নারীকে ধর্ষণের পর তার শিশুসন্তানকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ওই নারী ও তার স্বামীকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। ময়নাতদন্ত শেষে শিশুটিকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনায়েত হোসেন।

ওই নারীর বরাত দিয়ে তিনি বলেন, মঙ্গলবার মধ্যরাতে দরজা কেটে চারজন ঘরে ঢুকে ওই নারীকে হাত-পা, মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে। এ সময় তার সন্তান কেঁদে উঠলে শিশুটির মুখ চেপে বাড়ির পাশের ডোবায় ফেলা হয়। তবে ঘটনার সময় ওই নারীর স্বামী ওই ঘরেই ঘুমাচ্ছিলেন।

দুর্বৃত্তরা যাওয়ার সময় এক ভরি স্বর্ণালংকার ও টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

ওই নারীর গোঙানি শুনে পাশের ঘর থেকে শাশুড়ি এসে তার ছেলেকে ডেকে তোলেন। এরপর তারা ঘরের মেঝেতে তাকে হাত-পা, মুখ বাঁধা অবস্থায় পান।

স্বামী ও শাশুড়িকে বিষয়টি জানালে তারা ডোবা থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করেন।

ওসি এনায়েত হোসেন নিউজবাংলাকে জানান, এ ঘটনায় ধর্ষণ ও হত্যা মামলা হবে। এরই মধ্যে ওই নারীর শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

আরও পড়ুন:
‘আমার পরিচয় দিয়েন না, আমার দুইটা মেয়ে আছে’
৩ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, কলেজছাত্র গ্রেপ্তার
‘ধর্ষণে’ অসুস্থ শিশু, ৭ দিন পর মামলায় গ্রেপ্তার ফুপা
ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে বাবা গ্রেপ্তার
‘ধর্ষণে’ অন্তঃসত্ত্বার সন্তান প্রসব, গ্রেপ্তার হয়নি আসামি

শেয়ার করুন

মন্তব্য