আড়ানী পৌরসভার মেয়রের নামে ২ মামলা করবে পুলিশ

আড়ানী পৌরসভার মেয়রের নামে ২ মামলা করবে পুলিশ

রাজশাহীর বাঢ়া উপজেলার আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলী। ফাইল ছবি

পুলিশ সুপার বলেন, ‘উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্রগুলো অবৈধ। মেয়র মুক্তার আলীর বিরুদ্ধে আগের ৫টি মামলা রয়েছে। এ ছাড়া শিক্ষকের করা একটি মামলা রয়েছে। নতুন করে আরও দুটি মামলা হবে। মাদক ও অস্ত্র আইনে এসব মামলা হবে।’

আগ্নেয়াস্ত্র, মাদক ও প্রায় কোটি টাকা উদ্ধারের পর রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলীর বিরুদ্ধে দুটি মামলা করার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

রাজশাহীর পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বুধবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান।

এর আগে মুক্তার আলীর বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা ছিল, এ ছাড়া আরেকটি মামলা করেন এক কলেজ শিক্ষক।

বুধবার ভোরে চালানো অভিযানে মেয়রের স্ত্রী জেসমিন আক্তার এবং মেয়রের দুই ভাতিজা সোহান আলী ও শান্ত ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

অভিযানে মেয়র মুক্তারের বাড়ি থেকে বেশ কয়েকটি আগ্নেয়াস্ত্র, ইয়াবা, হেরোইনসহ বিভিন্ন ধরনের মাদক এবং ৯৫ লাখ টাকা উদ্ধার করে পুলিশ।

নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার বলেন, ‘উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্রগুলো অবৈধ। মেয়র মুক্তার আলীর বিরুদ্ধে আগের ৫টি মামলা রয়েছে। এ ছাড়া শিক্ষকের করা একটি মামলা রয়েছে। নতুন করে আরও দুটি মামলা হবে। মাদক ও অস্ত্র আইনে এসব মামলা হবে।’

আড়ানী পৌরসভার মেয়রের নামে ২ মামলা করবে পুলিশ
আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলীর বাড়ি থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, মাদক উদ্ধারের ঘটনায় মামলা করবে পুলিশ। ছবি: নিউজবাংলা

পুলিশ সুপার মাসুদ হোসেন জানান, মঙ্গলবার রাতে নাটোরের বাঁশবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজর সহকারী অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন মজনুকে মধ্যপ অবস্থায় মারপিট করেন মেয়র মুক্তার আলী। এক পর্যায়ে শিক্ষক মজনু তার বাড়িতে ঢুকে গেলে তার পেছন পেছন সেখানে গিয়ে তাকে মারপিট করে। এ সময় মজনুকে বাঁচাতে তার ছেলে ও স্ত্রী গেলে তাদেরকেও মারপিট করা হয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতেই মনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মেয়র মুক্তার আলীসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে বাঘা থানায় মামলা করেন।

তিনি জানান, পুলিশ জানতে পারে গত পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে মুক্তার আলী স্বতন্ত্র নির্বাচন করে আড়ানী পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছিলেন শিক্ষক মজনু। নির্বাচনের সময়কার জের ধরেই মুক্তার আলী এই হামলা ও মারপিটের ঘটনা ঘটায়।

পুলিশ সুপার বলেন, মামলার পর বুধবার রাতে পুলিশ আড়ানী পৌর এলাকায় মেয়রের বাড়িতে অভিযান চালায়। তার আগেই বিষয়টি আঁচ করতে পেরে মেয়র মুক্তার আলী বাড়ি থেকে পালিয়ে যান।

মাসুদ হোসেন বলেন, ‘মেয়রের বাড়িতে পাওয়া কোনো অস্ত্রেরই লাইসেন্স ছিল না। উদ্ধারকৃত টাকার উৎস সম্পর্কে তার পরিবার কিছু বলতেও পারেনি।’

আড়ানী পৌরসভার মেয়রের নামে ২ মামলা করবে পুলিশ
আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলী বাড়ি থেকে উদ্ধার অস্ত্র। ছবি: নিউজবাংলা


মেয়রের বাড়ি থেকে যা উদ্ধার হয়

মেয়রের বাড়িতে পুলিশের অভিযানে একটি ৭.৬৫ অটোমেটিক বিদেশি পিস্তল, ৭.৬৫ পিস্তলের ৪টি ম্যাগজিন, ৭.৬৫ পিস্তলের ১৭ রাউন্ড গুলি, ৭.৬৫ পিস্তলের ৪টি গুলির খোসা, একটি ওয়ান শুটার গান, একটি দেশি বন্দুক, একটি এয়ার রাইফেল, শটগানের ২৬ রাউন্ড গুলি, ১০ গ্রাম গাঁজা, ৭ পুরিয়া হেরোইন, ২০ পিস ইয়াবা, নগদ ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার টাকা, ১৮ লাখ টাকার স্বাক্ষর করা দুটি চেক।

আরও পড়ুন:
আড়ানীর মেয়রের বাড়িতে অস্ত্র-ইয়াবা, স্ত্রী আটক
প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তার ঠিকাদার
ডিএসসিসির নতুন ১৮ ওয়ার্ডে নগরায়ণের কাজ শিগগিরই
‘মিরপুরে জলাবদ্ধতার জন্য মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষই দায়ী’
খেলার মাঠ, উন্মুক্ত স্থান ভবনের জন্য নয়: শেখ তাপস

শেয়ার করুন

মন্তব্য