কলেজছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ৩

কলেজছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ৩

ময়মনসিংহে মারধরে নিহত শিক্ষার্থী সাঈম খান। ছবি: নিউজবাংলা

ভালুকা মডেল থানার ওসি বলেন, ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্র করে রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মেহেরাবাড়ি এলাকার ইভা ডাইং মোড়ে সাঈমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন কয়েকজন। ঢাকা মেডিক্যালে সকাল ১০টার দিকে তিনি মারা যান।

ময়মনসিংহের ভালুকায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্র করে পিটুনিতে কলেজছাত্র নিহতের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা হলেন উপজেলার মেহেরাবাড়ি গ্রামের সাব্বির, একই গ্রামের সোহাগ ও সারোয়ার।

সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নিউজবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন ভালুকা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল ইসলাম।

নিহত ২০ বছর বয়সী সাঈম খান উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের নাজিম উদ্দিনের ছেলে। তিনি শ্রীপুর আব্দুল আউয়াল ডিগ্রি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

ওসি বলেন, ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্র করে রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মেহেরাবাড়ি এলাকার ইভা ডাইং মোড়ে শিক্ষার্থী সাঈমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন কয়েকজন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক ঢাকা মেডিক্যালে পাঠান। সেখানে সকাল দশটার দিকে তিনি মারা যান।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সাঈমের বাবা নাজিম উদ্দিন পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও তিন-চারজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

অভিযান চালিয়ে রাতেই ভালুকা থেকে সাব্বির, সোহাগ ও সারোয়ারকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ছাড়া আসামি আমানুল্লাহ ও আশরাফ পলাতক আছেন। তাদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান চলছে।

মঙ্গলবার সকালে গ্রেপ্তারদের আদালতে নেয়া হবে বলে জানান ওসি মাহমুদুল।

আরও পড়ুন:
যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা
নিখোঁজের নয় দিন পর লাশ মিলল বিলে
‘স্ত্রী-কন্যা হত্যা’: শাহীনকে ধরতে পুরস্কার ঘোষণা

শেয়ার করুন

মন্তব্য