সুন্দরবনে কীটনাশক দিয়ে মাছ শিকার, জেলে কারাগারে

সুন্দরবনে কীটনাশক দিয়ে মাছ শিকার,  জেলে কারাগারে

সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) এনামুল হক জানান, সোমবার সকালে সাজ্জাদকে সুন্দরবনের বুড়বুড়িয়া খাল থেকে ২৫ কেজি বিষ মেশানো চিংড়ি, তিন বোতল কীটনাশক, তিন বস্তা হরিণ শিকারের ফাঁদসহ আটক করেন বনরক্ষীরা। পরে আটক সাজ্জাদের বিরুদ্ধে দুপুরে বন আইনে মামলা করেন সুন্দরবনের কাটাখালি টহল ফাঁড়ির ওসি মেঘনাদ সরদার।

সুন্দরবনের একটি খালে কীটনাশক দিয়ে মাছ শিকার করায় এক জেলেকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বাগেরহাটের বন আদালতের বিচারক সোমবার দুপুরে সাজ্জাদ ব্যাপারী নামের ওই জেলেকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) এনামুল হক।

সাজ্জাদ ব্যাপারীর বাড়ি বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের আগলাদিয়া গ্রামে।

এসিএফ এনামুল জানান, সোমবার সকালে সাজ্জাদকে সুন্দরবনের বুড়বুড়িয়া খাল থেকে ২৫ কেজি বিষ মেশানো চিংড়ি, তিন বোতল কীটনাশক, তিন বস্তা হরিণ শিকারের ফাঁদসহ আটক করেন বনরক্ষীরা। পরে আটক সাজ্জাদের বিরুদ্ধে দুপুরে বন আইনে মামলা করেন সুন্দরবনের কাটাখালি টহল ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেঘনাদ সরদার। পরে তাকে বাগেরহাট বন আদালতে পাঠানো হয়।

তিনি বলেন, ‘নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে সকালে বনরক্ষীরা বুড়বুড়িয়া খালে গিয়ে ওই জেলেকে দেখতে পায়। এ সময় পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে ধাওয়া করে তাকে আটক করা হয়।

‘জিজ্ঞাসাবাদে সাজ্জাদ জানায়, সে ভোর থেকেই মাছ মারছিল। বিষ দিয়েই চিংড়ি মাছগুলো মেরেছে। দীর্ঘদিন ধরেই সে সুন্দরবনে হরিণ ও বিষ দিয়ে মাছ শিকার করে আসছিল।’

সুন্দরবনে কীটনাশক দিয়ে মাছ শিকার বন্ধ করা, ডলফিনের অভয়ারণ্য সংরক্ষণসহ বনকেন্দ্রিক অপরাধ দমনে ১ জুলাই থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত সব খালে মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় বন বিভাগ।

আরও পড়ুন:
কারাবন্দি ভারতীয়কে পিছমোড়া করে পেটানোর ভিডিও ভাইরাল
পুলিশের বিরুদ্ধে গুজব, কারাগারে ২
বাবা-মাকে মারধর, কারাগারে ছেলে
৩ বন্দুকসহ গ্রেপ্তার যুবক কারাগারে
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

শেয়ার করুন

মন্তব্য