প্রবাসীদের জন্য ভ্রাম্যমাণ টিকা নিবন্ধন সেবা

প্রবাসীদের জন্য ভ্রাম্যমাণ টিকা নিবন্ধন সেবা

মৌলভীবাজারে বিদেশগামী কর্মীদের জন্য উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ টিকা নিবন্ধন সেবা চালু হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা

জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় জেলা ডিজিটাল সেন্টারের রাসেল সাইফ, শরীফুল ইসলাম স্বপন ও জাকারিয়া আহমেদকে নিয়ে বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী জেলার কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে এক ঘণ্টার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন।

মৌলভীবাজারে বিদেশগামী কর্মীদের করোনা টিকা নিবন্ধন আরও নিরাপদ ও সহজ করার লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ টিকা নিবন্ধন সেবা চালু হয়েছে।

সম্প্রতি নিজবাহাদুরপুর ইউনিয়নে ভার্চুয়াল সম্মেলনের মাধ্যমে এ সেবার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান।

জেলার মধ্যে বড়লেখা উপজেলাতে প্রবাসীর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। জেলা শহর থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে হওয়ায় এই উপজেলার প্রবাসীদের জন্য টিকার নিবন্ধন করা কষ্টকর।

এ কষ্ট লাঘবে জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় জেলা ডিজিটাল সেন্টারের রাসেল সাইফ, শরীফুল ইসলাম স্বপন ও জাকারিয়া আহমেদকে নিয়ে বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী জেলার কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে এক ঘণ্টার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন।

প্রাথমিক পর্যায়ে একটি মাইক্রোবাস, তিনজন ডিজিটাল সার্ভিস প্রোভাইডার, ল্যাপটপ ও ইন্টারনেট সংযোগসহ একটি দল তৈরি করে সেবাটি চালু করা হয়।

উদ্যোক্তা রাসেল সাইফ নিউজবাংলাকে বলেন, সোমবারের মধ্যে সব ইউনিয়ন ও বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রবাসীদের নিবন্ধন শেষ করতে পারবে। অ্যাপসের মাধ্যমে যারা নিজে নিজে করতে চান, তাদের অ্যাপস ডাউনলোড করে দেয়া হবে। আর যারা সরাসরি করতে চান, তাদের সরাসরি নিবন্ধন করে দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, খরচ পড়বে ২২০-২২৩ টাকা, যা বিকাশের মাধ্যমে সরকারি কোষাগারে জমা পড়বে।

ইউএনও খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী নিউজবাংলাকে জানান, বাংলাদেশে এই প্রথম বাড়ি বাড়ি গিয়ে অ্যাপসের মাধ্যমে প্রবাসীদের সহযোগিতা করা হচ্ছে। এ সেবার মাধ্যমে বড়লেখা উপজেলার ২০ হাজার প্রবাসীসহ জেলার লক্ষাধিক প্রবাসী এ উপকার ভোগ করতে পারবেন।

জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান নিউজবাংলাকে বলেন, প্রথমে পরীক্ষামূলকভাবে বড়লেখায় মোবাইল রেজিস্ট্রেশনের কাজ শুরু করা হয়েছে, পর্যায়ক্রমে জেলার আরও ৪টি উপজেলায় শুরু করা হবে। তবে রাজনগর, শ্রীমঙ্গল ও সদর উপজেলার লোকজনদের প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে এসেই রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য