নিখোঁজের পর কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার

নিখোঁজের পর কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার

প্রতীকী ছবি

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কাহারোল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আলী জানান, শনিবার দুপুরে শিক্ষকের বাড়িতে পড়তে গিয়ে আর ফেরেনি জাকিয়া। এরপর শিক্ষকের বাড়ি গিয়ে পরিবারের লোকজন জানতে পারে যে জাকিয়া পড়তেই যায়নি।

দিনাজপুরের কাহারোলে নিখোঁজের এক দিন পর কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

উপজেলার ২ নম্বর রসুলপুল ইউনিয়নের বনড়া গ্রামের একটি বিলের পাশ থেকে রোববার সকাল ১০টার দিকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত কিশোরী জাকিয়া আক্তার ৩ নম্বর তারগাঁও ইউনিয়নের পাহাড়পুর গ্রামের সার ও কীটনাশক ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে। সে একই উপজেলার বাসুদেবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কাহারোল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আলী জানান, শনিবার দুপুরে উপজেলার তরলা বাজারে শিক্ষক শরিফুল ইসলামের বাড়িতে পড়তে যায় জাকিয়া। এরপর সে আর বাড়িতে না ফেরায় শিক্ষকের বাড়ি গিয়ে পরিবারের লোকজন জানতে পারে যে জাকিয়া পড়তেই যায়নি।

রোববার সকালে বনড়া গ্রামের একটি বিলের পাশে নতুন মাটির ঢিবি দেখে সন্দেহ হয় স্থানীয়দের। পরে পুলিশ গিয়ে মাটি খুঁড়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ওসি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি, কিশোরীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত বলতে পারব।’

এ ব্যাপারে পরিবারের পক্ষ থেকে কাহারোল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
কারামুক্তির ১২ দিন পর সড়কে সেই মিনুর মৃত্যু
নিজ ঘরে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ
মানসিক ভারসাম্যহীন যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ
বাঁশ ঝাড়ে মিলল অটোচালকের ঝুলন্ত মরদেহ
মাটি খুঁড়ে মা-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার

শেয়ার করুন

মন্তব্য