১৩৫ কেজি কচ্ছপের হাড় জব্দ, আটক ৩

১৩৫ কেজি কচ্ছপের হাড় জব্দ, আটক ৩

বিজিবির ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘কচ্ছপের হাড় উদ্ধার জেলায় এটাই প্রথম। এগুলোর অনেক দাম আছে বলে জানা গেছে। চীন ও থ্যাইল্যান্ডে এগুলোর অনেক চাহিদা আছে। কিছু পলিমার ও কেমিক্যাল তৈরিতে কচ্ছপের হাড় ব্যবহার হয়ে থাকে। উদ্ধার হওয়ার কচ্ছপের হাড়গুলোর আনুমানিক মূল্য ২ কোটি ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভারত থেকে আনা ১৩৫ কেজি কচ্ছপের হাড় জব্দ করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানায় বিজিবি। সেই সঙ্গে কচ্ছপের হাড় উদ্ধারের ঘটনা চাঁপাইনবাবগঞ্জে এই প্রথম বলেও উল্লেখ করা হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন ভোলাহাট উপজেলার কুমিরজান গ্রামের রফিকুল ইসলাম, একই উপজেলার চামুচা ফুটানী বাজার এলাকার আল আমিন ও মনিরুল ইসলাম।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৯-বিজিবির অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্নেল আমীর হোসেন মোল্লা নিউজবাংলাকে জানান, শুক্রবার রাতে সীমান্ত পেরিয়ে কচ্ছপের হাড়গুলো দেশে আনা হয়েছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে শনিবার সকাল থেকেই অভিযান শুরু করা হয়। দুপুর পর্যন্ত চলা অভিযানে ভোলাহাট সীমান্ত ফাঁড়ির ১৯৪/৩ নম্বর পিলার থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে কুমিরজান এলাকার রফিকুল ইসলামের বাড়ি থেকে ১৩৫ কেজি কচ্ছপের হাড় উদ্ধার করা হয়। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে আল আমিন ও মনিরুলকে আটক করা হয়।

তিনি জানান, এ ঘটনার পেছনে প্রধান হচ্ছেন ভোলাহাট উপজেলার ইদুল হোসেন। তিনি পলাতক। তাকে আটক করতে অভিযান চলছে।

বিজিবির ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘কচ্ছপের হাড় উদ্ধার জেলায় এটাই প্রথম। এগুলোর অনেক দাম আছে বলে জানা গেছে। চীন ও থ্যাইল্যান্ডে এগুলোর অনেক চাহিদা আছে। কিছু পলিমার ও কেমিক্যাল তৈরিতে কচ্ছপের হাড় ব্যবহার হয়ে থাকে। উদ্ধার হওয়ার কচ্ছপের হাড়গুলোর আনুমানিক মূল্য ২ কোটি ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে হাড়গুলো কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, এমন প্রশ্নের উত্তরে আমীর হোসেন মোল্লা বলেন, ‘আমরা জানার চেষ্টা করছি। ইদুলকে ধরতে পারলে এ বিষয়ে আরও জানা যাবে। এই চক্রটিকে আমরা নজরে রেখেছি। আশা করি, দ্রুতই এর সবকিছু আমরা জানাতে পারব।’

আরও পড়ুন:
করমজল কেন্দ্রে বাটাগুর বাসকার ৩৭ বাচ্চা
বাড়ছে ‘মহাবিপন্ন’ বাটাগুর বাসকা কচ্ছপ
সুন্দরবনে ডিম দিয়েছে বিলুপ্ত প্রজাতির কচ্ছপ
বাস থেকে উদ্ধার বস্তাবন্দি ২০০টি কচ্ছপ
সুন্ধি কচ্ছপ উদ্ধার, এক ব্যক্তি কারাগারে

শেয়ার করুন

মন্তব্য