কাশিমপুর কারাগারে ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল

কাশিমপুর কারাগারে ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল

‘শিশু বক্তা’ হিসেবে পরিচিত রফিকুল ইসলামকে পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় আটক করেছিল পুলিশ। ফাইল ছবি

রফিকুল ইসলাম মাদানী নেত্রকোণার পূর্বধলা থানার লেটিরকান্দা এলাকার মৃত সাহাব উদ্দিনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সাতটি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে মতিঝিল থানায় দুটি, তেজগাঁও থানায় একটি, পল্টন থানায় একটি, কোতোয়ালি থানায় একটি এবং গাজীপুরের গাছা ও বাসন থানায় একটি করে মামলা রয়েছে।

‘শিশু বক্তা’ মো. রফিকুল ইসলাম মাদানীকে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়েছে। ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয় তাকে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এর জেলার মো. আবু সায়েম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তারের পর শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানীকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়। পরে রিমান্ডের জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছিল। সেখান থেকে তাকে ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়। মঙ্গলবার ময়মনসিংহ কারাগার থেকে তাকে ফের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়েছে।

রফিকুল ইসলাম মাদানী নেত্রকোণার পূর্বধলা থানার লেটিরকান্দা এলাকার মৃত সাহাব উদ্দিনের ছেলে।

তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাতটি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে মতিঝিল থানায় দুটি, তেজগাঁও থানায় একটি, পল্টন থানায় একটি, কোতোয়ালি থানায় একটি এবং গাজীপুরের গাছা ও বাসন থানায় একটি করে মামলা রয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য