মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে সৎবাবা কারাগারে

মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে সৎবাবা কারাগারে

মামলায় বলা হয়েছে, এক বছর আগে পারিবারিক কলহের কারণে ওই কিশোরীর মা-বাবার বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এর ছয় মাস পর তার মায়ের আবার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই সৎবাবা আপত্তিকরভাবে যখন-তখন তার গায়ে হাত দিতেন। এরপর গত ৩০ মে বিকেল চারটার দিকে জামাকাপড় কিনে দেয়ার নামে তাকে আরেক বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করেন।

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে সৎবাবাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কালীগঞ্জ উপজেলার মথুরেশপুর ইউনিয়ন থেকে সোমবার দুপুরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওই কিশোরীর করা মামলায় বলা হয়েছে, এক বছর আগে পারিবারিক কলহের কারণে তার মা-বাবার বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এর ছয় মাস পর তার মায়ের আবার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই সৎবাবা আপত্তিকরভাবে যখন-তখন তার গায়ে হাত দিতেন।

গত ৩০ মে বিকেল চারটার দিকে জামাকাপড় কিনে দেয়ার নামে তাকে আরেক বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করেন। কাউকে জানালে হত্যার হুমকি দেন।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা নিউজবাংলাকে জানান, এ ঘটনার প্রায় এক মাস পর ১৫ বছরের ওই মেয়েটি সোমবার সকালে তার সৎবাবার বিরুদ্ধে মামলা করে। মামলার পর তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ওসি জানান, ওই কিশোরী আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন:
কিশোরী ধর্ষণ মামলায় ২ যুবক কারাগারে
মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার
৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ
বাসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, ৫ আসামির দায় স্বীকার
ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেপ্তার কনে দেখতে গিয়ে

শেয়ার করুন

মন্তব্য