অক্সিজেন সিলিন্ডার রিফিল হচ্ছে কুষ্টিয়াতেই

অক্সিজেন সিলিন্ডার রিফিল হচ্ছে কুষ্টিয়াতেই

দিনে অক্সিজেনের ১০০ সিলিন্ডার কুষ্টিয়াতেই রিফিল করা যাবে। ছবি: নিউজবাংলা

শনিবার কিছু সিলিন্ডার এখান থেকে রিফিল করা হয়েছে। এখানে পর্যাপ্ত রিফিলের ব্যবস্থা না থাকায় বাকি সিলিন্ডার যশোর থেকে রিফিল করতে হবে।

করোনা রোগীদের জন্য দরকারি অক্সিজেনের ১০০ সিলিন্ডার কুষ্টিয়াতেই রিফিল করা যাবে। এ জন্য একটি ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন ডিপোতে কনভার্টার লাগানো হয়েছে। সেখান থেকে এখন মিলছে মেডিক্যাল অক্সিজেন।

কুষ্টিয়া শহরের মোল্লাতেঘরিয়ায় মনির অক্সিজেন ডিপো থেকে রোববার পুরোদমে হাসপাতালের সিলিন্ডার রিফিল শুরু হয়েছে বলে জানান আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা তাপস কুমার সরকার।

তিনি বলেন, শনিবার কিছু সিলিন্ডার এখান থেকে রিফিল করা হয়েছে। এখানে পর্যাপ্ত রিফিলের ব্যবস্থা না থাকায় বাকি সিলিন্ডার যশোর থেকে রিফিল করতে হবে।

কোভিড ডেডিকেটেড ২৫০ শয্যার কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ছোট-বড় মিলিয়ে প্রায় ৬০০ সিলিন্ডার আছে। এগুলো খালি হলে ট্রাকে করে নিয়ে যশোর থেকে রিফিল করা হয়।

শনিবার বৃষ্টির মধ্যে ট্রাক যশোর যাওয়ার পথে ঝিনাইদহে নষ্ট হয়ে যায়। এতে রিফিল হয়ে সিলিন্ডার আসতে দেরি হয়ে যায়।

কুষ্টিয়া হাসপাতালে করোনা রোগীর চাপ থাকায় দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয় অক্সিজেন সংকট। রোগীর স্বজনদের মধ্যে লেগে যায় হাহাকার। পরে বেলা ২টা ৫৫ মিনিটে অক্সিজেনের ট্রাক এসে পৌঁছায় কুষ্টিয়া হাসপাতালে।

আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা তাপস কুমার সরকার বলেন, আগে থেকে কথা চলছিল কুষ্টিয়ার মনির অক্সিজেন ডিপো থেকে রিফিল করার বিষয়ে। এই ফিলিং স্টেশনটি ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন রিফিল করে থাকে। পরে তাদের স্টেশনে কনভার্টার বসিয়ে মেডিক্যাল অক্সিজেন রিফিলের ব্যবস্থা হয়েছে।

‘স্টেশনটি ছোট হওয়ায় দিনে ১০০ সিলিন্ডার রিফিল করা যাবে। বাকি সিলিন্ডার যশোর থেকে রিফিল করা হবে। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলে, রোগীর চাপ কমলে এখানকার অক্সিজেন দিয়েই চলে যাবে। যাওয়া লাগবে না যশোরে।’

কুষ্টিয়া হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য ২০০ বেডের ব্যবস্থা আছে। সেখানে ভর্তি আছেন ১৮০ জন।

আরও পড়ুন:
৬ শিশুর মৃত্যু: বেলুন বিক্রেতাসহ ২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র
এলপিজি সিলিন্ডারের দাম কমল ৬৪ টাকা
মিঠামইনে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ: দগ্ধ এক জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

মন্তব্য