ডোবার পানিতে ডুবে প্রাণ গেল ভাইবোনের

ডোবার পানিতে ডুবে প্রাণ গেল ভাইবোনের

শিশুদের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়িতেই দুই ভাইবোন জুনাইদ ও মিতা খেলা করছিল। সন্ধ্যা হয়ে গেলে তারা ঘরে না আসায় অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করা হয়। পরে ডোবা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

খাগড়াছড়ির রামগড় পৌরসভার একটি ডোবার পানিতে ডুবে চাচাতো ভাইবোনের মৃত্যু হয়েছে।

পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ফেনীর কুল গ্রামে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলো পাঁচ বছর বয়সী মাহিষা বিনতে মিতা ও চার বছর বয়সী জুনায়েদ হোসেন।

মিফতার বাবা পৌর এলাকার সোনাইপুল বাজারের পল্লি চিকিৎসক আবু তৈয়ব। আবু তৈয়বের ভাই মাওলানা মো. আবু তাহেরের বড় ছেলে জুনায়েদ। আবু তাহের দুবাইয়ে থাকেন।

শিশুদের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়িতেই দুই ভাইবোন জুনাইদ ও মিতা খেলা করছিল। সন্ধ্যা হয়ে গেলে তারা ঘরে না আসায় অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করা হয়। পর ডোবা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন জানান, জুনাইদ ও মিতার বাড়ি পাশাপাশি। ধারণা করা হচ্ছে সন্ধ্যা ৬টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে ডোবার পানিতে পড়ে তারা মারা যায়।

মিতার বাবা আবু তৈয়ব বলেন, ‘নানার বাড়ি থেকে বুধবারই ফেরে তার মেয়ে। ছোট ভাই আবু তাহের বাড়িতে বিল্ডিং তোলার জন্য পাশেই মাটি কাটায় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। পরে বৃষ্টির পানি জমে এটি ডোবায় পরিণত হয়। গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে ডোবাটিতে অনেক পানি জমে। এ ডোবাতেই শিশু দুটি ডুবে মারা যায়।

রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজিব চন্দ্র কর বলেন, এ বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে। শিশু দুটির অভিভাবক ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মরদেহ দুটি ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

আরও পড়ুন:
নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
মেঘনায় ভাসল নিখোঁজ জেলের মরদেহ
ডোবায় ডুবল যমজ শিশু
কর্ণফুলীতে ভেসে উঠল নিথর দেহ
কর্ণফুলীতে গোসলে নেমে স্কুলছাত্র নিখোঁজ

শেয়ার করুন

মন্তব্য