শেখ হাসিনা সেতুর সংযোগ সড়কে ধস, চলাচলে ভোগান্তি

শেখ হাসিনা সেতুর সংযোগ সড়কে ধস, চলাচলে ভোগান্তি

শেখ হাসিনা সেতুর ধসে পড়া সংযোগ সড়কের অংশ। ছবি: নিউজবাংলা

স্থানীয় লোকজন জানান, প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেতুটি ২০১৭ সালে উদ্বোধন করা হয়। এর এক বছর না পেরোতেই সেতুর উপরিভাগের বিভিন্ন স্থানের ঢালাই উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। এরপর থেকে সেতুর ওপর দিয়ে ধীরগতিতে যানবাহন চালাতে হচ্ছে চালকদের। এখন আবার সংযোগ সড়কে ধস নামল।

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ধলেশ্বরী নদীতে শেখ হাসিনা সেতুর সংযোগ সড়কের একাংশ ধসে গেছে। এতে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দুই দিনের ভারী বৃষ্টিতে বৃহস্পতিবার সেতুর পূর্ব পাশের সংযোগ সড়কে ধস নামে। এরপর থেকে ঝুঁকি নিয়েই ওই সড়ক দিয়ে চলাচল করছে বিভিন্ন যান।

সেতুর পূর্ব পাশে গিয়ে দেখা যায়, গাইড ওয়ালের ব্লকগুলো সরে গিয়ে সেতু থেকে সংযোগ সড়কের প্রথমাংশেই মাটি ধসে গেছে। এতে সড়কের এক পাশে তৈরি হয়েছে বড় গর্ত।

স্থানীয় লোকজন জানান, প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেতুটি ২০১৭ সালে উদ্বোধন করা হয়। এর এক বছর না পেরোতেই সেতুর উপরিভাগের বিভিন্ন স্থানের ঢালাই উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়।

শেখ হাসিনা সেতুর সংযোগ সড়কে ধস, চলাচলে ভোগান্তি

এরপর থেকে সেতুর ওপর দিয়ে ধীরগতিতে যানবাহন চালাতে হচ্ছে চালকদের। এখন আবার সংযোগ সড়কে ধস নামল।

বাসচালক সাইফুল ইসলাম জানান, দ্রুত সেতু ও সংযোগ সড়কে সংস্কার প্রয়োজন। তা না হলে যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

ভ্যানচালক হাসমত আলী বলেন, ‘আমরা রাইত-বিরাতে ভ্যানগাড়ি চালাই। অন্ধকার থাকে যখন, তখন আইয়া ভ্যান নিয়া পইড়া যাবার পারি এ গাতার (গর্ত) মধ্যে। আমি চাই তাড়াতাড়ি এইটুকু ঠিক কইরা দিক।’

টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথের উপসহকারী প্রকৌশলী এস এম আলামিন জানান, শেখ হাসিনা সেতুর উপরিভাগের গর্ত এবং সংযোগ সড়কে ধসের বিষয়টি তাদের নজরে এসেছে। এরই মধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। তারা গাইড ওয়াল এমনভাবে মেরামত করছেন যাতে বৃষ্টির পানি লিক করতে না পারে।

ব্রিজের উপরিভাগের গর্তগুলো শিগগিরই মেরামত করা হবে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
কার গাফিলতিতে ভাঙল তিন সেতু
পায়রা-বিষখালী সেতু নেই বাজেটে, হতাশ বরগুনা
ফাস্ট ট্র্যাক প্রকল্পে বরাদ্দ বেড়েছে
ফেরি বন্ধ, বিকল্প রুট বঙ্গবন্ধু সেতু
পদ্মা সেতু প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ল আরও দুই বছর

শেয়ার করুন

মন্তব্য