পুকুরে যুবকের খণ্ডিত মরদেহ

পুকুরে যুবকের খণ্ডিত মরদেহ

একটি পা ও মাথা নিখোঁজ নিহত যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ছবি: নিউজবাংলা

ওসি তারক বিশ্বাস নিউজবাংলাকে জানান, ওই পুকুরপাড়ে ঝাড়ু দিতে গেলে এক নারী রক্তমাখা বস্তা দেখে আশপাশের লোকজনকে খবর দেন। পরে পুলিশে গিয়ে বস্তার ভেতরে পলিথিনে মোড়ানো হাত বাঁধা দেহ ও একটি পা বের করে। মাথা ও আরেকটি পা সেখানে ছিল না।

মাগুরার মহম্মদপুরে একটি পুকুর থেকে যুবকের বস্তাবন্দি খণ্ডিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বিনোদপুরের কালুকান্দি গ্রামের মতিয়ার মোল্লার পরিত্যক্ত পুকুর থেকে রোববার সকালে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে মহম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারক বিশ্বাস নিউজবাংলাকে জানান, ওই পুকুরপাড়ে ঝাড়ু দিতে গেলে এক নারী রক্তমাখা বস্তা দেখে আশপাশের লোকজনকে খবর দেন। পরে পুলিশে গিয়ে বস্তার ভেতরে পলিথিনে মোড়ানো হাত বাঁধা দেহ ও একটি পা বের করে। মাথা ও আরেকটি পা সেখানে ছিল না।

ওসি আরও জানান, মরদেহের গায়ের পোশাক দেখে তা নিজের ভাইয়ের বলে শনাক্ত করেন হাবিবুর রহমান নামের এক ব্যক্তি।

হাবিবুর জানান, নিহত যুবকের নাম আজিজুর রহমান। তার বাড়ি শালিখা উপজেলার সংকোচখালি গ্রামে। তবে থাকতেন বিনোদপুর ইউনিয়নের কালুকান্দিতে নানা আবুল কাশেমের বাড়িতে। তিনি ঢাকার একটি ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করতেন।

হাবিবুর নিউজবাংলাকে বলেন, আজিজুরের বিয়ে হয় মাগুরা সদরের ইছাকাদা গ্রামের একটি মেয়ের সঙ্গে। স্ত্রীর চাচাতো ভাইদের সঙ্গে তার কিছু বিরোধ ছিল। এর জেরে তাকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

তবে কী নিয়ে বিরোধ তা বিস্তারিত জানাননি হাবিবুর।

মরদেহের বাকি অংশ খুঁজতে ও ঘটনার তদন্তে কাজ করছে পুলিশ। খণ্ডিত অংশগুলো সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
আজিমপুর কোয়ার্টারে নিথর ঢাবি ছাত্রী
পরিত্যক্ত সেপটিক ট্যাংকে শিক্ষার্থীর মরদেহ
পানিতে ডুবে দুই জেলায় দুই শিশুর মৃত্যু
বাঙ্গালি নদীতে নারীর মরদেহ
ঘরের আড়ায় মাদ্রাসাছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ

শেয়ার করুন

মন্তব্য