ভালোবাসার টানে যুক্তরাষ্ট্র থেকে চাঁদপুরে

ভালোবাসার টানে যুক্তরাষ্ট্র থেকে চাঁদপুরে

বিয়ের অনুষ্ঠানে শাহাদত হোসেন ও জিইনাবচন জোন্স। ছবি: নিউজবাংলা

শাহাদতের ছোট ভাই আব্দুল মালেক বলেন, ‘তার সঙ্গে আমার বড় ভাইকে পরিচয় করিয়ে দেয় আমার মেঝ ভাবি। গত কয়েক বছর ধরে তাদের মধ্যে মোবাইলে কথাবার্তা হতো। পরে দুজন বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। শুক্রবার স্থানীয় কাজী মনিরুল ইসলাম তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করান।’

চাঁদপুর সদর উপজেলার রালদিয়া গ্রামের শাহাদত হোসেন নামের এক যুবকের ভালোবাসার টানে বাংলাদেশে এসেছেন যুক্তরাষ্ট্রের এক নারী।

জিইনাবচন জোন্স নামের ওই নারী কয়েক দিন ঢাকায় অবস্থানের পর শুক্রবার দুপুরে শাহাদত হোসেনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

শাহাদাতের ছোট ভাই আব্দুল মালেক জানান, তার মেঝ ভাই স্ত্রীসহ যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন। তার মেঝ ভাবী ফাতেমা মোহাম্মদ মুসার বান্ধবী জিইনাবচন জোন্স।

তিনি বলেন, ‘তার সঙ্গে আমার বড় ভাইকে পরিচয় করিয়ে দেয় আমার মেঝ ভাবি। গত কয়েক বছর ধরে তাদের মধ্যে মোবাইলে কথাবার্তা হতো। পরে দুজন বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। শুক্রবার স্থানীয় কাজী মনিরুল ইসলাম তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করান।’

আব্দুল মালেক আরও বলেন, ‘আমার মেঝ ভাই আবু জাফর দুবাই থাকা অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ফাতেমা মো. মুসার সঙ্গে পরিচয় হয়। পরে ২০১০ সালে তারা সেখানেই বিয়ে করেন। মূলত আমার মেঝ ভাবীর মাধ্যমেই নতুন ভাবীর সঙ্গে বড় ভাইয়ের পরিচয় হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
প্রেমের টানে ভারতে, ফেরত পাঠাল বিএসএফ
তিন প্রজন্মের প্রেম ভাবনা
‘নারীগণ প্রেম থেকে বিরত থাকুন’

শেয়ার করুন

মন্তব্য