মেধাবী শিক্ষক ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়তে চান

মেধাবী শিক্ষক ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়তে চান

কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের দর্শন বিভাগের প্রভাষক শাহাদৎ হোসেন দূরারোগ্য ব্লাড ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত। ছবি: সংগৃহীত

রংপুর সদরের মমিনপুর গ্রামের বর্গাচাষী আনারুল হকের দুই মেয়ে এবং এক পুত্র সন্তানের মধ্যে প্রভাষক শাহাদৎ হোসেন সবার ছোট। সংকটাপন্ন এই মেধাবী শিক্ষকের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ৮০ লাখ টাকা।

কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের দর্শন বিভাগের প্রভাষক শাহাদৎ হোসেন দূরারোগ্য ব্লাড ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত।

বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে হেমাটোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আব্দুল আজিজ ও রেডিওলোজি বিভাগের চিকিৎসক ডা. সৈয়দা শওকত জেনির তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন।

সংকটাপন্ন এই মেধাবী শিক্ষকের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ৮০ লাখ টাকা।

কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক মীর্জা নাসির উদ্দিন জানান, রংপুর সদরের মমিনপুর গ্রামের বর্গাচাষী আনারুল হকের দুই মেয়ে এবং এক পুত্র সন্তানের মধ্যে প্রভাষক শাহাদৎ হোসেন সবার ছোট।

সদ্য বিবাহিত শাহাদাৎ ৩৭তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের একজন সদস্য। সংসারে একমাত্র উপার্জনক্ষম সদস্য তিনি। জরুরিভিত্তিতে তাকে সিঙ্গাপুর অথবা ভারতে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। তার বোনম্যারো ট্রান্সপ্লান্টসহ চিকিৎসার জন্য কমপক্ষে ৮০ লাখ টাকা প্রয়োজন।

কিন্তু নিজে বা দরিদ্র বাবার পক্ষে এত টাকা জোগাড় করা অসম্ভব। কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ পরিবার তাকে ৬ লাখ টাকা দিয়েছে। কিন্তু চিকিৎসা ব্যয়ে বিপুল পরিমান অর্থ যোগান দেয়া তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিক্ষামন্ত্রী ও দেশবাসীর কাছে সহায়তা চাওয়া হয়েছে।

প্রভাষক শাহাদৎ হোসেনের চিকিৎসায় অর্থ সংগ্রহে বর্তমানে সোনালী ব্যাংক, কুড়িগ্রাম শাখায় ‘শাহাদৎ হোসেন চিকিৎসা সহায়তা তহবিল’ নামে একটি হিসাব খোলা হয়েছে। যা কলেজের অধ্যক্ষসহ আরও দুজন কর্মকর্তাকে সিগনেটরি রাখা হয়েছে। তাকে সহযোগিতার জন্য হিসাব নং-৫২০৮৪০১০২৮৫২৪, রাউটিং নম্বর-২০০৪৯০৪০৭, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, কুড়িগ্রাম শাখা। বিকাশ নং-০১৭১৬৫৮৩৩৬৯, নগদ-০১৭১৬৫৮৩৩৬৯।

শেয়ার করুন

মন্তব্য