রামদা হাতে নেচে মামলা তুলে নিতে হুমকি, গ্রেপ্তার ১

রামদা হাতে নেচে মামলা তুলে নিতে হুমকি, গ্রেপ্তার ১

মামলা তুলে নেয়ার জন্য ভয় দেখিয়ে রামদা হাতে নাচেন দুই যুবক। ছবি: নিউজবাংলা

গত ১৭ মে বিকেলে চৌদ্দগ্রামের কোমারডোগা গ্রামে দেলোয়ারকে কুপিয়ে আহত করা হয়। এ ঘটনার পর রাতে মেহেদী ও রাসেলসহ সাতজনের নামে চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলা করেন দেলোয়ারের স্ত্রী আয়েশা আক্তার। তাদের মামলা তুলে নিতে ভয় দেখানোর জন্য রামদা হাতে নাচানাচি করে ভিডিও ধারণ করা হয়।

কুমিল্লায় এক যুবককে কুপিয়ে আহত করার পর রামদা হাতে দুইজনের নাচানাচির ভিডিও ভাইরাল হয়েছে ফেসবুকে। এ ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কোমারডোগা এলাকা থেকে মঙ্গলবার ভোররাতে গ্রেপ্তার করা হয় সদর দক্ষিণ উপজেলার রাজেশপুর গ্রামের মেহেদী হাসানকে।

ভিডিওতে তার সঙ্গে দেখা যাওয়া আরেকজন হলেন চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কোমরডোগা গ্রামের রাসেল মিয়া।

আর আহত দেলোয়ার হোসেনের বাড়ি কোমারডোগাতে। তিনি স্থানীয় ব্যবসায়ী।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শুভ রঞ্জন চাকমা জানান, গত ১৭ মে বিকেলে চৌদ্দগ্রামের কোমারডোগা গ্রামে দেলোয়ারকে কুপিয়ে আহত করা হয়।

এ ঘটনার পর রাতে মেহেদী ও রাসেলসহ সাতজনের নামে চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলা করেন দেলোয়ারের স্ত্রী আয়েশা আক্তার। অভিযোগে বলা হয়, মাদক কারবারে বাধা দেয়ায় কোপানো হয়েছে দেলোয়ারকে।

সে খবর পেয়ে মামলা তুলে নিতে ভয় দেখিয়ে রামদা হাতে হিন্দি গানের তালে তালে নাচানাচি করে ওই দুই যুবক। তা আরেকজনকে দিয়ে ভিডিও করিয়ে তারা পাঠায় দেলোয়ার ও আয়েশাকে।

ওসি শুভ রঞ্জন বলেন, ‘ফেসবুকের নাচানাচির সেই ভিডিও যাচাই করে তাকে গ্রেপ্তার করি। এ ছাড়া মেহেদী হাসান নামের ওই যুবক মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত বলে আমরা প্রমাণও পেয়েছি। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

আরও পড়ুন:
দুই বাংলায় আলোচনা একটাই ‘কাকলী ফার্নিচার’
পিপিইর পর বোরকায় সেই যুবক
‘নয়া দামান’ কপিরাইট ফ্রি
মায়ের জীবন বাঁচাতে মেয়েদের চেষ্টা
যার কণ্ঠে ভাইরাল ‘নয়া দামান’

শেয়ার করুন

মন্তব্য