গোসল করতে নেমে এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

গোসল করতে নেমে এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানার ওসি বশির আহম্মেদ বাদল জানান, তিন বন্ধু মিলে গোসল করতে নামলেও দুই বন্ধু নিজেদেরকে রক্ষা করতে সক্ষম হয়। পানিতে ডুবে মৃত্যু হয় ইফতির। ইফতির মরদেহ তাদের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার ভোগাই নদীতে বন্ধুদের সঙ্গে গোসল করতে নেমে ইফতি নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। রোববার বেলা ৩টার দিকে নালিতাবাড়ী শহরের ছিটপাড়া নদীরপাড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পারিবারিক ও ইফতির বন্ধুদের সূত্রে জানা যায়, নালিতাবাড়ী শহরের ছিটপাড়া মহল্লার অ্যাডভোকেট ইয়াসমিনের ১৬ বছর বয়সী ছেলে ইফতি তার দুই বন্ধু একই এলাকার নূর ইসলামের ছেলে রনি ও লঙ্করের ছেলে রানার সঙ্গে দুপুরে শহরের সার্জেন্ট আহাদ প্রাঙ্গন ঘাটে ভোগাই নদীতে গোসল করতে নামে।

গোসলের একপর্যায়ে তিন বন্ধু মিলে সাঁতার কাটতে কাটতে নদীর প্রায় আধা কিলোমিটার ভাটিতে ছিটপাড়া নদীর পাড় এলাকায় চলে যায়। দীর্ঘ সময় সাঁতার কাটতে গিয়ে তিন জনই শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ে। তখন রানা ও রনি কোনোমতে নিজেদের আত্মরক্ষা করে পানিতে ভাসিয়ে রাখে। অন্য দিকে ইফতি দুর্বল শরীর নিয়ে নদীতে থাকা চোরা গর্তে পড়ে ডুবে যায়।

এ সময় রানা ও রনি নদীর তীরে আশপাশে থাকা লোকদের বলতে থাকলে স্থানীয়রা দল বেঁধে ইফতির সন্ধানে নামে। এক পর্যায়ে ইফতির নিথর দেহ পানির নিচ থেকে তুলে শহরের ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যায়। সেখানে নেওয়ার পর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ইফতিকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানার ওসি বশির আহম্মেদ বাদল জানান, তিন বন্ধু মিলে গোসল করতে নামলেও দুই বন্ধু নিজেদেরকে রক্ষা করতে সক্ষম হয়। পানিতে ডুবে মৃত্যু হয় ইফতির। ইফতির মরদেহ তাদের বাড়ীতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার মরদেহ বিনা ময়নাতদন্তেই দাফনের আবেদন করেছে তার পরিবার। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন:
পুকুরে ভেসে উঠল ভাইবোনের মরদেহ
পুকুরে ডুবে স্কুলশিক্ষার্থীর মৃত্যু
নেত্রকোণায় পানিভর্তি গর্তে ডুবে  শিশুর মৃত্যু 
ডুমুরিয়ায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু

শেয়ার করুন

মন্তব্য