পুকুরে ভেসে উঠল আলীর নিথর দেহ

পুকুরে ভেসে উঠল আলীর নিথর দেহ

২২ মাসের শিশু আলী হোসেন।

মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের উত্তর বানিয়াপাড়া (আসামপাড়া) গ্রামের কাপড় ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিনের ছেলে আলী বৃহস্প্রতিবার সকালে বাড়ির সামনে থেকে নিখোঁজ হয়। খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে শুক্রবার ঝিনাইগাতী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন শিশুর বাবা জসিম।

শেরপুরের ঝিনাইগাতীর বানিয়াপাড়ায় নিখোঁজের দুই দিন পর পরিত্যক্ত পুকুর থেকে এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

২২ মাসের আলী হোসেনের মরদেহ রোববার বিকেলে উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের উত্তর বানিয়াপাড়া (আসামপাড়া) গ্রামের কাপড় ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিনের ছেলে আলী বৃহস্প্রতিবার সকালে বাড়ির সামনে থেকে নিখোঁজ হয়। খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে শুক্রবার ঝিনাইগাতী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন শিশুর বাবা জসিম।

এর পরই আলীর সন্ধানে অভিযান শুরু করে পুলিশ। রোববার বেলা সাড়ে তিনটায় একই গ্রামের চান মিয়ার পরিত্যক্ত পুকুরে ভেসে ওঠে শিশুটির মরদেহ। পরে পুলিশ লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠায়।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, এএসপি (নালিতাবাড়ি সার্কেল) আফরুজা সুলতানা ও ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান।

শিশুর বাবা জসিম উদ্দিন বলেন, ‘যেখান থেকে ছেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে সেখানে তো বড়দের যাওয়াই অনেক কষ্টের। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি।’

ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান বলেন, ‘বেশ কিছু বিষয় নানান প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। আমরা খতিয়ে দেখছি।’

আরও পড়ুন:
ছাদে শিশুর গলাকাটা মরদেহ: চাচাতো ভাইয়ের দায় স্বীকার
ফ্ল্যাটেই পড়ে ছিল নিখোঁজ সন্তানের মরদেহ
পানির ট্যাংকের ভেতরে শিশুর মরদেহ

শেয়ার করুন

মন্তব্য