খোলা মাঠে দাঁড়িয়ে বৃষ্টির জন্য নামাজ

বৃষ্টির জন্য বিশেষ নামাজ

পটুয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদ মাঠে বৃষ্টির জন্য বিশেষ নামাজ আদায় ও মোনাজাত করা হয়। ছবি: নিউজবাংলা

বিশেষ নামাজের ইমাম রেদওয়ানুল হক জানান, দীর্ঘদিন ধরে দাবদাহে পুড়ছে পটুয়াখালীসহ পুরো দেশ। বৃষ্টির আশায় তাই এলাকার কৃষক, শ্রমিক, মেহনতি মানুষসহ অনেকেই একসঙ্গে আল্লাহর দরবারে হাত তুলেছে।

বৈশাখের তীব্র রোদে পুড়ছে দেশ। ক্ষেতের ফসল নিয়ে দুশ্চিন্তায় কৃষক। চাতক পাখির মতো চেয়ে আছে বৃষ্টির জন্য।

পটুয়াখালীতে বৃষ্টির জন্য ইস্তিসকার নামাজ পড়েছে মানুষ। সদর উপজেলা পরিষদ মাঠে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে এই বিশেষ নামাজ আদায় ও মোনাজাত করা হয়।

দুই রাকাআত নামাজে ইমামতি করেন উপজেলার বহালগাছিয়া এলাকার বাধঘাট জামে মসজিদের খতিব মাওলানা রেদওয়ানুল হক।

তিনি নিউজবাংলাকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে দাবদাহে পুড়ছে পটুয়াখালীসহ পুরো দেশ। বৃষ্টির আশায় তাই এলাকার কৃষক, শ্রমিক, মেহনতি মানুষসহ অনেকেই একসঙ্গে আল্লাহর দরবারে হাত তুলেছে।

পটুয়াখালী জেলা ইমাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মুসলিমপাড়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আবদুল কাদের জানান, বৃষ্টির জন্য ইসলামে যে নামাজ আদায় করার নিয়ম রয়েছে সেই নামাজকে ইস্তিসকার বলা হয়। ইস্তিসকার শব্দের অর্থ বৃষ্টির জন্য দোয়া করা।

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে এভাবে জমায়েত করে নামাজ আদায় করায় স্বাস্থ্যবিধি কতটা মানা হয়েছে সে বিষয়ে রেদওয়ানুল হক জানান, মসজিদে যেভাবে দূরত্ব রেখে নামাজ পড়ানো হয় এখানেও সেভাবে দূরত্বের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে খোলা মাঠ হওয়ায় মাস্কের বিষয়টি তেমন গুরুত্ব দেয়া হয়নি।

আরও পড়ুন:
করোনা থেকে মুক্তি ও বৃষ্টি চেয়ে মসজিদে প্রার্থনা
বৃষ্টিহীন রাজশাহীতে বাড়ছে তাপমাত্রা
বৃষ্টি এলো ঢাকায়
হঠাৎ বৃষ্টিতে স্নিগ্ধ ঢাকা
বৃষ্টির জন্য বিশেষ নামাজ

শেয়ার করুন

মন্তব্য