ময়মনসিংহে ইফতারের আগে যানজট

ময়মনসিংহে ইফতারের আগে যানজট

যানজটে ভোগান্তির শিকার হন চলাচলকারীরা। ছবি: নিউজবাংলা

‘একজন ট্রাফিক সার্জেন্টকে বলেছি আমাদেরকে যাওয়ার জন্য একটু ব্যবস্থা করে দিতে। সার্জেন্টও খুব চেষ্টা করছেন। তবে সড়কের দুই পাশে গাড়ি আটকে থাকায় আমরা যেতে পারছি না।’

ইফতারের আগে ময়মনসিংহের পাটগুদাম ব্রিজ মোড় থেকে শম্ভুগঞ্জ বাজার পর্যন্ত সৃষ্টি হয় যানজট। এতে ভোগান্তির শিকার হন এ পথে চলাচলকারীরা।

রোববার বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে রাস্তায় গাড়ির চাপ বাড়তে থাকে।

রাস্তার চায়নামোড় এলাকায় যানজটে থাকা অ্যাম্বুলেন্সচালক আসাদুল জানান, ধোবাউড়া থেকে অসুস্থ রোগী নিয়ে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাচ্ছি। এক ঘণ্টার বেশি হয়ে গেল যানজটে পড়েছি। এখন রোগী মারা যায় কি না এ নিয়ে চিন্তায় আছি।

অ্যাম্বুলেন্সের ভেতরে থাকা রোগীর বড় ছেলে আজাদ জানান, ‘একজন ট্রাফিক সার্জেন্টকে বলেছি আমাদেরকে যাওয়ার জন্য একটু ব্যবস্থা করে দিতে। সার্জেন্টও খুব চেষ্টা করছেন। তবে সড়কের দুই পাশে গাড়ি আটকে থাকায় আমরা যেতে পারছি না।’

সিএনজি অটোরিকশা থেকে নেমে হেঁটে যাওয়ার সময় কথা হয় সোমা আক্তার নামে আনন্দ মোহন কলেজে অনার্স পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমার আপু শহরের চরপাড়া এলাকায় থাকেন। আজকে আপুর মেয়ের জন্মদিন। তাই আপুর বাসায় ইফতার করে জন্মদিন পালন করব৷ অটোরিকশায় করে যেতে যেতে ইফতারের সময় চলে যাবে। তাই হেঁটেই যাচ্ছি।’

ট্রাকচালক এনামুল হক বলেন, এই রাস্তাটি নেত্রকোণা, জামালপুর, শেরপুরসহ বিভিন্ন মহাসড়কের সংযোগ সড়ক। গৌরীপুর থেকে ইট নিয়ে মাসকান্দা বাইপাস যাচ্ছি। আধা ঘণ্টার রাস্তা এখন মনে হয়ে তিন ঘণ্টাতেও যাওয়া যাবে না।

ময়মনসিংহ জেলা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘উল্টোপথে বিভিন্ন গাড়ি ঢুকিয়ে দেয়ার ফলে যানজট কমাতে সময় লাগছে। আমরা যানজট নিরসনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

আরও পড়ুন:
সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে ট্রাকের সারি
লকডাউনেও বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকায় ৪০ কি.মি. যানজট
সেতুতে ফাটল: ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে ধীরগতি
ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সেতুতে ফাটলে দীর্ঘ যানজট
আরও তিন ইউটার্নে বিমানবন্দর সড়কে কমল যানজট

শেয়ার করুন

মন্তব্য