‘রোহিঙ্গা ডাকাতের’ গুলিতে স্থানীয় যুবক নিহত

‘রোহিঙ্গা ডাকাতের’ গুলিতে স্থানীয় যুবক নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফের জাদিমুড়া ক্যাম্প এলাকায় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে স্থানীয় এক যুবক নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। এ ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন। এপিবিএন জানায়, হামলাকারীরা রোহিঙ্গা ডাকাত।

টেকনাফের নেচার পার্কসংলগ্ন এলাকায় বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. হোসেন জাদিমুড়া এলাকার বাচা মিয়ার ছেলে। আহত ব্যক্তিরা হলেন মো. আয়াস ও রশিদ উল্লাহ।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন-১৬-এর (এপিবিএন) অধিনায়ক তারিকুল ইসলাম।

নিহত ব্যক্তির ভাই জাহিদ হোসেন জানান, হোসেন বন্ধুদের সঙ্গে নেচার পার্কে ঘুরতে যান। সেখানে হঠাৎই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। তাতে হোসেনসহ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হন। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়।

তবে ক্যাম্পের রোহিঙ্গা ও স্থানীয় বাসিন্দাদের বরাত দিয়ে এপিবিএন অধিনায়ক তারিকুল ইসলাম জানান, রোহিঙ্গা ডাকাত জকির বাহিনীর সদস্য হাকিম ও নুরুলের নেতৃত্বে একটি দল জাদিমুড়া ২৭ নম্বর ক্যাম্পে সি-ব্লকের আয়াছ নামের একজনকে অপহরণের চেষ্টা করে। এ সময় তার চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এলে তারা এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। তাতেই গুলিবিদ্ধ হন ওই তিনজন।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক শুভ্র দেব জানান, হাসপাতালে আনার পর আহত ব্যক্তিদের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে। অন্য দুইজনের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুলির চিহ্ন রয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় ক্যাম্পে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জাদিমুড়া ক্যাম্পে অভিযান চালাচ্ছে।

আরও পড়ুন:
বিজিবির সঙ্গে ‘গোলাগুলি’, নিহত ১ রোহিঙ্গা
সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের উঠান বৈঠকে গোলাগুলির অভিযোগ
পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলি, নিহত মাদক মামলার আসামি

শেয়ার করুন

মন্তব্য