সেই দুই নবজাতককে আলাদা করতে মেডিক্যাল টিম

সেই দুই নবজাতককে আলাদা করতে মেডিক্যাল টিম

শিশু দুটিকে নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার বিদিরপুর মহল্লার বাসা থেকে তার পরিবারের সদস্যরা রওনা হন। রাতেই তাদের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নিয়ে আসেন তারা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের জোড়া লাগানো দুই নবজাতককে চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালের জেনারেল পেডিয়াট্রিক্স (শিশু) বিভাগে ভর্তি দুই নবজাতককে আলাদা করতে মেডিক্যাল টিমও গঠন করা হয়েছে।

শিশু দুটিকে নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার বিদিরপুর মহল্লার বাসা থেকে তার পরিবারের সদস্যরা রওনা হন। রাতেই তাদের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নিয়ে আসেন তারা।

তাদের বাবা মোহাম্মদ রুবেল বুধবার নিউজবাংলাকে জানান, ডাক্তাররা ১৪টি পরীক্ষা দিয়েছেন। এর মধ্যে দুই বাকি আছে। বাকি দুটি পরীক্ষার ফল তিন দিন পর পাওয়া যাবে। তখন অপারেশনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন চিকিৎসক।

সোমবার ভোরে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে জোড়া লাগানো দুই শিশুর জন্ম দেন আঙ্গুরী বেগম। শিশু দুটির একটি ছেলে, অন্যটি মেয়ে। তাদের হাত-পা সব আলাদা হলেও নাভির কাছে জোড়া লাগানো।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার জন্য ছাড়পত্র দেন। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারণে সোমবার দুপুরে সন্তান নিয়ে বাড়ি ফিরে যান রুবেল।

বিষয়টি জানতে পেরে মঙ্গলবার সকালে তাদের বাড়ি যান চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ। তিনি রুবেলের হাতে ৫০ হাজার টাকা ও কম্বল তুলে দেন।

শিশু দুটির চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে ভর্তির প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থাও করে দেন জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল।

নিউজবাংলাকে ডিসি বলেন, ‘আমি বিএসএমএমইউয়ের পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। ওখানে বাচ্চা দুটো সঠিক চিকিৎসা পাবে।’

বাচ্চা দুটির মা এখনও রাজশাহী মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। এই দম্পতির আরও দুটি ছেলে আছে।

আরও পড়ুন:
ঢাকা আনা হচ্ছে জোড়া লাগানো দুই নবজাতক

শেয়ার করুন

মন্তব্য