বাড়ির পাশে শিশুর বস্তাবন্দি মরদেহ: কিশোর গ্রেফতার

বাড়ির পাশে শিশুর বস্তাবন্দি মরদেহ: কিশোর গ্রেফতার

শনিবার ভোরে উপজেলার চরকামালদী এলাকা থেকে তুহিন নামের কিশোরকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তুহিন জামপুর ইউনিয়নের মহজমপুর গ্রামের পরিবারের সঙ্গে থাকত।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে আট বছরের শিশু জিসানকে হত্যার পর মরদেহ বস্তাবন্দি করে রান্না ঘরের পাশে ফেলে রাখার ঘটনায় এক কিশোরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার ভোরে উপজেলার চরকামালদী এলাকা থেকে তুহিন নামের ওই কিশোরকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তুহিন জামপুর ইউনিয়নের মহজমপুর গ্রামের পরিবারের সঙ্গে থাকত।

সোনারগাঁয়ের তালতলা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (পরির্দশক) আহসান উল্লাহ নিউজবাংলাকে জানান, সোনারগাঁয়ে বি আর স্পিনিং কোম্পানির মালি ইলিয়াস শেখের ছেলে শিশু জিসান ও মহজমপুর গ্রামের তুহিন মরীষটেক এলাকায় পাশাপাশি ভাড়া বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে থাকত। ১ ডিসেম্বর দুপুরে তুহিনের ঘরের সামনে জিসান একটি খেলনা গাড়ি নিয়ে খেলছিল। তুহিন গাড়িটি চেয়ে না পেয়ে জিসানকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। জিসান পড়ে ইটের সঙ্গে মাথায় আঘাত পেয়ে অজ্ঞান হয়ে যায়। জিসান যেনো চিৎকার দিতে না পারে এ জন্য তুহিন তাকে গলা টিপে হত্যা করে। পরে তুহিন তাদের রান্না ঘরে নিয়ে জিসানের মরদেহ বস্তায় ভরে রেখে দেয়।

পুলিশ পরির্দশক আহসান উল্লাহ আরও জানান, গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তুহিন হত্যার কথা স্বীকার করেছে। নিখোঁজের নয় দিন পর গত বৃহস্পতিবার জিসানের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই দিন জিসানের বাবা ইলিয়াস শেখ অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘শনিবার বিকেলে তুহিনকে নারায়ণগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালতে নিলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। পরে তাকে কারাগারে নেয়া হয়।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য