× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

সারা দেশ
তরুণীকে ধর্ষণ শেষে বিক্রির চেষ্টা
google_news print-icon

তরুণীকে ধর্ষণ শেষে বিক্রির চেষ্টা

তরুণীকে-ধর্ষণ-শেষে-বিক্রির-চেষ্টা
তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার দুই তরুণ। ছবি: নিউজবাংলা
ধর্ষণের পর মেয়েটিকে বানীশান্তা যৌনপল্লিতে বিক্রির চেষ্টাকালে তাকে উদ্ধার করে মোংলা থানা-পুলিশ। এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় দুই তরুণ সুমন শরিফ ও মেহেদি হাসানকে।

বাগেরহাটের মোংলায় বন্ধুদের প্রলোভনে পড়ে বেড়াতে এসে ধর্ষনের শিকার হয়েছেন এক তরুণী (১৯)। টানা পাঁচ দিন বিভিন্ন স্থানে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয় ওই তরুণীকে।

ধর্ষণের পর মেয়েটিকে বানীশান্তা যৌনপল্লিতে বিক্রির চেষ্টাকালে তাকে উদ্ধার করে মোংলা থানা-পুলিশ। এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় দুই তরুণ সুমন শরিফ (৩০) ও মেহেদি হাসানকে (২৫)।

বুধবার রাতে ওই দুই তরুণের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ওই তরুণী। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাট আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতার মেহেদী হাসান ও সুমন শরিফ মোংলার পশ্চিম শেলাবুনিয়া এলাকার বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়, চট্টগ্রাম ইপিজেডে চাকরির সুবাদে খাগড়াছড়ির এক তরুণীর সঙ্গে পরিচয় হয় মোংলার শেলাবুনিয়ার সুমন শরিফ ও মেহেদী হাসানের। ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা গড়ে ওঠে।

গত সপ্তাহে এ মেয়েটিকে ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে ওই দুই যুবক ঝিনাইদাহের সদরে নিয়ে যান। সেখানে অপর এক বন্ধুর বাড়িতে তিন দিন থাকার পর গত মঙ্গলবার তরুণীকে মোংলার শেলাবুনিয়ায় মেহদী হাসানের বাড়িতে আনা হয়। এখানে স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে মেয়েটিকে দুই দিন রাখা হয়।

বুধবার বিকেলে তরুণীকে ট্রলারে করে বানিশান্তা যৌনপল্লিতে পাচারের চেষ্টাকালে খবর পায় মোংলা থানা-পুলিশ। তারা মেয়েটিকে উদ্ধার করে এবং সুমন শরিফ ও মেহেদী হাসানকে গ্রেফতার করে।

তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষার পর আদালতে নিরাপত্তা হেফাজতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তুহিন মন্ডল বলেন, প্রতারণার মাধ্যমে আনা ওই তরুণীকে বিভিন্নস্থানে আটকে রেখে ধর্ষণ করে গ্রেফতার ওই দুই যুবক। স্থানীদের সহায়তায় তাদের গ্রেফতার করে ওই মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
ধর্ষণের সমাধান বিয়ে?

মন্তব্য

আরও পড়ুন

সারা দেশ
Eighth class pass doctor was doing surgery

অষ্টম শ্রেণি পাস ‘চিকিৎসক’ করছিলেন অস্ত্রোপচার

অষ্টম শ্রেণি পাস ‘চিকিৎসক’ করছিলেন অস্ত্রোপচার শুক্রবার ক্লিনিকটিতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও আব্দুল্যাহ আল মামুন। ছবি: নিউজবাংলা
প্রতিষ্ঠানটি ক্লিনিক হিসেবে নিবন্ধনই করেননি তিনি। অপারেশন থিয়েটারের অবস্থাও তথৈবচ। তারপরও এই ক্লিনিকে রোগী নিয়ে ছুটে আসতেন স্বজনরা।

নওগার সাপাহার উপজেলা সদরে অবস্থিত সততা ক্লিনিক অ্যান্ড নার্সিং হোম নামের একটি ক্লিনিক। ক্লিনিকটিতে সিজারিয়ান অপারেশনসহ বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রোপচার ও চিকিৎসা দেয়া হয়। হাতের কাছেই একটি ক্লিনিক থাকায় আশপাশের মানুষ ছিলেন খানিকটা চিন্তামুক্ত। হঠাৎ কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে অন্তত জেলা শহর পর্যন্ত যাওয়ার আগেই সেবা পাওয়া যাবে। তবে চিকিৎসা সেবার নামে ক্লিনিকটিতে চলছিল ভয়াবহ কর্মকাণ্ড।

ক্লিনিকটিতে যাবতীয় অপারেশন ও চিকিৎসা কার্যক্রম পরিচালনা করতে মনিরুল ইসলাম স্বপন নামের চিকিৎসক পরিচয়দানকারী এক ব্যক্তি। তবে তার শিক্ষাগত যোগ্যতার তথ্যে সকলের চক্ষু ছানাবড়া। অষ্টম শ্রেণি পাস করে আর লেখাপড়া করেননি তিনি। তারপরও চিকিৎসকের ভূমিকায় দীর্ঘদিন অস্ত্রোপচার করে চলেছেন।

শুধু তাই নয়, প্রতিষ্ঠানটি ক্লিনিক হিসেবে নিবন্ধনই করেননি তিনি। অপারেশন থিয়েটারের অবস্থাও তথৈবচ। তারপরও এই ক্লিনিকে রোগী নিয়ে ছুটে আসতেন স্বজনরা।

শুক্রবার ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে উঠে এসেছে ভয়াবহ এসব তথ্য। পরে ক্লিনিকটি বন্ধ করে দিয়েছে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুল্যাহ আল মামুনের পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালত। সেইসঙ্গে চিকিৎসক পরিচয়দানকারী মনিরুল ইসলাম স্বপনকে আটক করে একমাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ছয় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানা অনাদায়ে আরও ৭ দিন কারাদণ্ড বর্ধিত করে তাকে থানায় নেয়া হয়।

অভিযান শেষে ইউএনও আব্দুল্যাহ আল মামুন সাংবাদিকদের জানান, সাপাহার উপজেলার তিলনা রোডের সরফতুল্ল্যাহ মাদ্রাসার সামনে সততা ক্লিনিক অ্যান্ড নার্সিং হোমে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছিলেন ক্লিনিকের পরিচালক ও ‘চিকিৎসক’ পরিচয়দানকারী মনিরুল ইসলাম স্বপন। কিন্তু ক্লিনিকের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও অপারেশন থিয়েটারের ফিটনেস দেখাতে পারেননি তিনি। তাছাড়া চিকিৎসক হিসেবে তার যোগ্যতা যাচাইয়ে দেখা যায় তিনি ডাক্তারই নন। অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা করেছেন তিনি। তাই ক্লিনিকটি বন্ধ করে তাকে কারা ও অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে।

অভিযানের সময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) শারমিন জাহান লুনা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মুহাম্মদ রুহুল আমিনসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
ভাঙ্গায় ব্যাংকের কার্ড প্রতারণা চক্রের ৫ সদস্য আটক
ডিজিটাল দরবেশ বাবার পকেটে প্রতারণার কোটি কোটি টাকা
বড় মাছের ‘টোপ’ দিয়ে ২৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নিলেন চেয়ারম্যান
ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে অন্যের স্ত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগ
ভুয়া ডাক্তারের ডিগ্রির বহর!

মন্তব্য

সারা দেশ
Bus CNG workers clash in Naogaon 20 injured

নওগাঁয় বাস-সিএনজি শ্রমিকদের সংঘর্ষ, আহত ২০

নওগাঁয় বাস-সিএনজি শ্রমিকদের সংঘর্ষ, আহত ২০ শুক্রবার মান্দা ফেরিঘাট এলাকায় রাস্তার ওপর আড়াআড়িভাবে বাস রেখে যান চলাচল বন্ধ করে দিলে অটোরিকশা শ্রমিকদের সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে। ছবি: নিউজবাংলা
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রথমে অটোরিকশা শ্রমিকরা সাবাইহাট বাজার এলাকায় দুটি বাস ভাঙচুর করেন। পরে মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিকরা সংঘবদ্ধ হয়ে ফেরিঘাট এলাকায় জড়ো হয়ে অটোরিকশা শ্রমিকদের ওপর হামলা ও অটোরিকশা ভাঙচুর করেন।

নওগাঁর মান্দায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এ সময় দুটি বাস ও ১৫টি অটোরিকশা ভাঙচুর করে দুপক্ষের লোকজন।

উপজেলার সাবাইহাট ও ফেরিঘাট এলাকায় বিকেল ৩টার দিকে মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর থেকে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে বাস ও তিন চাকার যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ফেরিঘাট এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মান্দা থানার ওসি মোজাম্মেল হক কাজী।

এ বিষয়ে নওগাঁ জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মতিউজ্জামান মতি বলেন, ‘সরকারি আইন অনুযায়ী মহাসড়কে তিন চাকার যান চলাচল নিষিদ্ধ। প্রশাসন ও মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে বারবার নিষেধ করা হলেও অটোরিকশা চালকরা নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে জোর করে গাড়ি চালিয়ে আসছিল। এ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। এর জেরে আজ সাবাইহাট এলাকায় সিএনজি চালক ও মালিকেরা সংঘবদ্ধ হয়ে দুটি বাস ভাঙচুর করে। এসময় বাস দুটির চালক ও সহকারীদের মারধর করা হয়। পরে বাস শ্রমিকেরা এ ঘটনার প্রতিবাদ জানানোর জন্য মান্দা ফেরিঘাট এলাকায় রাস্তার ওপর আড়াআড়িভাবে বাস রেখে যান চলাচল বন্ধ করে দেন।’

নওগাঁয় বাস-সিএনজি শ্রমিকদের সংঘর্ষ, আহত ২০
সংঘর্ষ চলাকালে দুটি বাস ও অন্তত ১৫টি অটোরিকশা ভাঙচুর করা হয়। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা

এ বিষয়ে সিএনজি-মালিক শ্রমিক সমিতি সাবাইহাট শাখার সভাপতি শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘নওগাঁ বাস মালিক সমিতি ও মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের লোকজন উপজেলার মোহাম্মদপুর সাইনবোর্ড এলাকায় অবৈধভাবে নতুন চেকপোস্ট বসিয়ে সিএনজিচালিত অটোরিকশা চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে। এ নিয়ে অটোরিকশার মালিক ও শ্রমিকেরা প্রতিবাদ করলে গত ২৯ আগস্ট মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের লোকজন তাদেরকে মারধর করেন।’

অভিযোগ করে শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আজকে নামাজের পর ফেরিঘাট থেকে রাজশাহীতে যাওয়ার সময় নতুন চেকপোস্টে একটি অটোরিকশা থামিয়ে এর চালককে মারধর করে মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের লোকজন। পরে উপজেলার ফেরিঘাট এলাকায় বাস শ্রমিকেরা আবারও সিএনজি মালিক ও চালকদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় ১৫/১৬টি অটোরিকশা ভাঙচুর করে তারা। হামলায় বেশ কয়েকজন জন অটোরিকশা শ্রমিক আহত হয়েছেন।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রথমে অটোরিকশা শ্রমিকরা সাবাইহাট বাজার এলাকায় দুটি বাস ভাঙচুর করেন। পরে মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিকরা সংঘবদ্ধ হয়ে ফেরিঘাট এলাকায় জড়ো হয়ে অটোরিকশা শ্রমিকদের ওপর হামলা ও অটোরিকশা ভাঙচুর করেন। বিকেল ৩টার দিকে ফেরিঘাট সেতুর মুখে ও ঢাকা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় রাস্তার ওপর আড়াআড়িভাবে বাস রেখে অবরোধ সৃষ্টি করে মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের লোকজন।

বিষয়টি নিয়ে কথা হলে মান্দা থানার ওসি মোজাম্মেল হক কাজী বলেন, ‘পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ চলছে। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে ফেরিঘাট এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যান চলাচল স্বাভাবিক করতে এবং উভয়পক্ষের মধ্যে সমঝোতার চেষ্টা চলছে।’

সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:
চবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত ৬
হাতীবান্ধায় আওয়ামীলীগ-বিএনপি সংঘর্ষ, ছাত্রলীগ সভাপতি আহত
কুমিল্লায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা, সংঘর্ষে আহত ১০
কুমিল্লায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত
আইনজীবীদের পদযাত্রায় পুলিশি বাধা, সংঘর্ষ

মন্তব্য

সারা দেশ
Victory by two votes After two and a half years the court changed the result

দুই ভোটে জয়: আড়াই বছর পর ফল পাল্টাল আদালত

দুই ভোটে জয়: আড়াই বছর পর ফল পাল্টাল আদালত আদালতের রায়ে বিজয়ী মেয়র প্রার্থী ফারুক আহমদ। ছবি: সংগৃহীত
রায়ের প্রতিক্রিয়ায় বিজয়ী ফারুক আহমদ বলেন, ‘আদালত যে মানুষের শেষ ভরসা, তাই আজ প্রমাণ হলো। রায়ে জনগণের বিজয় হয়েছে। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্যই আমি আইনি লড়াই করেছিলাম।’

২০২১ সালের ৩০ জানুয়ারি সিলেটের জকিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সেদিন ভোটগ্রহণ শেষে মাত্র দুই ভোটের ব্যবধানে আব্দুল আহাদকে মেয়র পদে বিজয়ী ঘোষণা করেন রিটানিং কর্মকর্তা। তবে ওই ফল মেনে নিতে পারননি পরাজিত মেয়র প্রার্থী ফারুক আহমদ। ভোট গণনায় অনিয়মের অভিযোগ আদালতে মামলা করেন তিনি।

অবশেষে নির্বাচনের প্রায় আড়াই বছর পর ফল পাল্টে পরাজিত মেয়র প্রার্থী ফারুক আহমদকে চার ভোটে বিজয়ী ঘোষণা করেছে আদালত।

বৃহস্পতিবার সিলেট যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালত এবং নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আরিফুজ্জামান এই রায় ঘোষণা করেন।

আব্দুল আহাদ ও ফারুক আহমদ দুজনই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন।

এসব তথ্য জানিয়ে মামলায় বাদীপক্ষের আইনজীবী গোলাম রব্বানী চৌধুরী বলেন, ‘৫টি ভোট কেন্দ্রের ব্যালট পেপার পুনরায় গণনা চেয়ে আদালতে মামলা করেছিলেন ফারুক আহমদ। পরে আদালত বাদীপক্ষের সাক্ষী ও বিবাদীপক্ষের সাফাই সাক্ষী গ্রহণ শেষে পুনরায় ভোট গণনার নির্দেশ দেন। পুনর্গণনায় ফারুক আহমদ ৪ ভোট বেশি পান।’

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ফলাফলে কারচুপির অভিযোগে করা মামলা দীর্ঘদিন চলার পর উভয়পক্ষের আইনজীবীদের উপস্থিতিতে কয়েক দফায় আদালতে ভোট গণনা করা হয়। এতে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ফারুক আহমদের বৈধ ভোট হয় ২০৭১ আর আব্দুল আহাদের বৈধ ভোট হয় ২০৬৭। বৃহস্পতিবার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে বিচারক ফারুক আহমদকে বিজয়ী ঘোষণা করে রায় প্রদান করেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে আদালতের ওয়েবসাইটে রায়ের তথ্য প্রকাশ হয়।

এর আগে ভোটের দিন রিটার্নিং কর্মকর্তা ঘোষিত ফলাফলে আবদুল আহাদের বৈধ ভোট ঘোষণা করা হয় ২ হাজার ৮৩টি এবং নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ফারুক আহমদের বৈধ ভোট ঘোষণা করা হয় ২ হাজার ৮১টি।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় বিজয়ী ফারুক আহমদ বলেন, ‘আদালত যে মানুষের শেষ ভরসা, তাই আজ প্রমাণ হলো। রায়ে জনগণের বিজয় হয়েছে। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্যই আমি আইনি লড়াই করেছিলাম।’

এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে জকিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল আহাদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে তার আইনজীবী সামসুল হক জানান, রায় প্রকাশের বিষয়ে তিনি অবগত নন। আব্দুল আহাদের বিরুদ্ধে রায় গেলে তিনি পরবর্তী করণীয় ঠিক করবেন। যদি তিনি মনে করেন উচ্চ আদালতে যাবেন, তাহলে সেটা তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ৩০ জানুয়ারি জকিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আব্দুল আহাদ পান ২০৮৩ ভোট আর ফারুক আহমদ পান ২০৮১ ভোট। এরপর কারচুপির অভিযোগ তুলে জকিগঞ্জ সরকারি কলেজ কেন্দ্র, মধুদত্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়, আইডিয়াল কেজি স্কুল কেছরী, মাইজকান্দি মাদ্রাসা কেন্দ্র ও জকিগঞ্জ গার্লস হাইস্কুল কেন্দ্রের ভোট পুনরায় গণনার জন্য ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন তিনি।

মন্তব্য

সারা দেশ
Bangladeshs first premium water park Mana Bay inaugurated

বাংলাদেশের প্রথম প্রিমিয়াম ওয়াটার পার্ক ‘মানা বে’ উদ্বোধন

বাংলাদেশের প্রথম প্রিমিয়াম ওয়াটার পার্ক ‘মানা বে’ উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার বাউশিয়ায় বাংলাদেশের প্রথম প্রিমিয়াম ওয়াটার পার্ক ‘মানা বে’। ছবি: নিউজবাংলা
প্রায় ৬০ হাজার স্কয়ার মিটার পর্যন্ত বিস্তৃত পার্কটিতে সকল বয়সের মানুষের জন্য বৈচিত্র্যময় সব আয়োজন রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে তিনটি আয়োজন হলো- ওয়াটার স্লাইড ট্যুর, ওয়েভ পুল, ও ফ্লোরাইডার ডাবল।

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার বাউশিয়া এলাকায় বাংলাদেশের প্রথম প্রিমিয়াম ওয়াটার পার্ক ‘মানা বে’র উদ্বোধন হয়েছে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে শুরু হয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে ওপেনিং প্যারেড, ওয়ারিয়র ড্যান্স, হাক্কা ড্যান্স ও স্টিল্ট ওয়াকিং পারফরম্যান্সসহ একটি প্রাণবন্ত কার্নিভালের আয়োজন করা হয়।

সম্পূর্ণ ব্রিটিশ বিনিয়োগে এসিএস টেক্সটাইলের মালিকানায় পরিচালিত এ ওয়াটার পার্কটি দর্শনার্থীদেরকে অবিস্মরণীয় অভিজ্ঞতা দিতে ও আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলে দাবি করেন উদ্যোক্তারা।

প্রকল্পটিকে বাস্তবায়নে সহযোগী হিসেবে কাজ করেছে স্বনামধন্য রাইড সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান হোয়াইটওয়ার্টার।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ ডেপুটি হাইকমিশনার ম্যাট ক্যানেল।

প্রায় ৬০ হাজার স্কয়ার মিটার পর্যন্ত বিস্তৃত পার্কটিতে সকল বয়সের মানুষের জন্য বৈচিত্র্যময় সব আয়োজন রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম তিনটি আয়োজন হলো- ওয়াটার স্লাইড ট্যুর, ওয়েভ পুল ও ফ্লোরাইডার ডাবল। এর পাশাপাশি বাচ্চাদের জন্য একটি আলাদা জোন ও একটি কৃত্রিম নদীর ব্যবস্থা রয়েছে পার্কটিতে।

বিকেল ৪টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য

সারা দেশ
Accused arrested on warrant for crime against humanity case

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার পরোয়ানাভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার পরোয়ানাভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার পরোয়ানাভুক্ত ছলিমুদ্দিন গ্রেপ্তার। ছবি: নিউজবাংলা
ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের ওসি ফারুক হোসেন বলেন, ‘ছলিমুদ্দিনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে মামলা হওয়ার পর গত দুই বছরের বেশি সময় ঢাকাসহ দশের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে ছিলেনি তিনি। গোপন সংবাদে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে সংশ্লিষ্ট আদালতে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় পরোয়ানাভুক্ত ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের ছলিমুদ্দিনকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ঈশ্বরগঞ্জ থানাধীন সোহাগী চরপাড়া এলাকা থেকে ৯০ বছর বয়সী এই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয় থেকে শুক্রবার বিকেলে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মামলার বরাত দিয়ে ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের ওসি ফারুক হোসেন বলেন, ‘ছলিমুদ্দিনের বিরুদ্ধে হত্যা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট, অপহরণ, নির্যাতনসহ নানাবিধ মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। ১৯৭১ সালের ১২ অক্টোবর কেন্দ্রীয় শান্তি কমিটির সদস্য মরহুম সৈয়দ হোসাইন আহম্মদের নির্দেশে ছলিমুদ্দিনসহ ১৫ থেকে ১৬ জন সশস্ত্র রাজাকার মিলে ঈশ্বরগঞ্জের সোহাগী বাজারে হামলা চালিয়ে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করে।’

তিনি জানান, আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক নুরুল হক ওরফে তারা মিয়ার বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয় এবং আওয়ামী লীগ সমর্থক নিরীহ হিন্দু ব্যবসায়ী গোপাল চন্দ্র করকে অপহরণ করে পাকিস্তান আর্মি ক্যাম্পে নিয়ে অমানুষিক নির্যাতন করে গুলি করে হত্যার পর লাশ গুম করা হয়। পরে ১৪ নভেম্বর সকাল দশটার দিকে মো. নুরুল হক ওরফে তারা মিয়াকে ধরে নিয়ে ময়মনসিংহের বড় মসজিদ রাজাকার ক্যাম্পে আটক রেখে অমানুষিক নির্যাতন শেষে ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে নিয়ে গুলি করে হত্যার পর লাশ নদীতে ভাসিয়ে দেয়া হয়।

ওসি বলেন, ‘ছলিমুদ্দিনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে মামলা হওয়ার পর গত দুই বছরের বেশি সময় ঢাকাসহ দশের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে সংশ্লিষ্ট আদালতে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
বদলগাছী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কারাগারে
কিশোরীকে ধর্ষণের মামলায় যুবক গ্রেপ্তার
‘তাওহীদুল উলূহিয়্যাহ’: জঙ্গি সংগঠনটির জন্ম যেভাবে
আর্থিক সহায়তার কথা বলে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২
ডিবি পরিচয়ে ছিনতাই, অবশেষে আটক ৪

মন্তব্য

সারা দেশ
Huge python rescued in tea garden is freed in lauchara

চা বাগানে উদ্ধার ১৩ ফুট অজগর অবমুক্ত লাউয়াছড়ায়

চা বাগানে উদ্ধার ১৩ ফুট অজগর অবমুক্ত লাউয়াছড়ায় মৌলভীবাজারে চা বাগান থেকে শুক্রবার অজগরটি উদ্ধার করা হয়। ছবি: নিউজবাংলা
সাপটি সুস্থ থাকায় সকাল ৭টার দিকে কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করা হয়।

মৌলভীবাজারে চা বাগান থেকে প্রায় সাড়ে ১৩ ফুট লম্বা এক অজগর উদ্ধার করেছে বন বিভাগ।

জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের ফুলবাড়ী চা বাগানের ১ নম্বর সেকশন থেকে শুক্রবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে অজগরটি উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া অজগরটি ১৫ কেজি ওজনের বলে জানিয়েছেন বন বিভাগের লাউয়াছড়া রেঞ্জ কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম।

সাপটি সুস্থ থাকায় সকাল ৭টার দিকে কমলগঞ্জ লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের অবমুক্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন উদ্ধারের দায়িত্বে থাকা বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের টিম এবং ক্রিয়েটিভ কনজারভেশন অ্যালায়েন্সের ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট চঞ্চল গোয়ালা।

বন বিভাগ জানায়, ফুলবাড়ি চা বাগানের মহাব্যবস্থাপক লুৎফুর রহমান ফোন দিয়ে জানান, বাগানের ১৬ নম্বর সেকশনের পাশে একটি অজগর সাপ আছে। পরে বন বিভাগ এটিকে উদ্ধার ও অবমুক্ত করে।

অজগরটির চা বাগানে আসার কারণ হিসেবে বন বিভাগ জানায়, খাবারের সন্ধানে প্রায় সময় এভাবে লোকালয়ে সাপ চলে আসে। শুধু সাপ নয়, অন্য প্রাণীরাও এভাবে চলে আসে।

মন্তব্য

সারা দেশ
Election observation is not a matter of who comes and who goes Home Minister

নির্বাচন পর্যবেক্ষণে কে এলো কে গেলো দেখার বিষয় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নির্বাচন পর্যবেক্ষণে কে এলো কে গেলো দেখার বিষয় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শুক্রবার বিকেলে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মানা-বে ওয়াটার পার্ক উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ছবি: নিউজবাংলা
সম্প্রতি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীতে ব্যাপক রদবদলের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীতে বদলি একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। নির্বাচন এগিয়ে আসার কারণে বদলি বেশি হচ্ছে, এরকমটা ভাবার সুযোগ নেই।’

সরকার একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেয়ার চেষ্টা করছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, নির্বাচনে পর্যবেক্ষণ কে এলো আর কে গেলো সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয়।

শুক্রবার বিকেলে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মানা-বে ওয়াটার পার্ক উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

বাংলাদেশের আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যবেক্ষণে পূর্ণাঙ্গ পর্যবেক্ষক দল না পাঠানোর সিদ্ধান্ত ঢাকাকে জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। এ নিয়ে নানা মহলে আলোচনা চলছে।

এ আলোচনার সূত্র টেনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনে পর্যবেক্ষণ কে এলো আর কে গেলো সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয়। আমরা একটি সুন্দর, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেয়ার চেষ্টা করছি। সে নির্বাচন অবশ্যই নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে। সরকারের পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনকে যাবতীয় সহযোগিতা করা হবে।’

‘যারা মনে করে বিদেশি পর্যবেক্ষক না এলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না, সেটি তাদের ভুল ধারণা। আমরা আশা করছি, অচিরেই তাদের এই ভুল ধারণা কেটে যাবে।’

সম্প্রতি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীতে ব্যাপক রদবদলের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীতে বদলি একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। নির্বাচন এগিয়ে আসার কারণে বদলি বেশি হচ্ছে, এরকমটা ভাবার সুযোগ নেই।’

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক ও মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি সৈয়দ নুরুল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক আবুজাফর রিপন, মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) সুমন দেব প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
ইউরোপের নির্বাচনে কি আমাদের পর্যবেক্ষক যায়, প্রশ্ন তথ্যমন্ত্রীর

মন্তব্য

p
উপরে