রাজধানীতে বিচ্ছু বাহিনী ও নিবিড় গ্রুপের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

রাজধানীতে বিচ্ছু বাহিনী ও নিবিড় গ্রুপের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া কিশোর গ্যাংয়ের পাঁচ সদস্য। ছবি: নিউজবাংলা

র‌্যাব বলছে, গ্রেপ্তারকৃতরা দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীর মতিঝিল, মুগদা ও শাহজাহানপুর এলাকায় অস্থায়ীভাবে বসবাস করে অপরাধমূলক কার্যক্রম চালিয়ে আসছিল। তারা আধিপত্য বিস্তারের জন্য দলবদ্ধভাবে মোটরসাইকেলে মহড়া দিয়ে এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করে থাকে।

রাজধানীর মতিঝিল এলাকা থেকে কিশোর গ্যাং ‘বিচ্ছু বাহিনী’ ও ‘নিবিড় গ্রুপের’ পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এ সময় তাদের কাছ থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

মতিঝিল এজিবি কলোনির লোকনাথ বাবার মন্দিরের সামনে শনিবার রাত ৯টার দিকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে দুই গ্রুপের সদস্যদের গ্রেপ্তার করে র‍্যাব-৩-এর একটি দল।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো মো. জুয়েল, তরিকুল ইসলাম, মো. জুনাইদ, রবিউল ইসলাম ওরফে রবিন ও মো. সাগর।

এ তথ্য নিশ্চিত করে নিউজবাংলাকে র‍্যাব-৩-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বীণা রাণী দাস বলেন, গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, মতিঝিল এলাকায় কতিপয় কিশোর গ্যাং চক্রের সদস্যরা দীর্ঘদিন ধরে মাদক কেনা-বেচা ও সেবন, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, সাধারণ মানুষকে হয়রানি এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছে।

এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩-এর একটি আভিযানিক দল শনিবার রাতে মতিঝিল এজিবি কলোনির লোকনাথ বাবার মন্দিরের সামনে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ‘বিচ্ছু বাহিনী’ ও ‘নিবিড় গ্রুপ’-এর পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে।

বীণা রাণী দাস বলেন, দুই গ্রুপের সদস্যরা একসাথে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করে আসছিল। গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে একটি স্টিলের ব্যাটন, একটি সুইচ গিয়ার চাকু, দুটি কালো রঙের স্টিলের চাকু, একটি বক্সিং পাঞ্চার যন্ত্রসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা জানায় যে, তারা দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীর মতিঝিল, মুগদা ও শাহজাহানপুর এলাকায় অস্থায়ীভাবে বসবাস করে সংঘবদ্ধ হয়ে এসব কাজ করে আসছিল। আধিপত্য বিস্তারের জন্য দলবদ্ধভাবে মোটরসাইকেলের মহড়া দিয়ে এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করে থাকে তারা।

এ ছাড়া মোটরসাইকেল ব্যবহার করে রিকশা, ভ্যান, সিএনজি ও বাসযাত্রীদের টার্গেট করে তাদের ব্যাগ-পার্টস ছিনতাই করে থাকে দুটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা। রাস্তায় দলবদ্ধভাবে মাদক সেবন করে উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করে সাধারণ মানুষকে হয়রানি করেও আসছিল তারা।

এ ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে মতিঝিল থানায় মামলা করা হয়েছে বলেও জানান র‍্যাবের এই কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

মন্তব্য

জটিল হচ্ছে গাজীপুর পরিস্থিতি, অবরোধে এবার রেলে বিচ্ছিন্ন ঢাকা

জটিল হচ্ছে গাজীপুর পরিস্থিতি, অবরোধে এবার রেলে বিচ্ছিন্ন ঢাকা

মেয়র জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে গাজীপুরের টঙ্গীতে সড়ক অবরোধের পর এবার রেল লাইনে আগুন ধরিয়ে দেয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। ছবি: নিউজবাংলা

মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা এবার রেলপথ অবরোধ করায় ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কয়েকটি স্থানে অবস্থান নিয়ে নেতা-কর্মীরা যান চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় বৃহত্তর ময়মনসিংহের সঙ্গে ঢাকার সড়ক যোগাযোগও বন্ধ আছে। উত্তরের পথের যে যাত্রীরা এই পথ ধরে চলেন, তারাও যাওয়া-আসা করতে পারছেন না। এতে সড়কে দুই ধারে তীব্র যানজট তৈরি হয়েছে।

বেলা তিনটার দিকে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা টঙ্গীর হোসেন মার্কেট, চেরাগ আলী, স্টেশন রোড, বোর্ড বাজারে অবরোধ করেন। তারা সড়কে শত শত টায়ার জ্বালিয়ে অবস্থান নিয়ে মেয়রের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন।

সন্ধ্যার পর টঙ্গীতে আহসান উল্লাহ মাস্টার ফ্লাইওভারের নিচে রেলপথ অবরোধ করেন নেতা-কর্মীরা। এতে ঢাকার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

আরও আসছে...

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

রাজারবাগ পিরের সম্পদ তদন্তের আদেশ স্থগিত করেনি চেম্বার

রাজারবাগ পিরের সম্পদ তদন্তের আদেশ স্থগিত করেনি চেম্বার

পিরের মুরিদদের কোনো জঙ্গি সম্পৃক্ততা আছে কি না, সেটি তদন্ত করতে বলা হয়েছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটকে। পাশাপাশি রিটকারীদের বিরুদ্ধে মামলাগুলো হয়রানিমূলক কি না, সেটিও তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

রাজারবাগ দরবার শরিফের সম্পদের বিষয়ে তদন্ত করতে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) দেয়া হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেনি আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত।

বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের চেম্বার আদালত এ বিষয়ে নো অর্ডার দেয়। ফলে এ-সংক্রান্ত হাইকোর্টের আদেশ বহাল থাকল বলে জানিয়েছেন আইনজীবী।

রোববার রাজারবাগ দরবারের পিরের সম্পদের বিষয়ে তদন্ত করতে দুদককে নির্দেশ দেয় বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

একই সঙ্গে পিরের মুরিদদের কোনো জঙ্গি সম্পৃক্ততা আছে কি না, সেটি তদন্ত করতে বলা হয়েছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটকে। পাশাপাশি রিটকারীদের বিরুদ্ধে মামলাগুলো হয়রানিমূলক কি না, সেটিও তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

আগামী ৬০ দিনের মধ্যে এসব তদন্তের প্রতিবেদন দিতে বলেছে আদালত। এ আদেশের বিরুদ্ধে আপিলে আবেদন করেন পির।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এম কে রহমান। অপর দিকে ছিলেন আইনজীবী শিশির মনির।

গায়েবি মামলা দিয়ে অযথা মানুষকে হয়রানির অভিযোগে রাজারবাগ দরবার শরিফের পির দিল্লুর রহমান ও তার মুরিদদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা চেয়ে ১৬ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে রিট করেন আট ভুক্তভোগী।

এর আগে অন্যের জায়গা-জমি দখলের জন্য রাজারবাগ দরবার শরিফের পিরের কাণ্ড নিয়ে বিস্ময় জানিয়েছিল হাইকোর্ট।

মুরিদদের দিয়ে নিরীহ এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ৪৯টি মামলা দেয়ার ঘটনায় সিআইডির তদন্ত রিপোর্ট দেখে আদালত এ বিস্ময় জানায়।

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

তিন বিভাগের ৮৬ নেতাকে নিয়ে বৈঠকে বিএনপি

তিন বিভাগের ৮৬ নেতাকে নিয়ে বৈঠকে বিএনপি

গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ধাপে ধাপে চলছে বৈঠক।

ধারাবাহিক মতবিনিময়ের অংশ হিসেবে গত বৃহস্পতিবার থেকে বিভিন্ন বিভাগের নেতাদের সঙ্গে ভাগে ভাগে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী বিভাগের নির্বাহী কমিটির সদস্যদের নিয়ে বৈঠকে বসেছে বিএনপির হাইকমান্ড।

বৃহস্পতিবার বিকেল চারটার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক শুরু হয়।

লন্ডন থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়েছে বৈঠকে সভাপতিত্ব করছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

বৈঠকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রিয়াজউদ্দিন নসু, সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, বেলাল আহমেদ, চেয়ারপারসনের একান্ত সহকারী এবিএম আব্দুস সাত্তার, নির্বাহী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম মোল্লা, নাজিম উদ্দীন আলম, হাফিজ ইব্রাহিম, আবুল হোসেন, মেসবাহউদ্দিন ফরহাদ, আব্দুস সোবহান, গাজী নুরুজ্জামান বাবুল, আলমগীর হোসেন, হাসন মামুন, রফিক ইসলাম মাহতাব, হায়দার আলী লেলিন, দুলাল হোসেন, গোলাম নবী আলমগীর, নাসের রহমতুল্লাহ, এলিজা জামান, কামরুল ইসলাম সজল, ডাক্তার শহীদ হাসান, আব্দুর রশিদ চুন্নু মিয়া, মাসুদ অরুণ, শহিদুল ইসলাম, রেজা আহমেদ বাচ্চু মোল্লা, শহীদুজ্জামান বল্টু, আব্দুল ওয়াহাব, শাহানা রহমান রানী, টিএস আইয়ুব, আবুল হোসেন আজাদ, মতিউর রহমান ফরাজি, বিশ্বাস জাহাঙ্গীর আলম, শেখ মজিবুর রহমান, অহিদুজ্জামান দীপু, সাহাবুজ্জামান মোর্তজা, শফিকুল আলম, মনা, মনিরুজ্জামান মনি, কাজী আলাউদ্দিন, ডাক্তার শহীদুল আলম, মীর রবিউল ইসলাম লাভলু, খান রবিউল ইসলাম রবি, সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, সাবরা নাজমুল মুন্নী, ফরিদা ইয়াসমিন, রাগিব রউফ চৌধুরী, আবু সাঈদ, আয়েশা সিদ্দিকা মনি, নার্গিস ইসলাম, এটিএম আকরাম হোসেন তালিম, ইফতেখার আলী, হাফিজুর রহমান, গোলাম মোস্তফা, মাহবুবুর রহমান হারিছ, লাভলী রহমান, আলী আজগর হেনা, শামসুল আলম প্রামাণিক, এ কে এম মতিউর রহমান মন্টু, এম আকবর আলী, এ কে এম সেলিম রেজা হাবিব, সিরাজুল ইসলাম সরদার, আব্দুল মতিন, আবু বকর সিদ্দিক, জয়নাল আবেদীন চান, গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, সীনকী ইমাম খান, জহুরুল ইসলাম বাবু এ কে এম আনোয়ারুল ইসলাম, সাইদুর রহমান বাচ্চু, ফয়সাল আলীম, রমেশ দত্ত, দেবাশীষ মধু রায়, আনোয়ার হোসেন বু্লু, রোমানা মাহমুদ, শামসুল হকসহ মোট ৮৬ সদস্য উপস্থিত রয়েছেন।

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

মুগদায় জব্দ ৪০ হাজার ইয়াবা

মুগদায় জব্দ ৪০ হাজার ইয়াবা

বৃহস্পতিবার মুগদা থেকে ৪০ হাজার ইয়াবাসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। ছবি: নিউজবাংলা

পুলিশ পরিদর্শক আশীষ কুমার দেব বলেন, ‘কিছু মাদক ব্যবসায়ী উত্তর মাণ্ডা এলাকায় ইয়াবা কেনাবেচা করছে এমন খবর পায় পুলিশ। এ তথ্যের ভিত্তিতে থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে কামাল, রহিমা ও রাজিবকে আটক করা হয়।’

রাজধানীর মুগদা এলাকা থেকে ৪০ হাজার ইয়াবাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে মুগদা উত্তর মাণ্ডা এলাকা থেকে এদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তাররা হলেন মো. কামাল, মোছা. রহিমা কামাল ও মো. রাজিব।

মুগদা থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আশীষ কুমার দেব বলেন, ‘কিছু মাদক ব্যবসায়ী উত্তর মাণ্ডা এলাকায় ইয়াবা কেনাবেচা করছে এমন খবর পায় পুলিশ। এ তথ্যের ভিত্তিতে থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে কামাল, রহিমা ও রাজিবকে আটক করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘এসময় তাদের কাছ থেকে ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধারসহ মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়।’

মতিঝিল বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার মো. আ. আহাদ বলেন, ‘এ বিষয়ে মুগদা থানায় মামলা হয়েছে। আসামিদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

এক বছরের জামিন পেলেন মডেল মৌ

এক বছরের জামিন পেলেন মডেল মৌ

পুলিশ হেফাজতে মডেল মৌ। ফাইল ছবি

গত ১ আগস্ট রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানার মামলায় বিপুল পরিমাণ মদ, ইয়াবা, সিসাসহ মডেল মৌকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মাদক মামলায় মডেল মরিয়ম আক্তার মৌকে এক বছরের অন্তবর্তীকালীন জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারক মোস্তফা জামান ইসলাম ও কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার তাকে জামিন দেন।

জামিনের বিষয়টি বৃহস্পতিবার নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, ‘একটি মামলায় মডেল মৌকে এক বছরের অন্তবর্তীকালীন জামিন দিয়েছেন আদালত।’

জামিন আবেদনের পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ন।

গত ১ আগস্ট রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানার মামলায় বিপুল পরিমাণ মদ, ইয়াবা, সিসাসহ মডেল মৌকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় গত ১৩ আগস্ট মৌকে তৃতীয় দফা রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

এরপর হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আবেদন করা হলে বুধবার তার জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেয় হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

বাড়ির ফলস সিলিংয়ে ২ কেজি আইস

বাড়ির ফলস সিলিংয়ে ২ কেজি আইস

টেকনাফ উপজেলার মিঠাপানিছড়ার একটি বাড়ি থেকে জব্দ ২ কেজি আইস। ছবি: বিজিবি

গোপন তথ্যের ভিত্তিতে একটি বাড়িতে আইস লুকানো আছে বলে জানতে পারে বিজিবির টেকনাফ ব্যাটালিয়ন। টেকনাফ উপজেলার মিঠাপানিছড়া গ্রামের একটি বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। পরে তা ফলস সিলিংয়ের ওপর পাওয়া যায়।

টেকনাফ উপজেলার মিঠাপানিছড়া গ্রামের একটি বাড়ি থেকে ২ কেজি ক্রিস্টাল মেথ বা আইস উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। ওই বাড়ির ফলস সিলিংয়ে এই মাদক লুকানো ছিল।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজিবি টেকনাফ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান এ তথ্য জানান। বিজিবির দাবি, তাদের হাতে ধরা পড়া এখন পর্যন্ত এটাই আইসের সবচেয়ে বড় চালান।

ফয়সল হাসান জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে একটি বাড়িতে আইস লুকানো আছে বলে জানতে পারে বিজিবির টেকনাফ ব্যাটালিয়ন। টেকনাফ উপজেলার মিঠাপানিছড়া গ্রামের একটি বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়।

অভিযানের সময় সন্দেহভাজন একজন বাড়ির পেছনের দরজা দিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। পরবর্তী সময়ে বিজিবি টহল দল কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে চারদিক থেকে ঘেরাও করে মুজিব নামে ওই ব্যক্তিকে আটক করে।

তার দেয়া তথ্যে ওই বাড়ির ফলস সিলিংয়ের ওপরে অভিনব পদ্ধতিতে লুকানো অবস্থায় ২ কেজি আইস উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় টেকনাফ মডেল থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছে বিজিবি।

‘সবচেয়ে বড় চালান’ জব্দ করেছে মাদক অধিদপ্তর

রাজধানীতে ৫৬০ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ বা আইস উদ্ধার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। দাবি করা হচ্ছে, এ পর্যন্ত ঢাকায় তাদের হাতে উদ্ধার হওয়া এটি আইসের সবচেয়ে বড় চালান।

আইসের পাশাপাশি ইয়াবাও উদ্ধার হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার দুপুরে এ তথ্য জানান অধিদপ্তরের ঢাকা মেট্রো কার্যালয়ের (উত্তর) সহকারী পরিচালক মো. মেহেদী হাসান।

তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। বলা হয়েছে, এই মাদকের রুট এবং এর সঙ্গে কারা জড়িত এ বিষয়ে বিস্তারিত প্রেস কনফারেন্সে জানানো হবে।

ক্রিস্টাল মেথ বা আইস খুবই ভয়াবহ প্রকৃতির মাদক। এটি মানবদেহে অনেক বেশি পরিমাণ প্রতিক্রিয়া তৈরি করে। সাম্প্রতিক দেশে এই মাদকের ব্যবহার বহুগুণ বেড়েছে।

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

আনভীরের আগাম জামিন আবেদন হাইকোর্টের কার্যতালিকায়

আনভীরের আগাম জামিন আবেদন হাইকোর্টের কার্যতালিকায়

বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর

আবেদনটি বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ারের হাইকোর্ট বেঞ্চের কার্যতালিকায় রয়েছে। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চের কার্যতালিকায় দেখা যায়, তালিকার ১৪২৪ নম্বরে রয়েছে সায়েম সোবহানের আবেদনটি। এটি শুনানির জন্য ২৯ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য রয়েছে।

রাজধানীর গুলশানের ফ্ল্যাট থেকে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ করা মামলায় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর আগাম জামিন চেয়ে আবেদন করেছেন।

আবেদনটি বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ারের হাইকোর্ট বেঞ্চের কার্যতালিকায় রয়েছে। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বেঞ্চের কার্যতালিকায় দেখা যায়, তালিকার ১৪২৪ নম্বরে আছে সায়েম সোবহানের আবেদনটি। এটি শুনানির জন্য ২৯ সেপ্টেম্বর দিন রাখা আছে।

জামিন আবেদনের বিষয়ে জানতে চাইলে সংশ্লিষ্ট বেঞ্চের সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মিজানুর রহমান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এ নামে একটি আবেদন তালিকায় আছে। আবেদনটি শুনানির জন্য ২৯ সেপ্টেম্বর দিন ঠিক করা আছে।’

জামিন আবেদনের পক্ষে আইনজীবী হিসেবে হাসান ইমামের নাম রয়েছে বলে জানান সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল।

ওই তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ এনে তার বড় বোন ৬ সেপ্টেম্বর ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৮-এ মামলা করেন। এতে আনভীর, তার বাবা, মা ও স্ত্রীসহ আটজনকে আসামি করা হয়েছে।

আদালত মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেয়।

গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে গত ২৬ এপ্রিল রাতে কলেজপড়ুয়া তরুণীটির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওই দিনই আনভীরের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলা করেন ওই তরুণীর বড় বোন।

এ মামলায় গত জুলাই মাসে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেয় পুলিশ। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত গত ১৮ আগস্ট পুলিশের দেয়া চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করে। এতে অব্যাহতি পান আনভীর।

আরও পড়ুন:
কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে
কিশোর গ্যাংয়ের হাতে অস্ত্র আসছে চোরাই পথে
কিশোর গ্যাং অনিক-শাকিব গ্রুপের ৫ জন আটক
চাঁন-জাদু ও ব্যান্ডেজের ৫ জন গ্রেপ্তার
মিরপুর থেকে ‘অপুর দল’-এর ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন