নারী পাচার চক্রের সদস্য রিমান্ডে

নারী পাচার চক্রের সদস্য রিমান্ডে

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জানান, শংকর দীর্ঘদিন ধরে হোটেলে বসে মগবাজার ও আশপাশের এলাকার বিভিন্ন নারী পাচারকারী চক্রের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রাখছিলেন। তার টার্গেট ছিল এসব এলাকা থেকে অসহায় সুন্দরি নারীদের বিদেশে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে পাচার করা।

নারী পাচারকারী চক্রের অন্যতম সক্রিয় সদস্য শংকর কুমারকে একদিনের হেফাজতে পেয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হাতিরঝিল থানার এসআই ইদ্রিস আলী আসামিকে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পাঁচ দিনের হেফাজতে নিতে আবেদন করেন।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মুখ্যমহানগর আদালতের (সিএমএম) হাকিম নিভানা খায়ের জেসির আদালত শংকরকে এক দিনের রিমান্ড আদেশ দেন।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন হাতিরঝিল থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই রাফাত আরা সুলতানা।

বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মগবাজার আবাসিক হোটেল পরশ থেকে শংকরকে গ্রেপ্তার করে হাতিরঝিল থানা পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে আটটি পাসপোর্ট জব্দ করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জানান, শংকর দীর্ঘদিন ধরে হোটেলে বসে মগবাজার ও আশপাশের এলাকার বিভিন্ন নারী পাচারকারী চক্রের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রাখছিলেন। তার টার্গেট ছিল এসব এলাকা থেকে অসহায় সুন্দরি নারীদের বিদেশে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে পাচার করা।

আরও পড়ুন:
নারী পাচারকারী আক্তারকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ
নৃত্যশিল্পী ইভানের নারী পাচার মামলার প্রতিবেদন ১৫ জুলাই

শেয়ার করুন

মন্তব্য