ঢাকা ত্যাগে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে জবি

ঢাকা ত্যাগে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে জবি

ঈদে বাড়ি ফিরতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে পরিবহনের ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছিলেন শিক্ষার্থীরা। এর জবাবে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের কাছে তথ্য চাইল।

করোনা মহামারির লকডাউনে আটকে থাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) যেসব শিক্ষার্থী ঢাকা ত্যাগে ইচ্ছুক, তাদের তথ্য চেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার উপাচার্যের আদেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-কল্যাণ বিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

লকডাউনে বাড়ি ফিরতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের পরিবহনের ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ ব্যাপারে তারা উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপিও দেন। একই দাবিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র অধিকার পরিষদের পক্ষ থেকেও স্মারকলিপি দেয়া হয়। দাবি জানায় সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টও।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঈদের ছুটিতে ঢাকা ছাড়তে ইচ্ছুক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিজ হাতে তথ্য উল্লেখ করে প্রক্টর বা ছাত্র-কল্যাণ পরিচালক বরাবর আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। কোনো শিক্ষার্থী সরাসরি আবেদনপত্র জমা দিতে না পারলে তিনি চেয়ারম্যান বা বিভাগীয় প্রধানের ই-মেইলে সফটকপি পাঠাবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বা পরিচালক (ছাত্র-কল্যাণ) অফিসে আবেদনপত্র জমা দিতে বলা হয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটির দিনসহ প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত আবেদনপত্র জমা দেয়া যাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে ঢাকা ত্যাগে ইচ্ছুক ছাত্র-ছাত্রীর নাম আইডি বা রোল নম্বর, অধ্যয়নরত বিভাগের নাম, ব্যাচ বা সেশন, সেমিস্টার ও গন্তব্য জেলার নাম জমা দিতে বলা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং মন্ত্রণালয়ের সাথে কথাও বলেছি। এছাড়া বিভিন্ন এলাকার অবস্থা ভাল নয়। এসব কথা মাথায় রেখেই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
জবি শিক্ষকদের ডরমিটরিতে আগুন
বাড়ি ফিরতে বাসের দাবি ছাত্র অধিকার পরিষদের
পরীক্ষার ফি মওকুফের দাবি জগন্নাথ শিক্ষার্থীদের
টিকার জন্য ফের জবি শিক্ষার্থীর তালিকা চাইল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর
বিলম্ব ফি দিতে হবে না জবি শিক্ষার্থীদের

শেয়ার করুন

মন্তব্য